Logo
শিরোনাম

শূন্যপদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে পরিবার-পরিকল্পনা কার্যালয়

প্রকাশিত:রবিবার ২৯ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১২৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শূন্যপদে জনবল নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে পাবনা জেলা পরিবার-পরিকল্পনা কার্যালয়।  রাজস্ব খাতের চার পদে ৯৮ জনবল নেবে প্রতিষ্ঠানটি।  তবে এসব পদে শুধু পাবনা জেলার স্থায়ী বাসিন্দারা আবেদন করতে পারবেন।  আগামী ৬ সেপ্টেম্বর থেকে আবেদন করা যাবে অনলাইনে।

পদের নাম : পরিবার-পরিকল্পনা সহকারী (গ্রেড-১৫)

পদ সংখ্যা: ৩ জন

আবেদনের যোগ্যতা: কোনো স্বীকৃত বোর্ড থেকে উচ্চমাধ্যমিক বা সমমান পরীক্ষায় পাস।

বেতন: ৯৭০০/- থেকে ২৩৪৯০/-

পদের নাম : পরিবার-পরিকল্পনা পরিদর্শক (গ্রেড-১৬)

পদ সংখ্যা: ৮ জন (পুরুষ)

আবেদনের যোগ্যতা: কোনো স্বীকৃত বোর্ড থেকে উচ্চমাধ্যমিক বা সমমান পরীক্ষায় পাস।

বেতন: ৯৩০০/- থেকে ২২৪৯০/-

পদের নাম: পরিবারকল্যাণ সহকারী (গ্রেড ১৭)

পদ সংখ্যা: ৮৬ জন (নারী)

আবেদনের যোগ্যতা: কোনো স্বীকৃত বোর্ড থেকে মাধ্যমিক বা সমমান পরীক্ষায় পাস।

বেতন: ৯০০০/- থেকে ২১৮০০/-

পদের নাম: আয়া (গ্রেড ২০)

পদ সংখ্যা: ১ জন (নারী)

আবেদনের যোগ্যতা: ৮ম শ্রেণি বা সমমান পাস।

বেতন: ৮২৫০/- থেকে ২০০১০/-

বয়স: আগ্রহী প্রার্থীর বয়স ২০২০ সালের ২৫ মার্চ হিসাবে ১৮-৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে; প্রতিবন্ধী ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে বয়স সর্বোচ্চ ৩২ বছর।

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহী প্রার্থীরা http://dgfppab.teletalk.com.bd -এ ওয়েবসাইট থেকে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: আগ্রহীরা ২০২১ সালের ৫ অক্টোবর বিকাল ৫টা পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।


আরও খবর

পুলিশে কনস্টেবল পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

শুক্রবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১




করোনা : রাজশাহী মেডিকেলে আরও ১০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গেল ২৪ ঘণ্টায় আরও ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বুধবার সকাল ৮টার মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, মৃতদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চারজন ও উপসর্গে চারজন মারা গেছেন। এছাড়া নেগেটিভ হওয়ার পরও অন্য জটিলতায় দুইজনের মৃত্যু হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে মারা যাওয়া ১০ জনের মধ্যে রাজশাহীর তিন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের চার, নাটোরের দুই ও নওগাঁর একজন আছেন।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে নতুন ভর্তি হয়েছেন ১৯ জন। বর্তমানে রামেক হাসপাতালে ২৮৬টি করোনা ডেডিকেটেড শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি আছেন ১৪৫ জন।


আরও খবর

রামেকের করোনা ওয়ার্ডে আরও ৭ জনের প্রাণহানি

বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১




একুশে আগস্ট মামলার রায় যত দ্রুত সম্ভব কার্যকর হবে : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২০ আগস্ট ২০21 | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১০৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ২১ আগস্ট বাংলাদেশের ইতিহাসে এক কলঙ্কময় দিন। এ হামলা মামলার রায় ঘোষণার মধ্য দিয়ে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা পেয়েছে।

