শিরোনাম

সপ্তাহের ব্যবধানে কমেছে মুরগির দাম

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সপ্তাহের ব্যবধানে মুরগির দাম কমলেও ভরা মৌসুমেও চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সব ধরনের সবজি। বাজারে ব্রয়লার মুরগির দাম কেজিতে ১০ টাকা কমেছে। তবে বেড়েছে শসা, ফুলকপি ও শিমসহ বেশ কিছু পণ্যের দাম।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছ।

বাজারে ব্রয়লার মুরগির কেজি বিক্রি করছেন ১৭০ থেকে ১৭৫ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ১৮০ থেকে ১৮৫ টাকা। আর দুই সপ্তাহ আগে ছিল ১৯৫ থেকে ২০০ টাকা।

কমেছে সোনালি ও লাল লেয়ার মুরগি দামও। সোনালি মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৪০ থেকে ২৬০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ২৬০ থেকে ২৮০ টাকা। আর দুই সপ্তাহ আগে ছিল ৩০০ থেকে ৩৪০ টাকা। গত সপ্তাহে ২৪০ থেকে ২৫০ টাকা কেজি বিক্রি হওয়া লাল লেয়ার মুরগি কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৩০ থেকে ২৪০ টাকা।

সরবরাহ বাড়াতে মুরগির দাম কমেছে বলে জানিয়েছেন ব্যবাসয়ীরা। সামনে মুরগির দাম আরও কমবে।

এদিকে সবজির বাজারে সপ্তাহের ব্যবধানে শসার দাম বেড়ে প্রায় তিনগুণ হয়েছে। শসার কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৮০ টাকা। গত সপ্তাহে যা ছিল ২৫ থেকে ৩০ টাকা।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, সরবরাহ কমে যাওয়ায় শসার দাম বেড়েছে। তবে শসার এই দাম বেশি দিন থাকবে না। অল্প সময়ের মধ্যেই শসার দাম কমে যাবে।

শসার পাশাপাশি বেড়েছে ফুলকপির দামও। গত সপ্তাহে ৩০ থেকে ৪০ টাকা পিস বিক্রি হওয়া ফুলকপির দাম বেড়ে ৪০ থেকে ৬০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। শিম বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৮০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ৪০ থেকে ৬০ টাকার মধ্যে। তবে সপ্তাহের ব্যবধানে দাম অপরিবর্তিত রয়েছে পাকা টমেটো, গাজর, মুলা ও শালগমসহ অন্যান্য সবজির।

 

নিউজ ট্যাগ: আজকের বাজার দর

আরও খবর

মূল্যসূচকের বড় উত্থানে শেষ লেনদেন

সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২




১ ফেব্রুয়ারি থেকেই একুশে বইমেলা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ২৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কোভিড সংক্রমণ বাড়লেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে’ ১ ফেব্রুয়ারি থেকেই ২০২২ সালের অমর একুশে বইমেলা আয়োজনের প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলা একাডেমি।

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক মুহম্মদ নূরুল হুদা বলেন, পহেলা ফেব্রুয়ারি থেকেই বইমেলা শুরু করার জন্য আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি চলছে। মেলার স্টল তৈরির কাজ চলছে। প্রকাশক ও বিক্রেতারাও স্টলের জন্য টাকা জমা দেওয়া শুরু করেছেন। এই প্রক্রিয়া শেষ হলে কয়েকদিনের মধ্যেই লটারির মাধ্যমে প্রকাশকদের স্টল ও প্যাভিলিয়ন বুঝিয়ে দেওয়া হবে।”

বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ঘুরে দেখা গেছে, গত বারের মতোই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বিশাল আয়তন জুড়ে মেলা অবকাঠামো নির্মাণ করা হচ্ছে। গত এক সপ্তাহ ধরে সেখানে স্টল তৈরির কাজ চলছে বলে শ্রমিকরা জানিয়েছে।

