Logo
শিরোনাম

টিকটকে ভিডিওপ্রতি খাবির আয় সাড়ে সাত লাখ ডলার!

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হালের জনপ্রিয় শর্ট ভিডিও প্ল্যাটফর্ম টিকটকে সবচেয়ে বেশি অনুসারী তাঁর। কোনো কথা বলেন না, কেবল মুখভঙ্গির মাধ্যমে কোটি কোটি মানুষের মন জয় করে নিয়েছেন এই কনটেন্ট ক্রিয়েটর। টিকটক ব্যবহারকারীরা যাকে এক নামে চেনে, তিনি খাবি লেম।

২২ বছর বয়সী কৃষ্ণাঙ্গ যুবক খাবির আসল নাম খাবানে লেম। জন্ম আফ্রিকার দেশ সেনেগালে। বর্তমানে তিনি পরিবারের সঙ্গে ইতালিতে বাস করছেন। করোনা মহামারির শুরুর দিকে টিকটকে অ্যাকাউন্ট খোলেন।

এরই মধ্যে বিশ্বজুড়ে পরিচিতি পেয়েছেন খাবি। টিকটকে তাঁর অনুসারীর সংখ্যা ১৪ কোটি ৯৫ লাখ। চলতি বছরের জুন মাসেই সর্বোচ্চ অনুসারী নিয়ে শীর্ষ টিকটকারের খেতাব পেয়েছেন।

জনপ্রিয় এই টিকটকার প্রতি ভিডিওতে কত আয় করেন, তা শুনলে চোখ কপালে উঠবে যে কারো। মানি কন্ট্রোলের প্রতিবেদনে জানা যায়, সম্প্রতি একটি ভিডিওতেই তিনি আয় করেছেন বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৮ কোটি টাকা।

এক সাক্ষাৎকারে খাবি লেম জানিয়েছেন, তাঁর বেশির ভাগ আয় আসে অনলাইন কনটেন্ট আকারে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের সঙ্গে চুক্তির মাধ্যমে। যেকোনো ব্র্যান্ডের জন্য টিকটকে একটি ভিডিও ক্লিপ পোস্ট করার মাধ্যমে গড়ে ৪ লাখ ডলার আয় করেন তিনি। সম্প্রতি একটি টিকটক ভিডিওর জন্য খাবি লেম আয় করেছেন সাড়ে ৭ লাখ ডলার, অর্থাৎ বর্তমান বিনিময় হার অনুযায়ী প্রায় ৮ কোটি টাকা।

২০২০ সালে করোনা মহামারির শুরুর দিকে স্রেফ শখের বশে টিকটকে যোগ দেন খাবি লেম। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই টিকটকে লাখ লাখ অনুসারী তৈরি হয় তাঁর এবং দুই বছরের মধ্যে শীর্ষ টিকটকার হিসেবে পরিচিতি পান তিনি।

খাবি ইংরেজি জানেন না। সম্প্রতি এই টিকটকার ইংরেজি ভাষা শেখার চেষ্টা করছেন। বাড়িতে শিক্ষক রেখে ইংরেজি চর্চা তো করছেনই, পাশাপাশি আমেরিকান কার্টুন, সিনেমাও দেখছেন প্রতিদিন। খাবি লেমের ইচ্ছা অভিনেতা হওয়ার।


আরও খবর



আজ থেকে সয়াবিন তেল ১৭৮ টাকা লিটার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ১০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশের বাজারে সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ১৪ টাকা কমানো হয়েছে। সোমবার বাংলাদেশ ভেজিটেবল ওয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যারার্স অ্যাসোসিয়েশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। আজ মঙ্গলবার থেকে নতুন এই দাম কার্যকর হচ্ছে।

বোতলজাত প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১৭৮ টাকা, যা এতদিন ছিল ১৯২ টাকা। আর পাঁচ লিটারের বোতলের দাম হবে ৮৮০ টাকা যা এতদিন ছিল ৯৪৫ টাকা।

সোমবার (৩ অক্টোবর) বাংলাদেশ ভেজিটেবল ওয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যারার্স অ্যাসোসিয়েশন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই বিষয়টি জানানো হয়। মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) থেকেই এই দাম কার্যকর হবে বলে জানানো হয়েছে।

নতুন নির্ধারিত দাম কার্যকর হওয়ার পরেও কোথাও বেশি দামে সয়াবিন তেল বিক্রি হলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।


আরও খবর

৩১ ডিসেম্বরের পর পাম অয়েল বিক্রি বন্ধ

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




তোয়াব খানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক

প্রকাশিত:শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

একুশে পদকপ্রাপ্ত বর্ষীয়ান সাংবাদিক ও দৈনিক বাংলার সম্পাদক তোয়াব খানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এর আগে শনিবার (১ অক্টোবর) বেলা ১২টা ৪০ মিনিটে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৮৭ বছর বয়সে মারা যান জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক তোয়াব খান।

মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের পর দৈনিক পাকিস্তান থেকে বদলে যাওয়া দৈনিক বাংলার প্রথম সম্পাদক ছিলেন তোয়াব খান। ১৯৭২ সালের ১৪ জানুয়ারি দৈনিক বাংলার সম্পাদকের দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন তিনি।

১৯৫৩ সালে সাপ্তাহিক জনতার মাধ্যমে সাংবাদিকতায় তোয়াব খানের হাতেখড়ি। এরপর দৈনিক সংবাদে কাজ করেন। ১৯৭৩ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রেসসচিব ছিলেন তোয়াব খান। দেশের প্রধান তথ্য কর্মকর্তা ও প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশের (পিআইবি) মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

দৈনিক বাংলায় যোগ দেওয়ার আগে দৈনিক জনকণ্ঠের উপদেষ্টা সম্পাদক ছিলেন সর্বজনশ্রদ্ধেয় এই সাংবাদিক। ২০১৬ সালে একুশে পদকে ভূষিত হন তিনি। এরপর গত বছরের ৬ অক্টোবর নতুন ব্যবস্থাপনায় প্রকাশিত দৈনিক বাংলার সম্পাদকের দায়িত্ব নেন তিনি।

মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে শব্দসৈনিকের ভূমিকা পালন করেন তোয়াব খান। তখন তার আকর্ষণীয় উপস্থাপনায় নিয়মিত প্রচারিত হয় পিন্ডির প্রলাপ নামের একটি অনুষ্ঠান।


আরও খবর



ফোনে হুমকির অভিযোগ অরুণা বিশ্বাসের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মোবাইল ফোনে একটি নম্বর থেকে প্রতিনিয়ত হুমকি-ধমকি আর অশ্লীল কথা বলা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন ঢাকাই সিনেমায় এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী অরুণা বিশ্বাস। রবিবার বিকেলে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এই অভিযোগ করেন অরুণা বিশ্বাস। একটি ফোন নম্বর উল্লেখ করে তিনি লিখেছেন, এই নম্বর থেকে প্রতিনিয়ত হুমকি, ধামকি আর অশ্লীল কথা বলা হচ্ছে। ট্রু কলারে নাম দেখানো হচ্ছে মনি। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলে জানিয়েছেন অরুণা বিশ্বাস।

সরকারি অনুদানের অসম্ভব সিনেমা দিয়ে পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছেন অরুণা বিশ্বাস। ১৯৮৪ সালে চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে অরুণা বিশ্বাসের। নায়করাজ রাজ্জাক পরিচালিত চাপাডাঙার বউ ছবিতে বাপ্পারাজের সঙ্গে জুটি বেঁধে তিনি চলচ্চিত্রে হাজির হন। তারপর থেকেই সাফল্যের পথ পাড়ি দিয়েছেন। ক্যারিয়ারে ইলিয়াস কাঞ্চন, রুবেল, মান্নাসহ দেশবরেণ্য আরও অনেক নায়কের সঙ্গেই জুটি বেঁধেছেন তিনি।

এই অভিনেত্রী জন্মেছেন সংস্কৃতিমনা এক পরিবারে। তার বাবা প্রয়াত অমলেন্দু বিশ্বাস ছিলেন ষাটের দশকে একজন জাঁদরেল যাত্রানট। অরুণা বিশ্বাসের মা জোৎস্না বিশ্বাসও বাংলাদেশের মঞ্চ নাটক ও যাত্রাপলা শিল্পের একজন কিংবদন্তি। তিনি প্রায় ৩০০টিরও বেশি যাত্রাপালায় অভিনয় করেছেন এবং ২০টি যাত্রা পরিচালনাও করেছেন।

নিউজ ট্যাগ: অরুণা বিশ্বাস

আরও খবর

দুরন্তপনার ৫ বছর

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




বিএনপি কার্যালয়ের সামনে শাওনের প্রথম জানাজা সম্পন্ন

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে যুবদল কর্মী শাওনের প্রথম জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় জানাজা শেষে বিএনপি ও এর বিভিন্ন অঙ্গসংগঠন ফুল দিয়ে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানায়।

এর আগে সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে ফ্রিজিং ভ্যানে করে শাওনের মরদেহ বিএনপি কার্যালয়ে আনা হয়। জানাজা শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে শাওনের মরদেহ নিয়ে ফ্রিজিং ভ্যানটি মুন্সিগঞ্জের উদ্দেশে রওনা হয়।

গত বুধবার মুন্সিগঞ্জের মুক্তারপুরে বিএনপির কর্মসূচি চলাকালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এতে শহীদুল ইসলাম শাওন আহত হন। রাতেই তাকে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই গতকাল বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৯টার দিকে শাওন মারা যান। তিনি মুন্সিগঞ্জের মীরকাদিম পৌর যুবদলের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

এ ঘটনায় আগামীকাল শনিবার ঢাকা মহানগরসহ সারাদেশে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি।


