Logo
শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, নিহত ৬

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের একটি হাইওয়েতে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ৬ জন মারা গিয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ওই হেলিকপ্টারটি মূলত পর্যটন ফ্লাইটের জন্য ব্যবহৃত হতো। দুর্ঘটনার পর হেলিকপ্টারের আরোহী সবাই মারা যান।

ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের লোগান কাউন্টির বিমানবন্দরভিত্তিক হেলিকপ্টারটি স্টেট রুট ১৭ হাইওয়েতে বিধ্বস্ত হয় এবং উদ্ধারকারী কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই সেটিতে আগুন ধরে যায়।

লোগান ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট অথোরিটির পরিচালনা প্রধান রে ব্রায়ান্ট জানান, ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্টেশন সেফটি বোর্ড এবং ফেডারেল অ্যাভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের ঘটনার তদন্ত করবে এবং এই কারণে মহাসড়কটি ২৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে।


আরও খবর



নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ জনের প্রাণহানি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ২৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নরসিংদীর বেলাব উপজেলায় দুটি কাভার্ডভ্যান একে অপরকে পাশ কাটাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার মাহমুদাবাদের নামাপাড়া বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম পরিচয় জানাতে পারেনি পুলিশ। ভৈরব হাইওয়ে থানার ওসি মোজাম্মেল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মাহমুদাবাদের নামাপাড়া বাজারে দুটি কাভার্ডভ্যান একে অপরকে পাশ কাটাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। এসময় তিনজন নিহত হন।


আরও খবর



বাস্তবে ‘স্কুইড গেম’ আনছে নেটফ্লিক্স, পুরস্কার ৪.৫৬ মিলিয়ন ডলার

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নিজেদের জনপ্রিয় সিরিজ স্কুইড গেমের আদলে সত্যি একটি রিয়ালেটি শো আনতে যাচ্ছে নেটফ্লিক্স। এই শোয়ের নাম হবে স্কুইড গেম: দ্য চ্যালেঞ্জ। বিজয়ী পাবেন ৪.৫৬ মিলিয়ন ডলার।

নেটফ্লিক্সের দাবি, এমন রিয়্যালিটি শো নাকি আগে কখনও তৈরি হয়নি। পৃথিবীর আর কোনও রিয়্যালিটি শো-এর পুরস্কারমূল্যও এত বিপুল অঙ্কের নয় বলে দাবি নেটফ্লিক্স কর্তৃপক্ষের।

২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই প্রবল জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। দক্ষিণ কোরিয়ার পরিচালক হং দং হিউইকের এই ওয়েব সিরিজটি পরিচালনা করেন।

নেটফ্লিক্স জানিয়েছেন, দশটি পর্বে এই খেলাটি দেখানো হবে। শ্যুটিং হবে ব্রিটেনে। এতে বিশ্বের নানা দেশ থেকে মোট ৪৫৬ জন প্রতিযোগী অংশ নিতে পারবেন খেলায়। অংশ নেওয়ার জন্য আবেদন করা যাবে স্কুইডগেমকাস্টিং ডট কম নামক ওয়েবসাইট থেকে। তবে আবেদনকারীদের বয়স হতে হবে একুশ বছরের বেশি। পারদর্শী হতে হবে ইংরেজি ভাষায়।

সিরিজে দেখানো হয়েছে, অর্থের প্রয়োজন রয়েছে এমন প্রতিযোগীদের নিয়ে বিভিন্ন খেলা শুরু হয়। দক্ষিণ কোরিয়ায় এগুলির অধিকাংশই শিশুদের খেলা হিসাবে পরিচিত। রং, খাবার, কিংবা পুতুল নিয়ে তৈরি হরেক রকমের খেলায় অসফল হলে কপালে জুটতে পারে মৃত্যু পরোয়ানাও। এমনই দেখানো হয়েছিল সেই সিরিজে। তবে এই রিয়েলিটি শোতে অবশ্য হেরে গেলে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার মতো কোনও ব্যবস্থা থাকছে না। তা নিছকই খেলা।

