Logo
শিরোনাম

স্মৃতিকথা নিয়ে আসছেন বোনো

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইউ টু ব্যান্ডের ভোকাল বোনো নানা বিষয়েই লেখালেখি করেছেন। এবার স্মৃতিকথা নিয়ে আসছেন তিনি। নিজেকে নিয়ে এই প্রথম কিছু লিখছেন বোনো। সারেন্ডার শিরোনামের বইটি প্রকাশ করবে পেঙ্গুইন র‌্যান্ডম হাউজ। বইটিতে ডাবলিনে তার প্রথম জীবন, ১৪ বছর বয়সে মায়ের মৃত্যু, ইউ টু ব্যান্ডের সাফল্য এবং বিভিন্ন সাহায্যকর্মে তার অংশগ্রহণ নিয়ে স্মৃতিচারণ করেছেন বোনো। বইটির একটি বিশেষত্ব হলো, ৪০টি অধ্যায়ে বিভক্ত বইয়ের প্রতিটি অধ্যায় ইউ টুর একটি করে গান দিয়ে শুরু।

সম্প্রতি ইউ টু ব্যান্ডের ডিজিটাল প্লাটফর্মে সারেন্ডার থেকে বোনোর পাঠ করা একটি অংশের ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে। এতে বোনোর নিজের আঁকা ছবি থেকে অ্যানিমেশন তৈরি করা হয়েছে। আউট অব কন্ট্রোল নামের অধ্যায়ে ইউ টুর জন্য বোনোর প্রথম গান লেখার স্মৃতি রয়েছে। আজ থেকে ৪৪ বছর আগে নিজের ১৮ বছর বয়সে ইউ টুর জন্য প্রথম সিঙ্গেল লিখেছিলেন বোনো। শিল্পী জানিয়েছেন, বইটি লেখার পেছনে তার গানের বার্তা বিস্তারিত ও স্পষ্ট করে উল্লেখ করার চেষ্টা কাজ করেছে; পাশাপাশি যে মানুষের সঙ্গে তিনি মিশেছেন, যে জায়গাগুলোয় তিনি থেকেছেন ও জীবনের নানা সম্ভাবনার কথাও এসেছে। তিনি আরো জানাচ্ছেন, সত্তরের দশকে আয়ারল্যান্ডে বসবাসকালীন আত্মসমর্পণের বিষয়টি তার কাছে স্বাভাবিক ছিল না। তার ভাষায়, বইটি লেখার জন্য আমার ভাবনা জড়ো করার আগ পর্যন্ত আমি শব্দটি নিয়ে ঘুরপাক খেয়েছি।

সারেন্ডারের সম্পাদক রেগান আর্থার বোনোকে একজন প্রতিভাবান লেখক হিসেবে উল্লেখ করে বলেন যে বইটি নিয়ে কাজ করার কারণে তিনি ও তার সহকর্মীরা নিজেদের ভাগ্যবান মনে করেন। তিনি বলেন, এই আইরিশ রকস্টার কেবল একটি নাটকীয় গল্পই বলেন না, লেখক হিসেবেও তিনি প্রতিভাবান। সারেন্ডার একটি অসাধারণ জীবনের সৎ, অন্তরঙ্গ, গভীর কিন্তু জ্বলজ্বলে স্মৃতিকথা। সারেন্ডারের যুক্তরাজ্য সংস্করণের প্রকাশনার ওভারসিয়ার ভেনেশিয়া বাটারফিল্ড বলেছেন, এটি অসাধারণ একজন মানুষের অসাধারণ জীবনকাহিনী।

ফরটি সংস, ওয়ান স্টোরি ট্যাগলাইনের বইটি এ বছরই প্রকাশিত হবে।

নিউজ ট্যাগ: বোনো

আরও খবর



৩৩ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু নেই

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৯ লাখ ৫২ হাজার ৮৮৮ জনে। শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ৫৩ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে কারো মৃত্যু হয়নি। ফলে মোট মারা যাওয়ার সংখ্যা ২৯ হাজার ১২৭ জন অপরিবর্তিত থাকল।

শনাক্ত রোগীদের মধ্যে ২১ জন ঢাকার বাইরের ১২ জেলার বাসিন্দা। গত কয়েক সপ্তাহ শুধু ঢাকাসহ দুয়েকটি জেলায় করোনাভাইরাস শনাক্ত রোগী পাওয়ার কথা জানাচ্ছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। মঙ্গলবার ঢাকার চেয়ে ঢাকার বাইরে রোগী বেশি পাওয়া যায়। বুধবার তা আরও বাড়ল।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কারও মৃত্যুর খবর আসেনি। ফলে এ নিয়ে টানা ২১ দিন কোভিডে মৃত্যুহীন থাকল বাংলাদেশ। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, বুধবার গত ২৪ ঘণ্টায় ৬ হাজার ১৮২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে এই ৩৩ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে।