তিনি জানান, সব আইনি বিধিবিধান এবং প্রক্রিয়া অনুসরণ করে যত দ্রুত সম্ভব এ রায় কার্যকর হবে। একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার (২০ আগস্ট) দেওয়া এক বাণীতে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী প্রত্যাশা ব্যক্ত করে বলেন, এ রায় কার্যকরের মাধ্যমে দেশ থেকে হত্যা, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের চির অবসান হবে। বাংলাদেশ আগামী প্রজন্মের জন্য একটি নিরাপদ ও শান্তিপূর্ণ আবাসভূমিতে পরিণত হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সরাসরি পৃষ্ঠপোষকতায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী সমাবেশে বর্বরতম গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। এ হামলার মূল লক্ষ্য ছিল স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্র এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ভূলুণ্ঠিত করা। আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশকে নেতৃত্বশূন্য করে হত্যা, ষড়যন্ত্র, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস ও দুর্নীতি এবং দুঃশাসনকে চিরস্থায়ী করা। তবে আল্লাহর রহমত ও জনগণের দোয়ার কারণে অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যাই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সেদিন মানববর্ম তৈরি করে আমাকে রক্ষা করেন। তবে সন্ত্রাসীদের গ্রেনেড হামলায় বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সভানেত্রী বেগম আইভি রহমানসহ ২২ জন নেতাকর্মী মৃত্যুবরণ করেন। আহত হয়েছিলেন পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী, সাংবাদিক ও নিরাপত্তাকর্মী। তাদের অনেকে পঙ্গুত্ব বরণ করেছেন, অনেকে শরীরে স্প্লিন্টার নিয়ে দুর্বিষহ জীবনযাপন করছেন। একুশে আগস্টের শহিদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা ও আহতদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট যখনই সরকারে এসেছে, জঙ্গি ও সন্ত্রাসীদের মদদ দিয়ে এ দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র বানানোর অপচেষ্টা করেছে। ২০০১ সালে নির্বাচনে কারচুপি করে ক্ষমতায় এসে সারা দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে। একের পর এক বোমা হামলা, গ্রেনেড হামলা চালিয়ে জঙ্গিবাদী রাষ্ট্রে পরিণত করার চেষ্টা করে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী সমাবেশে গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। এ নারকীয় হামলা ও হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করে বিচার করা ছিল সরকারের নৈতিক দায়িত্ব। তবে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার কোনো পদক্ষেপ না নিয়ে উল্টো হত্যাকারীদের রক্ষা করতে ধরনের ব্যবস্থা করেছিল। হামলাকারীদের বিদেশে পালিয়ে যাবার সুযোগ করে দেয়। গুরুত্বপূর্ণ সব আলামতও ধ্বংস করে। তদন্তের নামে এই নৃশংস হত্যাকাণ্ডকে ভিন্ন খাতে নিয়ে যায়। রাষ্ট্রযন্ত্রকে অপব্যবহার করে তারা জনগণকে ধোঁকা দিতে জজ মিয়া নাটক মঞ্চস্থ করে। তবে সত্য কোনো দিন চাপা থাকেনি। পরবর্তীকালে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে বেরিয়ে আসে বিএনপি-জামায়াত জোটের অনেক কুশীলব এ হামলার সাথে সরাসরি জড়িত ছিল।

