Logo
শিরোনাম

‘শনিবার বিকেল’ মুক্তি পাক কোনও এক শুক্রবার সকালে

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৯২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাকিবুল হাসান

একটি ক্যাফেতে বোমা হামলার দৃশ্য। নেপথ্যে শোনা যায়, মানুষ যখন ধর্মের নামে হত্যা করে, আসলে সে ধর্মকেই হত্যা করে, মনুষ্যত্বকে হত্যা করে। গুলশানের হোলি আর্টিজান বেকারির নৃশংস জঙ্গি হামলার ঘটনা নিয়ে বলিউডের ফারাজ-চলচ্চিত্রের ফার্স্টলুক এটি। মৃত্যুর মুখেও দুই বন্ধু অবিন্তা কবির ও তারিশি জৈনের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন ২০ বছরের তরুণ ফারাজ আইয়াজ হোসেন। শেষ পর্যন্ত তাদের বাঁচাতে পারেননি, নিজেও বাঁচেননি। কিন্তু বাঁচিয়েছিলেন সাহস, বন্ধুত্ব আর মানবিকতাকে। সেই গল্প নিয়েই পরিচালক হংসল মেহতা নির্মাণ করছেন এই চলচ্চিত্রটি।

টুইটার ও ইনস্টাগ্রামে এই চলচ্চিত্রের ২৩ সেকেন্ডের একটি মোশন পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছিল কয়েক বছর আগে। ভিডিও পোস্টে পরিচালক হংসল মেহতা লিখেছিলেন, সহিংস প্রতিকূলতার মধ্যেও মানবতার জয়!'

চলচ্চিত্রটি নিয়ে নির্মাতা ভারতীয় গণমাধ্যমকে বলেন, ফারাজ-এর গল্পটি পৃথিবীকে দেখাবো বলে অপেক্ষা করছি। ফারাজ হবে গভীর মানবিকবোধের এক গল্প। কিন্তু ছবিটি নির্মাণে আপত্তি তুলে অবিন্তা কবির ফাউন্ডেশনের পক্ষে বাংলাদেশের ল ফার্ম লিগ্যাল কাউন্সেল ছবিটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান টি-সিরিজ, চলচ্চিত্র নির্মাতা ভূষণ কুমার, সহকারী প্রযোজক অনুভব সিনহা এবং পরিচালক হংসল মেহেতাকে উকিল নোটিশ পাঠায়। নোটিশের উল্লেখ করা হয়, এ ধরণের চলচ্চিত্র নির্মাণ করা হলে তা বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ও সুনাম নষ্ট করবে, যার নেতিবাচক প্রভাব গোটা বাংলাদেশের আর্থ সামাজিক ও রাজনৈতিক পরিস্থিতিকে চরম ক্ষতির মুখে ঠেলে দেবে। তাছাড়া, এ ধরণের চলচ্চিত্র নির্মিত হলে তা বাংলাদেশকে বহির্বিশ্বে একটি সন্ত্রাসী ও জঙ্গিবাদী রাষ্ট্র হিসেবে চিত্রিত করবে, যা আদতে সত্যি নয়। আইনি নোটিশ পাঠানোর পর অবিন্তা কবির ফাউন্ডেশনের পক্ষে অবিন্তার মা মামলাও করেছেন।

২০১৬ সালের ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে পাঁচ জঙ্গি সদস্যের পরিচালিত হামলার ঘটনায় যে ২২ জন দেশি-বিদেশি নাগরিক নিহত হন, তার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে অধ্যয়নরত ২০ বছর বয়সী বাংলাদেশি তরুণ ফারাজ আহমেদও ছিলেন। তাকে কেন্দ্র করেই ফারাজ নামের চলচ্চিত্র তৈরির ঘোষণা দিয়েছিলো বলিউডের অন্যতম প্রযোজনা সংস্থা টি-সিরিজ। কিন্তু মামলার ফলে, চলচ্চিত্রটি এখনও মুক্ত হয়নি।হলি আর্টিজান হামলা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে বাংলাদেশেও মোস্তফা সরয়ার ফারুকী শনিবার বিকেল নামে একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন। দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হতে পারে অভিযোগে চলচ্চিত্রটিকে সেন্সর সনদ দেয়া হয়নি।

