Logo
শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রে এক পরিবারের ছয় বাংলাদেশির লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাস শহরের উপকণ্ঠে একটি বাড়ি থেকে বাংলাদেশের পাবনা জেলার এক পরিবারের ছয় সদস্যের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্থানীয় সময় সোমবার তাঁদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় পাবনা শহরের দোহারপাড়ায় নিহতদের স্বজনদের মধ্যে শোকের মাতম চলছে।

পুলিশের ধারণা, দুই ভাই পরিবারের চার সদস্যকে হত্যার পর নিজেরা আত্মহত্যা করেছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মৃতদের মধ্যে দুই ভাই, এক বোন, তাঁদের মা-বাবা ও নানি রয়েছেন। তারা হলেন ১৯ বছর বয়সী যমজ ভাই-বোন ফারহান তৌহিদ ও ফারবিন তৌহিদ, বড় ভাই তানভীর তৌহিদ (২১), মা আইরিন ইসলাম (৫৬), বাবা তৌহিদুল ইসলাম (৫৪) ও নানি আলতাফুন্নেসা (৭৭)।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, ওই পরিবারে দুই ভাইয়ের একজনের বন্ধু সোমবার দিবাগত রাত ১টার দিকে পুলিশকে তাঁর বন্ধুর আত্মহত্যার আশঙ্কার কথা জানিয়েছিলেন। এরপর পুলিশ ওই বাড়িতে যায়। নিহত ব্যক্তিরা বাংলাদেশের। এখন পর্যন্ত এ ঘটনার কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

পুলিশ সার্জেন্ট জন ফেল্টি বলছেন, ধারণা করা হচ্ছে, তাঁরা গুলিতে নিহত হয়েছেন। মনে হচ্ছে, দুই ভাই আত্মহত্যা করেছেন এবং এর আগে পরিবারের সদস্যদের হত্যা করেছেন।

দুই ভাইয়ের মধ্যে একজন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি পোস্ট দিয়েছিলেন। সেখানে উল্লেখ করা ছিল, তিনি ও তাঁর ভাই পরিকল্পনা করেছেন যে, তাঁরা তাঁদের পরিবারের সদস্যদের হত্যা করবেন এবং এরপর নিজেরা আত্মহত্যা করবেন। এ ছাড়া পোস্টে তিনি নিজেদের হতাশাগ্রস্তের কথাও উল্লেখ করেন। হতাশা কাটাতে তিনি চিকিৎসা করিয়েছেন এবং ওষুধও খেয়েছেন বলে জানান। তবে সেগুলো আগের মতো কাজ করছে না বলে তাঁর মনে হচ্ছিল। পোস্টে ওই যুবক আরও লেখেন, তাঁর ভাই খুব সহজেই আগ্নেয়াস্ত্র সংগ্রহ করতে পেরেছেন।

এদিকে, নিহত আইরিনের ভাতিজা তাওসিফ হোসেন জানান, তারা পুলিশের মাধ্যমে জানতে পেরেছেন, তৌহিদুল ইসলামের দুই ছেলে নিজেরা ঠিক করেছিলেন তাঁরা আত্মহত্যা করবেন এবং সেই সঙ্গে পুরো পরিবারকে হত্যা করবেন। সে অনুযায়ী তাঁরা হত্যাযজ্ঞ করে থাকতে পারেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ সংক্রান্ত একটি পোস্টও করছিলেন ১৯ বছর বয়সী ছোট ছেলে। সেখানে তিনি নিজেকে হতাশাগ্রস্ত বলে উল্লেখ করেছেন।

তবে, ওই পরিবারের ঘনিষ্ঠজন ও প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, দুই ভাইয়ের হতাশাগ্রস্তের কথা তাঁরা জানতেন না। দুই ভাই ছিলেন খুবই সপ্রতিভ, পড়াশোনায়ও ভালো ছিলেন। তাঁদের বাবা তৌহিদুল দুই ছেলেকে নিয়ে সবসময় গর্ব করতেন।

জানা গেছে, দুই ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে টেক্সাসের ডালাসে বসবাস করতেন বাংলাদেশি দম্পতি তৌহিদুল ইসলাম ও আইরিন ইসলাম। আইরিন ইসলামের মা আলতাফুন্নেসা বাংলাদেশের পাবনা থেকে মেয়ের কাছে থাকার জন্য গিয়েছিলেন। দেশে ফেরার কথা থাকলেও, করোনার কারণে আটকা পড়েছিলেন তিনি।

