Logo
শিরোনাম

সন্তান চায় না চীনের তরুণ প্রজন্ম

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ২৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চীনে অধিক জনসংখ্যাকে একসময় সমস্যা হিসেবে দেখা হতো। জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে দেশটি এক সন্তান নীতি গ্রহণ করেছিল। তবে গত সপ্তাহে সরকারি পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ছয় দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো দেশটির জনসংখ্যা কমেছে। ফলে এখন জনসংখ্যা বাড়াতে চায় চীন। এজন্য ২০১৬ সালে সরকার ঘোষণা করেছিল, পরিবারগুলো চাইলে দুটি সন্তান নিতে পারবে।

গত বছরে পরিবারগুলোকে ৩ সন্তান নেওয়ারও অনুমতি দেওয়া হয়। তবে দেশটির জনগণের মধ্যে সন্তান নেওয়ার বিষয়ে দারুণ অনীহা দেখা যায়। চীনের শহরাঞ্চলের তরুণীদের কাছে সন্তান নেওয়ার সম্ভাবনার কথা জানতে চাইলে তাঁরা এ বিষয়ে আগ্রহী নন বলে জানান। ২৬ বছর বয়সী গবেষক কংকং বলেন, সন্তানদের একটি সুন্দর জীবন দিতে অনেক টাকার প্রয়োজন। তারা স্কুলে যা শিখবে তা শুধু প্রচার, তাই আমি তাঁদের আন্তর্জাতিক স্কুলে বা বিদেশে পাঠাতে চাইব। কিন্তু এটা আমার পক্ষে বহন করা সম্ভব না। এজন্য সন্তান না নেওয়ার বিষয়ে প্রতিজ্ঞা করেছেন তিনি।

গত বছর চীনে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল- যেখানে দেখা গেছে, এক যুবককে একটি কোয়ারেন্টাইন শিবিরে নিয়ে যেতে চাইছে পুলিশ। যুবকটি সেখানে যেতে অস্বীকার করে। এ সময় পুলিশ তাঁকে সতর্ক করে বলে, তাঁর শাস্তি তাঁর তিন প্রজন্মকে ভোগ করতে হবে। তবে তিনি শান্তভাবে উত্তর দিলেন, আমিই শেষ প্রজন্ম, আপনাকে ধন্যবাদ।

নারীরা যে কারণে সন্তান নিতে চান না, সে মূল কারণটার জন্য তাঁরা দায়ী নন; বরং সেটার জন্য দায়ী সন্তান লালনপালনে সমাজ এবং পুরুষের দায়িত্ব নেওয়ার ব্যর্থতা। যেসব নারী সন্তান জন্ম দেন, তাঁদের জীবনযাপনের মান ও আধ্যাত্মিক জীবনবোধ মারাত্মকভাবে কমে যায়।


আরও খবর



তিন মোবাইল অপারেটরকে ২৫০০ কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

তিন মোবাইল অপারেটর কোম্পানিকে বিটিআরসির পাওনা ২৫০০ কোটি টাকা পরিশোধ করতেই হবে বলে আদেশ দিয়েছেন আপিল বিভাগ। মঙ্গলবার সকালে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ ১০ বছর আগের কয়েকটি রিট মামলার নিষ্পত্তি করে তিন মোবাইল অপারেটর কোম্পানিকে বিটিআরসির পাওনা ২ হাজার ৫শ কোটি টাকা পরিশোধ করার নির্দেশ দেন।

রায়ে গ্রামীণফোনের ১৪শ কোটি, রবির ৫শ কোটি ও বাংলালিংকের ৬৫০ কোটি টাকা বকেয়া পরিশোধের আদেশ দেয়া হয়। অ্যাটর্নি জেনারেল বলছেন, রায়ের কপি পাওয়ার পর টাকা আদায় শুরু করবে বিটিআরসি।