শনিবার বিকেল চলচ্চিত্রটি সাড়ে তিন বছর ধরে আটকে থাকার নেপথ্য ঘটনা আসলে কী? ২০১৯-এর ৯ জানুয়ারি ছবিটি দেখে সেন্সর বোর্ডের অনেকে পত্রিকায় সাক্ষাৎকার দিয়ে বলেছিলেন, ছবিটি মুক্তির সনদ দেওয়া হবে। যারা তখন বোর্ডের সদস্য ছিলেন তাদের কেউ কেউ এখনও বলছেন, সিনেমা হিসেবে ছবিটি নিয়ে তাদের কোনও আপত্তি ছিল না। ছবিটি আটকে যাওয়ার কারণ হিসেবে যা জানা গেছে, প্রথমবার ছবিটি দেখার পর সেন্সর বোর্ডের সচিব একটি নোট লিখেছিলেন। সেখানে লেখা ছিল, তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব না দেখা পযর্ন্ত যেন ছবিটি পাশ না করা হয়। পরে তখনকার তথ্য সচিব ছবিটি দেখেন। সেসময় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিবও তার সঙ্গে ছিলেন। তখন ছবিটি আটকানোর পক্ষে সবাই মত প্রদান করেন। তাদের বক্তব্য ছিল, ভুলে যাওয়া একটি বিয়োগান্তক ঘটনা নতুন করে মনে করিয়ে দেয়াটা ঠিক হবে না। এতে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হতে পারে।

বিষয়টি নিয়ে আপিল করা হলে, কয়েকজন বিশিষ্ট চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্বকে ডেকে ছবিটি দেখিয়ে তাদের মতামত চাওয়া হয়। তারা আটকে রাখার মতো কোনও কিছু এই চলচ্চিত্রে পাননি বলে মতামত দেন। এরপর চলচ্চিত্রটিকে প্রদর্শনী করার অনুমতি দেয়া হবে কী না-এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়ার এখতিয়ার আপিল বোর্ডের। আপিল বোর্ডের অন্যতম সদস্য তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব। এখন তার সিদ্ধান্তের উপরেই নির্ভর করছে শনিবার বিকেল চলচ্চিত্রটির সেন্সর বোর্ডের সনদ পাওয়া বা না পাওয়া।

শনিবার বিকেল চলচ্চিত্রটি মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর একটা থ্রিলারধর্মী চলচ্চিত্র, যা ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিজান হামলা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে নির্মাণ করা হয়েছে। হলি আর্টিজানে ৫ জঙ্গি কর্তৃক বিদেশি নাগরিকসহ প্রায় ৫০ জনকে জিম্মি করা এবং ২২ জনকে হত্যার ঘটনা সত্য এবং হৃদয় বিদারক। এটাও সত্য যে, ১ জুলাইয়ের জঙ্গি হামলার পর ২ জুলাই বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে অপারেশন থান্ডারবোল্ট পরিচালনার মাধ্যমে জিম্মিদের উদ্ধার করা হয়। এসময় সকল জঙ্গি নিহত হয়। সরকারের দ্রুত পদক্ষেপ এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বীরত্বপূর্ণ ভূমিকার পর এই ঘটনায় বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হওয়ার কোনও কারণ আমি দেখি না। কোনও চলচ্চিত্রে যদি ঘটনাকে বিকৃত করে শুধু জঙ্গি হামলা দেখানো হয় এবং জঙ্গি দমনকে না দেখানো হয়, তাহলেই ভাবমূর্তি নষ্টের প্রশ্ন উঠতে পারে। কিন্তু ফারাজ এবং শনিবার বিকেল চলচ্চিত্র দুটোর কোনওটাতেই এমনটা দেখানো হয়নি বলেই জানি।

বাংলাদেশে সেন্সর সার্টিফিকেট না পেলেও মিউনিখ, মস্কো, সিডনি, বুসান, প্যারিসসহ বিভিন্ন ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে শনিবার বিকেল প্রদর্শিত হয়েছে। বহু দেশের প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিক ছবিটি দেখেছেন এবং বাংলাদেশে সেন্সর সনদ না পাওয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। সাম্প্রতিক সময়ে দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গসহ অনেকেই ছবিটি আটকে রাখায় ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। যে ভাবমূর্তি নষ্টের প্রশ্ন তুলে সেন্সর বোর্ড একটা চলচ্চিত্রকে আটকে রাখে, তাদের কাছে ভাবমূর্তির সংজ্ঞা কী?

