Logo
শিরোনাম

স্ত্রীর লাইভে সিনেমা থেকে দূরে থাকার কারণ জানান শাকিল খান

প্রকাশিত:সোমবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ১১০জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

১৯৯৭ সালে আমার ঘর আমার বেহেশত সিনেমার মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক ঘটে চিত্রনায়ক শাকিল খানের। ১০ বছরেরও কম সময় দারুণ জনপ্রিয়তা পান এই অভিনেতা।

তবে দীর্ঘদিন ধরে সিনেমা থেকে দূরে রয়েছেন তিনি। বর্তমানে ব্যবসা ও সংসার নিয়েই তার ব্যস্ততা।

শাকিল খানের স্ত্রী শারমিন হোসেন একজন নারী উদ্যোক্তা। তার একটি বুটিক হাউজ রয়েছে। ক্রেতাদের অনুরোধে সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) স্বামীকে তিনি তার ব্যবসায়ীক ফেসবুক পেজ থেকে লাইভে আসেন। আর স্ত্রীর লাইভে সিনেমা থেকে দূরে থাকার কারণ জানান শাকিল খান এবং ব্যবসা করতে স্ত্রীকে উৎসাহও দেন তিনি।

লাইভে এক দর্শক শাকিল খানকে প্রশ্ন করেন, তিনি কেনো এখন আর সিনেমায় অভিনয় করেন না? উত্তরে বিয়ের ফুলখ্যাত এই অভিনেতা হলেন, কারণ দেখাতে হলে অনেক কথা বলতে হয়। আপনারা জানেন, এক সময় সিনেমা ছিল বাংলাদেশে বিনোদনের সবচেয়ে বড় একটি মাধ্যম। কিন্তু এমন একটা সময় এলো, যখন সিনেমা নিয়ে মানুষের খারাপ ধারনা তৈরি হলো ও নির্মাণের মান খারাপ হলো। ঠিক তখনই আমি পেছনে চলে গেলাম। কারণ, আমি সবসময় চেয়েছি মানুষের কাছে সুন্দর কিছু উপস্থাপন করতে। চিন্তা ছিল সুন্দর ও ভালো কাজ উপহার দেওয়ার।

সিনেমায় ফেরা প্রসঙ্গে শাকিল খান বলেন, এখনো যে ভালো কিছু উপহার দেওয়ার ইচ্ছা নেই, বিষয়টি তা নয়। সামনে ভালো কিছু এলে চিন্তাভাবনা করবো। তবে জানি না সেটা কখন। অপেক্ষায় থাকতে হবে।

ব্যবসায় স্ত্রীকে উৎসাহ দিয়ে এই তারকা বলেন, আমি মনে করি সবার কিছু না কিছু করা দরকার। ওকে (স্ত্রী) নিয়ে আমি গর্ববোধ করি। অনেকে আমাকে বলেন ভাবি কাজ করেন-তাতে কী? আমি মনে করি এখন সকল নারীদের কাজ করার উচিৎ। তারা কাজ করলে দেশ এগিয়ে যাবে। পরিবার নিয়ে যাতে ভালো থাকতে পারি সবাই সেই দোয়া করবেন।

পরিবারকে নিয়ে অবসর কাটাতে কক্সবাজারে গিয়েছেন শাকিল খান। সমুদ্রের পার থেকে সস্ত্রীক ফেসবুক লাইভে যুক্ত হন তিনি।

নিউজ ট্যাগ: শাকিল খান
Share

আরও খবর



টিকা নেওয়ার পর কাজ করছি, সমস্যা হচ্ছে না: প্রধান বিচারপতি

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৬৮জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, আমরা করোনার টিকা নিয়েছি। টিকা নেওয়ার পর সোমবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) বিচারকাজ পরিচালনা করছি। কোনো সমস্যা হচ্ছে না। আপনারাও টিকা নিন। সোমবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) আপিল বিভাগে আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে প্রধান বিচারপতি এসব কথা বলেন।

এসময় অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন বলেন, আমরা কাল নেবো।

রবিবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) শুরু হওয়া টিকাদান কর্মসূচি উদ্বোধনের পরপরই প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনসহ সুপ্রিম কোর্টের ৫৫ বিচারপতি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধী টিকা নিয়েছেন।

Share

আরও খবর



একুশে ফেব্রুয়ারি ঘিরে বন্ধ থাকবে যেসব সড়ক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | ৫৯জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০২০ যথাযথ ও সুশৃঙ্খলভাবে উদযাপন করার জন্য ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি বেলা ২টা পর্যন্ত ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় জনসাধারণের চলাচল ও সব ধরনের যানবাহন নিয়ন্ত্রণের জন্য বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রবেশ

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রবেশের জন্য পলাশী ক্রসিং, এসএম হল এবং জগন্নাথ হলের সামনের রাস্তা ব্যবহার করা যাবে। অন্য কোনো রাস্তা ব্যবহার করে শহীদ মিনার এলাকায় ঢোকা যাবে না।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে বের হওয়া

শহীদ মিনার থেকে বের হওয়ার ক্ষেত্রে দোয়েল চত্বরের দিকের রাস্তা অথবা ঢাকা মেডিকেল কলেজের সামনের রাস্তা ব্যবহার করতে হবে। ঢোকার রাস্তা দিয়ে বের হওয়া যাবে না।

যেসব রাস্তা বন্ধ থাকবে

১। বকশিবাজার-জগন্নাথহল ক্রসিং সড়ক

২। চাঁনখারপুল-রোমানা চত্বর ক্রসিং সড়ক

৩। টিএসসি-শিববাড়ী মোড় ক্রসিং

৪। উপচার্য ভবন-ভাস্কর্য ক্রসিং (ফুলার রোড)

ডাইভারশন

(ক) ১৯ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২০ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা পর্যন্ত রাস্তায় আলপনা আঁকানোর জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের রাস্তা বন্ধ থাকবে। ওই সময় শিববাড়ী, জগন্নাথ হল ও রোমানা চত্বর ক্রসিংগুলোতে গাড়ি ডাইভারশন করে দেওয়া হবে।

(খ) ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি দুপুর ২টা পর্যন্ত নীলক্ষেত, পলাশী মোড়, ফুলার রোড, বকশীবাজার, চাঁনখারপুর, শহিদুল্লাহ হল, দোয়েল চত্বর, জিমনেশিয়াম, রোমানা চত্বর, হাইকোর্ট, টিএসসি, শাহবাগ ইন্টারসেকশনগুলোতে গাড়ি ডাইভারশন করে দেওয়া হবে।

(গ) ২১ ফেব্রুয়ারি ভোর ৫টা থেকে সাইন্সল্যাব হতে নিউমার্কেট ক্রসিং, কাঁটাবন ক্রসিং হতে নীলক্ষেত ক্রসিং এবং ফুলবাড়িয়া ক্রসিং হতে চাঁনখারপুল ক্রসিং পর্যন্ত প্রভাতফেরি উপলক্ষে সকল প্রকার যাত্রীবাহী গাড়ি প্রবেশ নিষিদ্ধ থাকবে।

গাড়ি পার্কিং

(ক) একুশের প্রথম প্রহরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জিমনেশিয়াম মাঠে ভিআইপি গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকবে।

(খ) নীলক্ষেত-পলাশী, পলাশী-ঢাকেশ্বরী সড়কে গাড়ি পার্ক করা যাবে।

সাধারণ নির্দেশনা

(ক) কবরস্থান এবং শহীদ মিনারে যারা শ্রদ্ধার্ঘ অর্পণ করতে যাবেন তাদের অসুবিধার কথা বিবেচনায় রাস্তায় বসা বা দাঁড়িয়ে থাকা থেকে বিরত থাকতে হবে।

(খ) সর্বসাধারণের চলাচলের সুবিধার জন্য উপরে বর্ণিত রাস্তায় কোনো প্রকার প্যান্ডেল তৈরি করা যাবে না।

(গ) শহীদ মিনারে প্রবেশের ক্ষেত্রে আর্চওয়ের মাধ্যমে নিরাপত্তা তল্লাশী শেষ করে সবাইকে প্রবেশ করতে হবে।

