Logo
শিরোনাম

লাথি দিয়ে স্ট্যাম্প ভাঙলেন সাকিব, মারলেন আছাড়ও (ভিডিও)

প্রকাশিত:শুক্রবার ১১ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৩৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচ হলেই মাঠ ও মাঠের বাইরে বাড়তি উত্তেজনা সব সময়ই দেখা যায়। তবে আজ এক ভিন্ন দৃশ্যের সাক্ষী হলো হোম অব ক্রিকেট খ্যাত মিরপুর স্টেডিয়াম। ম্যাচ চলাকালীন আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে অসন্তুষ্ট হয়ে সরাসরি স্ট্যাম্পে লাথি মারেন সাকিব। এখানেই শেষ নয়, পরের ওভারে বল করতে আসেন শুভাগত হোম। ওভারের এক বল বাকি থাকতে বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধের ঘোষণা দেন আম্পায়ার। রাগ সামলাতে না পেরে স্ট্যাম্পগুলো তুলে আছার দেন সাকিব।

আজ শুক্রবার দুপুরে শের-ই বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে আবাহনী লিমিটেডের সঙ্গে মোহামেডানের ম্যাচ চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। তবে তাৎক্ষণিক এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি ম্যাচ রেফারি কিংবা সিসিডিএমের কোনো কর্মকর্তা।

ঘটনা ঘটে ম্যাচের পঞ্চম ওভারে। মুশফিকের বিপরীতে বল করতে আসেন সাকিব। তিন উইকেট হারিয়ে খাদে পড়া আবাহনীর ভরসা মুশফিক আর মোহামেডানের প্রয়োজন এই উইকেটটি। প্রথম বলে কোনো রান নিতে দেননি সাকিব। তবে তার পরের দুই বলে এক ছয় ও এক চারে দশ রান তুলে নেন মুশফিক। পরের দুই বলেও কোনো রান হয়নি।

ওভারের পঞ্চম বল স্ট্যাম্প বরাবর মুশফিকের পায়ে আঘাত করে, এতে লেগ বিফোরের আবেদন করেন সাকিব আল হাসান। তাতে সাড়া দেননি আম্পায়ার ইমরান পারভেজ রিপন। এতে রাগ ও ক্ষোভে স্ট্যাম্পে লাথি মারেন সাকিব। তাতে স্ট্যাম্প মাটিতে পড়ে যায়। পরের ওভারে বৃষ্টির কারণে শুভাগতকে শেষ বল করতে না দেওয়ায় আবারও ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাকিব।

মিডঅফে ফিল্ডিং করছিলেন সাকিব। ওভারের মাত্র এক বল বাকি, কিন্তু মাঠকর্মীদের কাভার নিয়ে আসার ইশারা করেন আম্পায়ার। তাতে অসন্তোষ সাকিবের, দৌড়ে এসে স্টাম্প তুলে নিয়ে আছাড় মারেন। সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন আরেক আম্পায়ার মাহফুজুর রহমান। তার সঙ্গেও তর্কে লিপ্ত হন মোহামেডান অধিনায়ক। এক পর্যায়ে সতীর্থরা তাকে শান্ত করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।


আরও খবর

টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে পেছাল বাংলাদেশ

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

কোম্যানকে বরখাস্ত করলো বার্সেলোনা

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১




২৩ অক্টোবর: ইতিহাসের এই দিনে

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
সোভিয়েত কর্তৃপক্ষ মার্কিন সরকারকে জানান যে, শেখ মুজিবের মুক্তি দেওয়া এবং পূর্ব পাকিস্তানে দ্রুত রাজনৈতিক নিষ্পত্তি সাধন ছাড়া সৈন্য প্রত্যাহারের মাধ্যমে যুদ্ধের আশঙ্কা রোধ করা সম্ভব নয়

২৩ অক্টোবর গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ২৯৬তম (অধিবর্ষে ২৯৭তম) দিন। বছর শেষ হতে আরো ৬৯ দিন বাকি রয়েছে। জেনে নিন ইতিহাসের আজকের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাবলি, জাতীয় দিবস সমূহ এবং এই দিনে কোন কোন বিশিষ্টজন জন্মগ্রহণ ও মৃত্যু বরণ করেছেন।