তাদের মধ্যে ১২ জন ঢাকা মহানগর ও জেলার বাসিন্দা। ঢাকা বিভাগের গাজীপুর, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ জেলায় একজন করে রোগী পাওয়া গেছে, টাঙ্গাইলে পাওয়া গেছে তিনজন।

এছাড়া চট্টগ্রামে দুজন,  কক্সবাজারে দুজন, কুড়িগ্রামে একজন, যশোরে একজন, খুলনায় চারজন, কুষ্টিয়ায় একজন এবং সিলেট জেলায় তিনজন রোগী পাওয়ার কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে দৈনিক শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে শূন্য দশমিক ৫৩ শতাংশ। আগের দিন এই হার শূন্য দশমিক ৫৪ শতাংশ ছিল।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, নতুন রোগীদের নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৯ লাখ ৫২ হাজার ৮৮৮ জন। মৃত্যুর সংখ্যা আগের মতই ২৯ হাজার ১২৭ জন রয়েছে।

করোনাভাইরাস মহামারীর শুরুর দিকে ২০২০ সালের ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এরপর থেকে একটানা ২১ দিন কখনোই মৃত্যুহীন ছিল না।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছে ২৪৯ জন। তাদের নিয়ে ১৮ লাখ ৯৮ হাজার ৩১২ সুস্থ্য হয়ে উঠলেন। এই হিসাবে দেশে এখন সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২৫ হাজার ৪৪৯ জন। অর্থাৎ তারা কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার পর এখনও সুস্থ হননি। মহামারীর মধ্যে সার্বিক শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ১৩ দশমিক ৯২ শতাংশ। আর মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ২০২০ সালের ৮ মার্চ। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ব্যাপক বিস্তারের মধ্যে গত বছরের ২৮ জুলাই দেশে রেকর্ড ১৬ হাজার ২৩০ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ২০২০ সালের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২০২১ সালের ৫ অগাস্ট ও ১০ অগাস্ট ২৬৪ জন করে মৃত্যুর খবর আসে, যা মহামারীর মধ্যে এক দিনের সর্বোচ্চ সংখ্যা।

বিশ্বে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মারা গেছে ৬২ লাখ ৫৫ হাজারের বেশি মানুষ। বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ৫১ কোটি ৮৮ লাখের বেশি।


আরও খবর



ট্রাক-মাইক্রোবাস মুখোমুখি সংঘর্ষ, চালকসহ নিহত ২

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নাটোরের বড়াইগ্রামে ট্রাকের সঙ্গে মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই ব্যক্তি নিহত এবং তিন জন আহত হয়েছেন। আহত ব্যক্তিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। বুধবার ভোরে নাটোর-পাবনা মহাসড়কের বড়াইগ্রামের নগর ইউনিয়নের কয়েন এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত দুই ব্যক্তি হলেন-মনিরুজ্জামান (৩৫) ও আল-মাহবুব (৪৩)। তাদের বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলার সদর উপজেলার তালতোলা ও গহরপুর এলাকায়। আহত ব্যক্তিদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

বনপাড়া হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফিরোজ হোসেন বলেন, উপজেলার কয়েন এলাকায় চুয়াডাঙ্গা থেকে রাজশাহীগামী একটি নোহা মাইক্রোবাসের সঙ্গে পঞ্চগড় থেকে পাবনাগামী বালুবোঝাই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মাইক্রোর চালক ও একযাত্রী নিহত হন। আহত হন আরও তিন জন।

তিনি আরও বলেন, দুর্ঘটনা-কবলিত ট্রাক ও মাইক্রোটি জব্দ করা হয়েছে। ট্রাকের চালক ও সহকারী পালিয়ে গেছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।


আরও খবর



ঝুঁকির মাত্রা বাড়ছে পণ্য আমদানিনির্ভর দেশগুলোয়

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জলবায়ু পরিবর্তন ও মহামারীর মতো বড় বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করছে বৈশ্বিক অর্থনীতি। এসব কারণে দুই বছর ধরেই বিশ্বজুড়ে সব ধরনের পণ্য উৎপাদন, উত্তোলন ও বাণিজ্য ছিল নানামুখী প্রতিবন্ধকতার মধ্যে। তার ওপর ইউক্রেন-রাশিয়ার মধ্যে যুদ্ধ বেঁধে যাওয়ায় পরিস্থিতি আরো জটিল আকার ধারণ করেছে। এতে পণ্য আমদানিনির্ভর দেশগুলোয় ঝুঁকির মাত্রা বাড়ছে।