(ঘ) শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ হতে প্রচারকৃত নির্দেশনা মেনে চলতে হবে।

(ঙ) কোন ধরনের ব্যাগ বহন করা যাবে না।

(চ) যে কোন পুলিশি প্রয়োজনে শহীদ মিনার এলাকায় স্থাপিত অস্থায়ী পুলিশ কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করা যাবে।

Share

আরও খবর



২৪ ঘন্টায় দেশে নতুন করোনা শনাক্ত ৪৮৫

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৮৭জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মহামারি করোনা ভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরও ১৩ জন। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮ হাজার ১৭৫ জনে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও ৪৮৫ জনের শরীরে। এ নিয়ে দেশে মোট করোনা শনাক্ত দাঁড়াল ৫ লাখ ৩৭ হাজার ৩০ জন।

বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে করোনাভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংস্থার অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এদিন সুস্থ হয়েছেন আরও ৬১১ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৮১ হাজার ৯১৭ জন।

এর আগে বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দেশে আরও ৫২৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে মারা যান ১৩ জন।

এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০ কোটি ৪৯ লাখ ১ হাজার ৭০৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২২ লাখ ৭৮ হাজার ৪৪০ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন সাত কোটি ৬৬ লাখ ২৯ হাজার ৪৩৪ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন দুই কোটি ৭১ লাখ ৫০ হাজার ৪৫৭ জন। মৃত্যু হয়েছে চার লাখ ৬১ হাজার ৯৩০ জনের।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস
Share

আরও খবর

বিশ্বে করোনায় সুস্থ ৯ কোটি

সোমবার ০১ মার্চ ২০২১




কেড়ে নেয়া হয়েছে পাপুলের সংসদ সদস্য পদ

প্রকাশিত:সোমবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ মার্চ 2০২1 | ৬২জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সিদ্ধান্তে তার সংসদ সদস্য পদ কেড়ে নেয়া হয়েছে। এর আগে বিষয়টি নিয়ে সংসদ সচিবালয়ে স্পিকার সংশ্লিষ্টদের নিয়ে আলোচনা করেন। এসময় কুয়েত থেকে পাঠানো পাপুলের মামলার রায়ের

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের সংসদ সদস্য পদ বাতিল করা হয়েছে। সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সংসদ সচিবালয় এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে।

সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, কুয়েতে ফৌজদারি অপরাধে চার বছর সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত হওয়ায় লক্ষ্মীপুর-২ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য শহিদ ইসলাম বাংলাদেশের সংবিধানের ৬৬ (২) (ঘ) অনুচ্ছেদের বিধান অনুযায়ী সংসদ সদস্য পদ থাকার যোগ্য নয়। সেই কারণে সংবিধানের ৬৭ (১) (ঘ) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রায় ঘোষণার তারিখ ২৮ জানুয়ারি হতে তার আসন শূন্য হয়েছে।

মানব ও অর্থপাচারের দায়ে কুয়েতের আদালতের রায়ে দণ্ডিত হওয়ায় সংসদ সদস্য পদ হারালেন তিনি। বাংলাদেশের ইতিহাসে তিনি প্রথম এমপি যিনি বিদেশে আটক ও ফৌজদারি অপরাধে দণ্ডিত হওয়ার পর পদ হারালেন।

জানা যায়, স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সিদ্ধান্তে তার সংসদ সদস্য পদ কেড়ে নেয়া হয়েছে। এর আগে বিষয়টি নিয়ে সংসদ সচিবালয়ে স্পিকার সংশ্লিষ্টদের নিয়ে আলোচনা করেন। এসময় কুয়েত থেকে পাঠানো পাপুলের মামলার রায়ের কপি পর্যালোচনা করা হয়। আরবি ও ইংরেজিতে লেখা ৬১ পৃষ্ঠার রায়ের কপি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের স্পিকারের দফতরে ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠায়। সংবিধান, কার্যপ্রণালি বিধি ও আইন অনুযায়ী এখন তার আর সংসদ সদস্য পদ নেই।

