Logo
শিরোনাম

চতুর্থ ধাপে ২৯৭৩ বীর মুক্তিযোদ্ধার তালিকা প্রকাশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ১৯৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
প্রকাশিত তালিকায় ঢাকা বিভাগের ৯৩৮ জন চট্টগ্রাম বিভাগের ১৭৭ জন, বরিশাল বিভাগের ১৬৭ জন, খুলনা বিভাগের ৫৬২ জন

চতুর্থ ধাপে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামের সমন্বিত তালিকা প্রকাশ করেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। এতে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) অনুমোদনবিহীন বেসামরিক গেজেট নিয়মিতকরণ শেষে ৮ বিভাগের ৫৫ উপজেলার ২ হাজার ৯৭৩ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম প্রকাশ করা হয়েছে। 

এ তালিকা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে (www.molwa.gov.bd) পাওয়া যাবে।

প্রকাশিত তালিকায় ঢাকা বিভাগের ৯৩৮ জন চট্টগ্রাম বিভাগের ১৭৭ জন, বরিশাল বিভাগের ১৬৭ জন, খুলনা বিভাগের ৫৬২ জন, ময়মনসিংহ বিভাগের ২০২ জন, রাজশাহী বিভাগের ৭৭৮ জন, রংপুর বিভাগের ৫৮ জন ও সিলেট বিভাগের ৯১ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা রয়েছেন।

এর আগে গত ২৫ মার্চ প্রথম ধাপে ১ লাখ ৪৭ হাজার ৫৩৭ জন, দ্বিতীয় ধাপে গত ৯ মে ৬ হাজার ৯৮৮ জন এবং ৭ জুন তৃতীয় ধাপে ১২ হাজার ১১৬ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নামের সমন্বিত তালিকা প্রকাশ করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।


আরও খবর



চিংড়ি পোলাও তৈরির সহজ রেসিপি

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৯৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পোলাওয়ের চাল ১ কেজি, চিংড়ি মাঝারি আকারের আধা কেজি, দুধ ২ কাপ, নারকেল কোরা আধা কাপ (বেটে মিহি করা), পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, আদা বাটা ১ চা-চামচ, দারুচিনি, এলাচি ও তেজপাতা ২টা করে, কাঁচা মরিচ ৫-৬টি, মরিচের গুঁড়া সামান্য পরিমাণ।

প্রণালী:

প্রথমে পেঁয়াজের কুচি সামান্য তেলে ভেজে বাদামি করে নিতে হবে। এতে একে একে পেঁয়াজ বাটা, নারকেল বাটা, আদা বাটা, দারুচিনি, এলাচি, তেজপাতা, লবণ ও মরিচের গুঁড়া দিয়ে তাতে চিংড়ি মাছ ঢেলে দিন। সামান্য পানি দিয়ে চিংড়ি মাছগুলোকে কষিয়ে নিন। এবার তাতে দুধ দিয়ে ১০-১৫ মিনিট পরে নামিয়ে নিন। চিংড়ি ও ঝোল আলাদা পাত্রে রাখতে হবে। ঝাল পছন্দ করলে নামানোর আগে কাঁচা মরিচ দিতে পারেন। সাধারণভাবে পোলাও রান্না করে চিংড়ির ঝোল দিয়ে দিন তাতে। অল্প আঁচে জ্বাল দিয়ে এবার ওপরে আগের রান্না করা চিংড়িগুলো দিয়ে পরিবেশন করুন।


আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১

বাটা মসলার স্বাদে চিংড়ির কোরমা

মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১




গাছের সঙ্গে বিয়ে

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৩০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দক্ষিণ ভারতীয় সিনেমার নারী সুপারস্টার বলা চলে তাকে। সম্প্রতি স্বীকার করেছেন, নির্মাতা ভিগনেশ শিবের সঙ্গে তার বাগদান হয়ে গেছে। খুব শিগগিরই বিয়ে। ওদিকে শোনা গেছে, গাছের সঙ্গে নাকি বিয়ে হবে তার! আসল খবর কী? ভারতীয় স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানা গেল তা।

