Logo
শিরোনাম

যেভাবে বৈশাখে এলো পান্তা ইলিশের প্রচলন

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৯ অক্টোবর ২০২১ | ৫৪৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলা পঞ্জিকার প্রথম মাস বৈশাখের প্রথম দিনে নববর্ষের উদযাপন বাঙালিয়ানার রীতি। আমাদের সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। এ উৎসব ইতিহাস-ঐহিত্যের সঙ্গে জড়িয়ে আছে নিবিড়ভাবে।

বাংলাদেশ, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও ত্রিপুরার বাঙালিরা নববর্ষ হিসেবে বিশেষ উৎসবের সঙ্গে এই দিনটি উদযাপন করে। নতুন বছরের সমৃদ্ধি কামনা করে। ব্যবসায়ীরা পুরনো বছরের হিসাব-নিকাশ চুকিয়ে নতুন বছরে যাত্রা করে। যাকে বলে হালখাতা। ক্রেতাদের মিষ্টি মুখ ও উপহার দিয়ে অতীতের হিসেবের খাতার ইতি টানা হয়।

পহেলা বৈশাখ বা বাংলা নববর্ষ উদযাপনের কথাটি মাথায় এলেই মুখ দিয়ে অকপটে বেরিয়ে আসে পান্তা-ইলিশের আহারবিলাস। প্রভাতে ইলিশ ভাজা, মরিচ পোড়া, বেগুন ভাজা, আলুভর্তা আর পান্তা ইলিশের ভোজ না হলে যেন বৈশাখের উদযাপনই ফিঁকে হয়ে আসে। যদিও বৈশাখের সঙ্গে পান্তা-ইলিশের প্রচলনের ইতিহাস খুব দীর্ঘ নয়।

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, পান্তা-ইলিশের সূচনা হয় ১৯৮৩ সালে রমনার বটমূলে। রমনার বর্ষবরণ উৎসব এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার মঙ্গল শোভাযাত্রার সুবাদে প্রতিবারই ব্যাপক লোক সমাগম হয়। যদিও করোনা পরিস্থিতির কারণে দুবছর কোনো আয়োজনই হচ্ছে না। তবে সীমিত পরিসরে যে যার মতো বাসায় পান্তা-ইলিশের বৈশাখী আয়োজন ঠিকই করে আসছে।

আবহমানকাল থেকেই পহেলা বৈশাখ বাঙালি উদযাপন করে আসছে মেলা, হালখাতাসহ নানাভাবে। দিনটিতে ঘরে ঘরে ভালো খাবারের আয়োজনও নিয়মিত অনুষঙ্গ। তবে পান্তা কিংবা ইলিশ কখনোই পহেলা বৈশাখের অনুষঙ্গ ছিল না। এর প্রচলন নব্বইয়ের দশকের শেষের দিকে। দ্রুতই পান্তা-ইলিশ পহেলা বৈশাখের সমার্থক হয়ে ওঠে। কিন্তু, বৈশাখ অর্থাৎ এপ্রিল মাস জাটকা ইলিশের নদী থেকে সাগরে ফিরে যাওয়ার সময়। তাই জাটকা নিধন রোধে এসময় সরকারিভাবে ইলিশ শিকার নিষিদ্ধ। তাই পহেলা বৈশাখে ইলিশ খাওয়ার ব্যাপারে মানুষকে নিরুৎসাহিত করার পক্ষে মৎসবিদসহ সংশ্লিষ্টরা।


আরও খবর

২৬ অক্টোবর: ইতিহাসের এই দিনে

মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১

২৫ অক্টোবর: ইতিহাসের এই দিনে

সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১




পদ্মার ওপারেই আরও একটি পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | ১০০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
আমার ইচ্ছা পদ্মার ওপারেই করা। অর্থাৎ দক্ষিণাঞ্চলেই করা। আর একটা পাওয়ার প্লান্ট যদি করতে পারি, তাহলে বিদ্যুতের জন্য আর অসুবিধা হবে না