সরকার বেশি ভ্যাট-ট্যাক্স নিচ্ছে মর্মে ২০১২ সালে হাইকোর্টে রিট করে বিদেশি মোবাইল অপারেটর কোম্পানিগুলো। তবে ওই রিটে হেরে যায় ওই তিন কোম্পানি।


আরও খবর



‘ভোটার হওয়া ছাড়া এনআইডিতে ইসির সংশ্লিষ্টতা নেই’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভোটার হওয়া ছাড়া অন্যান্য ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) ব্যবহারের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে গণফোরামের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খানের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে টেবিলে প্রশ্নোত্তর উপস্থাপন করা হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ২০০৭ সালে একটি ত্রুটিমুক্ত ভোটার তালিকা তৈরির জন্য সেনাবাহিনীর অধীনে একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। এ প্রকল্পের বাই-প্রোডাক্ট হিসেবে জাতীয় পরিচয়পত্রের কার্যক্রমটি শুরু হয়। এটি ছিল সাময়িক পদক্ষেপ।

জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন কার্যক্রমের ব্যাপ্তি অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন কার্যক্রম শুধু ভোটার বা ১৮ বছরের বেশি নাগরিকের জন্য নয় বরং সব নাগরিকের জন্য প্রাসঙ্গিক। এ ছাড়া ব্যাংক হিসাব খোলা, চাকরির আবেদন, ইউটিলিটি সংযোগ, সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির অধীন বিভিন্ন ভাতার আবেদন, খাস জমি প্রাপ্তির আবেদনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে এনআইডি ব্যবহারের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এর মধ্যে ভোটার হওয়ার বিষয় মাত্র একটি। অন্যান্য ক্ষেত্রে এনআইডি ব্যবহারের বিষয়ে ইসির কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই।

জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন কার্যক্রমটি পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই নির্বাহী বিভাগের অধীনে হয়ে থাকে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাস্তবতার নিরিখে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও এটি নির্বাহী বিভাগের অধীনে হওয়া উচিত এবং এ কারণে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের অধীনে আনার কার্যক্রম চলমান রয়েছে। 


আরও খবর



পাকিস্তানের পুলিশ স্টেশনে টিটিপির হামলায় ৩ পুলিশ নিহত

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৩ জানুয়ারী 20২৩ | ১৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পাকিস্তানের খাইবারপাখতুনখোয়া প্রদেশের পেশওয়ারে পুলিশ স্টেশনে রাতজুড়ে হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এতে অন্তত তিনজন পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন। আজ শনিবার জিও নিউজের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শহরের সুবুরবান এলাকার সারবান্দ পুলিশ স্টেশনে ঘুটঘুটে অন্ধকারে হাতবোমা দিয়ে হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। এতে ওই পুলিশ স্টেশনের ডিএসপি বাদাবর সর্দার হুসেইন এবং তার দুই রক্ষী নিহত হয়েছেন।

দেশটির সিনিয়র পুলিশ সুপার অপারেশন্স কাশিফ আফতাব আব্বাসী ওই পুলিশ স্টেশনে হাতবোমা ও স্নাইপার গান দিয়ে হামলার তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেছেন, সন্ত্রাসীরা দুই-তিন দিক থেকে হামলা শুরু করে। হামলায় ৬ থেকে ৮ জন সন্ত্রাসী অংশ নেয়। সেই সময় পুলিশ স্টেশনে ১২-১৪ জন পুলিশ ছিলেন।

কাশিফ আফতাব আব্বাসী জানান, সন্ত্রাসীরা পাঁচটি হাতবোমা ছোড়ে কিন্তু এর মধ্যে একটি বিস্ফোরিত হয়। বাকি চারটিকে নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে। হামলার পর সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে বলে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

এখন পর্যন্ত এ হামলার দায় কেউ স্বীকার করেনি। সন্ত্রাসীদের ধরতে অভিযান চলছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। সম্প্রতি পাকিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর হামলার পরিমাণ বেড়েছে। 


