Logo
শিরোনাম

মহামারীর পর প্রথমবারের মতো সৌদিতে বিদেশি হজযাত্রীরা

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৮০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাস মহামারীর পর এই প্রথম বিদেশি হজযাত্রীদের প্রথম ব্যাচকে স্বাগত জানিয়েছে সৌদি আরব। শনিবার (৪ জুন) হজ যাত্রীদের প্রথম ব্যাচকে স্বাগত জানায় সৌদি কর্তৃপক্ষ। মহামারীর কারণে কর্তৃপক্ষ বার্ষিক এই ধর্মাচার অনুষ্ঠান কঠোরভাবে সীমিত করতে বাধ্য হয়েছিল।

রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানায়, ইন্দোনেশিয়া থেকে দলটি মদিনা শহরে অবতরণ করেছে। আগামী মাসে হজের প্রস্তুতির জন্য আসন্ন কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই পবিত্র শহর মক্কার উদ্দেশে তারা যাত্রা করবে।

সৌদি হজ মন্ত্রণালয়ের মোহাম্মদ আল-বিজাভি রাষ্ট্র পরিচালিত আল-এখবারিয়া চ্যানেলকে বলেন,আজ আমরা ইন্দোনেশিয়া থেকে এই বছরের হজযাত্রীদের প্রথম দলটিকে পেয়েছি, এরপর থেকে মালয়েশিয়া ও ভারত থেকে ফ্লাইট আসতে থাকবে।”

তিনি সৌদি আরবকে তাদের থাকার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত” হিসেবে বর্ণনা করে বলেন, আজ আমরা মহামারীজনিত কারণে দুই বছরের বাধার পরে, সৌদির বাহির থেকে আল্লাহর অতিথিদের পেয়ে খুশি।”

ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের মধ্যে হজ একটি। সামর্থ্যবান মুসলমানদের জীবনে অন্তত একবার হজ করা আবশ্যক। এই হজ বিশ্বের বৃহত্তম ধর্মীয় সমাবেশগুলির মধ্যে অন্যতম। ২০১৯ সালে প্রায় ২.৫ মিলিয়ন মুসলমান হজব্রত পালন করেছিলেন। কিন্তু ২০২০ সালে মহামারী শুরুর পর সৌদি কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেছিল যে, তারা শুধুমাত্র ১,০০০ হজযাত্রীকে হজে অংশ নিতে দেবে। পরের বছর তারা ওই সংখ্যা বাড়িয়ে লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত সৌদি নাগরিক এবং বাসিন্দাসহ মোট ৬০,০০০ জনকে সম্পূর্ণ টিকা দিয়ে হজে অংশগ্রহণের অনুমতি দেয়। সে বছর বিদেশি হজযাত্রীদের বাদ দিলে, বিশ্বব্যাপী মুসলমানরা যারা, স্বভাবতই  হজে অংশ নেয়ার নিয়তে সারা বছরে হজের অর্থ সঞ্চয় করেছেন, তাদের মধ্যে গভীর হতাশা সৃষ্টি হয়। এরপর গত এপ্রিলে সৌদি আরব দেশের অভ্যন্তর এবং বাহির থেকে ১০ লাখ মুসলমানকে চলতি বছরের জুলাইয়ে অনুষ্ঠেয় হজে অংশগ্রহণের অনুমতি দেয়ার ঘোষণা দেয়।

মহামারীর আগে হজযাত্রীরাই সৌদি আরবের প্রধান রাজস্ব উপার্জনকারী ছিল, যাদের থেকে বছরে তারা প্রায় ১২ বিলিয়ন ডলার আয় করত।

সৌদি হজ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এই বছরের হজযাত্রা ৬৫ বছরের কম বয়সী টিকাপ্রাপ্ত মুসলমানদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে। সৌদি আরবের বাইরে থেকে যারা আসছেন, তাদের অবশ্যই হজ ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। তাদের ভ্রমণের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নেওয়া পরীক্ষা থেকে কোভিড -১৯ নেতিবাচক ফলাফল জমা দিতে হবে।

 


আরও খবর

দুই বছর পর পুরনো রূপে রথযাত্রা

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




রৌমারীতে মাদ্রাসার ছাত্রকে গলাকেটে হত্যাচেষ্টা

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৬৭জন দেখেছেন

Image

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলায় রৌমারী ইসলামীয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসার হাফেজ ছাত্র হাবিবুর রহমান (১৫) কে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা।

শুক্রবার (৩ জুন) রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই হাফেজিয়া মাদ্রাসার সামনে থেকে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রৌমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকামুক্ত বলে জানান চিকিৎসক।

হাবিবুর রহমান রাজিবপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের বালিয়ামারী ক্যাম্প পাড়ার তারা মিয়ার ছেলে।

ওই মাদ্রাসার ছাত্ররা জানায়, হাবিবুরের সাথে কিছু কথা হয়েছে আমাদের। সে জানিয়েছে, তিনজন অজ্ঞাত যুবক তাকে কথা বলার জন্য পার্শ্ববর্তী নির্মাণাধীন একটি ভবনে নিয়ে যায়। এক পর্যায়ে আচমকাই তাকে জাপটে ধরে গলা কেটে খুন করার চেষ্টা করেছে।

রৌমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোন্তাছের বিল্লাহ জানান, মাস খানেক আগে ওই ছাত্র জামালপুরের একটি মাদরাসা থেকে এখানে এসেছে বলে জেনেছি। ঘটনা তদন্তে পুলিশ কাজ করছে।


আরও খবর



‘প্রেমিক’ জাহিরকে বিয়ে করছেন সোনাক্ষী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় বলিউডে চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে দুই নাম। জাহির ইকবাল এবং সোনাক্ষী সিনহা। জল্পনা ছিল বহু দিনই। অবশেষে নায়িকার জন্মদিনেই সিলমোহর পড়ল তাতে। প্রেমে হাবুডুবু জাহির-সোনাক্ষী!