ঘটনাবলি

    ১০৯১ - টর্নেডোতে লন্ডনে দুজনের মৃত্যু হয়।

    ১১৫৭ - ডেনমার্কে গৃহযুদ্ধের অবসান হয়।

    ১৫২০ - অভিষিক্ত হন জার্মানির রাজা প্রথম কার্লোস।

    ১৬৮১ - ফরাসি সেনাবাহিনী স্টাটসবুর্গ দখল করে।

    ১৭৬৪ - বক্সারের যুদ্ধে মীর কাশিম ব্রিটিশদের কাছে পরাজয় বরণ করেন।

    ১৭৯০ - হাইতিতে দাস বিদ্রোহ হয়।

    ১৮১৪ - ইংল্যান্ডে প্রথম প্লাস্টিক সার্জারি করা হয়।

    ১৮৫৩ - রুশ-তুরস্ক মহাযুদ্ধ শুরু হয়।

    ১৯১৫ - নিউ ইয়র্কে ভোটাধিকারে দাবিতে ২৫ হাজার নারীর মিছিল।

    ১৯১৮ - চার্লি চ্যাপলিন মিলড্রেড হ্যারিসকে বিয়ে করেন।

    ১৯২৩ - দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাশ ফরওয়ার্ড পত্রিকা প্রকাশ করেন।

    ১৯৩২ - রেডিওতে ফ্রেড অ্যালেন শো শুরু হয়।

    ১৯৪১ - ওয়াল্ট ডিজনির ডাম্বো মুক্তি পায়।

    ১৯৪২ - দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের মিশরের উত্তরাঞ্চলীয় আল আলামিন এলাকায় ব্রিটিশ ও জার্মান নাৎসী বাহিনীর মধ্যে বিখ্যাত আল আলামিন যুদ্ধ সংঘটিত হয়েছিল।

    ১৯৪৩ - আজাদ হিন্দ সরকার ব্রিটেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে।

    ১৯৫৩ - হাঙ্গেরির জাতীয়তাবাদী প্রধানমন্ত্রী ইম্রে নাগি সেদেশের কমিউনিস্ট পার্টিকে ভেঙ্গে দেন এবং দেশে সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রভাবমুক্ত স্বাধীন সরকার গঠন করেন।

    ১৯৫৫ - পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে মুসলিম শব্দ বাদ দিয়ে আওয়ামী লীগ গঠন করা হয়।

    ১৯৫৬ - সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের আধিপত্যের বিরুদ্ধে হাঙ্গেরির জনগণ বিদ্রোহ শুরু করে।

    ১৯৫৯ - কাশ্মির সীমান্তে ভারত-চীন সংঘর্ষ শুরু হয়।

    ১৯৭১ - সোভিয়েত কর্তৃপক্ষ মার্কিন সরকারকে জানান যে, শেখ মুজিবের মুক্তি দেওয়া এবং পূর্ব পাকিস্তানে দ্রুত রাজনৈতিক নিষ্পত্তি সাধন ছাড়া সৈন্য প্রত্যাহারের মাধ্যমে যুদ্ধের আশঙ্কা রোধ করা সম্ভব নয়।

    ১৯৮৩ - বৈরুতে মোতায়েন মার্কিন ও ফরাসী সেনাদের ঘাটিতে লেবাননের মুসলমান জঙ্গি হামলায় ২৪১ জন মার্কিন ও ৫৮ জন ফরাসী সেনা নিহত হয়।

    ১৯৮৯ - হাঙ্গেরি গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্রে পরিণত হয়।

    ১৯৯১ - কম্বোডিয়ায় গৃহযুদ্ধ অবসানে ১৩ বছর পর শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

    ১৯৯১ - ২১ বছর পর দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপ ক্রিকেটে অংশগ্রহণের অধিকার পায়।

    ১৯৯৩ - সকাল ১০টায় চীনের ইয়াং ফু সেতু সাফল্যের সঙ্গে নির্মিত এবং চালু হয়।


জন্ম

    ১৫০৩ - জার্মান সম্রাজ্ঞী ইসাবেলা।

    ১৮৮১ - চিত্রশিল্পী পাবলো পিকাসো।

    ১৮৮৬ - প্রখ্যাত বাঙালি শিশু সাহিত্যিক ও সমাজসেবী সুখলতা রাও।

    ১৯২৯ - শামসুর রাহমান, বাঙালি কবি ও লেখক।

    ১৯৪০ - ফুটবল জাদুকর পেলে।

    ১৯৪১ - চাষী নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশি চলচ্চিত্র পরিচালক।