আরও খবর



কানাডায় বাড়ি কিনতে পারবেন না বিদেশিরা

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য বাড়ি কেনার সুযোগ বন্ধ করে দিচ্ছে কানাডা। করোনা মহামারি শুরুর পর থেকে দেশটিতে বাড়ির দাম আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। 

মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন জানায়, এ বিষয়ে একটি আইনও পাস করেছে কানাডার সরকার। নতুন আইন অনুযায়ী, ২০২৩ সালের প্রথম দিন থেকেই বিদেশি বিনিয়োগকারীদের ওপর বাড়ি কেনা বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হলো। মূলত নিজ দেশের নাগরিকদের আবাসন সমস্যা বেড়ে যাওয়ায় এমন পদক্ষেপ। 

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে জানা যায়, এই নিষেধাজ্ঞা শুধু শহর অঞ্চলের জন্য প্রযোজ্য হবে। এ ছাড়া বিনোদনমূলক সম্পত্তি কেনার ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য নয় বলে জানিয়েছে অটোয়া কর্তৃপক্ষ।  দাম বেশি হওয়ায় অনেক কানাডিয়ান বাড়ি কিনতে পারছিলেন না। এ অবস্থায় ২০২১ সালের নির্বাচনী প্রচারে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো দুই বছরের জন্য এমন পদক্ষেপের প্রস্তাব দেন। 

সে সময় ট্রুডোর দল লিবারেল পার্টি জানায়, কানাডায় বাড়ি কেনা মুনাফাখোর, ধনী ব্যবসায়ী ও বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে আগ্রহের বিষয়ে পরিণত হয়েছে। এতে বাড়িগুলোর দাম আকাশ ছোঁয়া হয়েছে। বাড়ি তো জনগণের, বিনিয়োগকারীদের জন্য নয়।

এদিকে কানাডিয়ান রিয়েল এস্টেট অ্যাসোসিয়েশনের মতে, ২০২২ সালের শুরু থেকে বাড়ির দাম কমেছে। বাড়ির দাম গড়ে সর্বোচ্চ ৮ লাখ কানাডিয়ান ডলার থেকে কমে ৬ লাখ ৩০ হাজার কানাডিয়ান ডলারে নেমে এসেছে।  এ ছাড়া দেশটির জাতীয় আবাসন সংস্থা কানাডা মর্টগেজ অ্যান্ড হাউজিং করপোরেশন এক প্রতিবেদনে বলেছে, ২০৩০ সালের মধ্যে কানাডায় প্রায় ১ কোটি ৯০ লাখের মতো আবাসন ইউনিট প্রয়োজন হবে। এ ক্ষেত্রে অন্তত ৫৮ লাখ নতুন বাড়ি নির্মাণ করতে হতে পারে। 

নিউজ ট্যাগ: কানাডা

আরও খবর



বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ এয়ারলাইনস কান্তাস

প্রকাশিত:রবিবার ০৮ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৩ জানুয়ারী 20২৩ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রায় প্রতি বছরই বিশ্বের নিরাপদ উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থার তালিকা প্রকাশ করে এয়ারলাইনরেটিংস ডটকম। সম্প্রতি ২০২৩ সালের সবচেয়ে নিরাপদ ২০টি এয়ারলাইনসের তালিকা প্রকাশ করেছে সংস্থাটি। যেখানে সেরা ১০ এয়ারলাইনসের মধ্যে রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও কাতারভিত্তিক ক্যারিয়ারগুলো। উল্লেখযোগ্যভাবে মধ্যপ্রাচ্যের ইতিহাদ এয়ারওয়েজ, কাতার এয়ারওয়েজ ও এমিরেটস রয়েছে সেরা দশের মধ্যে। বিশ্বের মোট ৩৮৫টি আন্তর্জাতিক এয়ারলাইনসের মধ্য থেকে শীর্ষ স্থানটি দখল করে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়াভিত্তিক কান্তাস।