বরাবরই একটু ব্যক্তিগত জীবনযাপন পছন্দ নয়নতারার। রুপালি পর্দায় অভিনয় দিয়ে নয়নতারা ফুলের মতো ফুটে থাকলেও নিজের কিচ্ছুটি বলতে চান না গণমাধ্যমের কাছে। শুধু তাই নয়, খুব একটা সাক্ষাৎকারও চোখে পড়বে না তার। এমনকি সিনেমার প্রচারেও থাকেন একেবারে কম।

সম্প্রতি তিনি এসেছিলেন একটি চ্যাট শোতে। সেখানেই জানান, মনের মানুষের সঙ্গে বাগদানের কথা। বিয়ে করবেন শিগগিরই। পাশপাশি জানা গেল, বিয়ের আগে সত্যিই গাছের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন তিনি। মাঙ্গলিক ইস্যুতে এটি করবেন এই অভিনেত্রী।

জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুযায়ী আলোচিত একটি বিষয় হলো মাঙ্গলিক যোগ। মঙ্গলগ্রহ এবং তার প্রভাবিত বিভিন্ন কার্যকলাপকে মাঙ্গলিক বলা হয়। মাঙ্গলিক দশা কাটাতে কোথাও কোথাও রীতি অনুযায়ী গাছ, প্রাণী কিংবা অন্য বস্তুর সঙ্গে বিয়ে দেওয়া হয়।

দুই তারকার বিয়ে হতে পারে আগামী ডিসেম্বরে অথবা আগামী বছরের শুরুতে। ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো তো এটাই বলছে। যদিও তারা দুজনেই এখন ব্যস্ত ছবি নিয়ে। এমনকি এমন গুজবও শোনা গেছে, বিয়ের পরে আর কাজে ফিরবেন না নয়নতারা। আসলে কী হবে, তা দেখার জন্য অপেক্ষা ছাড়া আর কিছুই করার নেই।

নয়নতারা ও ভিগনেশ শিব এখন কাজ করছেন কাথু ভাকুলা রেন্ডু কাধাল সিনেমায়। এই ছবিতে আরও আছেন বিজয় সেথুপতি ও সামান্থা রুথ প্রভু।

এ ছাড়া হিন্দি ছবিতেও দেখা যাবে নয়নতারাকে। বলিউডের বড় তারকা শাহরুখ খানের সঙ্গেই হিন্দি ছবিতে অভিষেক হচ্ছে এই নায়িকার। যদিও মাদককাণ্ডে শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান গ্রেপ্তার হওয়ার পরে থমথমে হয়ে আছে বলিউড। শুটিং স্থগিত রয়েছে শাহরুখের সিনেমাগুলোর। এ ঘটনার সমাধান হলে শিগগিরই শাহরুখের সঙ্গে শুটিংয়ে নামবেন নয়নতারাও।


আরও খবর

অবশেষে জামিন পেলেন শাহরুখপুত্র

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

আজ ফের হাইকোর্টে আরিয়ানের জামিন শুনানি

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১




একটা অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ গড়তে চাই: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১ | ৬৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
পচাত্তরের পর বার বার এসেছে এই ধরনের অত্যাচার। ২০০১ সালের নির্বাচনের পর আবারও সেই একই ঘটনা। এর পর অগ্নি সন্ত্রাস থেকে শুরু করে কতভাবে মানুষকে হত্যা করেছে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, একটা অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ গড়তে চাই। উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে চাই। সোনার বাংলাদেশ গড়তে চাই। যে দেশে কোনো অন্যায় থাকবে না। অবিচার থাকবে না। মানুষ সুন্দরভাবে বাঁচবে, সেটাই আমি চাই।

আজ (সোমবার) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শেখ রাসেল দিবস-২০২১ এর উদ্বোধনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এ সব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, এই বাংলাদেশ সামনে কেমন হবে তার জন্য প্রেক্ষিত পরিকল্পনা করে দিয়েছি। বাংলাদেশের আগামী দিনের চলার পথে যেন কোনো রকম হত্যা, ক্যু, ষড়যন্ত্র না হয়। বাংলাদেশের মানুষ যেন সুন্দরভাবে বাঁচতে পারে। ঘাতকের বুলেটে আর কোনো শিশুকে যেন এভাবে জীবন দিতে না হয়। আমি সমগ্র জাতির কাছে এই আহ্বানই জানাবো যে আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। কাজেই তাদের নিরাপত্তা দেওয়া, তাদের ভালোবাসা দেওয়া, তাদের সুন্দরভাবে গড়ে তোলা, তাদের জীবনটাকে স্বার্থক করা, অর্থবহ করা এটাই যেন সকলের আকাঙ্ক্ষা হয়, এটাই যেন সকলের আদর্শ হয় সেটাই আমি চাই।