বাংলাদেশের সংবিধান, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বা অন্য কোনো আইনে দেশের ভাবমূর্তির কোনো সংজ্ঞা দেওয়া নেই। এমনকি, দণ্ডবিধিতে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে অপরাধ ও রাষ্ট্রদ্রোহের অপরাধগুলোর বর্ণনায়ও রাষ্ট্রের ভাবমূর্তির কোনো উল্লেখ নেই। ফলে, আমি যদি কোনও কিছুকে ন্যায্য ও বৈধ এবং মতপ্রকাশের স্বাধীনতা মনে করে প্রকাশ করি, সেটিকেও একজন অভিযোগকারী দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্নকারী মনে করতে পারেন। ব্যক্তিভেদে এর সংজ্ঞায়ন ভিন্ন হতেই পারে আর এই কারণেই এটা হচ্ছে একটা সমাধান অযোগ্য সমস্যা। প্রকৃত পক্ষে, একটা দেশের রাজনৈতিক ও নাগরিক অধিকার কতটা আছে, দেশের ভাবমূর্তির পরিমাপক হওয়া উচিত সেটাই। এসব অধিকারের অংশ হচ্ছে নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় বহুদলীয় ব্যবস্থা এবং জনগোষ্ঠীর সব অংশের অংশগ্রহণ, সরকার পরিচালনায় স্বচ্ছতা, দুর্নীতির মাত্রা, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, চিন্তা ও গবেষণার স্বাধীনতা, সংগঠনের স্বাধীনতা ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো।

ভাবমূর্তি নষ্ট হয় বড় বড় প্রকল্পের দুর্নীতিতে, বিনা বিচারে হত্যাকান্ডে, হাজার হাজার কোটি টাকা পাচারে। সত্য প্রকাশে, শিল্প চর্চায় দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হয় না। এই বোধোদয় আপনাদের কবে হবে? শনিবার বিকেল মুক্তি পাক কোনও এক শুক্রবার সকালে; সেই প্রত্যাশায় রইলাম।

লেখক: শিক্ষক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা

নিউজ ট্যাগ: শনিবার বিকেল

আরও খবর

শেখ হাসিনার নেতৃত্ব এখনও অপরিহার্য

বৃহস্পতিবার ১৫ ডিসেম্বর ২০২২

দুর্নীতিবিরোধী বঙ্গবন্ধু

সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২




যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে বাংলাদেশি তরুণ নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৬ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টনের কেমব্রিজে পুলিশের গুলিতে সৈয়দ ফয়সাল (২০) নামে এক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তরুণ নিহত হয়েছেন। স্থানীয় পুলিশ বিভাগের উদ্ধৃতি দিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম এনবিসি বোস্টন।

ফয়সালের জন্ম যুক্তরাষ্ট্রেই। তিনি দি ইউনিভার্সিটি অব ম্যাসাচুসেটস আমহার্স্টের শিক্ষার্থী ছিলেন। যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশিরা জানিয়েছেন, ফয়সাল পরিবারের একমাত্র সন্তান ছিলেন।

এনবিসি বোস্টন জানায়, বুধবার দুপুরে চেস্টনাট স্ট্রিটে এ ঘটনা ঘটে। এদিন পুলিশের কাছে ফোন আসে সন্দেহভাজন এক তরুণ একটি অ্যাপার্টমেন্টের জানালা ভেঙে বেরিয়ে যায় এবং তার হাতে ছোরা রয়েছে।

পুলিশের দাবি, তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি ভবনের পেছনে ফয়সালকে খুঁজে পায়। পুলিশকে দেখে তিনি দৌড় দিলে পুলিশ সদস্যরাও তাকে ধাওয়া করে।