যেসব দেশ প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ নয়, সেসব দেশ আরো বেশি আমদানিনির্ভর হয়ে উঠছে। ফলে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে পণ্যের চাহিদা। কিন্তু মহামারীর ধাক্কা এবং কৃষ্ণসাগরীয় অঞ্চলে যুদ্ধের কারণে এসব পণ্যের সরবরাহ বিঘ্নিত হচ্ছে। তার ওপর কনটেইনার সংকট, অতিরিক্ত জাহাজ ভাড়া, শুল্ক বৃদ্ধিসহ নানা জটিলতা তো রয়েছেই। এসব কারণে আমদানিনির্ভর দেশগুলো চাহিদা অনুযায়ী পণ্যের সরবরাহ নিশ্চিত করতে পারছে না। এতে চাপের মুখে পড়ছে অর্থনীতি। জীবন-মান ও খাদ্যনিরাপত্তা নিয়ে ঝুঁকি তীব্র হচ্ছে। যুদ্ধের কারণে আমদানিনির্ভর দেশগুলো কৃষ্ণসাগরীয় অঞ্চলের বিকল্প উৎসে স্থানান্তরিত হচ্ছে।

আনাদোলু এজেন্সির সংকলিত তথ্য অনুযায়ী, প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ দেশগুলো উচ্চমাত্রার রফতানি আয়ের সুবিধা লাভ করছে। কিন্তু ঠিক একই সময় পণ্য আমদানিনির্ভর দেশগুলো সরবরাহসংক্রান্ত জটিলতা ও ব্যাপক মূল্যবৃদ্ধির কারণে আমদানি নিশ্চিতে হিমশিম খাচ্ছে।

সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) জানায়, মার্চে খাদ্যপণ্যের বৈশ্বিক দাম প্রায় ১৩ শতাংশ বেড়েছে। এর মধ্য দিয়ে মূল্যবৃদ্ধির নতুন রেকর্ড তৈরি হয়েছে। গত মাসে খাদ্যপণ্যের গড় মূল্যসূচক ১৫৯ দশমিক ৩ পয়েন্টে উঠে এসেছে। অথচ ফেব্রুয়ারিতে মূল্যসূচক ছিল ১৪১ দশমিক ৪ পয়েন্টে। তখন এটিই ছিল রেকর্ড সর্বোচ্চ দাম। জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাবে পণ্যসামগ্রীর বৈশ্বিক দাম লক্ষণীয় মাত্রায় বেড়েছে। এছাড়া গত দুই বছর করোনাভাইরাসের সঙ্গে অব্যাহত লড়াই বাজারে আরো বড় অস্থিরতার জন্ম দেয়। এর মধ্যেই যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে ইউক্রেন ও রাশিয়া। ফলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়।

গণমাধ্যমের তথ্য বলছে, ইউক্রেনের ওপর হামলা ও নিপীড়ন চালানোয় পশ্চিমা দেশগুলোর রোষের মুখে পড়েছে রাশিয়া। দেশটির অর্থ ব্যবস্থা ও ব্যাংক খাতের ওপর কয়েক ধাপে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। দেশটি অপরিশোধিত জ্বালানি তেল ও গ্যাসের গুরুত্বপূর্ণ রফতানিকারক দেশ। এছাড়া ধাতব ও কৃষিপণ্য রফতানিতেও দেশটির অবস্থান অনেক এগিয়ে। এ কারণে অনেক দেশই দেশটির এসব পণ্যের ওপর নির্ভরশীল।

অব্যাহত নিষেধাজ্ঞার পর বাড়তে থাকে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলসহ অন্যান্য জ্বালানি পণ্যের দাম। এক ব্যারেল জ্বালানি তেলের দাম সর্বোচ্চ ১৩৯ ডলার পর্যন্ত উঠেছিল। এদিকে জ্বালানির অত্যধিক দাম ও সংকটে কমছে ধাতব পণ্য উৎপাদনও। ফলে দীর্ঘ সময় ধরেই এসব পণ্যের দাম আকাশচুম্বী। বর্তমানে বৈশ্বিক পণ্য রফতানি প্রায় ৪ দশমিক ৪ ট্রিলিয়ন ডলার পর্যন্ত পৌঁছেছে। এর মধ্যে যুদ্ধসংক্রান্ত সরবরাহ জটিলতা আবারো পণ্যের দাম বাড়াতে সহায়তা করছে।

যেসব দেশে জ্বীবাশ্ম জ্বালানির পর্যাপ্ত ভূগর্ভস্থ মজুদ নেই, তাদের জন্য অন্যান্য দেশের ওপর নির্ভরশীলতা একটি বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। এক্ষেত্রে বিশ্লেষকরা সমাধান হিসেবে একটি বিকল্পের কথাই বলছেন, তা হলো নবায়নযোগ্য জ্বালানি।

