Logo
শিরোনাম

এক্সিকিউটিভ পদে চাকরি দেবে এসিআই

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৬ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৯৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অ্যাডভান্সড কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে (এসিআই) এক্সিকিউটিভ’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: অ্যাডভান্সড কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড (এসিআই)

বিভাগের নাম: কনজিউমার ইনসাইটস অ্যানালাইটিকস

পদের নাম: এক্সিকিউটিভ

পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক

অভিজ্ঞতা: ০১-০২ বছর

বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম

প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ

বয়স: ৩৩ বছর

কর্মস্থল: ঢাকা

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ১৩ জানুয়ারি ২০২৩

নিউজ ট্যাগ: চাকুরীর খবর

আরও খবর

অ্যাকশনএইডে চাকরির সুযোগ

মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী ২০২৩




তৃতীয়বারের মতো ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর শপথ নিলেন নেতানিয়াহু

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩০ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। বৃহস্পতিবার ইসরায়েলের সবচেয়ে কট্টর ডানপন্থী রক্ষণশীল জোট সরকারের প্রধান হিসেবে শপথ নেন তিনি। এ নিয়ে তৃতীয় বারের মতো ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর মসনদে বসলেন কট্টরপন্থী এই রাজনীতিক।

৭৩ বছর বয়সী নেতানিয়াহু এর আগে ১৯৯৬ থেকে ১৯৯৯ এবং তারপর ২০০৯ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত দুই মেয়াদে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। বৃহস্পতিবারের আস্থা ভোটের আগে তিনি ইসরায়েলি সংসদের অধিবেশনে ভাষণ দেন।

সরকারের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর নেতানিয়াহু জানিয়েছেন, আরব-ইসরায়েল দ্বন্দ্বের অবসানই তার কাছে সর্বাধিক অগ্রাধিকার পাবে। একই সাথে ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচি বন্ধ এবং ইসরায়েলের সামরিক সক্ষমতা বৃদ্ধির ওপর জোর দিয়েছেন তিনি।


আরও খবর



পেরুতে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে নিহত ১২

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

পেরুতে মাসব্যাপী চলা রাজনৈতিক সংকটের মধ্যে সর্বশেষ সহিংসতায় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে অন্তত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় সময় সোমবার (৯ জানুয়ারি) বিক্ষোভকারীরা যখন একটি বিমানবন্দরে জড়ো হওয়ার চেষ্টা করে তখন এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ন্যায়পাল অফিসের একজন কর্মকর্তা এএফপিকে বলেন, পুনো অঞ্চলের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় শহর জুলিয়াকাতে এই রক্তপাত ঘটে।

দেশটির প্রেসিডেন্ট দিনা বোলুয়ার্তের পদত্যাগের দাবি জানান বিক্ষোভকারীরা। গত ৭ ডিসেম্বর তৎকালীন প্রেসিডেন্ট পেদ্রো ক্যাস্টিলো ক্ষমতাচ্যুত ও গ্রেপ্তার হওয়ার পর দায়িত্ব গ্রহণ করেন তিনি।

কংগ্রেস ভেঙে দিয়ে ডিক্রির মাধ্যমে শাসন শুরুর চেষ্টা করার পরে ক্যাস্টিলোকে অপসারণ করা হয়। এরপর বেশ কয়েকটি দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তের মুখোমুখি হন তিনি। এর জেরে বছরের পর বছর ধরে চলা রাজনৈতিকভাবে অস্থিতিশীল দেশটিতে সপ্তাহব্যাপী সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে।

বামপন্থি ক্যাস্টিলোকে অপসারণে ক্ষুব্ধ বিক্ষোভকারীরা বোলুয়ার্তের পদত্যাগ এবং অবিলম্বে নতুন নির্বাচন চান। তারা ইতোমধ্যে ২০২৬ থেকে ২০২৪ সালের এপ্রিলে নেমে এসেছেন।