মিডলসেক্সের ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি মারিয়ান রায়ান বলেন, পুলিশ ধাওয়া করে চেস্টনাট স্ট্রিটে তাকে (ফয়সাল) ঘিরে ফেলে। তখন ফয়সালকে ছুরি ফেলে দিতে বলেন কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তা। কিন্তু এই তরুণ ছুরি হাতে নিয়ে পুলিশের দিকে তেড়ে আসছিলেন। তখন পুলিশ বাধ্য হয়ে গুলি ছোড়ে। গুলিবিদ্ধ ফয়সালকে হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে পুলিশের গুলিতে ফয়সাল নিহত হওয়ার ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশিরা। বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব নিউ ইংল্যান্ড প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে এবং কেমব্রিজের মেয়র সুমবুল সিদ্দিকীর সঙ্গে দেখা করে প্রতিবাদ জানানোর কর্মসূচি নিয়েছে। দ্রুত ঘটনার তদন্ত করে বিচার দাবি করেন তারা। যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশিদের অভিযোগ, ফয়সাল শ্বেতাঙ্গ পুলিশের বর্ণবাদী আচরণের শিকার হয়েছে।


আরও খবর



দেশের বাজারে ইতিহাসের সর্বোচ্চে শুকনো মরিচের দাম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ১৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশের বাজারে শুকনো মরিচের দাম বেড়ে ইতিহাসের সর্বোচ্চে অবস্থান করছে। বর্তমানে মসলাপণ্যটির উৎপাদন নিম্নমুখী। তার ওপর এলসি জটিলতাসহ নানা কারণে ভারত ও মিয়ানমার থেকে আমদানি অব্যাহত কমছে। অর্থাৎ চাহিদার অনুপাতে পণ্যটির সরবরাহ অপ্রতুল। এ কারণেই বাজারদরে উল্লম্ফন দেখা দিয়েছে।

একসময় শুকনো মরিচের দাম ছিল কেজিপ্রতি ১০০-১৫০ টাকার মধ্যে। করোনাকালীন আমদানি কমে যাওয়ার পাশাপাশি উৎপাদন সংকটে পণ্যটির দাম বেড়ে যায়। বর্তমানে শুকনো মরিচের কেজিপ্রতি দাম সর্বনিম্ন ৩৫০-৫০০ টাকার মধ্যে ওঠানামা করছে। আসন্ন রমজানের আগে বাড়তি সরবরাহ না হলে পণ্যটির দাম আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ীরা।

দেশে শুকনো মরিচের সবচেয়ে বেশি সরবরাহ হয় পঞ্চগড়, কুমিল্লা, ভোলা, চট্টগ্রাম, রায়পুরসহ বিভিন্ন জেলা থেকে। এছাড়া ভারত ও মিয়ানমার থেকে আমদানি হওয়া মরিচও দেশীয় চাহিদা মেটায়। তবে ভারত থেকে আমদানি কমে যাওয়ার পাশাপাশি চাহিদামতো দেশীয় উৎপাদন না হওয়ায় রেকর্ড দামে বিক্রি হচ্ছে নিত্যপণ্যটি।

দেশে ভোগ্যপণ্যের সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জের বিভিন্ন আড়ত ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কুমিল্লা থেকে সরবরাহ করা শুকনো মরিচ বিক্রি হচ্ছে পাইকারিতে ৩৯০ টাকা, পঞ্চগড়ের মরিচ ৪১০ টাকা, রায়পুরের মরিচ ৪৩০ টাকা ও হাটহাজারীর মরিচ ৫০০ টাকায়। এছাড়া আমদানীকৃত ভারতীয় মরিচ বিক্রি হচ্ছে (গুজরাটি) ৩৬০-৩৭০ টাকায়।

