Logo
শিরোনাম

ভোটে হেরেও যেভাবে মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন মমতা

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৯২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
কেউ হেরে যাওয়ার পরও তার দল যদি সংখ্যা গরিষ্ঠতা পায় এবং দলের নির্বাচিত সদস্যরা যদি তাকে নেতা নির্বাচিত করেন, তাহলে তার মুখ্যমন্ত্রী হতে আইনগত কোনো বাধা নেই। তবে ভোটে না জিতেও মুখ্যমন্ত্রী হলে তাকে ওই পদে বসার ১৮০

বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে বিশাল জয় নিয়ে ক্ষমতায় বসছে তৃণমূল। তবে নিজ আসন নন্দীগ্রামে নিজেরই এক সময়কার ডানহাত শুভেন্দু অধিকারীর কাছে তুমুল লড়াই করেও হেরেছেন মমতা ব্যানার্জী। দলীয় নেত্রীর এই হেরে যাওয়ার পর প্রশ্ন উঠেছে- দল সরকার গঠন করলে তিনি কি মুখ্যমন্ত্রী হতে পারবেন? উত্তর হলো- হ্যা, পারবনে।

ভারতীয় সংবিধানের ১৬৩ ও ১৬৪ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, দেশটির কোনো রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হতে হলে তাকে ভারতের নাগরিক হতে হবে এবং বয়স হতে হবে ২৫ বা তার বেশি। তাকে রাজ্যের বিধানসভার সদস্য হতে হবে। আর বিধানসভার সদস্য না হয়েও কেউ যদি মুখ্যমন্ত্রী পদে বসেন, তাকে রাজ্যপালের অনুমতি নিতে হবে।

কেউ হেরে যাওয়ার পরও তার দল যদি সংখ্যা গরিষ্ঠতা পায় এবং দলের নির্বাচিত সদস্যরা যদি তাকে নেতা নির্বাচিত করেন, তাহলে তার মুখ্যমন্ত্রী হতে আইনগত কোনো বাধা নেই। তবে ভোটে না জিতেও মুখ্যমন্ত্রী হলে তাকে ওই পদে বসার ১৮০ দিনের মধ্যে কোনো একটি আসন থেকে জিতে আসতে হবে। তা না পারলে ছেড়ে দিতে হবে পদ।

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভার ২৯৪ আসনের মধ্যে দুটির ভোটগ্রহণ প্রার্থীর মৃত্যুতে স্থগিত রয়েছে। ফলে এর একটি আসনে ছয় মাসের মধ্যে জিতে এলেই মমতার মুশকিল আসান হতে পারে।

তিন দশকের বাম শাসনের অবসান ঘটিয়ে ২০১১ সালে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী হন মমতা। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, ওই সময় তিনি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ছিলেন। ২০১১ সালের বিধানসভা ভোটে তিনি লড়েননি। পরে দল জয় পেলে তাকে মুখ্যমন্ত্রী পদে মনোনয়ন দেন তৃণমূলের বিধায়কেরা । এরপর লোকসভা থেকে পদত্যাগ করেন মমতা।

ভবানীপুরে সুব্রত বক্সির জেতা আসনে উপনির্বাচনে জিতে আসেন তিনি। পরে ২০১৬ সাল পুনরায় মুখ্যমন্ত্রী হন তিনি।


আরও খবর



হেফাজত নেতাদের কওমি মাদ্রাসা বোর্ড থেকে বহিষ্কার দেয়ার দাবি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ মে ২০২১ | ৭৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হেফাজতে ইসলামকে কওমি মাদ্রাসা বোর্ড থেকে বাদ দেয়ার দাবি জানিয়েছে ইসলামী ঐক্যজোট। হেফাজতের নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত কওমি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদেরও শাস্তি চায় সংগঠনটি।

মঙ্গলবার (৪ মে) জাতীয় প্রেসক্লাবে হেফাজতে ইসলামের সাম্প্রতিক তাণ্ডব এবং হেফাজতে জামায়াত-শিবিরের অনুপ্রবেশের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানান ইসলামী ঐক্যজোট।