পেরুর একটি টিভি চ্যানেলকে ক্যালোস মঙ্গে হাসপাতালের একজন কর্মকর্তা বলেন, জুলিয়াকাতে সোমবার নিহত ব্যক্তিদের গায়ে গুলি লেগেছে। ক্যাস্টিলোকে ক্ষমতাচ্যুত করার ফলে সৃষ্ট সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত সারাদেশে ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

জুলিয়াকার মেয়র অস্কার ক্যাসেরেস শান্তি ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানিয়ে বলেন, পেরুভিয়ানরা একে অপরকে হত্যা করছে। আমি শান্ত থাকার জন্য অনুরোধ করছি। এর আগে, শনিবার জুলিয়াকা বিমানবন্দর দখল করার চেষ্টা করেছিল বিক্ষোভকারীরা। কিন্তু এটি সুরক্ষিত রাখে পুলিশ ও সৈন্যরা।

বলিভিয়ার সীমান্তে পুনো অঞ্চলে অবস্থিত জুলিয়াকা। এখানে আয়মারা আদিবাসী গোষ্ঠীর বহু লোক বসবাস করেন। এই সংকট শুরু হওয়ার পর থেকে পুনো সরকারবিরোধী বিক্ষোভের কেন্দ্রস্থল হয়ে উঠেছে। গত ৪ জানুয়ারি সেখানে হরতাল ঘোষণা করা হয়েছিল।

নববর্ষের ছুটিতে বোলুয়ার্তে সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে বিরতি নেওয়া হয়। কিন্তু ওই দিন এটি আবার শুরু হয়েছে। সোমবার পর্যন্ত পর্যটকদের কাছে জনপ্রিয় এলাকাগুলোসহ দেশটির ছয়টি বিভাগে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভকারীরা।

বোলুয়ার্তে ক্যাস্টিলোর ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন এবং তার মতোই একজন বামপন্থি। কিন্তু অনেক আদিবাসী বোলুয়ার্তেকে বিশ্বাসঘাতক বলে অভিহিত করেছেন। কারণ তিনি তাদের স্বার্থ রক্ষা করেন না।


আরও খবর



টানা তৃতীয় বছরের মতো শীর্ষ গাড়ি বিক্রেতা টয়োটা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৫৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

চলতি বছরের প্রথম ১১ মাসে বিশ্বজুড়ে ৯৫ লাখ ৬০ হাজার ইউনিট গাড়ি বিক্রি করেছে টয়োটা। ২০২১ সালেও প্রায় একই সংখ্যক গাড়ি বিক্রি করেছিল জাপানি প্রতিষ্ঠানটি। এ নিয়ে জার্মান প্রতিদ্বন্দ্বী ফক্সওয়াগনকে হটিয়ে তৃতীয় বছরের মতো বিশ্বের শীর্ষ গাড়ি নির্মাতা হতে যাচ্ছে টয়োটা। জার্মান গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির তুলনায় টয়োটা ২১ লাখ ৪০ হাজার বেশি গাড়ি বিক্রি করেছে। এর মধ্যে টয়োটার সাবসিডিয়ারি দাইহাতসু মোটর ও হিনো মোটরসের গাড়ি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। চলতি বছরের জানুয়ারি-নভেম্বর সময়ে ফক্সওয়াগনের বিক্রি ৯ শতাংশ কমে গেছে। পুরো বছরের হিসাবে টয়োটাকে ছাড়িয়ে যেতে ডিসেম্বরে সংস্থাটিকে মাসিক গড়ের চেয়ে তিন গুণ বেশি গাড়ি বিক্রি করতে হবে। তবে টয়োটা সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠানের বিক্রীত গাড়ি বাদ দিয়েই ফক্সওয়াগনকে ছাড়িয়ে যাবে বলে মনে করছেন খাতসংশ্লিষ্টরা।

