Logo
শিরোনাম

ইয়াসের প্রভাবে দেশের বিভিন্ন এলাকায় পানিতে ডুবে ৬ শিশুর মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১০৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে দেশের বিভিন্ন এলাকায় নদীর পানি বেড়ে গেছে। এ কারণে জোয়ারে বেড়িবাঁধ ভেঙে বেশ কয়েকটি এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এ সময় পৃথক স্থানে পানিতে ডুবে মারা গেছে পাঁচ শিশু।

বুধবার (২৬ মে) ইয়াসের প্রভাবে দেশের বিভিন্ন এলাকায় ঝড়ো হাওয়ায় বিধ্বস্ত হয়েছে ঘরবাড়ি। ডুবে গেছে ঘর-বাড়ি, রাস্তাঘাট, ফসলি জমি।

১. বরিশালের বাকেরগঞ্জে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে জোয়ারের পানিতে ডুবে ২ শিশু মারা গেছে। বুধবার (২৬ মে) উপজেলার পৃথক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত শিশুরা হলেন, সুমাইয়া আক্তার (৩) উপজেলার নিয়ামতি ইউনিয়নের ঢালমারা গ্রামের হাফিজুর রহমানের মেয়ে। আজওয়া আক্তার (৩) গারুরিয়া ইউনিয়নের রুনসী পশুরি গ্রামের আজগর আলীর মেয়ে ।

২. বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের খাউলিয়া এলাকায় ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (২৬ মে) দুপুরের দিকে উপজেলার খাউলিয় ইউনিয়নের চালিতাবুনিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মৃত জিনিয়া আক্তার (৪) চালিতাবুনিয়ার নির্মাণ শ্রমিক কালাম গাজীর মেয়ে।

৩. নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার সুখচর ইউনিয়নে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে জোয়ারের পানিতে ভেসে গেছে লিমা আক্তার (৭) নামের এক শিশু।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সকাল পর্যন্ত নিখোঁজ শিশুটির কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে নিশ্চিত করেছেন হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইমরান হোসেন।

(৭) সুখচর ইউনিয়নের চর আমান উল্যাহ গ্রামের বাবুল মিয়ার মেয়ে।

এ বিষয়ে হাতিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের জানান, এ সংবাদ পেয়ে শিশুটির পরিবারের সদস্যদের নিয়ে লিমাকে খোজা হচ্ছে।

৪. ঘূর্ণিঝড় ইয়াস ও পূর্ণিমার প্রভাবে ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলায় বিষখালী নদীর পানি বেড়ে গেছে। এ সময় পনি ডুবে মারা গেছে দুই শিশু। বুধবার (২৬ মে) বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার মেডিকেল মোড় সংলগ্ন ও বড়ইয়া এলাকায় পৃথক এই ঘটনা ঘটে।

৫. রাজাপুরে ব্যাপক হারে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় এবং বিষখালী নদীতে বেড়িবাঁধ না থাকায় পানি ঢুকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ডুবে গেছে ফসলি জমি, রাস্তাঘাট, ঘর-বাড়ি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। সেই সঙ্গে ভেসে গেছে কয়েকশ পুকুরের মাছ।

৬. মোংলায় ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে আশপাশের উপকূলীয় এলাকার নদ-নদীর পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ৩ থেকে ৪ ফুট বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে পশুর নদীর বাঁধ সংলগ্ন কানাইনগর, চিলা ও জয়মনি এলাকার চারশতাধিক বসতঘর তলিয়ে গেছে। চিংড়িসহ অসংখ্য মাছের ঘের পানিতে তলিয়ে গেছে। তবে উপকূলীয় অঞ্চলের আশ্রয়কেন্দ্র গুলোতে কেউ আসেননি

অতি জোয়ার বা জলোচ্ছ্বাসে খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, পিরোজপুর, পটুয়াখালী, বরগুনা, ভোলা, নোয়াখালী ও লক্ষ্মীপুর জেলার ২৭টি উপজেলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত উপজেলাগুলো হলো- আশাশুনি, শ্যামনগর, দাকোপ, কয়রা, পাইকগাছা, মোংলা, শরণখোলা, মোড়েলগঞ্জ, বরগুনা সদর, মঠবাড়িয়া, পাথরঘাটা, আমতলী, পটুয়াখালী সদর, গলাচিপা, রাঙ্গাবালী, দশমিনা, মির্জাগঞ্জ, কলাপাড়া, চরফ্যাশন, মনপুরা, দৌলতখান, বোরহানউদ্দিন, ভোলা সদর, তজুমদ্দিন, হাতিয়া, কমলনগর ও রামগতি।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান বলেন, যেকোনো দুর্যোগ মোকাবিলায় মানবিক সহায়তা প্রদানের জন্য জেলা প্রশাসকদের অনকূলে পর্যাপ্ত খাদ্যসামগ্রী ও অর্থ বরাদ্দ দেয়া আছে।