নিউইয়র্কে বসবাসকারী কমিউনিটি অ্যাকটিভিস্ট ও পাবনার বাসিন্দা গোপাল সান্যাল বলেন, মর্মান্তিক ঘটনাটির শিকার পরিবারটির বাড়ি পাবনার দোহারপাড়ায়। তাঁরা বিখ্যাত হায়দার পরিবারের সদস্য। দোহারপাড়ার বিখ্যাত ব্যক্তি জিয়া হায়দার, রশিদ হায়দার ওনাদের আত্মীয়। এ ঘটনা কিছুতেই মেনে নিতে পারছি না।

নিউজ ট্যাগ: লাশ উদ্ধার

আরও খবর



সামরিক অভ্যুত্থানের পর মিয়ানমারে নিহত ২৬১

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৭৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গত মাসে মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর কমপক্ষে ২৬১ জন নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার একটি সিভিল সোসাইটি অর্গানাইজেশন এই তথ্য জানিয়েছে।

থাইল্যান্ডভিত্তিক অ্যাসিসট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনারস নামে এই সংগঠনটি জানিয়েছে, মিয়ানমারে প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা উল্লিখিত সংখ্যার থেকে অনেক বেশি। প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা যোগ করতে তাদের কাজ চলমান থাকবে।

গত বছরের নভেম্বরে মিয়ানমারে সাধারণ নির্বাচন হয়। নির্বাচনে সু চির ক্ষমতাসীন দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি) বিপুল বিজয় পায়। তবে দেশটির সেনাবাহিনী এ নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ আনে। গত ১ ফেব্রুয়ারি সেনাবাহিনী সু চিকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে। একই সঙ্গে সু চিসহ দেশটির শীর্ষ নেতাদের গ্রেপ্তার করে।

এক বছরের জন্য মিয়ানমারে জরুরি অবস্থা জারি করে সেনাবাহিনী। সেনা অভ্যুত্থানের পরপরই মিয়ানমারে বিক্ষোভ শুরু হয়। হুমকি-ধমকি, দমন-পীড়ন, গ্রেপ্তার, গুলি সত্ত্বেও দেশটির গণতন্ত্রপন্থীরা সেনাশাসনের বিরুদ্ধে টানা বিক্ষোভ করে আসছেন।

রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তির জন্য কাজ করা এই সংগঠনটি জনিয়েছে, গতকাল সোমবার পর্যন্ত দুই হাজার ৬৮২ জনকে গ্রেপ্তার, কারাদণ্ড এবং বিক্ষোভের দায়ে অভিযুক্ত করা হয়েছে। বিক্ষোভ দমনে করতে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী দায়মুক্তিভাবে প্রকাশ্যে গুলি, শারীরিক আক্রমণ এবং অপহরণ করেছে বলেও জানিয়েছে তারা। তাদের ভাষায়, সেনাবাহিনী মানুষকে ভয় দেখাতে এসব করেছে কিন্তু জনগণ প্রতিবাদ চলমান রেখেছে।


আরও খবর

মিয়ানমারে সেনা অভিযানে নিহত ৮২

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




গাইবান্ধায় বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা অঙ্কন শুরু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৭২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং মুজিববর্ষকে সারা বিশ্বে স্মরণীয় করে রাখতে গাইবান্ধায় বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা অঙ্কন কার্যক্রম শুরু করেছে শিক্ষার্থীদের সংগঠন পাবলিক ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন অব গাইবান্ধা (পুসাগ)।

বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে জেলা শহরের পুলিশ লাইনের সামনের সড়ক থেকে এ আলপনা অঙ্কন শুরু হয়। শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত সাঘাটা উপজেলার ভাঙ্গা মোড় পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার সড়ক জুড়ে এ আলপনা আকা হবে।

২৪ ঘণ্টায় ১০ কিলোমিটার সড়কজুড়ে আলপনা এঁকে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে জায়গা করে নিতে চায় সংগঠনটি।