মিয়ানমার থেকে আমদানি করা মরিচ বিক্রি হচ্ছে ৩৭০ টাকায়। রবি মৌসুমের দেশীয় মরিচ সরবরাহ শুরু হতে অন্তত দেড়-দুই মাস সময় লাগবে। চাহিদা বিবেচনায় মিয়ানমার থেকে আমদানি শুরু হলে বাজারদর কিছুটা কমে আসে। তবে সম্প্রতি দেশটি থেকে আমদানি কমেছে। ভারতের সরবরাহও নিম্নমুখী। এ কারণে আবারো বাড়তে শুরু করেছে পণ্যটির দাম। দেশীয় উৎপাদন না বাড়লে মরিচের বাজার আরো চড়া হবে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মেসার্স বাঁচা মিয়া ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী মো. সেকান্দর বলেন, দেশের ক্রমবর্ধমান চাহিদার অনুপাতে মরিচের উৎপাদন বাড়ছে না। আমদানির মাধ্যমেই চাহিদা মেটাতে হচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে। ভারতে বন্যাজনিত কারণে পণ্যটির সরবরাহ কমেছে। দেশটি থেকে পর্যাপ্ত শুকনো মরিচ আমদানি করা যাচ্ছে না।

তাছাড়া বর্তমানে ডলার সংকটসহ বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতাও আমদানি কমে যাওয়ার অন্যতম কারণ। এসব কারণেই বাজারে স্থিতি ফিরছে না। চলতি মৌসুমে দাম বৃদ্ধির প্রভাবে উৎপাদন বাড়লে আগামী বছর বাজার স্বাভাবিক হতে পারে। দুই সপ্তাহ ধরে পাইকারি পর্যায়ে মরিচের মূল্যবৃদ্ধির কারণ হিসেবে ব্যবসায়ীরা বলছেন, ডলার সংকটে আমদানি অনেকটাই স্থবির। আসন্ন রমজান উপলক্ষে বাড়তি চাহিদা ধরে রাখতে মজুদ প্রবণতা বেড়েছে। ভোক্তা পর্যায়ে এরই মধ্যে চাহিদা বাড়তে শুরু করেছে।

খাতসংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আগে দেশে শুকনো মরিচের দাম নির্ভর করত পাইকারি বাজার ও স্থানীয় পর্যায়ে ব্যাপারীদের ওপর। বেশ কিছুদিন ধরে দেশের করপোরেট কোম্পানিগুলো উৎপাদন মৌসুমে আগাম মরিচ কিনে মজুদ করে রাখায় স্থানীয় পর্যায়ে সংকট দেখা দেয়। এ কারণে কৃষকরা প্রকৃত মূল্য না পেলেও ভোক্তা পর্যায়ে এসে শুকনো মরিচের দাম আকাশচুম্বী হয়ে পড়ে।

নিউজ ট্যাগ: শুকনো মরিচ

আরও খবর

বেড়েছে সবজি-ডিমের দাম

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩




বাংলাদেশ থেকে হজ করতে পারবেন ১ লাখ ২৭ হাজার

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সৌদি সরকারের সঙ্গে সম্পাদিত চুক্তি অনুযায়ী চলতি বছর বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ পালন করার সুযোগ পাবেন। আজ রোববার (১৫ জানুয়ারি) ধর্ম মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানানো হয়।

হজচুক্তির বিষয়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান সাংবাদিকদের বলেন, করোনার পর বিগত বছরে স্বল্প সময়ে আমরা সবাই মিলে সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে হজের কার্যক্রম পরিচালনা করার চেষ্টা করেছি। হজ আয়োজনে সার্বিক দায়িত্ব পালন করেছে সৌদি আরবে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস। এ জন্য তিনি দূতাবাসের কর্মকর্তাদের বিশেষ ধন্যবাদ জানান।

হজ আয়োজন আরও সুন্দর করার জন্য প্রবাসীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণ করেছেন বলেও জানান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী। প্রবাসীদের বিভিন্ন পরামর্শ অনুযায়ী আগামীতে হজ আয়োজন আরও সুন্দর করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে উল্লেখ করেন প্রতিমন্ত্রী।