আরও খবর



বেড়েছে ডিম-সবজি ও চালের দাম

প্রকাশিত:শনিবার ১২ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৫৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সপ্তাহের ব্যবধানে বাজারে বেড়েছে ডিম, সবজি ও চালের দাম। বিক্রেতারা বলছেন, চাহিদা অনুযায়ী যোগান না থাকায় বেড়েছে ডিম ও সবজির দাম।

এছাড়াও চালের ভরা মৌসুমে সিন্ডিকেটের কারণে বেড়েছে চালের দাম। চালের বাজার মনিটরিং না করলে দাম আরও বাড়তে পারে।

এসব বাজারে গত সপ্তাহে লাল ডিমের ডজন ছিল ৯৬ থেকে ১০০ টাকা। এখন দাম বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১০৫ টাকা। হাঁসের ডিমের ডজনে ১০ টাকা দাম বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকা।

চাহিদা অনুযায়ী ডিমের আমদানি কম। এই কারণেই ডিমের দাম বাড়তি যাচ্ছে। আমদানি বাড়লে আবার ডিমের দাম কমবে।

গত সাত দিনের ব্যবধানে প্রায় প্রতিটি কাঁচা পণ্যের কেজিতে ৫ থেকে ১০ টাকা দাম বেড়েছে। সবজি বিক্রেতা মো. আলামিন বলেন, বৃষ্টি-বাদলে বাজারে সবজি নিয়মিত আসছে না। এ কারণেই বাজারে সবজির সরবরাহ কম। আমরা বিক্রেতারা বেশি দামে কিনছি বলেই বেশি দামে বিক্রি করছি। সবজির সরবরাহ বাড়লে কাঁচা পণ্যের দাম কমবে।

সবজি ও মাছের দাম বেশি থাকলে সে সময়ে মানুষ বেশি ডিম খান। তখন চাহিদার সঙ্গে সঙ্গে বেড়ে যায় ডিমের দাম। বাজারে সবজি, মাছ ও মাংসের দাম স্বাভাবিক হলে ডিমের দাম কমে আসবে। 

চালের দাম বৃদ্ধির বিষয়ে শাহাদাত বলেন, চালের ভরা মৌসুমে বস্তাপ্রতি দাম বেড়েছে ১০০ টাকা। কেজিতে বেড়েছে ২ থেকে ৩ টাকা। বিয়ার ২৮ চালের দাম কেজিতে বেড়েছে দুই থেকে এক টাকা। দাম বেড়েছে মিনিকেট চালের। ৫০ কেজির বস্তায় দাম বেড়েছে ১০০ টাকা। সিন্ডিকেটের কারণে চালের মৌসুমে দাম বেড়েছে। সরকার যদি চালের বাজার মনিটরিং না করে তাহলে চালের দাম আরও বাড়বে।


আরও খবর



৫৩ দিন পর ফিরোজায় খালেদা জিয়া

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৩৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে বাসায় পৌছেছেন। শনিবার (১৯ জুন) রাত সোয়া ৮টার দিকে হাসপাতাল থেকে গাড়িতে করে বাসার উদ্দেশে রওনা হয়ে ৯টার দিকে গুলশানের বাসায় প্রবেশ করেন।

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে দীর্ঘ ৫৩ দিন চিকিৎসা শেষে সন্ধ্যায় বাসায় ফিরলেন তিনি। শনিবার (১৯ জুন) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন গত ২৭ এপ্রিল করোনাভাইরাস পজিটিভ হলে এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়েছিলেন। আজ তিনি হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরলেন।

এর আগে, গত ১১ এপ্রিল গুলশানের বাসা ফিরোজায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন খালেদা জিয়া। এরপর ১৫ এপ্রিল সিটি স্ক্যান করা হয়। ২৭ এপ্রিল রাতে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। তার চিকিৎসার জন্য ২৮ এপ্রিল ব্যক্তিগত ও এভারকেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসকদের সমন্বয়ে ১০ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। তিনি করোনামুক্ত হন ৯ মে।

গত ৩ জুন খালেদা জিয়াকে সিসিইউ থেকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। ৫ মে বিদেশে উন্নত চিকিৎসা জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে লিখিত চিঠি দেন তার ভাই শামীম এস্কান্দার। কিন্তু সরকার তাতে এখনও সাড়া দেয়নি।


আরও খবর



করোনায় বিশ্বে একদিনে প্রাণ গেল প্রায় ৯ হাজার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দীর্ঘ একবছরেরও বেশি সময় ধরে বিশ্বব্যাপী তাণ্ডব চালানো প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় সারাবিশ্বে মারা গেছেন ৮ হাজার ৯৬৯ জন। একই সময়ে কভিডে আক্রান্ত হিসেবে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৮৮ হাজার ৫৩৩ জন। আর সেরে উঠেছেন ৩ লাখ ৯২ হাজার ৮৩৫ জন।