সংগঠনের সভাপতি হুসেইন মো. জীম ও সাধারণ সম্পাদক এ কে প্রামাণিক পার্থ বাংলানিউজকে জানান, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং মুজিববর্ষকে সারা বিশ্বে স্মরণীয় করে রাখতেই বর্ণিল-নান্দনিক এ কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি আমরা ২৪ ঘণ্টায় ১০ কিলোমিটার সড়কে আলপনা আঁকা সম্পন্ন করে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা অঙ্কিত সড়কের স্বীকৃতি পেতে চাই। নির্ধারিত সময়ে আলপনা অঙ্কন সম্পন্ন করে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে গাইবান্ধা জেলার নাম সংযুক্ত করতে আমরা দৃঢ় প্রত্যয়ী।


আরও খবর

কালবৈশাখী ঝড়ে ৫ জনের মৃত্যু

রবিবার ০৪ এপ্রিল ২০২১




ছাত্রলীগ নেতাকে লাঞ্ছনার অভিযোগে ওসি প্রত্যাহার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৮৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের ডাকা হরতালের (গত ২৮ মার্চ) সময়কার হামলা-ভাঙচুরের ছবি ফেসবুকে শেয়ার করেছিলেন সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার আফজাল খান নামের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক ছাত্রলীগ নেতা। এরপর ধর্ম অবমাননা হয়েছে এমন দাবি করে তাঁকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ ওঠে পুলিশের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ধর্মপাশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. দেলোয়ার হোসেনসহ তিন পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। পুলিশ সুপার (এসপি) মিজানুর রহমান গতকাল বুধবার রাতে প্রত্যাহারের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার বিকেলে ঢাবি ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক উপকমিটির সম্পাদক এবং স্যার এ এফ রহমান হল ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল খানকে ধর্মপাশা উপজেলার জয়শ্রী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে লাঞ্ছিত করা হয়।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম আলমের ছেলে আল মোজাহিদ তাঁর সমর্থকদের নিয়ে আফজাল খানকে লাঞ্ছিত করেন বলে অভিযোগ ওঠে। এই খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ছাত্রলীগ নেতা আফজালকে হাতকড়া পরিয়ে জোরপূর্বক ক্ষমা চাইতে বলে। এ সময় তাঁর বাবাকেও লাঞ্ছিত করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে।

ঘটনার পরই ধর্মপাশা থানার ওসি দেলোয়ার হোসেনকে প্রত্যাহার করে সুনামগঞ্জ পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে। এর আগে একই ঘটনায় বুধবার দুপুরে ধর্মপাশা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জহিরুল ইসলাম ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আনোয়ার হোসেনকেও প্রত্যাহার করা হয়।


আরও খবর



নিয়মিত লবঙ্গ চা পানের স্বাস্থ্য উপকারীতা

প্রকাশিত:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কাজের ফাঁকে, ক্লান্তির মাঝে অথবা অবসর সময়ে চাই এক কাপ ধূমায়িত চা। আড্ডা অথবা গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকেও চা চাই। এ চা কিন্তু অনেক ভাবেই খাওয়া যায়। যেমন- দুধ চা, রঙ চা, লেবু চা, আদা চা, তুলসী পাতা চা। তবে নানান রকমের চায়ের কথা জানলেও লবঙ্গ চায়ের কথা মোটামুটি অনেকেরই অজানা। এই লবঙ্গ চায়ের নানা গুণের কথাও আমাদের অজানা।

গবেষকরা বলছেন, আপনার বয়স যদি ২৫-৪০ এর মধ্যে হয়ে থাকে তাহলে প্রতিদিন আপনাকে লবঙ্গ চা খেতেই হবে।

লবঙ্গ চা বানানোর প্রক্রিয়া

প্রথমে পরিমাণ মতো লবঙ্গ নিয়ে বেঁটে নিতে হবে। তারপর সেই লবঙ্গের গুঁড়ো এক কাপ পানিতে মিশিয়ে কম করে ৫-১০ মিনিট ফোটাতে হবে। যখন দেখবেন পানিটা ফুটতে শুরু করেছে, তখন তাতে হাফ চামচ চা পাতা দিন। আর কিছু সময় অপেক্ষা করে পানিটা ছেঁকে নিলেই হয়ে গেলো লবঙ্গ টি।

চিকিৎসা বিজ্ঞান নিয়ে যারা চর্চা করেন তাদের মতে, প্রতিদিন দুবার করে লবঙ্গ চা খেলে শরীরে প্রবেশ করে- ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন কে, ফাইবার, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্য়াঙ্গানিজ সহ আরও একাধিক উপকারি উপাদান। যা নানাভাবে শরীরের উপকারে লেগে থাকে।