করোনাভাইরাস মহামারী কারণে গত বছর অমর একুশে বইমেলা দেড় মাস পিছিয়ে ১৮ মার্চ থেকে শুরু হয় এবং নির্ধারিত সময়ের দুদিন আগে ১২ এপ্রিল তা শেষ হয়ে যায়। মহামারী পরিস্থিতি বিচেনায় গতবার ভিড় এড়াতে স্টলের সামনে ফাঁকা জায়গা রেখে প্রায় ১৫ লাখ বর্গফুটের বিশাল বিস্তৃতি পেয়েছিল, যা ২০২০ সালের প্রায় দ্বিগুণ ছিল। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মেলা প্রাঙ্গণে প্রবেশের জন্য রমনার ইঞ্জিনিয়ারিং ইস্টিটিউটের সামনে দিয়ে নতুন করে একটি প্রবেশ ও প্রস্থান পথ রাখা হয়েছিল।

সম্প্রতি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় বিধিনিষেধ আরোপের কথা বলা হচ্ছে সরকারের তরেফ থেকে। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গতবারের মতো বৃহৎ এলাকা নিয়ে নিয়ে বইমেলা করতে চায় বাংলা একাডেমি।

বইমেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ও বাংলা একাডেমির পরিচালক জালাল আহমেদ বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে পহেলা ফেব্রুয়ারি থেকেই বইমেলা শুরু প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। তবে পরিস্থিতি বিবেচনায় সরকার যে সিদ্ধান্ত নেবে, সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এখন পর্যন্ত আমরা আশা করছি বইমেলা হবে।”

নিউজ ট্যাগ: একুশে বইমেলা

আরও খবর

দুই সপ্তাহ পেছালো বইমেলা

রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২




কমলা হ্যারিসের মায়ের নামে স্কুল তেলঙ্গনায়

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জানুয়ারী 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৬৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যখন তিনি বিদেশে পাড়ি দেন তখন তাঁর বয়স এই বছর উনিশ। তবে আমেরিকার প্রথম মহিলা ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের মা, ক্যানসার গবেষণার ক্ষেত্রে অন্যতম অগ্রণী সেই শ্যামলা গোপালনকে ভোলেনি তাঁর জন্মভূমি। বিশ্বের প্রতি শ্যামলার অবদানকে সম্মান জানিয়ে নতুন প্রজন্মকে আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষাপ্রদানের লক্ষ্যে তেলঙ্গনায় গড়ে উঠেছে তাঁর নামাঙ্কিত একটি প্রতিষ্ঠান—‘শ্যামলা এডুকেশন সোসাইটি। সম্প্রতি তেলঙ্গনায় উদ্বোধন হয়ে গেল এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার এই প্রতিষ্ঠানের।

স্বল্প ব্যয়ে ভারতীয় ছাত্রছাত্রীদের কাছেও আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষা পৌঁছে দেওয়াই এই প্রতিষ্ঠানের মূল লক্ষ্য বলে জানালেন এর প্রতিষ্ঠাতা এন সুরেশ। প্রতিষ্ঠানের প্রকাশিত বিবৃতি অনুযায়ী, ‘‘বিশেষত শিক্ষাক্ষেত্রে, ভারতের সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ছাত্রছাত্রীদের কাছে আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষা পৌঁছে দেওয়ার কৃতিত্ব অর্জন করতে চায় প্রতিষ্ঠানটি।’’ পাল্লা দিয়ে স্বাস্থ্যক্ষেত্র, পরিবেশ এবং সামাজিক স্তরেও তাদের পরিবেষা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য রয়েছে বলে জানান সুরেশ। ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষ থেকে তাদের ক্যাম্পাসে পঠনপাঠন শুরু হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ।

শ্যামলা গোপালনের জন্ম ১৯৩৮ সালে, চেন্নাইয়ে। তবে তাঁর বাবা, পেশায় আমলা পি ভি গোপালন ছিলেন চেন্নাই থেকে ৩২০ কিলোমিটার দক্ষিণে তিরুবর জেলার তুলাসেন্থিপুরামের আদি বাসিন্দা। মাত্র ১৯ বছর বয়সে উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে পাড়ি দিয়েছিলেন শ্যামলা। আমেরিকার ইউসি বার্কলে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নিউট্রিশন এবং পদার্থবিদ্যা নিয়ে ডক্টরেট হন তিনি। এর পর মনোনিবেশ করেন ক্যানসার গবেষণায়। সঙ্গে এই রোগ নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির কাজেও ঝাঁপিয়ে পড়েন তিনি।


আরও খবর

আবুধাবিতে ড্রোন হামলায় তিনজন নিহত

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




হলি ফ্যামিলি মেডিকেল শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। প্রতিষ্ঠানটির এইচএফ-১৬ ব্যাচের এক ছাত্রী ফার্মাকোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. সালাউদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে এ অভিযোগ এনেছেন।

