Logo
শিরোনাম

বিসর্জনের মাধ্যমে বিদায় জানানো হবে দেবী দুর্গাকে

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৫ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ১০৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে আজ শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘটবে। এদিন সকালে দর্পণ-বিসর্জনের মাধ্যমে বিদায় জানানো হবে দেবী দুর্গাকে। এরপর বিকেল ৪টা থেকে শুরু হবে প্রতিমা বিসর্জন।

করোনার কারণে এবছরও বিজয়ার শোভাযাত্রা হবে না। তাই পূজার সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে প্রতিমা বিসর্জন করা হবে। আজ শুক্রবার জুমার নামাজ থাকায় নামাজের সময় দুপুরে বিসর্জন অনুষ্ঠান করা হবে না। বিকাল ৪টা থেকে শুরু হবে প্রতিমা বিসর্জন।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা উদযাপন করেছেন মহানবমী পূজা।

এদিকে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশের প্রতিটি পূজামণ্ডপের নিরাপত্তা রক্ষায় পুলিশ, আনসার, র‌্যাব ও বিডিআর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন। পুলিশ এবং র‌্যাবের পাশাপাশি প্রায় প্রতিটি মণ্ডপে স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী দায়িত্ব পালন করছেন। ঢাকেশ্বরী মন্দির মেলাঙ্গনে মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির উদ্যোগে কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, চণ্ডীপাঠ, বোধন এবং দেবীর অধিবাসের মধ্য দিয়ে সোমবার (১১ অক্টোবর) থেকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে শুরু হয় দুর্গাপূজা। এবার সারা দেশে ৩২ হাজার ১১৮টি পূজামণ্ডপে দুর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ঢাকা মহানগরে পূজা হচ্ছে ২৩৮টি। যা গতবারের চেয়ে চারটি বেশি।

পুরাণ মতে, রাজা সুরথ প্রথম দেবী দুর্গার আরাধনা শুরু করেন। বসন্তে তিনি পূজার আয়োজন করায় দেবীর এ পূজাকে বাসন্তী পূজা বলা হয়। কিন্তু রাবণের হাত থেকে সীতাকে উদ্ধার করতে লংকা যাত্রার আগে শ্রী রামচন্দ্র দেবীর পূজার আয়োজন করেছিলেন শরৎকালের অমাবস্যা তিথিতে, যা শারদীয় দুর্গোৎসব নামে পরিচিত। দেবীর শরৎকালের পূজাকে এজন্যই হিন্দুমতে অকাল বোধনও বলা হয়।

নিউজ ট্যাগ: দুর্গাপূজা

আরও খবর

শ্যামাপূজা আজ, হচ্ছে না দীপাবলির উৎসব

বৃহস্পতিবার ০৪ নভেম্বর ২০২১

শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা আজ

বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21




জলবায়ু কূটনীতিতে বাংলাদেশের অগ্রণী ভূমিকা প্রমাণ করে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
কপ-২৬ সম্মেলনের মূল অংশ বিশ্ব নেতৃবৃন্দের শীর্ষ সম্মেলন এবং সাইড ইভেন্ট মিলিয়ে দুই দিনে তিনি ৬টি বহুপাক্ষিক সভা ও ৫টি দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে অংশ নেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বলেছেন, কপ-২৬ সম্মেলনে ঢাকা-গ্লাসগো ঘোষণা গৃহীত হওয়া বাংলাদেশের জলবায়ু কূটনীতিতে অগ্রণী ভূমিকা পালনের ফলাফল। তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি, বাংলাদেশের নেতৃত্বে সবচেয়ে বেশি ৪৮টি জলবায়ু ঝুঁকিপূর্ণ দেশের সরকার ও রাষ্ট্র প্রধানদের দ্বারা ঢাকা-গ্লাসগো ঘোষণা গৃহীত হওয়া জলবায়ু কূটনীতিতে আমাদের দেশের অগ্রণী ভূমিকার ফল।’  যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সে তাঁর ১৪ দিনের সরকারি সফর সম্পর্কে গণমাধ্যমকে অবহিত করার উদ্দেশ্যে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। গণভবন ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে (পিএমও) বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, কপ২৬-এর প্রধান কৃতিত্ব হল বিশ্বের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরা প্যারিস চুক্তি এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি)-র সাথে সামঞ্জস্য রেখে প্রতি বছর ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বরাদ্দসহ জলবায়ু তহবিল প্রক্রিয়াকে আরও ত্বরান্বিত করতে সম্মত হয়েছেন।