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন,পাবনার ঈশ্বরদীতে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার পর দেশের দক্ষিণাঞ্চলে এমন আরেকটি বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের কাজ হাতে নেওয়া হবে।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের ইউনিট-১-এ রিঅ্যাক্টর প্রেসার ভেসেল বা পরমাণু চুল্লিপাত্র স্থাপন অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দক্ষিণাঞ্চলে আমরা জায়গা খুঁজছি, কিন্তু আমাদের ওখানে আসলে শক্ত মাটি নেই। জায়গা পাওয়া খুব কঠিন দক্ষিণাঞ্চলে। তারপরও আমরা বিভিন্ন দিকে সার্ভে করছি। একটা পাওয়ার প্ল্যান্ট আমরা করব। একটা ভালো জায়গা কোথায় পাই

তিনি বলেন, আমার ইচ্ছা পদ্মার ওপারেই করা। অর্থাৎ দক্ষিণাঞ্চলেই করা। আর একটা পাওয়ার প্লান্ট যদি করতে পারি, তাহলে বিদ্যুতের জন্য আর অসুবিধা হবে না।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী দুপুর পৌনে ১২টার দিকে পরমাণু চুল্লিপাত্রের স্থাপনকাজ উদ্বোধন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান, রাশিয়ার পরমাণু শক্তি সংস্থা রোসাটমের মহাপরিচালক অ্যালেক্সি লিখাচেভ এবং প্রকল্পের বাংলাদেশি ও রাশিয়ান কর্মকর্তারা।

বাংলাদেশের উন্নয়ন কার্যক্রমে সহযোগিতা করায় রাশিয়া সরকার ও দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


আরও খবর



কোন ধর্মই উগ্রতাকে প্রশ্রয় দেয় না : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৮০জন দেখেছেন
তাছনিম আদনান

Image

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, সকল ধর্মই সৃষ্টির কল্যাণের কথা বলে। সত্যকে গ্রহণ করে অসত্যকে বর্জন করার কথা বলে। পরার্থে নিজেকে বিলীন করার কথা বলে। কোন ধর্মই উগ্রতাকে প্রশ্রয় দেয় না। কিছু উগ্র ব্যক্তি আছে যারা নিজেদের মতো করে আলাদা ধর্ম রচনা করে। সে ধর্ম দিয়ে সমাজে সম্প্রীতি নষ্ট করে, মানবতার জয়গানে বিঘ্ন সৃষ্টি করে। তারা মানবতার শত্রু, অসাম্প্রদায়িকতার শত্রু। এরা অস্তিত্বের উৎসমূলে আঘাত করে, ধর্মীয় বিশ্বাসে আঘাত করে। এদের বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে”।

রবিবার (১০ অক্টোবর) পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে শারদীয় দুর্গা পূজা উপলক্ষ্যে নাজিরপুর উপজেলার দুর্গা মন্দিরের সভাপতি ও সম্পাদকের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময়, প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক বিতরণ, ব্যক্তিগত অনুদান প্রদান এবং জেলা পরিষদের অনুদান প্রদান উপলক্ষ্যে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরো বলেছেন, বাঙালির ঐক্যের তান হোক সম্প্রীতির বাংলাদেশ। বাঙালির বাংলাদেশে, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। আজকের সমাজ ব্যবস্থায় মানুষরূপী যে অসুর রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে”।

মন্ত্রী আরো যোগ করেন, দুর্গাপূজা এখন আর পূজার মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। এটা এখন বাঙালির সর্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে। আমাদের সৌভাতৃত্ব, সহমর্মিতা, ভালোবাসা আমাদের একটি জায়গায় আবদ্ধ করেছে। সে জায়গা হচ্ছে আমরা সকলে অসাম্প্রদায়িক বাঙালি। যে বাঙালিত্বকে প্রতিষ্ঠার জন্য আমাদের ত্রিশ লাখ শহিদ রক্ত দিয়েছিল, দুই লাখ মা-বোন সম্ভ্রম দিয়েছিল”।

নাজিরপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুখরঞ্জন বেপারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাঈদুর রহমান, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা খান, নাজিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অমূল্য রঞ্জন হালদার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমান, পিরোজপুর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিমল কৃষ্ণ মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক গোপাল বসু, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি সুরঞ্জিত দত্ত লিটু প্রমুখ।