চীন ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় শক্তিশালী অবস্থান চলতি বছর টয়োটাকে অনেক এগিয়ে দিয়েছে। যদিও বিশ্বজুড়ে সেমিকন্ডাক্টরের ঘাটতির মতো প্রতিবন্ধকতাগুলোর কারণে স্বাভাবিক চাহিদা মেটাতে হিমশিম খেয়েছে গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। যন্ত্রাংশ ঘাটতির কারণে মহামারীর পুরো সময়ে সংস্থাগুলোকে বার বার গাড়ি উৎপাদন স্থগিতের মতো সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। দাইহাতসু ও হিনো বাদ দিয়ে টয়োটার গাড়ি বিক্রি চীনে ২ শতাংশ বেড়েছে। চলতি বছরের মাঝামাঝিতে চীনা কারখানায় উৎপাদন সক্ষমতা বাড়িয়েছিল সংস্থাটি। এ উদ্যোগ সংস্থাটিকে কোভিডজনিত মন্দা কাটিয়ে গাড়ি বিক্রি পুনরুদ্ধার করতে সহায়তা করেছে। সংস্থাটির বিশেষ করে করোলা ও ক্যামরি সেডান গাড়ি সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়েছে।

এদিকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় স্পোর্ট ইউটিলিটি ভেহিকলগুলো (এসইউভি) জনপ্রিয় ছিল। ইন্দোনেশিয়া ও থাইল্যান্ডে সংস্থাটি গাড়ি বিক্রিতে দুই অংকের প্রবৃদ্ধি পেয়েছে। ফক্সওয়াগন এশিয়ায় তেমন সাড়া ফেলতে পারেনি। চীনে সংস্থাটির গাড়ি বিক্রি ৬ শতাংশ বেড়েছে। যদিও এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলে বিক্রি ৬ শতাংশ বেড়েছে। চীনে লকডাউনের মতো কোভিডজনিত বিধিনিষেধ গাড়ি শিল্পের যন্ত্রাংশ সরবরাহ এবং শিপিং ব্যাহত করেছে। এ কারণে ফক্সওয়াগনের মূল ভিত্তি উলফসবার্গের কারখানায় উৎপাদন ব্যাহত হয়েছে। ফক্সওয়াগনের মোট গাড়ির প্রায় ৪০ শতাংশই বিক্রি হয়েছে চীনে। যেখানে টয়োটার ক্ষেত্রে এ হার ২০ শতাংশ। বিশ্বের বৃহত্তম এ গাড়ির বাজারে অনেক পরে প্রবেশ করেছে জাপানি প্রতিষ্ঠানটি। তবে সংস্থাটি লকডাউন ও চিপ ঘাটতির মতো প্রভাবগুলো সীমিত করতে পেরেছিল।

চায়না অ্যাসোসিয়েশন অব অটোমোবাইল ম্যানুফ্যাকচারার্স এ বছর নতুন গাড়ি বিক্রি বাড়ার পূর্বাভাস দিয়েছে। কিন্তু সরকারের জিরো কভিড নীতি কারখানা ও ডিলারশিপের কার্যক্রম সীমাবদ্ধ করতে বাধ্য করেছিল। যদিও চলতি মাসের শুরুতে এ নীতি থেকে সরে আসে বেইজিং। কোভিডজনিত বিধিনিষেধ তুলে দেয়ায় টয়োটা ও ফক্সওয়াগনের গাড়ি বিক্রি বেড়ে যেতে পারে। তবে কিছুদিন ধরে পুনরায় চীনজুড়ে বিপুলসংখ্যক সংক্রমণ নতুন সংকট তৈরি করেছে। এ পরিস্থিতি জানুয়ারি থেকে গাড়ির চাহিদাকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। টয়োটা উত্তর আমেরিকা ও জাপানেও নানা প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়েছিল। এ কারণে বাজার দুটিতে সংস্থাটির গাড়ি বিক্রি প্রায় ১০ শতাংশ কমে যায়। আবার ফক্সওয়াগনের শক্তিশালী বাজার পশ্চিম ইউরোপে গাড়ি বিক্রি ৭ শতাংশ কমে গেছে।