শুক্রবার (১৮ জুন) সকাল সাড়ে ৮টায় আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

এর একদিন আগে বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে ৯ হাজার ৪৪১ জনের মৃত্যু তথ্য জানিয়েছিল ওয়ার্ল্ডোমিটার। আর ওই সময়ে নতুন শনাক্ত হয়েছিলেন ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৬২৩ জন।

আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যান ভিত্তিক ওয়েসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, বিশ্বে এপর্যন্ত মোট ১৭ কোটি ৮১ লাখ ৯৫ হাজার ৯২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে মারা গেছেন ৩৮ লাখ ৫৭ হাজার ৭৯৪ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ১৬ কোটি ২৬ লাখ ৯২ হাজার ৭৫৪ জন।

বিশ্বে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় যুক্তরাষ্ট্র এখনো সবার ওপরে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে তিন কোটি ৪৩ লাখ ৭৭ হাজার ৫৯২ জনের। এরমধ্যে মারা গেছেন ৬ লাখ ১৬ হাজার ৪৪০ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৮৬ লাখ ৪১ হাজার ৪৩৯ জন।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ৯৭ লাখ ৬১ হাজার ৯৬৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৩ লাখ ৮৩ হাজার ৫২১ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৮৫ লাখ ৭৩ হাজার ২১ জন।

তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল, চতুর্থ স্থানে রয়েছে ফ্রান্স, পঞ্চম স্থানে তুরস্ক, ষষ্ঠ স্থানে রাশিয়া, সপ্তম যুক্তরাজ্য, অষ্টম ইতালি, নবম আর্জেন্টিনা এবং দশম স্থানে রয়েছে কলম্বিয়া।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



বোট ক্লাবের ঘটনার আগের রাতে গুলশানের ক্লাবে ভাঙচুর করেছেন পরীমনি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৮৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনির বিরুদ্ধে রাজধানীর গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে।

৭ জুন গভীর রাতে অভিনেত্রী পরীমনি যে ওই ক্লাবে গিয়েছিলেন, তার একটি সিসিটিভির ফুটেজ প্রকাশ করা হয়েছে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, পরীমনির সঙ্গে আসা ব্যক্তিটি হাফপ্যান্ট ও স্যান্ডেল পরে ক্লাবে এসেছেন। এতে বাধা দেওয়ায় উত্তেজিত হয়ে ভাংচুর করেছেন পরীমনি ও তার সঙ্গে থাকা কয়েকজন। গণমাধ্যমে এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পরীমনি।

বুধবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন ক্লাবটির প্রেসিডেন্ট কে এম আলমগীর ইকবাল।  তিনি বলেন, পরীমনি সেই রাতে ১৫টি গ্লাস, নয়টি স্ট্রে এবং অনেকগুলো হাফপ্লেট ছুড়ে মেরে ভেঙেছেন। ঘটনার দিন পরীমনির সঙ্গে এক ভদ্রলোক ছিল হাফপ্যান্ট পরা, আরেকজন নারীও ছিল। এটা রাত প্রায় সোয়া ১টা বা দেড়টার ঘটনা।

এ বিষয়ে পুলিশের গুলশান বিভাগে উপকমিশনার (ডিসি) সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, ৭ জুন জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এর মাধ্যমে ফোন পেয়ে পুলিশ অল কমিউিনিটি ক্লাবে গিয়েছিল। পুলিশ সেখানে যাওয়ার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। পরে পুলিশ থানায় এসে নিয়ম অনুযায়ী ঘটনার বিষয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে।

আলমগীর ইকবাল বলেন, ক্লাবের কিছু নিয়ম-কানুন আছে। কোনো মেইল যদি ক্লাবে আসে তাকে কিছু নিয়ম কানুন মেনে চলতে হয়। কিন্তু পরীমনির সঙ্গে আসা ভদ্রলোক হাফপ্যান্ট ও স্যান্ডেল পরে এসেছেন। তখন ক্লাব থেকে বেরিয়ে যাচ্ছিলেন আমাদের ফুড অ্যান্ড বেভারেজের ডিরেক্টর ও ক্লাবের এক ম্যানেজার। ওনারা সেটা দেখে বলেছেন, আপনিতো ক্লাব রুলস ভায়োলেট করেছেন। আপনিতো হাফপ্যান্ট পরে এখানে আসতে পারেন না। তখন তারা ক্ষিপ্ত হয়ে যান। তাদের আচার-আচরণ গ্রহণযোগ্য না হওয়ায় ওনারা (ডিরেক্টর ও ম্যানেজার) বলেছেন, রাত অনেক হয়ে গেছে আপনারা চলে যান। কিন্তু তারা চলে যাচ্ছিল না বিধায় আমাদের দুই পরিচালকই ক্লাব থেকে চলে যান।