তিনি বলেন, একজন শিশুকে হত্যা মানেই লাখো-কোটি শিশুর জীবনে একটা আশঙ্কা এসে যায়। স্বাধীন বাংলাদেশে আমরা দেখেছি যে পাকিস্তান হানাদার বাহিনী এদেশের যেভাবে গণহত্যা চালিয়েছিল। তারাও কিন্তু শিশুদের রেহাই দেয়নি। ছোট্ট নবজাতক শিশুকেও তারা হত্যা করেছে। এমন কী মায়ের পেটের শিশুকেও হত্যা করেছে। আবার সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি আমরা দেখেছি ২০০১ সালের অক্টোবরের নির্বাচনের পর। বিএনপি-জামায়াত একই কায়দায়, ঠিক যেন পাকিস্তান হানাদার বাহিনী যেভাবে গণহত্যা চালিয়েছিল ওই ভাবে বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় হত্যাকাণ্ড চালিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পচাত্তরের পনেরোই আগস্টের পরে কত মানুষকে হত্যা করা হয়েছে। এই সেনাবাহিনীতে ১৯ বার ক্যু হয়েছে। একটা সেনাবাহিনীতে যদি ১৯ বার ক্যু হয় সেই সেনাবাহিনীতে ডিসিপ্লিন আছে বলে এটা কেউ দাবি করতে পারে না। আর এই একেকটা ক্যু ধরে ধরে হাজার হাজার সৈনিক অফিসার হত্যা করা হয়েছে। অনেকের পরিবার লাশও পায়নি। সেই সাথে রাজনৈতিক নেতাকর্মীদেরও অকথ্য নির্যাতন করা হয়েছে। বিশেষ করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর। তাদের দিনের পর দিন ধরে নির্যাতন করা হয়েছে। আবার ঠিক সেই ঘটনা আমরা দেখেছি।

তিনি বলেন, পচাত্তরের পর বার বার এসেছে এই ধরনের অত্যাচার। ২০০১ সালের নির্বাচনের পর আবারও সেই একই ঘটনা। এর পর অগ্নি সন্ত্রাস থেকে শুরু করে কতভাবে মানুষকে হত্যা করেছে। বাসে আগুন দিয়েছে। শিশু পুড়ে মারা গিয়েছে। এই ঘটনাও আমরা বাংলাদেশে দেখেছি। কিন্তু আমরা তো এ রকম চাই না। আমরা চাই বাংলাদেশ একটা শান্তিপূর্ণ দেশ হবে। প্রত্যেকটা শিশুর জীবন অর্থবহ হবে, সুন্দর হবে। এভাবে অকালে ঝড়ে যাবে সেটা আমরা চাই না। একটি ফুল পূর্ণাঙ্গভাবে ফোটার আগে অকালে ঝড়ে যাক এটা কারো আকাঙ্ক্ষা নয়। এটা কেউ চায় না। 

সরকার প্রধান বলেন, পচাত্তরের পর শুধু হত্যা না, সাথে সাথে ইতিহাসকেও মুছে ফেলা হয়েছিল। আমাদের অনেক প্রজন্ম জানতেই পারে না যে সেখানে কত জন মানুষকে হত্যা করা হয়েছে, কীভাবে হত্যা করা হয়েছে বা একাত্তর সালে কীভাবে গণহত্যা হয়েছিল আমাদের দেশে। 

শেখ হাসিনা বলেন, এই বাংলাদেশে প্রথম ১৯৭৪ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শিশু নিরাপত্তার জন্য আইন করে দিয়ে যান। কী দুর্ভাগ্য আমাদের ঘাতকের হাতে তারই সন্তানদের হত্যার শিকার হতে হয়। বাংলাদেশে যেন আর এই ধরনের কোনো ঘটনা ভবিষ্যতে না ঘটে সেটাই আমাদের আকাঙ্ক্ষা, সেটাই আমরা চাই।