এ সময় ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আলহাজ মিছবাহুর রহমান চৌধুরী বলেন, কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড-বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া এবং উচ্চতর সমন্বয় সংস্থা-আল হাইয়াতুল উলিয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া থেকে সহিংসতায় জড়িত হেফাজত নেতাদের বহিষ্কার করা হোক। এসময় তিনি তাণ্ডবে জড়িত শিক্ষার্থীদের কওমি মাদরাসা বহিষ্কারের দাবিও জানান।

পাকিস্তানসহ বিদেশি গোয়েন্দা সংস্থার সাথে দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রে যুক্ত থাকায় হেফাজত নেতা মামুলুল হকের দলের নিবন্ধন বাতিলের দাবি করেন ইসলামি ঐক্যজোট নেতারা। ফৌজদারী অপরাধে হেফাজত নেতাদের বিচারের মুখোমুখি করার পাশাপাশি হেফাজতের অর্থদাতাদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তারা।

ওয়াজ ও তাফসির মাহফিলের নামে হেফাজত ও জামায়াত নেতাদের জিহাদের অপব্যাখা ও উগ্রবাদের পক্ষের নানা বক্তব্য বন্ধ করার জন্য ইসলামি কাউন্সিল গঠন করার কথা বলেন তারা। আর কওমি মাদরাসার ঐতিহ্য রক্ষা এবং ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধারে ১১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়।


আরও খবর



স্বল্পমূল্যে করোনা শনাক্ত পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছে যবিপ্রবি

প্রকাশিত:সোমবার ১০ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৫১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) একদল গবেষক কম খরচে নভেল করোনাভাইরাস শনাক্তে সাইবারগ্রিন পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছেন। এই পদ্ধতিতে করোনা শনাক্ত করতে নমুনাপ্রতি বাংলাদেশি টাকায় ১৪০ টাকার মতো খরচ হবে। পরীক্ষার ফল পেতে সময় লাগবে মাত্র ৯০ মিনিট। যবিপ্রবির সম্মেলন কক্ষে আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও জিনোম সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন এ উদ্ভাবনের ঘোষণা দেন।

উপাচার্য ড. আনোয়ার হোসেন জানান, সাইবারগ্রিন পদ্ধতিতে করোনা শনাক্তের সেনসিটিভিটি প্রচলিত অন্যান্য কিটের সমপর্যায়ের। এ গবেষণাটি একটি পিয়ার রিভিউড জার্নালে প্রকাশের অপেক্ষায় আছে। ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, সরকারের সহায়তা পেলে এই গবেষণাকে কাজে লাগিয়ে খুব সহজে এবং কম খরচে করোনা শনাক্তের কাজটি আমাদের দেশে করা সম্ভব হবে।

যবিপ্রবির অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. ইকবাল কবীর জাহিদ বলেন, বায়ো ইনফরমেটিক্স টুলের মাধ্যমে দেখা গেছে, বর্তমানে সংক্রমণশীল করোনার বিভিন্ন ধরন সাইবারগ্রিন পদ্ধতিতে শনাক্ত করা সম্ভব। শতাধিক নমুনা পরীক্ষা করে এর কার্যকারিতা যাচাই করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন জিনোম সেন্টারের সহকারী পরিচালক অধ্যাপক ড. ইকবাল কবীর জাহিদ, অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সেলিনা আক্তার, পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের চেয়ারম্যান ড. শিরিন নিগার, বায়ো-মেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান ড. হাসান মো. আল-ইমরান, অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শোভন লাল সরকার, গবেষক তনয় চক্রবর্তী প্রমুখ।


নিউজ ট্যাগ: যবিপ্রবি

আরও খবর

ঈদ মোবারক

শুক্রবার ১৪ মে ২০২১




খালেদা জিয়ার সঙ্গে বিদেশ কারা যাচ্ছেন?