এপ্রিল মাসেই প্রায় দুই লক্ষ দর্শক হারিয়েছিল নেটফ্লিক্স। অন্যান্য ওটিটি প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে টক্কর দিতে গিয়ে ক্রমাগত কোণঠাসা হতে হচ্ছে সংস্থাটিকে। এই নতুন ধারার রিয়্যালিটি শো সেই ক্ষতি আটকাতে পারে কি না, সেটাই দেখার অপেক্ষা।


আরও খবর

২৭ বছরের সম্পর্কে ইতি টানলেন মীর!

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২

বড় পর্দায় বাম-কংগ্রেস সন্ত্রাস

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




যেসব কারণে পদ্মা সেতু বাঁকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

এই সেতু হবে না, হলেও টিকবে না- ছিল এমন নানা মন্তব্য, মাথা কাটার মতো নানা গুজবও ছড়িয়েছিল। সব গুজব, রটনা ও চ্যালেঞ্জকে পেরিয়েই পদ্মার উপর বসলো ৬.১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ সেতু। দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে জোড়া লাগল রাজধানীর। স্বপ্নের পদ্মা সেতু এখন শুধু উদ্বোধনের অপেক্ষায়। আসছে ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পদ্মা পাড়ি দিয়ে উদ্বোধন হবে সেতুটির। সাথে রয়েছে জমকালো আয়োজন।

এর আগেই পদ্মা সেতু নির্মাণে ব্যয় ও এর নানা প্রকৌশলগত তথ্য নিয়ে চলছে আলোচনা। চায়ের কাপে উঠেছে ঝড়। এরইমধ্যে প্রশ্ন উঠেছে, পদ্মা সেতু বাঁকা কেন? সোজা করলে তো দৈর্ঘ্য কমতো, ফলে যে ব্যয় নিয়ে এতো সমালোচনা সেটা কিছুটা কমতো! কারণ রড-সিমেন্ট কম লাগতো। প্রকল্পসংশ্লিষ্টরা কি বিষয়টি খেয়াল করেননি? নাকি অন্য কোনো সমস্যা ছিল?

প্রশ্ন যুক্তিযুক্ত, কারণ পদ্মা সেতুর নকশার দিকে তাকালে একে বাঁক দেখা যাবে।  অনেকেই ভাবতে পারেন, কেবলমাত্র সৌন্দর্য রক্ষার্থে পদ্মা সেতুকে বাঁকা করে বানানো হয়। কিন্তু বিষয়টা এমন নয়। এর উত্তরে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, সেতুটি সোজাও হতে পারত। কিন্তু প্রকল্পসংশ্লিষ্টরা ইচ্ছে করেই সেতু বাঁকা করে নকশা করেছেন। এমনটা করার প্রধান কারণ দুর্ঘটনার ঝুঁকি কমানো।

বিষয়টির ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন প্রয়াত বরেণ্য প্রকৌশলী অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী।  পদ্মা সেতু প্রকল্পের আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ প্যানেলের প্রধান ছিলেন এই বিশেষজ্ঞ।  সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে  তিনি বলেছিলেন, সেতুটি যদি আমরা আকাশ থেকে দেখি তাহলে বোঝা যায়, সেতুটি ডাবলি কার্ভড। অর্থাৎ ডানে-বাঁয়ে দুবার সামান্য বাঁকানো। এমনটা শুধু পদ্মা সেতুর বেলায় করা হয়নি। যুক্তরাষ্ট্র, চীন কিংবা জাপানে  লম্বা লম্বা মহাসড়কও এভাবে বাঁকিয়ে তৈরি করা হয়েছে।