অর্থ ও মানবপাচারের মামলায় গত ২৮ জানুয়ারি পাপুলকে চার বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন কুয়েতের আদালত। পাশাপাশি তাকে ১৯ লাখ কুয়েতি দিনার বা ৫৩ কোটি টাকা জরিমানাও করা হয়। গত বছরের ৬ জুন রাতে কুয়েতের বাসা থেকে আটক করা হয় পাপুলকে। আটকের সাড়ে সাত মাস আর বিচারপ্রক্রিয়া শুরুর সাড়ে তিন মাসের মাথায় দণ্ডিত হন তিনি।

সংবিধানের ৬৬ অনুচ্ছেদে বলা আছে- কোনো ব্যক্তি সংসদের সদস্য নির্বাচিত হওয়ার এবং সংসদ সদস্য থাকার যোগ্য হবেন না, যদি- (ক) কোনো উপযুক্ত আদালত তাকে অপ্রকৃতিস্থ ঘোষণা করে,(খ) তিনি দেউলিয়া ঘোষিত হওয়ার পর দায় হতে অব্যাহতি না পেয়ে থাকেন, (গ) তিনি যদি কোনো বিদেশি রাষ্ট্রের নাগরিকত্ব অর্জন করেন কিংবা কোনো বিদেশি রাষ্ট্রের প্রতি আনুগত্য ঘোষণা বা স্বীকার করেন, (ঘ) তিনি নৈতিক স্খলনজনিত কোনো ফৌজদারি অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়ে অন্যূন দুই বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন এবং মুক্তির পর পাঁচ বছর অতিবাহিত না হয়ে থাকে।

বাংলাদেশের সংবিধানের ৬৬(২) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, নৈতিক স্খলনজনিত কোনো ফৌজদারি অপরাধে দুই বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হলে মুক্তি পাওয়ার পর পাঁচ বছর পর্যন্ত তিনি আর সংসদ সদস্য হওয়ার যোগ্য বিবেচিত হন না।

Share

আরও খবর



বিএনপি দেশবিরোধী প্রচারণায় লিপ্ত: কাদের

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ মার্চ ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
Share
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
সরকার বিরোধিতার নামে অনবরত মিথ্যাচার করছে বিএনপি। বিএনপি ১৯৯৬ সালে প্রহসনের নির্বাচন করেছিল। কোন অপকর্মকারীর ঠাঁই আওয়ামী লীগে হবে না

দেশবিরোধী প্রচারণায় লিপ্ত হয়েছে বিএনপি। দেশ বিরোধী বা মুক্তিযুদ্ধবিরোধী কোন ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দাঁত ভাঙা জবাব দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে ১৯৯৬ এর ১৫ ফেব্রুয়ারি বিএনপির প্রহসনের জাতীয় নির্বাচনের প্রতিবাদে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সমাবেশে বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ফারুক খান, কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, শিক্ষামন্ত্রী ডাক্তার দীপুমনি, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম।  এছাড়া ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সমাবেশে বক্তব্য রাখেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকার বিরোধিতার নামে অনবরত মিথ্যাচার করছে বিএনপি। বিএনপি ১৯৯৬ সালে প্রহসনের নির্বাচন করেছিল। কোন অপকর্মকারীর ঠাঁই আওয়ামী লীগে হবে না। দল করতে হলে দলের শৃঙ্খলা মেনে চলতে হবে। ঘরে বসে কমিটি দিয়ে আওয়ামী লীগ চলবে না। দলের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির ষড়যন্ত্র চলছে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ফারুক খান বলেন, বিএনপি গণতান্ত্রিক দল নয়। বিএনপি-জামাতের বিষয়ে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। তাদের ষড়যন্ত্র মেনে নেয়া হবে না। কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, জনগণ বিএনপির সঙ্গে নেই। দেশে নানান ষড়যন্ত্র চলছে। সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। ষড়যন্ত্র করে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতাচ্যুত করা যাবে না। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপুমনি বলেন, দেশের নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছিল বিএনপি। অপশক্তিরা গণতন্ত্রের নামে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে। সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি।

Share

আরও খবর