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১ | ৭৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিদেশ নিতে তার পরিবার সরকারের কাছে আবেদন করেছে। সরকার সেই আবেদনে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে। তবে এখনও আনুষ্ঠানিক অনুমোদন দেয়নি।

সরকারের ইতিবাচক সায় পেয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেওয়ার জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে দল ও তার পরিবার।

খালেদা জিয়া লন্ডনে চিকিৎসা নিতে চান। সেখানে তার বড় ছেলে ও দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং তার স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমান রয়েছেন।

সরকারের অনুমতি পেলে যেকোনো সময় তাকে নিয়ে লন্ডনের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বেন পরিবারের সদস্যরা।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে কারা যাচ্ছেন সেটি এখনও শতভাগ নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে তার সঙ্গে যাবেন এমন দুই চিকিৎসক এবং পরিবারের সদস্যদেরও ভিসার জন্য পাসপোর্ট জমা দেওয়া হবে।

একটি বিশ্বস্ত সূত্র বলছে, খালেদা জিয়াকে নিয়ে লন্ডন যাবেন তার ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার ও তার স্ত্রী কানিজ ফাতেমা। এ ছাড়া ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও গৃহকর্মী ফাতেমাও বিদেশ যাবেন।

খালেদা জিয়ার এক স্বজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে শুক্রবার বলেন, সরকারের আনুষ্ঠানিক অনুমতি পাওয়া এবং যারা তার সঙ্গে যাবেন তাদের ভিসা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই উন্নত চিকিৎসার জন্য লন্ডনের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বেন তারা।

এর আগে বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ চেয়ে সরকারের কাছে আবেদন করেন তার ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার।

তিনি গত বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমন্ডির বাসায় গিয়ে আবেদনপত্রটি হস্তান্তর করেন। আবেদনপত্রটি পর্যালোচনার জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠনন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এ বিষয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্যে বিদেশে নিতে পরিবারের আবেদন বিষয়ে বৃহস্পতিবার সিদ্ধান্ত হচ্ছে না।

রাজধানীর বসুন্ধরার এভারকেয়ার হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন খালেদা জিয়া। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে সরকারের পক্ষ থেকে মৌখিক অনুমতি পাওয়া গেছে বলে পরিবার জানায়।


আরও খবর



আইন করে কিশোরীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক নিষিদ্ধ করলো ফ্রান্স

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
ফ্রান্সে এতদিন নারীদের ক্ষেত্রে সম্মতিসূচক শারীরিক সম্পর্কের বয়স ছিল ১৫ বছর। যদি এর চেয়ে কম বয়সী কেউ ধর্ষণের শিকার হতো, তাহলে অভিযুক্তের আইনজীবী সেই ঘটনাকে সম্মতিসূচক সহবাস প্রমাণের চেষ্টা করতে পারতেন

কোনো কিশোরী অর্থাৎ ১৫ বছরের কম বয়সী মেয়ের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে ঘোষণা করলো ফ্রান্স। মেয়ের সম্মতিতেও যদি এই সম্পর্ক স্থাপিত হয় তবুও তা ধর্ষণ বলে বিবেচিত হবে বলে নতুন এক আইন পাস করেছে দেশটি।

ফ্রান্সে এতদিন নারীদের ক্ষেত্রে সম্মতিসূচক শারীরিক সম্পর্কের বয়স ছিল ১৫ বছর। যদি এর চেয়ে কম বয়সী কেউ ধর্ষণের শিকার হতো, তাহলে অভিযুক্তের আইনজীবী সেই ঘটনাকে সম্মতিসূচক সহবাস প্রমাণের চেষ্টা করতে পারতেন। এর মাধ্যমে অনেক ধর্ষণের ঘটনাই সম্মতিপূর্ণ সহবাস হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে অভিযুক্তরা শাস্তি এড়িয়ে যেতেন।

তবে নতুন আইনের ফলে ওই সুযোগ আর থাকছে না। এখন থেকে ১৫ বছরের কম বয়সী কোনো মেয়ের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক হলেই সেটি ধর্ষণ হিসেবে ধরা হবে এবং দোষীকে সর্বোচ্চ ২০ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হবে।