তবে বিদ্যুৎচালিত গাড়ি (ইভি) বিক্রি টয়োটার চেয়ে এগিয়ে রয়েছে ফক্সওয়াগন। বছরের প্রথম ১১ মাসে জার্মান সংস্থাটি ৩ লাখ ৬০ হাজার ইউনিট ইভি বিক্রি করেছে। এ সংখ্যা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ২৫ শতাংশ বেশি। অন্যদিকে এ সময়ে ২০ হাজার ইউনিটেরও কম ইভি বিক্রি করেছে টয়োটা। রেটিং এজেন্সি এসঅ্যান্ডপি গ্লোবাল পূর্বাভাস দিয়েছে, আগামী বছর বিশ্বজুড়ে নতুন যাত্রীবাহী গাড়ির বিক্রি ৬ শতাংশ বেড়ে ৮ কোটি ৩৬ লাখ ইউনিটে পৌঁছবে। তবে অন্তত ২০২৪ সাল পর্যন্ত গাড়ি শিল্পে চিপ ঘাটতির প্রভাব থাকবে বলে মনে করছে প্রতিষ্ঠানটি।

নিউজ ট্যাগ: টয়োটা

আরও খবর



বাউবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচন: সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক সাত্তার

প্রকাশিত:বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশ উন্মমুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির ২০২৩ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী শিক্ষক ফোরাম পূর্ণ প্যানেল জয়লাভ করেছে।

সভাপতি পদে অধ্যাপক মো. আনোয়ারুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক পদে মো. আব্দুস সাত্তার জয়লাভ করেন।

বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের গাজীপুর মূল ক্যাম্পাসের সেমিনার হলে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

বিজয়ী অন্যান্যরা হলেন- সহসভাপতি মো. আনোয়ারুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মো. মশিউর রহমান, যুগ্ম-সম্পাদক কামরুজ্জামান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আরিফুল ইসলাম, কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য পদে অধ্যাপক ড. কেএম রেজানুর রহমান, অধ্যাপক ড. সোয়াইব আহমেদ, অধ্যাপক ডা. সরকার মো. নোমান, অধ্যাপক ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম, ড. মোহাম্মদ আব্দুল হামিদ, মেহেরীন মুনজারীন রত্না, ড. মো. শহীদুর রহমান, সুমা কর্মকার ও মো. শেখ ফরিদ নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনে মোট তিনটি প্যানেল প্রতিদ্বন্ধিতা করে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী শিক্ষক ফোরাম ও জাতীয়তাবাদী মনোনীত পৃথক দুইটি প্যানেল।

এ ছাড়া সভাপতি পদে মো. মিজানুর রহমান সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্ধিতা করেন। এ নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ১৩৭ জন।

প্রধান নির্বচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন স্কুল অব এডুকেশনের ডিন প্রফেসর সুফিয়া বেগম।


আরও খবর



বিশ্বের যে স্থানে রাত হয় না!

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৯৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিশ্বের বেশ কয়েকটি স্থোন আছে যেখানে সূর্যের দেখা পাওয়াই মুশকিল। আবার এমনও কিছু স্থান আছে যেখানে সূর্য অস্ত যেতেই ভুলে যায়। বিশ্বে এমন কয়েকটি স্থান আছে, যেখানে ২৪ ঘণ্টা পর্যন্তই কখনো কখনো দিন থাকে। সেসব স্থান কখনো পুরোপুরি অন্ধকার হয় না। দিনের পরিমাণই হয় সবচেয়ে বেশি। অর্থাৎ টানা ২৪ ঘণ্টাই সেখানে আপনি কেবল দিন দেখতে পাবেন। জেনে নিন সেসব অদ্ভুত জায়গার তালিকা-