শেখ রাসেলের স্মৃতিচারণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কেউ যদি জিজ্ঞেস করতো তুমি কী হবে? সে বলতো আমি আর্মি হবো। সে একটা আর্মি অফিসার হবে, এটাই তার জীবনের স্বপ্ন ছিল।


আরও খবর



বিদেশে থাকা সাইবার অপরাধীদের বিচার হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৯৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, বিদেশে বসে যারা দেশের বিরুদ্ধে সাইবারক্রাইম চালাচ্ছেন, এগুলো আমাদের দৃষ্টিগোচর হচ্ছে। তারা যদি আমাদের দেশের সিটিজেন হয়ে থাকেন তাহলে দেশের আইনানুযায়ী তাদের বিচার অবশ্যই করা হবে।

এদের নিয়ন্ত্রণ করতে ফেসবুক-ইউটিউবের কাছে সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। 

শনিবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে মৌলভীবাজারের সীমান্তবর্তী জুড়ী থানার নবনির্মিত অত্যাধুনিক থানা ভবনের ফলক উম্মোচনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

পরে থানা প্রাঙ্গণে জেলা পুলিশ আয়োজিত বিশাল সুধী সমাবেশে বক্তব্য দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়ার সভাপতিত্বে সমাবেশের আগে প্রধান অতিথি হিসেবে নবনির্মিত আধুনিক থানা কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, মৌলভীবাজার ও রাজনগর-৩ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) নেছার আহমদ, মৌলভীবাজার-হবিগঞ্জ সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) সৈয়দা জোহরা আলাউদ্দিন, সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মফিজ উদ্দিন আহমেদ, পুলিশ কমিশনার (এসএমপি) মো. নিশারুল আরিফ, জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান, জুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান এম এ মোঈদ ফারুক। এছাড়া সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলার বিভিন্ন, উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র, সরকারি কর্মকর্তাসহ আওয়ামী লীগ নেতারা।

এর আগে দুপুরের দিকে ঢাকা থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানকে বহনকারী হেলিকপ্টার জুড়ী হেলিপ্যাডে অবতরণ করে।

গণপূর্ত অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধানে চারতলা বিশিষ্ট অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত জুড়ী থানা ভবনটি সাত কোটি ৩১ লাখ ৪৪ হাজার ৩৫০ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়।


আরও খবর



বাঙালি চোরের নয়, বীরের জাতি : কাদের

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাঙালি চোরের জাতি নয়, বীরের জাতি। আমাদের দেশের গণতন্ত্র কিছুটা হলেও বিকাশ হয়েছে। এটা একটা ধীরগতির পক্রিয়া। রাতারাতি এটা বিকাশ হওয়ার সুযোগ নেই।

রবিবার (৩ অক্টোবর) দুপুরে পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণ প্রকল্পের ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে পুনর্বাসন সাইটসমূহে বরাদ্দকৃত প্লটের লিজ দলিল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি এ সব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুষ্ঠু নির্বাচন চায়। তাই কোনো বিশৃঙ্খলা না করে সবাই নির্বাচনের প্রস্তুতি নিন।

মন্ত্রী বলেন, আদালতের আদেশে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা ২০১১ সালেই বিদায় নিয়েছে। এটা মীমাংসিত বিষয়। উচ্চ আদালতই তত্ত্বাবধায়ক সরকারকে যাদুঘরে পাঠিয়েছে।

বিএনপির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চান। কিন্তু, আপনাদের নেত্রী এক সময় বলেছিলেন, পাগল আর শিশু ছাড়া নিরপেক্ষ কেউ নেই।

পদ্মা সেতুর বাস্তবায়ন সম্পর্কে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শিতার সোনালী ফসল পদ্মা সেতু। সেতু নির্মাণের আগে ছিল পদ্মার ভাঙনের তাণ্ডব। বঙ্গবন্ধু কন্যা ঘোষণা দিয়েছিলেন, আমি নিজ অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করে প্রমাণ করবো বাঙালি চুরি করে না, বাঙালি বীরের জাতি।

সেতু বিভাগের সচিব আবু বকর ছিদ্দীকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন মুন্সীগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি, পদ্মা সেতুতে রেল সংযোগ প্রকল্পের প্রধান সমন্বয়ক মেজর জেনারেল এস এম জাহিদ হোসেন, পদ্মা সেতুর প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।


আরও খবর