এর ব্যাখ্যায় অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী বলেছিলেন, এটি মূলত করা হয় চালকদের কথা চিন্তা করে। একদম সোজা সেতু হলে চালকেরা সেতুতে উঠে একঘেয়েমিতায় ভোগেন। ক্লান্তি ও জড়তায় ড্রাইভিং থেকে মনোযোগ হারিয়ে ফেলেন। অনেকের তো স্টিয়ারিং একইভাবে ধরে রাখার কারণে ঝিমুনি আসে। এতে দুর্ঘটনার আশঙ্কা বাড়ে। কিন্তু একটু বাঁকানো হলে চালকদের এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে হয়। এর মাধ্যমে তাদের মাথা সচল থাকে শতভাগ। এড়ানো যায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা। শুধু চালকের মনোযোগ টিকিয়ে রাখার জন্যই নয়; বিপরীত দিক থেকে আসা গাড়ির হেডলাইট সরাসরি যেন চালকের চোখে না পড়ে সে বিষয়টিও মাথায় রেখেছিলেন ইঞ্জিনিয়াররা। সেতু বাঁকা থাকলে আলো সরাসরি চোখে পড়বে না। তাতেও দুর্ঘটনার শঙ্কা কমে যাবে।

বিশেষজ্ঞরা আরো বেশ কিছু কারণ জানিয়েছেন পদ্মা সেতু বাঁকা বানানোর। শুধু পদ্মা সেতু নয়; যে কোনো বড় সেতুই বাঁকা বানানোই যুক্তিযুক্ত। একটি সেতুকে তিন ধরনের ওজন বহন করতে হয়- নিজস্ব ওজন; যানবাহনের ওজন; নদীর বা প্রাকৃতিক দূর্যোগের চাপ বা ওজন। সেতুতে গাড়ি ওঠার সময় কম্পনজনিত চাপ সৃষ্টি হয়। বাঁকা করে তৈরি করা হলে এটি পুরো সেতুতে ছড়িয়ে পড়ে ফলে কম চাপ পড়ে। সোজা হলে পুরো সেতুতে ছড়ায় না। নির্দিষ্ট স্থানে ব্যাপক কম্পন ও চাপ পড়ে। ফলে সেতু ভেঙে পড়ার আশঙ্কা থাকে।  সেতু বাঁকা করে তৈরি হলে এতে যানবাহনের লোডগুলো সঠিকভাবে প্রতিটি পিলারে আরোপিত হয়। এছাড়া নদীতে স্রোতের সময় পিলারে প্রচন্ড চাপ পড়ে, কিন্তু বাঁকা হলে চাপ কম পড়ে। মাটিতে সব জায়গায় সমান চাপ থাকে, তাই বাঁকা করলে ভূমিকম্পের সময় সব পিলার কাঠামো ধরে রাখতে পারে। আরেকটি বড় কারণ বন্যার সময় পানির অধিক চাপেও পিলারগুলো সেতুর কাঠামোকে ধরে রাখতে সক্ষম হয়। এসব কারণে বড় সেতু যেমন পদ্মা সেতু বাঁকা করে নির্মাণ করা হয়েছে। এখানে সৌন্দর্য্য বৃদ্ধির কোনো বিষয় নেই। সেতুকে বেশিদিন টিকিয়ে রাখার জন্যই এমন বুদ্ধি। তাতে খরচ বাড়লেও আপত্তি নেই।

নিউজ ট্যাগ: পদ্মা সেতু

আরও খবর

পদ্মা সেতুর আদ্যোপান্ত

শনিবার ২৫ জুন ২০২২




সৌদি আরবে আরও ২ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সৌদি আরবে আরও দুই বাংলাদেশি হজযাত্রী মারা গেছেন। গতকাল মঙ্গলবার মদিনায় তারা দুজনই মারা যান। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশি হজযাত্রী মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ছয়জনে। ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইটি হেল্পডেস্কের হজের প্রতিদিনের বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মৃতরা হলেন- রংপুর পীরগাছার মো. আব্দুল জলিল খান (৬২) এবং ঢাকার কোতোয়ালির বিউটি বেগম (৪৭)। তারা দুজনই বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় সৌদি আরবে হজ করতে গিয়েছিলেন।