আরও খবর

আজ সরস্বতী পূজা

বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩

শবে মেরাজ ১৯ ফেব্রুয়ারি

সোমবার ২৩ জানুয়ারী 20২৩




প্রযুক্তি খাতে দিনে চাকরি হারাচ্ছেন ১৬০০ কর্মী

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ | ২৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বেশ কিছুদিন ধরেই খারাপ সময় পার করছেন প্রযুক্তি খাতের কর্মীরা। বড় বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানে কর্মী ছাঁটাইয়ের খবর প্রায়ই খবরের শিরোনাম হচ্ছে। এরই মধ্যে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড এক খবরে বলেছে, চলতি বছরে খাতটি থেকে প্রতিদিন চাকরি হারাচ্ছেন গড়ে ১৬০০ কর্মী। সংবাদমাধ্যমটি বলছে, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দা এবং মন্দার আশঙ্কার কারণেই প্রতিষ্ঠানগুলো কর্মীদের ছাঁটাই করছে।

সংবাদমাধ্যমটি ট্র্যাকিং সাইট লেঅফের বরাতে জানায়, গত বছর ১ হাজারের বেশি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান এক লাখ ৫৪ হাজার ৩৩৬ জন কর্মীকে ছাঁটাই করেছে। চলতি বছরেও অব্যাহত রয়েছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মী ছাঁটাইয়ের প্রবণতা। মাইক্রোসফট, টুইটার, মেটার মতো বাঘা বাঘা প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে তালিকায় রয়েছে ছোট-বড় নানা প্রতিষ্ঠান।

বিশ্লেষকদের উদ্ধৃত করে রয়টার্স বলছে, রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে বিশ্বজুড়ে চলমান অর্থনৈতিক মন্দার প্রভাব পড়েছে প্রযুক্তি খাতে। খরচ বাঁচানোর দ্রুততম পথ হিসেবে কর্মী ছাঁটাইকেই বেছে নিচ্ছে প্রতিষ্ঠানগুলো। অবশ্য এ ছাঁটাই দীর্ঘমেয়াদে প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য ক্ষতিকর হতে পারে বলে ধারণা করছেন অনেকে। বিশেষ করে এ ধরনের প্রবণতা বিনিয়োগকারীদের মধ্যে প্রতিষ্ঠানগুলোর বিষয়ে অনাস্থা তৈরি করে।

নিউজ ট্যাগ: প্রযুক্তি খাত

আরও খবর



ডিএমপির ছয় থানায় নতুন ওসি

প্রকাশিত:বুধবার ১১ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ছয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)-কে বদলি করে নতুনদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

বুধবার ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক স্বাক্ষরিত আদেশে এ তথ্য জানানো হয়। থানাগুলো হলো- তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল, যাত্রাবাড়ী, শ্যামপুর, কোতায়ালী, মতিঝিল এবং বংশাল।

আদেশে বলা হয়েছে, যাত্রাবাড়ী থানার ওসি মাজহারুল ইসলামকে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায়, শ্যামপুর থানার ওসি মো. মফিজুল আলমকে যাত্রাবাড়ী থানায়, ডিএমপির পিআর অ্যান্ড এইচআর বিভাগের পরিদর্শক মো. নজরুল ইসলামকে শ্যামপুর থানায়, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ওসি কাজী আবুল কালামকে মতিঝিল গোয়েন্দা বিভাগে ও সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের পরিদর্শক মো. শাহীনুর রহমানকে কোতয়ালী থানার ওসি করা হয়েছে।

এছাড়া কোতয়ালী থানার ওসি মো. মিজানুর রহমানকে মতিঝিল থানার ওসি, মতিঝিল থানার ওসি মোহাম্মদ ইয়াসির আরাফাত খানকে ডিএমপির অপরাধ বিভাগে, বংশাল থানার ওসি আবুল খায়েরকে ডিএমপির অপারেশন বিভাগে, গোয়েন্দা মতিঝিল বিভাগের পরিদর্শক মো. মজিবুর রহমানকে বংশাল থানার ওসি, ডিবি-সাইবার স্পেশাল ক্রাইম দক্ষিণ বিভাগের পরিদর্শক মো. আজহারুল ইসলামকে যাত্রী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এবং গেন্ডারিয়া থানার পরিদর্শক (অপারেশন) প্রেমদাস রায়কে হাজারীবাগ থানার পরিদর্শক (অপারেশন) হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: ডিএমপি

আরও খবর

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৭০

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩

শুক্রবার রাজধানীর যেসব মার্কেট বন্ধ

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