ফরাসি আইনমন্ত্রী এরিক মোরেট্টি এই আইন পাস হওয়ার ঘটনাটিকে তাদের সমাজব্যবস্থা ও শিশুদের জন্য ঐতিহাসিক বলে উল্লেখ করেছেন। অবশ্য এর নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন আইনজীবীদের একাংশ। দুজনের সম্মতিতে সহবাস হলেও আইন অনুযায়ী কেবল একজন ধর্ষণের সাজা পাবেন- এটা কি অবিচার নয়, এমন প্রশ্ন তাদের।


আরও খবর



যশোরে দুইজনের মধ্যে মিলেছে করোনার ভারতীয় ধরন

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ | ৭২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যশোর জেনারেল হাসপাতালে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারত ফেরত যাত্রীদের মধ্যে দুজনের শরীরে ভারতীয় ভেরিয়েন্টের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জোনাম সেন্টারের পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা শেষে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন।

এ অবস্থায় ওই দুই রোগীকে আলাদা করে চিকিৎসা দেওয়া ও ভারত থেকে ফেরার পথে তাদের সংস্পর্শে আসা সকল ব্যক্তিকে কোয়ারেন্টিনে নিয়ে নমুনা পরীক্ষার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

করোনার কারণে ভারতের সাথে সীমান্ত বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর গত ২৬ এপ্রিল থেকে আটকে পড়া বাংলাদেশিরা বিশেষ অনুমতি নিয়ে দেশে ফিরছেন। গত ৪ মে পর্যন্ত বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে এক হাজার ৫৭৭ জন দেশে ফিরেছেন। যাদের বেনাপোলসহ যশোর জেলা ও পার্শ্ববর্তী চার জেলার হোটেলসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে ১৬ জন করোনা পজিটিভ যাত্রীর নমুনা সংগ্রহ করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জোনাম সেন্টারের পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষায় পাঠানো হয়। এর মধ্যে তিনজনের নমুনা পজিটিভ এসেছে। এ তিনজনের মধ্যে দুজনের শরীরে করোনার ভারতীয় ভেরিয়েন্টের অস্তিত্ব মিলেছে বলে নিশ্চিত করেছেন জোনাম সেন্টারের সহযোগী পরিচালক প্রফেসর ড. মো. ইকবাল কবীর জাহিদ।

তিনি বলেন, ভারতীয় ভেরিয়েন্টের নাম্বার হলো বি ১.৬ ১৭.২। তবে এটি ডাবল মিউট্যান্ট নয়। ভারতের প্রায় ২০ শতাংশ মানুষ এ ভেরিয়েন্টে আক্রান্ত।তারপরও এ ভেরিয়েন্টের সংক্রমণ রোধে সতর্ক হতে হবে। আমরা আশা করছি যারা ভারত থেকে ফিরতে তাদের পরীক্ষার পাশাপাশি পৃথক পরিবহন ব্যবস্থায় কোয়ারেন্টিনে নিতে হবে এবং নেগেটিভ না হওয়া পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে রাখতে হবে।

এদিকে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য্য প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, যশোর জেনারেল হাসপাতালে থাকা ওই দুই রোগীকে আলাদা করে চিকিৎসা দেওয়ার পাশাপাশি ভারত থেকে ফেরার পথে তার সংস্পর্শে আসা সকল ব্যক্তিকে কোয়ারেন্টিনে নিয়ে নমুনা পরীক্ষার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। আমরা যে দুজনের নমুনায় ভারতীয় ভেরিয়েন্ট মিলেছে তাদের নমুনার হোল জিনোম সিকোয়েন্স করার উদ্যোগ নিয়েছি।

যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. দিলিপ কুমার রায়  বিকেল পৌনে ৪টার দিকে সাংবাদিকদের বলেন, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোম সেন্টারে ও আইইডিসিআরএ নমুনা পঠানো হয়েছিল। আমরা এখনো কোনো তথ্য পাইনি। পেলে আমাদের বিশেষজ্ঞ টিম প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।


আরও খবর