আরও খবর



কে হচ্ছেন কংগ্রেসের সভাপতি

প্রকাশিত:বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

উপমহাদেশের শতবর্ষী পুরনো দল কংগ্রেস এবার পরিবর্তনের হাওয়া আনতে তৎপর হয়েছে। দলটির সভাপতি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। কিন্তু এবার গান্ধী পরিবারের মুখ ফিরে আসার সম্ভাবনা একেবারেই কম। অর্থাৎ প্রায় ২০ বছর পর দলীয় সভাপতির পদ যাচ্ছে গান্ধী পরিবারের বাইরে। এ পর্যন্ত নেতৃত্বের লড়াইয়ে নাম এসেছে গান্ধী পরিবারের অনুগত ও রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট আর সংস্কারবাদী নেতা হিসেবে পরিচিত শশী থারুর। গতকাল এ খবর জানিয়েছে এনডিটিভি।

খবরে বলা হয়েছে, শশী থারুর নিজে দলীয় সভাপতি পদে লড়াইয়ের ইচ্ছার কথা জানান আর তাতে সায় দেন সোনিয়া গান্ধী। শশী থারুর সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও লেখক কলামিস্ট হিসেবে তার সুনাম রয়েছে। এ ছাড়া তিনি হলেন আলোচিত জি-২৩ গ্রুপের সদস্য যারা ২০২০ সালে কংগ্রেসের আমূল সংস্কার চেয়ে সোনিয়া গান্ধীকে চিঠি লিখেছিলেন। ওই চিঠিতে তারা দলের ধারাবাহিক ভরাডুবির পেছনে নেতৃত্বকে দায়ী করেছিলেন।

এনডিটিভি জানিয়েছে, গত সোমবার শশী থারুর সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে দেখা করেছেন এবং নিজের প্রার্থিতার কথা বলেছেন। সোনিয়া গান্ধী তাকে সম্মতি দেন। কিন্তু এর কয়েক ঘণ্টা পরই সভাপতি পদে অশোক গেহলটের নাম ঘোষণা করা হয়। গান্ধী পরিবারের একান্ত অনুগত হিসেবে অশোকের তকমা রয়েছে। কিছুদিন আগেও তিনি দলীয় সভাপতির পদে রাহুল গান্ধীকে ফেরানোর ব্যাপারে চাপ দিয়েছেন।

এদিকে কংগ্রেসের যোগাযোগের দায়িত্বে থাকা নেতা ও আইনপ্রণেতা জয়রাম রমেশ বলেন, যে কেউ চাইলেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন, আমরা তাকে স্বাগত জানাব। এটাই কংগ্রেসের ও রাহুল গান্ধীর ধারাবাহিক অবস্থান। এটি উন্মুক্ত ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া।

তিন দিনের মধ্যে কংগ্রেসের সভাপতি পদে মনোনয়নপত্র দাখিল শুরু হবে। শশী থারুর ও অশোক গেহলট ছাড়াও আরও কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা লড়াইয়ে আসতে পারেন। এ তালিকায় রয়েছে জ্যেষ্ঠ নেতা গোলাম নবি আজাদও।

সোনিয়া গান্ধী ১৯ বছর কংগ্রেসের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০১৭ সালে ছেলে রাহুল গান্ধীর হাতে দায়িত্ব দেন। লোকসভা নির্বাচনে টানা দ্বিতীয়বার ভরাডুবির পর ২০১৯ সালে পদত্যাগ করেন রাহুল। এর পর অন্তর্বর্তী সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব নেন সোনিয়া। তবে কোনো কিছুতেই দলের বিপর্যয় এড়ানো যায়নি। একের পর এক বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস পরাজিত হয়েছে। এ পরিপ্রেক্ষিতে বেশ কিছুদিন থেকেই দলের ভেতরেই দাবি উঠেছে, দলীয় নেতৃত্ব গান্ধী পরিবারের বাইরে আনার। বিশেষ করে রাহুল গান্ধীর দিকে নেতিবাচক মনোভাব রয়েছে অনেকের। কংগ্রেস ঘনিষ্ঠ অনেকেই মনে করেন, রাহুল গান্ধী দলের বাইরে থেকেও প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করেন। নির্বাচন এলে তা আরও বেড়ে যায়। তবে উল্টো বাতাসও রয়েছে। দলের ভেতরেই একটি অংশ চায়, রাহুল গান্ধী আবারও দলের হাল ধরুক।

বর্তমানে রাহুল ভারত জোড়ো কর্মসূচিতে আছেন। এটিও অনেকটা কংগ্রেসের ইমেজ ফিরিয়ে আনার প্রচেষ্টা। একই সঙ্গে রাহুলের ইমেজ ফেরানোরও চেষ্টা।

উল্লেখ্য, গান্ধী পরিবারের বাইরে সবশেষ কংগ্রেস সভাপতি ছিলেন সীতারাম কেশরী। নরসীমা রাও নেতৃত্বাধীন সরকার ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার প্রায় দুবছর পর কেশরীর কাছ থেকেই ১৯৯৮ সালে দায়িত্ব নেন সোনিয়া গান্ধী।


আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২