নারকীয় ওই হামলা মামলার রায়ের প্রসঙ্গ টেনে তিনি তার বাণীতে বলেন, দীর্ঘ ১৪ বছর পর ২০১৮ সালের অক্টোবরে একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায় হয়। আদালত গ্রেনেড হামলার সাথে জড়িত থাকার দায়ে বিএনপি নেতা সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবেক উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড দেন। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বিদেশে পলাতক তারেক রহমান, হারিছ চৌধুরীসহ ১৯ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত। এছাড়া বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয় ১১ আসামির। এই রায়ের মাধ্যমে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা পেয়েছে, জাতি কলঙ্কমুক্ত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াতের সকল অপচেষ্টা ও ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করে জনগণ ২০০৮ সালে নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে পুনরায় বিপুল ভোটে বিজয়ী করে। ২০০৯ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে সরকার গঠন করে মানুষের ভাগ্যোন্নয়নের জন্য আওয়ামী লীগ নিরলসভাবে কাজ করছে। প্রতিহিংসার রাজনীতি বাদ দিয়ে দেশে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করেছে আওয়ামী লীগ। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করায় দেশে শান্তি ও গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা পেয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গত সাড়ে ১২ বছরে সরকার দেশের সব সেক্টরে কাঙ্ক্ষিত অগ্রগতি অর্জন করেছে। আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের জন্য রোল মডেল। আমরা আজ আত্মমর্যাদাশীল দেশ হিসেবে বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পেরেছি। আমরা জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করছি। এই সময়ে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা অর্জন করেছে। বর্তমান প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের মহামারির মধ্যেও আমরা আমাদের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে পেরেছি। আমাদের সরকার ২০৪১ সালের মধ্যে জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত ও সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলতে নিরলসভাবে কাজ করছে।


আরও খবর



এসআই-সার্জেন্ট পদে নিয়োগ নতুন নিয়মে : আইজিপি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
উদ্ভাবনী পুলিশিংয়ের ওপর জোর দিয়ে পুলিশ প্রধান বলেন, পুলিশিংয়ের ক্ষেত্রে উদ্ভাবনী কৌশল ব্যবহার করতে হবে। পুলিশে বেস্ট প্র্যাকটিসের চর্চা বাড়াতে হবে

ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, নতুন নিয়মে মেধা ও শারীরিক দিক থেকে অধিকতর যোগ্যতা সম্পন্ন পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগ দেওয়া হবে। অচিরেই পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর এবং সার্জেন্ট পদেও নতুন নীতিমালা অনুযায়ী নিয়োগ করা হবে। পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন দেশ এবং উন্নত অনেক দেশের নিয়োগ নীতিমালা পর্যালোচনা করে বাংলাদেশ পুলিশের উপযোগী কনস্টেবল নিয়োগ নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়েছে।

আইজিপি আজ মঙ্গলবার তিন দিনব্যাপী অপরাধ পর্যালোচনা সভার শেষ দিনে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে সমাপনী বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের হল অব ইন্টেগ্রিটিতে এ সভায় পুলিশের কোনো সদস্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে ছাড় দেওয়া হবে না উল্লেখ করে আইজিপি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট নির্দেশনায় দেশ ও জনগণের কল্যাণে দুর্নীতিমুক্ত পুলিশ বাহিনী গড়ে তুলতে সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

তিনি বলেন, পুলিশের কোনো সদস্যের মাদকের সাথে কোনো ধরনের সংশ্লেষ থাকতে পারবে না। কারো যদি মাদকের সাথে কোনো ধরনের সম্পৃক্ততা থাকে তাহলে তাকে বেরিয়ে আসতে হবে। কোনো পুলিশ সদস্যের মাদক গ্রহণ, মাদক ব্যবসা বা মাদক ব্যবসায়ির সাথে সম্পর্ক রয়েছে প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পুলিশ বাহিনী, দেশ ও জনগণ ক্ষতিগ্রস্থ হয়, পুলিশ সদস্য হিসেবে এমন কোনো কাজ করা যাবে না।

পুলিশকে একটি সুশৃঙ্খল বাহিনী উল্লেখ করে আইজিপি বলেন, বাহিনীর শৃঙ্খলা এবং কল্যাণ এক বিষয় নয়। শৃঙ্খলাকে কল্যাণের সাথে মিলিয়ে ফেলা যাবে না। বাহিনীর শৃঙ্খলা রক্ষার বিষয়ে কোনো ধরনের আপোষ করা যাবে না। কোনো পুলিশ সদস্য শৃঙ্খলা ভঙ্গ করলে তার বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পাশাপাশি পুলিশ সদস্যদের কল্যাণও নিশ্চিত করা হবে।