লবঙ্গ চায়ের নানা উপকার-

দেহের অন্দরে প্রদাহের মাত্রা হ্রাস পায়

নানা কারণে অনেক সময়ই আমাদের শরীরের অন্দরে প্রদাহ বা ইনফ্লেমেশন রেট এতটাই বেড়ে যায় যে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গের উপর খারাপ প্রভাব পরে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই নানা রোগ মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে। আর এমনটা কিন্তু যে কারও সঙ্গে হতে পারে। কিন্তু যদি চান আপনার সঙ্গে না ঘটুক, তাহলে নিয়মিত লবঙ্গ চা খেতে ভুলবেন না। কারণ এমনটা করলে শরীরে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদানের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। ফলে প্রদাহের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার আর কোনও আশঙ্কাই থাকে না।

ক্যান্সার দূরে থাকে

লবঙ্গের ভেতরে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় অ্যান্টি-ক্যান্সার এজেন্ট। তাই প্রতিদিনের ডায়েটে লবঙ্গ চা জায়গা করে নিলে স্বাভাবিকভাবেই শরীরের ভেতরে ক্যান্সার নিরোধক উপাদানের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। ফলে দেহে ক্যান্সার সেল জন্ম নেওয়ার আশঙ্কা কমে যায়।

রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে

সরকারি এবং বেসরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী- গত এক দশকে আমাদের দেশে যে হারে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা বেড়েছে, তাতে আমাদের দেশ সারা বিশ্বের মধ্যে ডায়াবেটিস ক্যাপিটালে পরিণত হয়েছে। আর সবথেকে ভয়ের বিষয় হল প্রতি বছর নতুন করে এই মারণ রোগে যারা আক্রান্ত হচ্ছেন, তাদের বেশিরভাগেরই বয়স ৪০ এর নিচে। এমন পরিস্থিতিকে যুব সমাজদের সুস্থ রাখতে পারে একমাত্র লবঙ্গ চা। কারণ এই প্রাকৃতিক উপাদানটির ভেতরে উপস্থিত নিগেরিয়াসিন, শরীরে প্রবেশ করার পর ইনসুলিনের কর্মক্ষমতাকে এতটাই বাড়িয়ে দেয় যে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়ার সুযোগই পায় না।

স্ট্রেস লেভেল নিমেষে কমে যায়

ডায়াবেটিসের পর যে সমস্যাটা গত কয়েক বছরে বেশ মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে তা হল স্ট্রেস। পরিসংখ্যান বলছে, আমাদের দেশের যুব সমজারে সিংহভাগই স্ট্রেসের শিকার। আর ভয়ের বিষয় হচ্ছে- যে কয়টা মারণ রোগ এখন পৃথিবীতে দাপাদাপি করছে, তার প্রায় সবকটির সঙ্গেই স্ট্রেসের সরাসরি যোগ রয়েছে। তাই এমন মারণ পরিস্থিতির খপ্পরে পরতে যদি না চান, তাহলে প্রতিদিন লবঙ্গ চা খেতে ভুলবেন না। কারণ এই পানীয়টির ভেতরে উপস্থিত নানাবিধ উপকারি উপাদান শরীরে প্রবেশ করা মাত্র ফিল গুড হরমোনের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। ফলে স্ট্রেস লেভেল কমতে একেবারে সময় লাগে না।

চটজলদি আর্থ্রাইটিসের যন্ত্রণা কমে

লবঙ্গে উপস্থিত অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি প্রপাটিজ হাড়ের রোগের প্রকোপ কমাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। এক্ষেত্রে এক কাপ লবঙ্গ চা বানিয়ে কয়েক ঘন্টা ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। তারপর সেই ঠান্ডা চা ব্যথা জায়গায় কম করে ২০ মিনিট লাগালে দেখবেন যন্ত্রণা একেবারে কমে গেছে।

প্রসঙ্গত, জয়েন্ট পেন কমানোর পাশাপাশি পেশির ব্যথা এবং ফোলা ভাব কমাতেও এই ঘরোয়া ঔষধিটি বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

জ্বরের চিকিৎসায় কাজে আসে

লবঙ্গে থাকা ভিটামিন কে এবং ই, রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে এতটাই শক্তিশালী করে দেয় যে শরীরে উপস্থিত ভাইরাসেরা সব মারা পরে। ফলে ভাইরাল ফিবারের প্রকোপ কমতে সময় লাগে না।