    ১৯৪৩ - মোহাম্মদ রফিক, বাংলাদেশি কবি।

    ১৯৫৮ - হানিফ সংকেত, বাংলাদেশি টেলিভিশন উপস্থাপক, লেখক ও নির্মাতা।

    ১৯৭০ - চীনের বিখ্যাত সংবাদদাতা ফান ছাং চিয়াং।

    ২০০১ - রানা হোসেন, বাগেরহাটের ছেলে।

    ১৯৪৬ - সৈয়দ আবুল মকসুদ। কবি, লেখক, গবেষক, কলামিস্ট।


মৃত্যু

    ১৬২৩ - বিশিষ্ট হিন্দি কবি ও রামায়ণ রচয়িতা তুলসীদাস।

    ১৮৬৭ - ফ্রান্ৎস বপ, জার্মান ভাষাবিজ্ঞানী।

    ১৮৭২ - ফ্রান্সের বিখ্যাত লেখক ও কবি থিওফিল গৌতিয়া।

    ১৯১০ - থাইল্যান্ডের রাজা চুলালংকর্ন।

    ১৯১২ - রামতারণ সান্যাল,বিখ্যাত সংগীতাচার্য ও মঞ্চাভিনেতা।

    ১৯২১ - টায়ারের উদ্ভাবক জন ব্যুও ডানলপ জন্মগ্রহণ করেন।

    ১৯৭৩ - নেলী সেনগুপ্তা, রাজনৈতিক কর্মী ও সমাজসেবী,স্বাধীনতা নিরলস সংগ্রামী।

    ১৯৮৩ - খন্দকার আবদুল হামিদ, বাংলাদেশের সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদ।

    ২০০৫ - আবদুর রাজ্জাক, বাংলাদেশী চিত্রশিল্পী ও ভাস্কর।

    ২০১২ - সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়, বাঙালি সাহিত্যিক।

    ২০১৪ - গোলাম আযম, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে দণ্ডপ্রাপ্ত একজন যুদ্ধাপরাধী।

 

ছুটি ও অন্যান্য

    মোল দিবস


আরও খবর

২৬ অক্টোবর: ইতিহাসের এই দিনে

মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১

২৫ অক্টোবর: ইতিহাসের এই দিনে

সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১




চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতকে হারাতে পারলেই ব্ল্যাংক চেক

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৮৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিশ্বকাপ, এশিয়া কাপের মতো মেগা টুর্নামেন্টে কালে-ভদ্রে দেখা হয়। যেমন এবার আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি হবেন বাবর আজম ও বিরাট কোহলিরা।

আর সেই ম্যাচের জয়-পরাজয় নিয়ে চমকে দেওয়া এক খবর দিলেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান রমিজ রাজা।

জানালেন, বিশ্বকাপে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতকে হারাতে পারলে মোটা অঙ্কের বিনিয়োগ পেতে পারে পাকিস্তান। দেশটির ক্রিকেটপাগল এক বিনিয়োগকারী নাকি তাদের জানিয়েছেন, কোহলির দলকে হারালে বাবরদের জন্য ব্ল্যাংক চেক -এ সই করবেন তিনি।

উল্লেখ্য, পাকিস্তান বোর্ড নিয়মিতই আর্থিক সংকটে পড়ার শঙ্কায় ভোগে। কারণ পিসিবির খরচের অর্ধেকটাই আসে আইসিসি থেকে। আর আইসিসির তার ফান্ডের জন্য ভারতের ওপর নির্ভরশীল।

এ নিয়ে রমিজ রাজার শঙ্কা, ভারত আইসিসিকে অর্থায়ন বন্ধ করে দিলে তখন পিসিবির কী হবে!

আসন্ন বিশ্বকাপের আগে বোর্ড মিটিংয়ে সেই শঙ্কার কথা প্রকাশ্যে আনেন রমিজ। তখনই এই ব্ল্যাংক চেকের বিষয়টি উঠে আসে।

বৈঠকে পিসিবির নতুন চেয়ারম্যান বলেন, পিসিবির ৫০ শতাংশ খরচ চলে আইসিসির অর্থায়ন থেকে। আর আইসিসির সিংহভাগ অর্থায়ন আসে ভারত থেকে। আমার শঙ্কা, ভারত যদি আইসিসিকে অর্থায়ন বন্ধ করে দেয়, তা হলে পিসিবি মুখ থুবড়ে পড়তে পারে।সেটি যেন না হয়, আমি পাকিস্তান ক্রিকেটকে শক্তিশালী করতে চাই। এ বিষয়ে একটি সুখবর আছে। এক বড় বিনিয়োগকারী আমাকে বলেছেন, আসছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তান যদি ভারতকে হারাতে পারে, তা হলে পিসিবির জন্য একটি ব্ল্যাংক চেক প্রস্তুত।