উদ্ভাবনী পুলিশিংয়ের ওপর জোর দিয়ে পুলিশ প্রধান বলেন, পুলিশিংয়ের ক্ষেত্রে উদ্ভাবনী কৌশল ব্যবহার করতে হবে। পুলিশে বেস্ট প্র্যাকটিসের চর্চা বাড়াতে হবে। তিনি সাধারণ মানুষের প্রতি আচরণ বদলানোর আহবান জানিয়ে বলেন, মানুষের প্রতি অমানবিক আচরণ করা থেকে বিরত থাকতে হবে। এজন্য প্রয়োজন দৃষ্টিভঙ্গি বদলানো।

মামলা তদন্ত পুলিশের প্রধান দায়িত্ব উল্লেখ করে আইজিপি বলেন, মামলা তদন্তের মান আরো বাড়াতে হবে। তদন্তের প্রতি অত্যন্ত মনোযোগী হতে এবং তদারকি বাড়াতে তিনি মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন।

আইজিপি বলেন, কোনো সাধারণ নাগরিক যাতে সাইবার ক্রাইমের শিকার না হন, সেই জন্য সোশ্যাল মিডিয়া নিয়মিত মনিটর করতে হবে। তিনি পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যদের সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের ক্ষেত্রে সরকারের ও পুলিশ বাহিনীর অনুশাসন মেনে চলার নির্দেশ দেন।

পুলিশ প্রধান বলেন, অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার ও বৈধ অস্ত্রের অবৈধ ব্যবহার বন্ধ করতে হবে। বর্তমানে দেশের বিভিন্ন স্থানে মেগা প্রজেক্ট বাস্তবায়িত হচ্ছে। এসব প্রজেক্টে অনেক বিদেশি নাগরিক কাজ করছেন। তাদের যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। আগামীতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে।

পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে আইজিপি বলেন, শুধু চাকরি করলে হবে না। চাকরিতে প্রাইড নিয়ে আসতে হবে। এজন্য মানসিকতা ও মনস্তাত্ত্বিক পরিবর্তন আনতে হবে। তিনি দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করতে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের প্রতি আহবান জানান।

নিউজ ট্যাগ: ড. বেনজীর আহমেদ

আরও খবর

অভিভাবকরা স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১




মন শান্ত রাখতে খান এসব খাবার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বেঁচে থাকার লড়াইয়ে দুশ্চিন্তা কিংবা অ্যাংজাইটির মতো সমস্যা এখন বিশ্বব্যাপী। মনের ভেতর অস্থিরতা কাজ করলে তার প্রভাব শরীরে পড়বেই। এই চাপ নিয়ন্ত্রণে মেডিটেশনের পাশাপাশি কিছু খাবার খেতে হবে। জেনে নিন সেসব খাবার সম্পর্কে-

অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ খাবার :

সাইট্রাস এবং বেরি জাতীয় খাবারে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে। মন থেকে অস্থিরতা তাড়িয়ে মন শান্ত করতে খেতে পারেন এ জাতীয় খাবার। সেইসঙ্গে ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার রাখুন তালিকায়। পাশাপাশি ভিটামিন ই সমৃদ্ধ খাবার, যেমন- কুমড়ো, তরমুজ এবং ফ্ল্যাক্স সিড ইত্যাদি খেতে পারেন। এসব খাবার মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়ায়, কমায় বিভিন্ন ধরনের দুশ্চিন্তা।

ডার্ক চকলেট ও হলুদ দুধ :

চকলেট খেতে ভালোবাসেন না এমন মানুষ কমই আছে। কিন্তু সেই চকলেট যেন ডার্ক হয়, সেদিকে খেয়াল রাখবেন। কারণ, এই চকলেট আপনার মন শান্ত করতে সাহায্য করবে। পাশাপাশি পান করুন হলুদ মিশ্রিত দুধ। দুধে থাকে ভিটামিন ডি এবং হলুদে পাবেন কারকিউমিন। এগুলো হলো অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি। এসবে যেহেতু অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট উপাদান রয়েছে, তাই এগুলো আপনার মস্তিষ্ক শান্ত রাখতে সাহায্য করবে।

ভিটামিন বি সমৃদ্ধ খাবার :