বাংলাদেশসহ ১৪১টি দেশ ২০৩০ সালের মধ্যে সকল ধরনের অরণ্য নিধন রোধে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়।

যুক্তরাজ্য ভিত্তিক সংবাদ সংস্থা বিবিসি সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে তাঁকে কপ২৬-এর পাঁচজন চুক্তি প্রস্তুতকারীর একজন হিসাবে নির্বাচিত করেছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, একে আমি বাংলাদেশের ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক সক্ষমতা অর্জন আমাদের নৈতিক পররাষ্ট্র নীতির প্রতি বিশ্ববাসীর আস্থা হিসেবে বিবেচনা করে সম্মানিত বোধ করি।’ তাঁর সফরের বিস্তারিত অবহিত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সে তাঁর দুই সপ্তাহের সফর এবং স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘের কপ২৬ শেষে গত ১৪ নভেম্বর সকালে তিনি দেশে ফিরেছেন।

তিনি জানান, এবারের সফরের বিভিন্ন পর্যায়ে সিভিএফ-এর থিমেটিক অ্যাম্বাসেডর মিজ সায়মা ওয়াজেদ, পররাষ্ট্র মন্ত্রী, শিক্ষা মন্ত্রী, বন, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা, সংসদ সদস্য এবং সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিব ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, রাজনীতিবিদ এবং বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ তাঁর সফরসঙ্গী ছিলেন। এছাড়া, ব্যবসায়ীদের একটি প্রতিনিধিদলও তাঁর সফরসঙ্গী ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কপ-২৬ সম্মেলনের মূল অংশ বিশ্ব নেতৃবৃন্দের শীর্ষ সম্মেলন এবং সাইড ইভেন্ট মিলিয়ে দুই দিনে তিনি ৬টি বহুপাক্ষিক সভা ও ৫টি দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে অংশ নেন। 

তিনি বলেন, কোভিড-পরবর্তী বিশ্ব ব্যবস্থায় ৪৮টি দেশের সংগঠন ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম-সিভিএফ-এর বর্তমান সভাপতি হিসেবে কপ-২৬ শীর্ষ সম্মেলনে তাঁর অংশগ্রহণ বাংলাদেশ এবং সিভিএফ সদস্য দেশগুলোর স্বার্থ সংরক্ষণে বেশ গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সম্মেলনের প্রথম দিন ১ নভেম্বর তিনি সিভিএফ-এর চেয়ার হিসেবে বাংলাদেশ ও কমনওয়েলথের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত সিভিএফ-কমনওয়েলথ হাই-লেভেল প্যানেল ডিসকার্সন’এ তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করে কমনওয়েলথ ও সিভিএফ-এর মধ্যে কার্যকর অংশীদারিত্ব গড়ে তুলতে পরামর্শ প্রদান করেন। ঐদিন দুপুরে তিনি কপ-২৬-এর মূল অনুষ্ঠান বিশ্ব নেতৃবৃন্দের শীর্ষ সম্মেলন’ এ বিশ্বের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের উপস্থিতিতে বাংলাদেশের প্রত্যাশা ও দাবি-দাওয়া তুলে ধরে তিনি বক্তব্য প্রদান করেন। বৈশ্বিক কার্বন নিঃসরণে বাংলাদেশের দায় মাত্র ০.৪৭ শতাংশেরও কম হওয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর একটি বলে তিনি তাঁর বক্তব্যে তুলে ধরেন।

এছাড়া, তিনি সম্প্রতি ইউএনএফসিসিসি’র কাছে হালনাগাদকৃত ন্যাশনালি ডিটারমাইন্ড কন্ট্রিবিউশন (এনডিসি) প্রদান, মুজিব ক্লাইমেট প্রসপারিটি প্লান এন্ড বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ ট্রাস্ট ফান্ডসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন উদ্যোগের বিষয় অবহিত করেন। পাশাপাশি, সিভিএফ-এর সভাপতি হিসেবে তিনি ক্লাইমেট ইমারজেন্সি প্যাক্ট  গঠনের প্রয়াসের কথা বিশ্ব নেতাদের সামনে তুলে ধরেন। বিশ্ব নেতৃত্বকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী পাঁচ দফা প্রস্তান উত্থাপনের কথা উল্লেখ করে বলেন, প্রস্তাবগুলো হচ্ছে: প্রধান প্রধান কার্বন নির্গমনকারী দেশসমূহকে উচ্চাভিলাষী এসডিসি প্রণয়ন, উন্নত দেশগুলোকে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় অভিযোজন ও প্রশমনের জন্য ৫০:৫০ অনুপাতে বছরে ১০০ বিলিয়ন ডলারের প্রতিশ্রুত অর্থায়ন নিশ্চিত করা, পরিবেশবান্ধব উন্নত প্রযুক্তিতে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করা, ক্ষয় ক্ষতিসহ জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সৃষ্ট উদ্বাস্তু সমস্যার সমাধানে একযোগে কাজ করা এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি বাসযোগ্য পৃথিবী গড়ে তোলা।