তথ্য বলছে, প্রাকৃতিক গ্যাসের বৈশ্বিক ভূগর্ভস্থ মজুদের এক-পঞ্চমাংশই রয়েছে রাশিয়ায়। দেশটি বিশ্বের শীর্ষ গ্যাস সরবরাহকারী। ইরান ও কাতারও গুরুত্বপূর্ণ সরবরাহকারী। গ্যাসের বৈশ্বিক বাজারে ইরানের ১৭ দশমিক ১ ও কাতারের ১৩ দশমিক ১ শতাংশ হিস্যা রয়েছে।

অন্যদিকে ভেনিজুয়েলায়ও জ্বালানি তেলের বৃহৎ মজুদ রয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে দেশটির হিস্যা ১৭ দশমিক ৫, সৌদি আরবের ১৭ দশমিক ১ ও কানাডার ৯ দশমিক ৭ শতাংশ হিস্যা রয়েছে। অনেক দেশেই জ্বালানি তেল ও গ্যাস সরবরাহকারী অত্যন্ত সীমিত। এতে বিশ্বজুড়ে এসব পণ্যের আমদানিনির্ভরতা ব্যাপক আকার ধারণ করছে।

নিউজ ট্যাগ: জলবায়ু পরিবর্তন

আরও খবর

বাঘাবাড়ী নৌবন্দর খুঁড়িয়ে চলছে

বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২




ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রভাষক গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৮৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বগুড়ার ধুনটে দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মুরাদুজ্জামান মুকুল নামের এক প্রভাষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার (১২ মে) রাতে তাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। মুকুল গত কয়েক মাস যাবত ঐ ছাত্রীকে বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে আসছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

মুকুলের বাড়ি উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের শৈলমারী গ্রামে। তার স্ত্রীও একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা। তিনি ধুনটের জালশুকা হাবিবুর রহমান কলেজের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক। 

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গ্রেপ্তার মুকুল ধুনট পৌর এলাকার দক্ষিণ অফিসারপাড়া এলাকার একটি বাসার নিচতলায় ভাড়া থাকতেন। ঐ বাড়ির মালিকের দুই বছর বয়সী মেয়ে খেলাধুলা করতে প্রায়ই মুরাদুজ্জামানের ফ্লাটে যাওয়া-আসা করতো। সেই সুবাদে বাড়ির মালিকের বড় মেয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রীও সেখানে যেত।

এদিকে মুকুলের স্ত্রীও স্কুলের শিক্ষিকা হওয়ায় তিনি বাড়িতে থাকতেন না। এই সুযোগে মুকুল কয়েক মাস আগে মেয়েটিকে জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে। সে সময় ধর্ষণের ভিডিও রেকর্ড করা হয়। এরপর ওই ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল করে দেওয়ার হুমকি দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে মুকুল। সর্বশেষ গতকাল বৃহস্পতিবারও মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে, সে চিৎকার দিলে তার খালা সেখানে উপস্থিত হলে মুকুল কৌশলে পালিয়ে যায়। 

এরপর মেয়েটি তার পরিবারের কাছে সম্পূর্ণ ঘটনা খুলে বললে তার মা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ধুনট থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে মামলার আসামি প্রভাষক মুরাদুজ্জামান মুকুলকে আটক করা হয়। এরপর অভিযোগটি মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। 


আরও খবর



ঈদ উপলক্ষে বাড়তি নিরাপত্তা জাতীয় চিড়িয়াখানায়

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঈদুল ফিতরের ছুটিতে বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে নেওয়া হয়েছে নানা ধরনের ব্যবস্থা। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, চিড়িয়াখানায় অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা। 

সোমবার দুপুরে জাতীয় চিড়িয়াখানার কিউরেটর (ভারপ্রাপ্ত পরিচালক) মো. মজিবুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, এবারের ঈদে দর্শনার্থী বেশি আসবে চিড়িয়াখানায়। বিষয়টি মাথায় রেখে দর্শনার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়ে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। এজন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানানো হয়েছে। চিড়িয়াখানায় টহলে থাকবে পুলিশ ও র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। ঈদকে সামনে রেখে চিড়িয়াখানায় চিন্তায় পকেটমার ও ইভটিজিংয়ের ঘটনা এড়াতে ২৮টি স্থানে লাগানো আছে সিসি ক্যামেরা। সার্বক্ষণিক মনিটরিং করা হবে।

তিনি বলেন, গরমে প্রাণীগুলোর পানিশূন্যতা এড়াতে ইলেক্ট্রোলাইয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ও স্ট্রেস বা চাপ কমাতে ভিটামিন সি'র ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রাণীগুলোর জন্য চৌবাচ্চায় পানি দিয়ে গোসলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এবারের গরমের মৌসুমে এখন পর্যন্ত চিড়িয়াখানার কোনো পশু-পাখির কোন সমস্যা হয়নি। ঈদে চিড়িয়াখানা খোলা থাকছে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৬টা পর্যন্ত।


আরও খবর