জেলা পরিষদ পিরোজপুর, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট এবং নাজিরপুর পূজা উদডাপন পরিষদ যৌথভাবে এ মতিবিনিময় সভা আয়োজন করে।

এর আগে মন্ত্রী নাজিরপুর উপজেলা পরিষদের দিঘীতে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন এবং নাজিরপুর উপজেলা পরিষদের সম্প্রসারিত প্রশাসনিক ভবন ও হল রুম নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।


আরও খবর



রংপুর সিটি মেয়রের কক্ষে অনুষ্ঠান চলাকালে ‌‌‌‌‌‌‘গুলি’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৫ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | ২২১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রংপুর সিটি করপোরেশনের (রসিক) মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফার কক্ষে একটি অনুষ্ঠান চলাকালীন গুলির শব্দ শোনা গেছে। ওই সময় কক্ষে মেয়রসহ অন্তত ২০ জন উপস্থিত ছিলেন। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) দুপুর সোয়া ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার সময় একটি বেসরকারি সংস্থার আয়োজনে শিক্ষার্থীদের নিয়ে প্রতীকী মেয়রের দায়িত্ব পালনের অনুষ্ঠান চলছিল।

সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, তার কক্ষে একটি বেসরকারি সংস্থা আয়োজিত ছায়া সংসদের কার্যক্রম হিসেবে প্রতীকী মেয়রের দায়িত্ব পালনের অনুষ্ঠান চলছিল। এ সময় রংপুর জেলা মোটর মালিক সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি একেএম মোজাম্মেল হক তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে সেখানে আসেন।

কথা বলার একপর্যায়ে মোজাম্মেল হক পকেট থেকে মোবাইল বের করতে গেলে তার লাইসেন্স করা পিস্তল হাত থেকে মেঝেতে পড়ে যায়। এতে বিকট শব্দ হয়। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

মেয়র আরও বলেন, শব্দ হলেও রুমে গুলির কোনো চিহ্ন বা খোসা খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে মোজাম্মেল হক বলেন, পকেট থেকে মোবাইল বের করতে গিয়ে পিস্তল মাটিতে পড়ে যায়। অসাবধানতাবশত সেখানে একটা গুলি আটকে থাকায় তা বের হয়ে বিকট শব্দ হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এ ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন বলেও জানান মোজাম্মেল হক।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।


আরও খবর



আগামীকাল এসকে সিনহাসহ ১১ জনের মামলার রায়

প্রকাশিত:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
মামলার পলাতক আসামিরা হলেন- এস কে সিনহা, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিউদ্দিন আসকারী, টাঙ্গাইলের বাসিন্দা রনজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী

সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা অর্থ আত্মসাতের মামলার রায় ঘোষণা আগামীকাল (বৃহস্পতিবার)। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলমের আদালতে এ রায় ঘোষণা অনুষ্ঠিত হবে।

দুদকের পাবলিক প্রসিকিউটর মীর আহমেদ আলী সালাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ৫ অক্টোবর রায় ঘোষণার দিন ধার্য ছিল। কিন্তু বিচার অসুস্থ থাকায় তারিখ পিছিয়ে পরবর্তী রায় ঘোষণার জন্য ২১ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) দিন ধার্য করা হয়।

এসকে সিনহা ছাড়া মামলার অন্য আসামিরা হলেন, ফারমার্স ব্যাংকের (বর্তমান পদ্মা ব্যাংক) সাবেক এমডি এ কে এম শামীম, সাবেক এসইভিপি গাজী সালাহউদ্দিন, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. জিয়াউদ্দিন আহমেদ, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিউদ্দিন আসকারী, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হক, টাঙ্গাইলের বাসিন্দা মো. শাহজাহান, একই এলাকার বাসিন্দা নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা, রনজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী সান্ত্রী রায়।

মামলার এজাহারভুক্ত আসামি মো. জিয়াউদ্দিন আহমেদ তদন্তের সময় মারা যাওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এ মামলার পলাতক আসামিরা হলেন- এস কে সিনহা, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিউদ্দিন আসকারী, টাঙ্গাইলের বাসিন্দা রনজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী।