ইউমা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র: ওয়ার্ল্ড মেটিওরো লজিক্যাল অর্গানাইজেশনের মতে, ইউমা (অ্যারিজোনা) হলো পৃথিবীর দীর্ঘতম দিনযুক্ত স্থান। এখানে শীতকালে মোট ১১ ঘণ্টা ও গ্রীষ্মে ১৩ ঘণ্টা পর্যন্ত সূর্যের আলো দেখা যায়। এর মানে হলো, ইউমা বছরে গড়ে চার হাজার ১৫ ঘণ্টা সূর্যালোক পায়। এখানকার ৯০ হাজারেরও বেশি বাসিন্দা শুষ্ক জলবায়ুর সম্মুখীন হন। এই স্থানে বৃষ্টিপাত ২০০ মিলি মিটারের বেশি হয় না ও তাপমাত্রা বেশিরভাগ সময়ে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে থাকে।

ফিনিক্স, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র: পৃথিবীর দ্বিতীয় রৌদ্রজ্জ্বল স্থান হলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফিনিক্স। সেখানেও সূর্য অস্ত যায় না। ফিনিক্স কিন্তু আসলে অ্যারিজোনার রাজধানী। এই স্থান বছরে ৩ হাজার ৮৭২ ঘণ্টা সূর্যালোক পায়। এ কারণে স্থানটি সূর্যের উপত্যকা নামে পরিচিত। এই স্থানের জনসংখ্যা প্রায় দেড় মিলিয়ন। জুন ও সেপ্টেম্বর মাসে এখানকার তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির উপরে চলে যায়। ১৯৯০ সালে এখানকার তাপমাত্রা রেকর্ড ৫০ ডিগ্রিতে গিয়ে পৌঁছেছিল।

আসওয়ান, মিশর: নীল নদী উপত্যকা সম্পর্কে কথা বলা জরুরি। মিশরের দক্ষিণ দিকে অবস্থিত আসওয়ান আফ্রিকার সবচেয়ে রৌদ্র করোজ্জ্বল শহর। সেখানে প্রতিদিন প্রায় সাড়ে ১০ ঘণ্টার বেশি সূর্যের আলো থাকে। প্রতিবছর প্রায় সূর্যের আলো থাকে প্রায় ৩ হাজার ৮৬৩ ঘণ্টা। এখানকার প্রাচীন শহর এলিফ্যান্টাইন হেলেনিস্টিক যুগ পর্যন্ত একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান ছিল।

রাজুকান, নরওয়ে: নরওয়ের দক্ষিণে একটি উপত্যকায় অবস্থিত ছোট গ্রাম রাজুকান। এর প্রাকৃতিক সম্পদ নানা কারণে ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে রাজুকান এলাকাটি বছরের ৬ মাস সূর্যের আলোও দেখতে পায় না। সেপ্টেম্বর মাস থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত এখানে সূর্যের রশ্মি সবচেয়ে কম পড়ে।

ব্যারো, আলাস্কা: আলাস্কার এই ব্যারো অঞ্চলে সূর্য অস্ত যায় না। তবে নভেম্বর মাস থেকে শুরু করে পরবর্তী ৩০ দিন সূর্যের বিন্দুমাত্র আলোও দেখা যায় না। এই স্থান পোলার নাইটস নামেও পরিচিত। প্রচণ্ড শীতেও এই অঞ্চল পুরোপুরি অন্ধকারে ঢাকা থাকে। তুষারে ঢাকা পাহাড় ও মনমুগ্ধকারী হিমবাহ দেখতে যেতে পারেন বিখ্যাত আলাস্কার ব্যারোতে। গ্রীষ্ম বা শীতকাল যে কোনো সময়ই সেখানে যেতে পারেন পর্যটকরা।

নিউজ ট্যাগ: ইউমা

আরও খবর

সেন্টমার্টিনের রিপ কারেন্ট থেকে সাবধান!

বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