প্রসঙ্গত, রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা জোরদার হয়ে যাওয়ার পর সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও কমে যায়।

দাঁতের ব্যাথা কমে যায়

লবঙ্গতে উপস্থিত অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান শরীরে প্রবেশ করার পর এমন কিছু বিক্রিয়া করে যে নিমেষে দাঁতের যন্ত্রণা কমে যায়। তাই এবার থেকে দাঁতে অস্বস্তি বা মাড়ি ফোলার মতো ঘটনা ঘটলে এক কাপ গরম লবঙ্গ চা খেয়ে নেবেন। দেখবেন উপকার পাবেন।

হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটে

লাঞ্চ বা ডিনারের আগে লবঙ্গ দিয়ে বানানো এক কাপ গরম গরম চা খেলে হজমে সহায়ক অ্যাসিডের ক্ষরণ বেড়ে যায়। সেই সঙ্গে পেটের দিকে রক্ত প্রবাহেরও উন্নতি ঘটে। ফলে খাবার হজম হতে সময় লাগে না। তাই যাদের কম ঝাল-মশলা দেওয়া খাবার খেলেও বদ-হজম হয়, তারা লবঙ্গ চা পান করে একবার দেখতে পারেন। এমনটা করলে উপকার যে মিলবে, তা হলফ করে বলতে পারি।

নিমেষে করবে সংক্রমণের চিকিৎসা

এবার থেকে কোনও ধরনের ত্বকের সংক্রমণ হলেই চোখ বুজে ক্ষতস্থানে লবঙ্গ চা লাগাতে ভুলবেন না। এমনটা করলে দেখবেন কষ্ট কমতে সময়ই লাগবে না। আসলে লবঙ্গে উপস্থিত ভোলাটাইল অয়েল শরীরে উপস্থিত টক্সিক উপাদানদের বের করে দেয়। সেই সঙ্গে জীবাণুদেরও মেরে ফেলে। ফলে সংক্রমণজনিত কষ্ট কমতে একেবারেই সময় লাগে না।

সাইনাসের প্রকোপ কমে

এই প্রকৃতিক উপাদানটির শরীরে উপস্থিত ইগুয়েনাল নামে একটি উপাদান সাইনাসের কষ্ট কমাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তাই নিয়মিত এ পানিও আপনি পান করতে পারেন।

নিউজ ট্যাগ: লবঙ্গ চা

আরও খবর



তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রকে বলাৎকার, আটক অধ্যক্ষ

প্রকাশিত:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচ উপজেলায় আবাসিক ছাত্রকে বলাৎকারের মামলায় বড়খারচর আদর্শ নূরানী ও হাফেজিয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ মুফতি ইয়াকুব আলীকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।রোববার (১১ এপ্রিল) জেলার তাড়াইল উপজেলার সেকান্দর নগর এলাকার একটি বাড়ি থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

কিশোরগঞ্জ পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বলেন, গত ৩১ মার্চ (বুধবার) দিবাগত রাত ২টার দিকে মুফতি ইয়াকুব আলী মাদরাসার তৃতীয় শ্রেণিতে পড়া আবাসিক ছাত্রকে রুমে ডেকে বলাৎকার করেন। এই ঘটনা কাউকে না বলতে কোরআন শরীফ ছুঁয়ে শপথ করান অভিযুক্ত অধ্যক্ষ।

গত ৬ এপ্রিল (মঙ্গলবার) একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ নিতে বাড়িতে যায় শিশুটি। এর পরদিন মাদরাসায় যাওয়ার কথা বললে শিশুটি কান্নাকাটি শুরু করে। পরে বাবা ও মায়ের কাছে সে ঘটনাটি খুলে বলে। পরে এ ঘটনায় শিশুর বাবা বাদী হয়ে গত ৮ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) কুলিয়ারচর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। তখন থেকে মুফতি ইয়াকুব আলী পালিয়ে ছিলেন।

এই বিষয়ে কুলিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম সুলতান মাহমুদ বলেন, গ্রেপ্তারের পর প্রাথমিকভাবে পুলিশের কাছে অপরাধের কথা স্বীকার করেছেন ইয়াকুব। তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: বলাৎকার

আরও খবর