মৃতদের মধ্যে মো. আব্দুল জলিল খান মঙ্গলবার রাতে মদিনার মসজিদে নববীর ৩৮ নং গেটের কাছাকাছি রিয়াজুল জান্নাহয় প্রবেশের সময় ইন্তেকাল করেন। তার পাসপোর্ট নম্বর- BX0552614। আর বিউটি বেগম স্থানীয় সময় মঙ্গলবার ভোরে মদিনার কিং ফাহাদ হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। তার পাসপোর্ট নম্বর- EA0009584।

বুলেটিনে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার পর্যন্ত ৭৮টি ফ্লাইটে সৌদি আরবে গেছেন ২৮ হাজার ৩০৯ জন হজযাত্রী। সৌদি আরব যাওয়া হজযাত্রীদের মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনার ৩ হাজার ৩৮৫ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনার ২৪ হাজার ৯২৪ জন রয়েছেন।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স পরিচালিত ৪৩টি, সৌদিয়া এয়ারলাইন্স পরিচালিত ৩০টি এবং ফ্লাইনাস এয়ারলাইন্স পরিচালিত ৫টি ফ্লাইট রয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী, এবার হজে সৌদি এয়ারলাইন্স ২৩ হাজার ৫৪৫ জন এবং বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২৯ হজযাত্রী বহন করবে।

সৌদি আরবে চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৮ জুলাই হজ অনুষ্ঠিত হবে। এবার সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীর কোটা ৪ হাজার জন। অন্যদিকে, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় কোটা ৫৩ হাজার ৫৮৫ জন।

হজযাত্রীদের সৌদি আরবে যাওয়ার ফ্লাইট গত ৫ জুন শুরু হয়েছে। সৌদি আরবে যাত্রার শেষ ফ্লাইট ৩ জুলাই। হজ শেষে ফিরতি ফ্লাইট শুরু আগামী ১৪ জুলাই, ফিরতি ফ্লাইট শেষ হবে ৪ আগস্ট।


আরও খবর



হঠাৎ করেই কক্সবাজারে মেহজাবিন

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৩৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবিন চৌধুরী। ঈদকে কেন্দ্র করে বেশ কিছু নাটকে তাকে দেখা যাবে। তার ফাঁকে হঠাৎ তার দেখা মিললো কক্সবাজারের সমুদ্র সৈকতে। একই সময়ে একই স্থানে দেখা গেল নির্মাতা আদনান আল রাজীবকেও। টিকটক ভিডিওতে দুজন ধরা দিয়েছেন একসঙ্গে।

এই দুজনের প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন রয়েছে শোবিজে। তাই কক্সবাজারে দুজনের ছবি নিয়ে অনেক জল্পনা-কল্পনা যখন তুঙ্গে তখন জানা গেল, তারা সমুদ্র সৈকতে সময় কাটাতে নয়, তারা এক হয়েছেন নতুন কাজের টানে। রাজীব নতুন একটি বিজ্ঞাপনচিত্র তৈরি করছেন। এর মডেল হয়েছেন মেহজাবিন। সম্প্রতি কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে টানা তিনদিন শুটিং হয়েছে বিজ্ঞাপনচিত্রটির।

আদনান আল রাজীব বলেন, গত তিনদিন ধরে কক্সবাজারের মেরিন ড্রাইভসহ বিভিন্ন জায়গায় বিজ্ঞাপনের শুটিং শেষ করলাম। এতে মেহজাবিন কাজ করছে। আরও থাকছেন একজন নতুন মডেল। বাংলালিংকের টিভিসিটি শিগগিরই প্রচারে আসবে।

নিউজ ট্যাগ: মেহজাবিন চৌধুরী

আরও খবর

২৭ বছরের সম্পর্কে ইতি টানলেন মীর!

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২

বড় পর্দায় বাম-কংগ্রেস সন্ত্রাস

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২