ফারমার্স ব্যাংক থেকে চার কোটি টাকা ব্যক্তিগত ব্যাংক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর ও আত্মসাৎ করার অভিযোগে ২০১৯ সালের ১০ জুলাই দুদকের পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন বাদী হয়ে কমিশনের জেলা সমন্বিত কার্যালয় ঢাকা-১ এ এসকে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

একই বছরের ডিসেম্বরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদক পরিচালক বেনজীর আহমেদ চার্জশিট দেন। ২০২০ সালের ৫ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কায়েশ চার্জশিট গ্রহণ করেন। ২০২০ সালের ১৩ আগস্ট আদালত অভিযোগ গঠন করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, আসামিরা প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ফারমার্স ব্যাংকের গুলশান শাখা থেকে অস্বাভাবিক দ্রুততার’ সঙ্গে চার কোটি টাকা ভুয়া ঋণ তৈরি করে তা একইদিনে পে-অর্ডারের মাধ্যমে আসামি এস কে সিনহার ব্যক্তিগত হিসাবে স্থানান্তর করেন। পরে এস কে সিনহা নগদ, চেক ও পে-অর্ডারের মাধ্যমে অন্য অ্যাকাউন্টে টাকা সরিয়ে অর্থ আত্মসাৎ করেন, যা দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন ও মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

নিউজ ট্যাগ: এস কে সিনহা

আরও খবর



‘মাস্টার শেফ’-এর পরিচালকের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেবেন তামান্না

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ২৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারতের দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তামান্না ভাটিয়া। রান্না বিষয়ক তেলেগু টিভি রিয়েলিটি শো মাস্টারশেফ উপস্থাপনা করছেন তিনি। এই শোয়ের মাধ্যমে ছোট পর্দায় অভিষেক হয়েছে। কিন্তু এই শোয়ের পরিচালকের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছেন তিনি।

তেলেগু বুলেটিন ডটনেট এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, তেলেগু টিভি রিয়েলিটি শো মাস্টার শেফ-এর পরিচালকের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেবেন তামান্না। কারণ তার বাকি পারিশ্রমিক এখনো দেননি। তামান্নার টিমের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে পরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি মুঠোফোনের লাইন কেটে দেন। এজন্য জেমিনি টিভি কর্তৃপক্ষ ও এই শোয়ের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। তবে এ বিষয়ে এখনো তামান্নার আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

মিল্কি বিউটিখ্যাত অভিনেত্রী তামান্না ভাটিয়া এই শোয়ের জন্য মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক নিচ্ছেন। এর আগে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম জানায়, এই শোয়ের জন্য ৩ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিচ্ছেন তামান্না। যা এই অভিনেত্রীর টিভি ও ওয়েব সিরিজের পারিশ্রমিকের চেয়েও বেশি। তেলেগু দর্শকদের কাছে খুবই পরিচিত মুখ তামান্না। বেশ কিছু তেলেগু ভাষার সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। এজন্য মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক সত্ত্বেও তাকে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন জেমিনি টিভি কর্তৃপক্ষ।

তামান্না অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা মায়েস্ট্রো। তামান্না ছাড়াও এই সিনেমায় বিভিন্ন চরিত্রে আরো অভিনয় করেননিতিন, যীশু সেনগুপ্ত, নরেশ প্রমুখ। তেলেগু ভাষার এ সিনেমা গত ১৭ সেপ্টেম্বর মুক্তি পেয়েছে।

বর্তমানে তামান্নার ঝুলিয়ে বেশ কয়েকটি সিনেমা রয়েছে। এফ থ্রি, ঘানি, প্ল্যান এ প্ল্যান বি, সেটিমার, গুরথুন্দা সীতাকালাম, বোল চুরিয়া, দ্যাট ইজ মহালক্ষ্মী সিনেমায় দেখা যাবে তাকে।


আরও খবর

অবশেষে জামিন পেলেন শাহরুখপুত্র

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

আজ ফের হাইকোর্টে আরিয়ানের জামিন শুনানি

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১