ওই ছাত্রীর অভিযোগ, শিক্ষক ডা. সালাউদ্দিন বিভিন্নভাবে তাকে কুপ্রস্তাব দিয়েছেন এবং আলাদাভাবে দেখা করতে বলেছেন। এতে রাজি না হওয়ায় নানাভাবে হুমকি প্রদান করেছেন। তবে অভিযোগের বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি অভিযুক্ত শিক্ষক।

ঘটনার প্রতিকার চেয়ে গত ২৩ ডিসেম্বর কলেজের অধ্যক্ষ বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী ছাত্রী। এর আগের দিন তিনি উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন, ডা. সালাউদ্দিন ২০২০ সালের ৯ সেপ্টেম্বর থেকে ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে কুপ্রস্তাব দিতে থাকেন। কলেজের পড়া দেখিয়ে দেওয়ার কথা বলে ২০ হাজার টাকা নেন। এরপর পড়ানোর জন্য বাসায় যেতে বলেন। এতে রাজি না হয়ে তাকে এড়িয়ে যাওয়া শুরু করলে ফোনে ও ম্যাসেঞ্জারে নক দেন এবং কলেজে ডেকে বিব্রত করা শুরু করেন শিক্ষক সালাউদ্দিন।

পরবর্তী ঘটনার বিষয়ে অভিযুক্ত ছাত্রী বলেন, দীর্ঘদিন পরিবার ও নিজের মান-সম্মানের ভয়ে চুপ ছিলাম। কিন্তু দিন দিন অবস্থা খারাপই হচ্ছে। তাই এখন সবাইকে জানিয়ে দেওয়ার কথা বললে তিনি গত ২২ ডিসেম্বর আমাকে কলেজ থেকে বিতাড়িত করার ও দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। তার জন্য আমার কলেজে পড়ালেখা চরম হুমকির মুখে। আমি এর প্রতিকার চাই।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ডা. সালাউদ্দিন চৌধুরী বলেন, বিষয়টি নিয়ে যেহেতু অভিযোগ এসেছে এবং অফিশিয়ালি দেখা হচ্ছে, তাই আপাতত এটা নিয়ে কথা বলা নিষেধ

অভিযোগের সত্যতার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, একজন অভিযোগ দিলেই তো সেটা সত্য হয়ে গেল না। এখানে তো আমারও বক্তব্য থাকতেই পারে, তাই না?

বক্তব্য কী- জানতে চাইলে ডা. সালাউদ্দিন বলেন, যেটা বললাম সেটাই

হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মো. দৌলতুজ্জামান বলেন, গত ২৩ ডিসেম্বর দুপুরের পর আমরা অভিযোগটি পেয়েছি। এরপর দুইদিন বন্ধ ছিল। রোববার সকালেই এ বিষয়ে কাজ শুরু হয়েছে। প্রতিষ্ঠানে সরকার নির্দেশিত যে যৌন নিপীড়নবিরোধী কমিটি রয়েছে, তারা অভিযোগটির বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছেন। ১০ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে

জিডির বিষয়ে জানতে চাইলে উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি শাহ মো. আক্তারুজ্জামান ইলিয়াস বলেন, ছাত্রী জিডি করার পর কোর্টে তদন্তের অনুমতির জন্য পাঠানো হয়েছে। কোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী, পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে


আরও খবর



ঢাবির হলে থাকতে পারবেন বিবাহিত ছাত্রীরাও

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৮৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এমন বিধানের ফলে কার্যত বিবাহিত শিক্ষার্থীরা হলের আবাসিক সুবিধা গ্রহণ করে উচ্চশিক্ষার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবেন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আবাসিক হলে বিবাহিত ও অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় ছাত্রীদের না থাকার নিয়মের বিধান বাতিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বুধবার (২২ ডিসেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভোস্ট স্টান্ডিং কমিটির সভায় এ নিয়ম বাতিলের সিদ্ধান্ত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলে বিবাহিত, মাতৃত্বকালীন অবস্থায় (অন্তঃসত্ত্বা) হলে না থাকার নিয়মটি রহিত করেছে প্রশাসন। তবে সন্তান জন্মদানের আগে ও পরে পরিবারের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের থাকা সমীচীন বলে মনে করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এর আগে বুধবার সকালে ঢাবির হলে বিবাহিত ও অন্তঃস্বত্ত্বা ছাত্রীদের সিট বাতিলের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়েরে উপাচার্যসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোহাম্মদ শিশির মনির এই লিগ্যাল নোটিশ পাঠান।