আরও খবর

হেফাজত মহাসচিব লাইফ সাপোর্টে

রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১




সুদানে সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভ, আরও পাঁচ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৬৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আফ্রিকার দেশ সুদানে চলমান অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে শনিবার আরও পাঁচজন গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। চিকিৎসকদের কেন্দ্রীয় সংগঠন সেন্ট্রাল কমিটি অব সুদানিজ ডক্টরস এ তথ্য জানিয়েছে। রোববারের এক অনলাইন প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ সম্প্রচারমাধ্যম বিবিসি।

চিকিৎসকদের সংগঠনটি জানিয়েছে, বিক্ষোভ চলাকালে গুলিতে আহত হয়ে চারজন বিক্ষোভকারী নিহত হন। নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষের সময় কাঁদানে গ্যাসের ধোঁয়ায় দম বন্ধ হয়ে অপর এক বিক্ষোভকারীর মৃত্যু হয়।

সাম্প্রতিক অভ্যুত্থানের পর সুদানজুড়ে শহর ও নগরে অভ্যুত্থানবিরোধী গণবিক্ষোভ শুরু হয়েছে। দেশটির হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করছেন।

সরাসরি গুলিতে আহত হওয়ার কথা অস্বীকার করে পুলিশের দাবি, তারা ন্যূনতম বলপ্রয়োগ করেছে। সুদানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের প্রতিবেদনে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে ৩৯ পুলিশ সদস্যের গুরুতর আহত হওয়ার কথা জানানো হয়েছে।

সুদানে সামরিক বাহিনীর নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন নতুন জাতীয় পরিষদ গঠনের ঘোষণা আসার কয়েক দিনের মধ্যে প্রাণঘাতী এ সহিংসতার ঘটনা ঘটল।

বৃহস্পতিবার এ পরিষদের ঘোষণা দেওয়া হয়। এর প্রধান হয়েছেন সেনাপ্রধান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-বুরহান। বুরহান ইতিমধ্যে দেশটির অন্তর্বর্তীকালীন সরকার ভেঙে দিয়ে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন। একই সঙ্গে অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী আবদাল্লাহ হামদকসহ মন্ত্রিসভার প্রায় সব সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গত ২৫ অক্টোবর সুদানে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। তখন থেকে দেশটিতে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভ চলছে। এর নিন্দা জানাচ্ছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়।


আরও খবর



শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে ফেরি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৬৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ফেরি চলাচল করবে বলে জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিসির বাংলাবাজার ঘাট কর্তৃপক্ষ। প্রতিদিন ভোর ৬টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৪-৫টি ফেরি দিয়ে শুধুমাত্র হালকা যানবাহন পারাপার করা হবে। বাস, পণ্যবাহী ট্রাক পারাপার আপাতত বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

এর আগে, সোমবার (৮ নভেম্বর) পরীক্ষামূলক ফেরি চলাচল সফল হওয়ায় এ রুটে ফেরি চলাচল শুরু হয়। মঙ্গলবার ভোর থেকে চারটি ফেরি দিয়ে যানবাহন পার করা হচ্ছে।

ফেরি চলাচল শুরু হওয়ায় এই নৌরুট ব্যবহারকারী প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, অ্যাম্বুলেন্সসহ ছোট যানবাহন ও মোটরসাইকেল মঙ্গলবার ভোর থেকে পারাপার হচ্ছে। বন্ধ হয়ে যাওয়া ঘাটের দোকানপাটও খুলতে শুরু করেছেন ব্যবসায়ীরা।

বিআইডব্লিউটিসির বাংলাবাজার ঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাহউদ্দিন আহমেদ জানান, ফেরি সকাল থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে। প্রতিদিন ৪-৫টি ফেরি ছোট যানবাহন পারাপার করবে।’