পিসিবিকে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ রমিজ রাজা। বললেন, আমাদের ক্রিকেট যদি আর্থিকভাবে শক্তিশালী হয়, তা হলে কেউ আমাদের ব্যবহার করতে পারবে না। ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের মতো দল সফর বাতিল করতে পারবে না। আমরা সেরা ক্রিকেট দল হওয়ার পাশাপাশি সেরা ক্রিকেট অর্থনীতির দেশ হতে চাই। দুটিই অবশ্য বড় চ্যালেঞ্জ।

নিউজ ট্যাগ: ভারত-পাকিস্তান

আরও খবর

টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে পেছাল বাংলাদেশ

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

কোম্যানকে বরখাস্ত করলো বার্সেলোনা

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১




২ লাখ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা উপহার দি‌চ্ছে রোমানিয়া

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশকে উপহার হিসেবে দুই লাখ ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনার টিকা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে রোমানিয়া সরকার। রোমানিয়ার রাজধানী বুখারেস্টে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠককালে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী বোগদান অরেস্কু এ কথা জানান।

শনিবার (৯ অক্টোবর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানায়।

বৈঠকে ড. আব্দুল মোমেন বলেন, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে রোমানিয়ার জনগণের অকুণ্ঠ সমর্থন ও সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশের জনগণ কৃতজ্ঞ।

দুই দেশের মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে অনুষ্ঠিত প্রথম এই বৈঠকে ড. মোমেন বাংলাদেশ ও রোমানিয়ার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ও দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে অব্যাহত অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেন। আগামীতে পারস্পরিক সহযোগিতার ক্ষেত্রগুলোতে আরও ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন ড. মোমেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য সম্প্রসারণের ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, রোমানিয়ার বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে নির্মাণাধীন ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে এবং প্রতিষ্ঠিত হাইটেক পার্কগুলোতে যৌথ মালিকানায় কিংবা শতভাগ নিজস্ব মালিকানায় বিনিয়োগের আকর্ষণীয় সুযোগ গ্রহণ করতে পারবেন। রোমানিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে সেদেশের একটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদলসহ বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান তিনি। রোমানিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বোগদান অরেস্কু ড. মোমেনের এই আমন্ত্রণ সাদরে গ্রহণ করেন।

ইউরোপের বাজারে বাংলাদেশের জিএসপি সুবিধা অব্যাহত রাখার প্রশ্নে রোমানিয়ার সমর্থন প্রত্যাশা করেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এছাড়া বাংলাদেশ থেকে রোমানিয়ায় দক্ষ ও অদক্ষ জনশক্তি পাঠানোর সম্ভাব্যতা নিয়েও উভয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলোচনা করেন। দুই দেশের শিক্ষা ও সংস্কৃতি ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সম্মতি প্রকাশ করেন তারা।

বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আব্দুল মোমেন জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে পুনর্বাসনে বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপ সম্পর্কে রোমানিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে অবহিত করেন। রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনে রোমানিয়া ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কার্যকর সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন ড. মোমেন।

এ বিষয়ে বোগদান অরেস্কু বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করেন এবং রোমানিয়ার পক্ষ থেকে সম্ভাব্য সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

বাংলাদেশ ও রোমানিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিভিন্ন আন্তর্জাতিক এবং আঞ্চলিক ফোরামে দুই দেশের সহযোগিতা সংক্রান্ত বিষয়ে নিজ নিজ দেশের অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন। বৈশ্বিক ও আঞ্চলিক সমসাময়িক গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনাও করেন তারা।

নিউজ ট্যাগ: রোমানিয়া

আরও খবর



পাটুরিয়া ঘাট পারাপারের অপেক্ষায় শত শত যানবাহন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১ | ৬৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুট বন্ধ হওয়ায় মানিকগঞ্জের শিবালয়ে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে যানবাহনের চাপ বেড়েছে। পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় শত শত যানবাহন নৌরুট পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ নৌপরিবহন করপোরেশ (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ কবির বলেন, সকাল থেকে শত শত সাধারণ পণ্যবাহী ট্রাক পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় প্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, দৌলতদিয়া ঘাটে নাব্যতা সংকট ও শিমুলিয়া ঘাট বন্ধ থাকার কারণে নৌরুটে চাপ বেড়েছে। পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় যানবাহনের চাপ বাড়ায় যানজট এড়াতে ৭ কিলোমিটার আগে সাধারণ পণ্যবাহী ট্রাকগুলো উথুলী সংযোগ এলাকায় রাখা হয়েছে। পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় যানবাহনের চাপ কমলে সিরিয়াল অনুযায়ী ট্রাকগুলো ছেড়ে দেওয়া হবে।

(বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান বলেন, পূজা উৎসব পালনে ঘরমুখো মানুষের ভীড় বেড়েছে পাটুরিয়া ঘাট এলাকায়। শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুট বন্ধ থাকায় এ নৌরুটে যানবাহনের চাপ বেড়েছে।  টার্মিনালে সাধারণ পণ্যবাহী ট্রাক, পরিবহন বাস, ছোট গাড়ি পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট পারের অপেক্ষায় রয়েছে। এ নৌরুটে ১৯টি ফেরির মধ্যে ১৮টি ফেরি দিয়ে যানবাহন ও সাধারণ যাত্রী পারাপার করছে। হামিদুর রহমান নামের একটি ফেরিতে যান্ত্রিক ত্রুটি  থাকায় ডকইয়ার্ডে মেরামত করানো হচ্ছে।


আরও খবর



খালেদা জিয়ার অস্ত্রোপচার চলছে

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার একটি ছোট্ট অপারেশন চলছে। আজ সোমবার দুপুর পৌনে ১টায় তাঁকে অপারেশন থিয়েটারে নেওয়া হয়েছে বলে হাসপাতালের একটি সূত্র কালের কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছে।

এর আগে সকাল সাড়ে ১১টায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে হাসপাতালে যান। আজ বিকেল ৪টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে একটি সংবাদ ব্রিফিংও করবেন  ফখরুল ইসলাম।

জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিকেলে সংবাদ সম্মেলন রয়েছে। সেখানে বিস্তারিত জানানো হবে।

জানা গেছে, দুপুর সাড়ে ১২টার পর ১০ তলার কেবিন ব্লক থেকে খালেদা জিয়াকে তিন তলার অস্ত্রোপচার কক্ষে নিয়ে আসা হয়। এ সময় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ছাড়া খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান, ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

গত ১২ অক্টোবর হাসপাতালে ভর্তি হন খালেদা জিয়া। সপ্তাহখানেক বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে খালেদা জিয়াকে। তবে পরিবার বা দলের পক্ষ থেকে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি নিয়ে এত দিন কেউ কথা বলেননি। এবার তাঁর চিকিৎসাকে ব্যক্তিগত ও পারিবারিক বিষয়ের মধ্যে রাখা হচ্ছে বলে একাধিক নেতা কালের কণ্ঠকে বলেছেন। খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার বিষয়ে তাঁর বোন সেলিমা রহমানও কিছু বলতে রাজি হননি। গতকাল সন্ধ্যায় তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়।

গত এপ্রিল মাসে তিনি করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হন। বাসায় চিকিৎসা নিয়ে করোনা থেকে সেরে উঠলেও শারীরিক জটিলতা দেখা দেওয়ায় ২৭ এপ্রিল তাঁকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। একপর্যায়ে শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে তাঁকে করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) নেওয়া হয়। প্রায় দুই মাস তিনি সিসিইউতে ছিলেন। ১৯ জুন তিনি বাসায় ফেরেন।

এর মধ্যে করোনার টিকা নেওয়ার জন্য খালেদা জিয়া দুই দফায় মহাখালীর শেখ রাসেল ন্যাশনাল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালে যান। ১৯ জুলাই করোনার প্রথম ডোজ টিকা নেওয়ার পর ১৮ আগস্ট দ্বিতীয় ডোজ টিকা নেন খালেদা জিয়া। কিন্তু বাসায় কিছুদিন ধরে তাঁর শরীরের তাপমাত্রা ওঠানামা করছিল।

দুর্নীতির মামলায় কারাদণ্ড হলে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়। এরপর ২০২০ সালের ২৫ মার্চ এক নির্বাহী আদেশে দণ্ড স্থগিত করে তাকে কারাগার থেকে সাময়িক মুক্তি দেওয়া হয়। পরে আরো তিনবার তার মুক্তির মেয়াদ বাড়ায় সরকার।


আরও খবর

আরও ১৭৩ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১

করোনায় মৃত্যু কমেছে, শনাক্ত বেড়েছে

বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১