নোটিশে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এমন বিধানের ফলে কার্যত বিবাহিত শিক্ষার্থীরা হলের আবাসিক সুবিধা গ্রহণ করে উচ্চশিক্ষার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবেন। বিষয়টি নিয়ে বর্তমানে শিক্ষার্থীদের মধ্যে মারাত্মক অসন্তোষ এবং চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে বৈষম্যমূলক বিধান থাকার বিষয়টি প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমে গুরুত্বের সঙ্গে প্রকাশিত হচ্ছে।

এতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশের সংবিধানের ২৭ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী সব নাগরিক আইনের দৃষ্টিতে সমান এবং ২৮ (১) ও (২) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী কেবল ধর্ম, গোষ্ঠী, বর্ণ, নারী-পুরুষভেদ বা জন্মস্থানের কারণে কোনো নাগরিকের প্রতি রাষ্ট্র বৈষম্য প্রদর্শন করবে না। রাষ্ট্র ও গণজীবনের সর্বস্তরে নারী পুরুষের সমান অধিকার লাভ করবে। বিবাহিত ছাত্রীদের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এমন নিয়ম নারীদের উচ্চশিক্ষা গ্রহণের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা এবং সংবিধানের ২৭ এবং ২৮নং অনুচ্ছেদের সঙ্গে সম্পূর্ণ সাংঘর্ষিক। ফলে আগামী তিনদিনের মধ্যে এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে আইনি প্রতিকার চেয়ে রিট আবেদন করা হবে।

নোটিশে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছাড়াও রেজিস্ট্রার, প্রক্টর, সামসুন্নাহার হলের প্রভোস্ট, কুয়েত-মৈত্রী হলের প্রভোস্ট এবং সুফিয়া কামাল হলের প্রভোস্টকে লিগ্যাল নোটিশে বিবাদী করা হয়।

এছাড়া আবাসিক হলে বিবাহিত মেয়েদের থাকার বিষয়ে বিধিনিষেধ আরোপ নিয়ে উদ্বেগ ও বিস্ময় প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ। একইসঙ্গে উদ্ভূত সমস্যার সমাধানে উচিত পদক্ষেপ নেওয়ারও আহ্বান জানিয়েছে এই নারী সংগঠনটি।


আরও খবর

ফের অবরুদ্ধ শাবি ভিসি !

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২




ওমিক্রনে যুক্তরাজ্যে ১২ জন মারা গেছেন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ ডিসেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাজ্যে ১২ জন মারা গেছেন। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় আরও ১০৪ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

সোমবার (২০ ডিসেম্বর) যুক্তরাজ্যের উপ-প্রধানমন্ত্রী ডমিনিক রাব দেশটির সংবাদমাধ্যম টাইমস রেডিওকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানিয়েছেন।

দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা বলেছেন, বর্তমানে ব্রিটেনে যে হারে ওমিক্রন সংক্রমণ বাড়ছে, তা অব্যাহত থাকলে সামনে বড় আকারের মানবিক বিপর্যয় দেখা দিতে পারে দেশটিতে।

তবে এমন সতর্কবার্তা দেয়া সত্ত্বেও আপাতত লকডাউনের কোনো পরিকল্পনা সরকারের নেই বলে জানিয়েছেন উপ-প্রধানমন্ত্রী। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ভাইরাসটি নতুন হওয়ায় এ বিষয়ে অনেক তথ্যই অজানা রয়ে গেছে। আমরা কিছুটা সময় নিচ্ছি এ সম্পর্কিত আরও বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য। তার আগ পর্যন্ত আমরা আপাতত কোনো কঠোর বিধিনিষেধ প্রণয়ন করছি না।

গত ২৭ নভেম্বর যুক্তরাজ্যে প্রথম ওমিক্রন শনাক্ত হয়।এর আগে ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম ওমিক্রন আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়।


আরও খবর

আবুধাবিতে ড্রোন হামলায় তিনজন নিহত

সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২