কান্তাস: ১৯২০ সালের নভেম্বরে কার্যক্রম শুরু করে অস্ট্রেলিয়ার উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থা কান্তাস। শতবর্ষী  এয়ারলাইনসটি নভেল করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে ২০২১ সালে বিশ্বজুড়ে ফ্লাইট কার্যক্রম প্রায় বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়। এতে অন্যান্য উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থার মতোই সংস্থাটি বেশ ক্ষতির মধ্যে পড়ে যায়। ২০২১ সালে প্রায় ১০৮ কোটি অস্ট্রেলিয়ান ডলার লোকসানের কথা জানায় সংস্থাটি। একই বছর ৮৩ শতাংশ যাত্রীও হারায় এটি। তবে বিশ্বের তৃতীয় প্রাচীনতম উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থাটি এখনো তাদের কার্যক্রম দারুণ দক্ষতার সঙ্গে ধরে রেখেছে। যদিও ২০২২ সালের তালিকায় তাদের অবস্থান ছিল সপ্তম।

এয়ার নিউজিল্যান্ড: গত বছর শীর্ষ অবস্থানে থাকলেও এবার দ্বিতীয় হয়েছে এয়ার নিউজিল্যান্ড। প্রায় ১৮টি দেশে যাত্রী পরিষেবা দিয়ে থাকে নিউজিল্যান্ডভিত্তিক ক্যারিয়ারটি। এটির অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের সংখ্যা ২০ এবং আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের সংখ্যা ৩০টি।

ইতিহাদ: এয়ার নিউজিল্যান্ডের অনুসরণেই দুই থেকে তিনে নেমে এসেছে ইতিহাদ। এটি সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুটি পতাকাবাহী এয়ারলাইনসের একটি। সংস্থাটির বাণিজ্যিক কার্যক্রমের শুরু ২০০৩ সালে। এমিরেটসের পর ইতিহাদ দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থা। এছাড়া তৃতীয় ও চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে কাতার এয়ারওয়েজ ও সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনস। শীর্ষ দশে জায়গা করে নিয়েছে টিএপি এয়ার পর্তুগাল, এমিরেটস, আলাস্কা এয়ারলাইনস, ইভিএ এয়ার ও ভার্জিন অস্ট্রেলিয়া/আটলান্টিক।

এয়ারলাইনরেটিংস ডটকম ওয়েবসাইটটির প্রধান সম্পাদক জিওফ্রে থমাস বলেন, আমাদের বিশ্লেষকরা প্রায় পাঁচ বছর ধরে এয়ারলাইনসের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করেছেন। তার মধ্যে গত দুই বছরে গুরুতর ঘটনাগুলো আমলে নিয়ে তারা তালিকাটি তৈরি করেন।

তালিকাটি তৈরিতে কোভিড-১৯ সম্পর্কিত প্রটোকল, বহরের বয়স, এভিয়েশন গভর্নিং বডি ও শীর্ষ সংস্থাগুলোর অডিট বিবেচনায় নেয়া হয়। জিওফ্রে থমাস আরো বলেন, এয়ারলাইনসে প্রতিদিন বিভিন্ন ঘটনা ঘটে। সব উড়োজাহাজেই ইঞ্জিন সংক্রান্ত সমস্যা হয়, তবে এটি তাদের পরিচালনাগত সমস্যা নয়। ফ্লাইট ক্রুরা যে উপায়ে এ-সংক্রান্ত সমস্যাগুলোর সমাধান করেন তা মূলত একটি এয়ারলাইনস কতটা নিরাপদ তা তুলে ধরে। মূলত উদ্ভাবন ও পরিচালন দক্ষতার ওপর নির্ভর করে এয়ারলাইনরেটিংস তাদের তালিকা প্রদান করে। ওয়েবসাইটটির কার্যক্রম শুরু হয় ২০১৩ সালের জুনে।


আরও খবর