প্রতিদিনের খাবারে সব ধরনের ভিটামিনের উপস্থিতি নিশ্চিত করুন। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, ভিটামিন বি আমাদের স্নায়ুতন্ত্রের ওপর বিশেষ প্রভাব রাখতে পারে। তাই নিয়মিত ভিটামিন বি সমৃদ্ধ খাবার রাখুন তালিকায়। যেমন- মাছ, ডিম এবং বিভিন্ন সবজি খেতে পারেন। এ ধরনের খাবার আপনার অ্যাংজাইটি কমিয়ে দেবে।

প্রোবায়োটিক্স এবং ভালো ফ্যাট :

আমাদের পেটের স্বাস্থ্য ভালো রাখে প্রোবায়োটিক্স। তবে শুধু পেটই নয়, এটি মন শান্ত রাখতেও সাহায্য করে। প্রতিদিন খাবারের তালিকায় প্রোবায়োটিক্স রাখলে বাড়ে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা। তাই আপনার খাবারে প্রোবায়োটিকের পাশাপাশি যোগ করুন ভালো ফ্যাটও। হতে পারে তা ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। বিভিন্ন ধরনের মাছ, ফ্ল্যাক্স সিড, বাদাম ও নারিকেল তেলে পেতে পারেন এই ফ্যাট।

অন্ত্র এবং গাট এর ব্যাকটেরিয়া সেরোটোনিনের মতো হরমোন নিঃসরণ করে। এই হরমোন আমাদের মেজাজের ওপর প্রভাব ফেলে। তাই নিয়মিত প্রোবায়োটিক সমৃদ্ধ খাবার খেলে তা আপনার মস্তিষ্কেও প্রভাব ফেলবে। নিয়মিত টক দই রাখুন পাতে। এটি আপনার মন শান্ত রাখবে।


আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

প্রথম প্রেম দিবস আজ

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১




পেলে ফের আইসিইউতে

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হাসপাতাল থেকে বাসায় ফেরার সাতদিনের মাথায় আবারও হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি পেলে। স্থানীয় সময় শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) তাকে সাও পাওলোর একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাখা হয়েছে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র তথা আইসিইউতে। খবর রয়টার্সের।

চলতি মাসের শুরুতে তার কোলন টিউমার অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল। এরপর সাতদিন আগে তাকে হাসাপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। শুক্রবার তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে সাও পাওলোর আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালের আইসিইউ কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। ৮০ বছর বয়সী তিনবারের এই বিশ্বকাপ জয়ী তারকাকে সার্বক্ষণিক ডাক্তারি পরিচর্যার মধ্যে রাখা হয়েছে। তবে হাসপাতাল থেকে এর বেশি কিছু জানানো হয়নি।

তবে পেলের মেয়ে কেলি নাসিমেন্ত জানিয়েছেন তারা বাবার অবস্থা বর্তমানে স্বাভাবিক রয়েছে। এ বিষয়ে তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী অনেকেই আমার বাবার অসুস্থতা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন। তাদের আর অস্থিরতার মধ্যে রাখতে চাই না। তিনি স্বাভাবিক আছেন। স্বাভাবিকভাবেই সেরে উঠছেন।

পেলে লম্বা সময় ধরে নিতম্বের সমস্যায় ভুগছেন এবং ঠিকমতো হাঁটতে পারেন না। তাছাড়া করোনার কারণে তিনি জনসম্মুখে আসেন না বললেই চলে। তার সান্তোসের বাড়ির আঙ্গিনায় গুটিকয়েকবার দেখা গেছে তাকে। পেলে ব্রাজিলের হয়ে ৯২ ম্যাচ খেলেছিলেন। গোল করেছিলেন ৭৭টি। যা ব্রাজিলের হয়ে করা যেকোনো খেলোয়াড়ের সর্বোচ্চ।


আরও খবর

জেমিকে অব্যাহতি, নতুন কোচ অস্কার ব্রুজন

শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

পিসিবি অবুঝের মতো আচরণ করছে : আমির

বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১