আরও খবর



‘বিএনপি এ দেশের ইতিহাসে গণতন্ত্রের হত্যাকারী হিসেবে চিহ্নিত’

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৬ জুন ২০২১ | ৯১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি এদেশের ইতিহাসে গনতন্ত্রের হত্যাকারী হিসেবে চিহ্নিত। তারা নির্বাচনের নামে নির্বাচনের কফিনে বারবার গণতন্ত্রকে লাশ বানিয়েছিলো।

শনিবার সকালে তার সরকারি বাসভবনে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

১৯৭৮ সালের ৩ জুন জিয়াউর রহমান কোন গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করেছিলো বিএনপি নেতাদের প্রতি এমন প্রশ্ন রেখে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সেনা প্রধানের দায়িত্বে থেকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করে দেশের গণতন্ত্রকে হত্যা করেছিলো সেনাশাসক জিয়া। তার আগে ১৯৭৭ সালে হ্যাঁ- না ভোটের নামে দেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছিলো।

বিএনপি নেতাদের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার কথা প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে তীব্র সমালোচনা আর মিথ্যাচারের তীর ছুঁড়ে এবং দলীয়ভাবে আপাদমস্তক অগণতান্ত্রিক চর্চা অব্যাহত রেখে কিভাবে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করবে বিএনপি?

বিএনপি গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করছে, কর্মীরা প্রাণ দিচ্ছে বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, সর্বশেষ জাতীয় প্রেসক্লাবে তাদের ছাত্র সংগঠনের নেতাকর্মীদের চেয়ার ছোড়াছুড়ি দেশবাসী দেখেছে! আমি বিএনপি নেতাদের কাছে প্রশ্ন রেখে বলতে চাই, এভাবেই কি তারা গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করছে?

বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালিন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের অবস্থার চিত্র তুলে দলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসে আওয়ামী লীগের ২১ হাজার নেতাকর্মীকে হত্যা, গুম করেছিলো। বিএনপি অতীত ভুলে গেলেও দেশের মানুষ ঠিকই মনে রেখেছে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির কাছে ক্ষমতা ভোগের বস্তু, ক্ষমতা ফিরে পেতে তাইতো মরিয়া হয়ে আছে, আর আওয়ামী লীগের রাজনীতি ত্যাগের, এজন্যই জনগণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আস্থাশীল।

এর আগে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বিশ্ব পরিবেশ দিবস বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপকমিটি আয়োজিত এক আলোচনা সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারকে পরিবেশ বান্ধব সরকার উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বর্তমান সরকার আগামী ৫ বছরে দেশের ২২ থেকে ২৪ ভাগ অঞ্চল গাছপালায় আচ্ছাদিত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে সরকার দেশব্যাপী তিন কোটি গাছের চারা রোপনের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চ্যাম্পিয়ন অব দ্যা আর্থ সম্মাননা পাওয়ার মধ্য দিয়ে বিশ্ববাসীর জানার সুযোগ হলো, বাংলাদেশের জনগণ প্রকৃতির প্রতিকূলতার মধ্যে শুধু টিকে থাকতে জানে না বরং বৈশ্বিক উষ্ণায়ন ও জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সৃষ্ট ঝুঁকিগুলো দক্ষভাবে মোকাবেলা করার সুদূরপ্রসারী কর্মকৌশলও নিতে পারে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রাকৃতিক পরিবেশ বিপর্যয়ের পাশাপাশি রাজনৈতিক পরিবেশও বিষাক্ত হচ্ছে। সহিংসতা ও সাম্প্রযায়িক উপাদান যুক্ত হচ্ছে। রাজনৈতিক পরিবেশ স্থিতিশীল না থাকলে পরিবেশ রক্ষাসহ নানা কাজই করা সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, ১৪০ দেশের সমীক্ষায় অবাসযোগ্য শহরের তালিকায় ঢাকা ছিল এক নম্বরে। এখন সেটি ৪ নম্বরে। তারপরও ঢাকা বাসযোগ্য নয়। বায়ুদূষণ, শব্দদূষণ চরম পর্যায়ে। আমাদের সেটি থেকে উত্তরণে কাজ করতে হবে।

আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপকমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. খন্দকার বজলুল হকের সভাপতিত্বে সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ-উপাচার্য ড. নাসরিন আহমেদ, অধ্যাপক আইনুন নিশাত, স্থপতি ইকবাল হাবিব, ডিবিসি চ্যানেলের সম্পাদক প্রণব সাহা, আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। অস্ট্রেলিয়া থেকে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন গবেষক আশরাফ দেওয়ান।


আরও খবর