আরও খবর



আমিনবাজারে ৬ ছাত্র হত্যা: রায় ২ ডিসেম্বর

প্রকাশিত:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দশ বছর আগে রাজধানী সংলগ্ন আমিনবাজারে ডাকাত সন্দেহে ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার মামলায় আগামী ২ ডিসেম্বর রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেছে আদালত।

সোমবার (২২ নভেম্বর) ঢাকার দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ইসমত জাহান এই রায়ের দিন ঠিক করেন।

এদিন রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায়ের জন্য এ দিন ঠিক করা হয়।

২০১১ সালের ১৭ জুলাই শবে বরাতের রাতে সাভারের আমিনবাজারের বড়দেশী গ্রামের কেবলারচরে ডাকাত সন্দেহে ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।

নিহতরা হলেন- ধানমন্ডির ম্যাপললিফ স্কুলের লেভেলের ছাত্র শামস রহিম শাম্মাম, মিরপুর সরকারি বাঙলা কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ইব্রাহিম খলিল, বাঙলা কলেজের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র তৌহিদুর রহমান পলাশ, তেজগাঁও কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের  প্রথম বর্ষের ছাত্র টিপু সুলতান, মিরপুরে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজির (বিইউবিটি) বিবিএ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র সিতাব জাবীর মুনিব এবং বাঙলা কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র কামরুজ্জামান।

নিহতদের সঙ্গে থাকা বন্ধু আল-আমিন গুরুতর আহত হলেও প্রাণে বেঁচে যান। ওই ঘটনার পর আল-আমিনসহ নিহতদের বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় একটি ডাকাতি মামলা করেন আবদুল মালেক নামে স্থানীয় এক বালু ব্যবসায়ী।

এরপর ছাত্র অভিভাবক ও সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরোধিতার মুখে পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাত গ্রামবাসীকে আসামি করে সাভার মডেল থানায় আরেকটি মামলা করে। পরে মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৩ সালের ৭ জানুয়ারি র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শরীফ উদ্দিন আহমেদ ঢাকার মুখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন।

এরপর মামলাটি বিচারের জন্য ঢাকার দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ইসমত জাহানের আদালতে আসে। ২০১৩ সালের ৮ জুলাই ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ৬০ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে আদালত। এ ছাড়া ওই ঘটনায় বেঁচে যাওয়া একমাত্র ভিকটিম আল-আমিনকে একই ঘটনায় করা ডাকাতি মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

মামলার ৬০ আসামির মধ্যে হত্যা মামলার আসামিদের মধ্যে ছয়জন পলাতক, একজন কারাগারে ও ৫২ জন জামিনে আছেন। এছাড়া দুই আসামি মারা যাওয়ায় অব্যাহতি দেওয়া হয়।

এ মামলায় ১৪ আসামি ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

মামলার বিচারকালে ৫৫ জনের সাক্ষ্য নেওয়া হয় বলে নিশ্চিত করেন, রাষ্ট্রপক্ষের সংশ্লিষ্ট আদালতের সহকারি পাবলিক প্রসিকিউটর শাকিলা জিয়াসমিন মিতু।


আরও খবর



খালেদকে বিদেশে পাঠাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ৫ দলের স্মারকলিপি

প্রকাশিত:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালকে স্মারকলিপি দিয়েছেন ২০-দলীয় জোটের শরিক পাঁচটি দলের নেতারা। আজ রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জোটের একটি প্রতিনিধিদল সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এ স্মারকলিপি দেয়।

ন্যাশনাল পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বিদেশে খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমরা স্মারকলিপি দিয়েছি। তিনি স্মারকলিপিটি আন্তরিকতার সঙ্গে গ্রহণ করেছেন। এ বিষয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে জানিয়েছেন।

এর আগে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিমের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলটি সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কার্যালয়ে যায়।

প্রতিনিধিদলে আরও উপস্থিত ছিলেন- ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির চেয়ারম্যান ক্বারী এম.এ. তাহের, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির একাংশের মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম, বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সৈয়দ এহসানুল হুদা।

দীর্ঘদিন হার্ট, কিডনিসহ অনেক শারীরিক জটিলতায় ভুগতে থাকা বেগম খালেদা জিয়া বর্তমানে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সর্বশেষ ১৩ নভেম্বর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর আগে ১২ অক্টোবর হাসপাতালে ভর্তির পর ৭ নভেম্বর তিনি বাসায় ফেরেন।


আরও খবর

হেফাজত মহাসচিব লাইফ সাপোর্টে

রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১