সোনাক্ষীর জন্মদিনে ইকবালের আদুরে শুভেচ্ছা। জন্মদিনেই প্রকাশ্যে নায়িকার ভালবাসা। সে সব দেখেশুনেই অনুরাগীরা প্রায় নিশ্চিত, সাতপাকে ঘুরতে চলেছেন দুজনে। কবে বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন তারকা জুটি, আপাতত তা নিয়েই জল্পনা তুঙ্গে। সে জল্পনায় অবশ্য জল ঢেলে দিয়েছেন পাত্রী নিজেই। একেবারে বাদশাহি‌ কায়দায়!

ভালবাসা আছে। সে কথা লুকোতে পারেননি সোনাক্ষী-জাহির। তা বলে এখনই বিয়ে? নৈব নৈব চ। আর সেটাই বুঝিয়ে দিতে অভিনেত্রী পোস্ট করেছেন এক মজাদার ভিডিয়ো। তাতে মুখ অবশ্যই নায়িকার। তবে গলা তাঁর নয়, খোদ শাহরুখ খানের। সোনাক্ষীর মুখে তাঁরই সংলাপ আচ্ছা লাগতা হ্যায়, মজা আতা হ্যায়! যার বাংলা তর্জমা করলে দাঁড়ায়, ভাল লাগে আমার, মজা লাগে! এই ভিডিও পোস্ট করে সঙ্গে সোনাক্ষী লিখেছেন, কেন বিয়ে নিয়ে হাত ধুয়ে আমার পিছনে পড়ে আছ?

বেশ কিছু দিন আগে সোনাক্ষীর সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুলেছিলেন ইকবাল। মুম্বইয়ের এক সংবাদ সংস্থাকে তিনি নিজেই বলেছিলেন, বহু দিন হয়ে গিয়েছে। এই সব গুজবে আর কান দিই না। আমার আর সোনাক্ষীর সম্পর্ক নিয়ে কথা বলে যদি কেউ আনন্দ পান, তা নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করলে এই সব কিছুই যে সহ্য করতে হতে পারে, তার জন্য আমি মানসিক ভাবে প্রস্তুত।

 

নিউজ ট্যাগ: সোনাক্ষী সিনহা

আরও খবর

২৭ বছরের সম্পর্কে ইতি টানলেন মীর!

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২

বড় পর্দায় বাম-কংগ্রেস সন্ত্রাস

শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২




ভারত সফরে মোদির কাছে রোহিঙ্গা ইস্যু তুলবেন শেখ হাসিনা

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৩৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন ভারত সফরের এজেন্ডায় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রত্যাবাসন ইস্যুটি যুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে প্রতিবেশী এই দেশটিতে সফরে যাওয়ার কথা রয়েছে শেখ হাসিনার। বুধবার (২৯ জুন) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআই।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন এএনআইর সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে দ্বিপাক্ষিক সফরে ভারতে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে তিনি মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের অবৈধ অভিবাসনের ফলে উদ্ভূত বিভিন্ন সমস্যার বিষয়টি উত্থাপন করবেন। এর মধ্যে মৌলবাদ বৃদ্ধি, মাদক পাচার এবং নারী ও শিশুসহ মানব পাচারের বিষয়টি রয়েছে।

পররাষ্ট্র সচিব মোমেন বলেছেন, আমাদের কাছে একমাত্র সম্ভাব্য সমাধান হলো (রোহিঙ্গাদের) তাদের রাখাইন প্রদেশে (মিয়ানমার) প্রত্যাবাসন। আমি নিশ্চিত, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দেখা করবেন তখন তিনি এই বিষয়টিও উত্থাপন করবেন যে, এই প্রত্যাবাসন প্রচেষ্টায় ভারত কীভাবে আমাদের সাহায্য করতে পারে।

মোমেন আরও বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে অনুরোধ করছি যে, এই বিশাল জনসংখ্যা অর্থাৎ দশ লাখের বেশি রোহিঙ্গার জন্য প্রয়োজনীয় মানবিক প্রচেষ্টার ক্ষেত্রে কেবল সহায়তা করাই নয়, একইসঙ্গে আমাদের এই সমস্যার কিছু টেকসই সমাধানের দিকেও নজর দিতে হবে। আমাদের কাছে একমাত্র সম্ভাব্য সমাধান হচ্ছে, মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের রাখাইন প্রদেশে প্রত্যাবাসন।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রচেষ্টায় ভারতের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা সম্পর্কে বলতে গিয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব বলেন, আমরা মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলছি, তবে আমি মনে করি অন্য দেশগুলো মিয়ানমারের সাথে সম্মত হলে সেটি (প্রত্যাবাসন প্রচেষ্টায়) কিছু সাহায্য বা সহায়তা করতে পারে।

মিয়ানমার ও বাংলাদেশের অভিন্ন প্রতিবেশী ভারত। আমরা এ বিষয়ে অতীতের মতো আবারও ভারতকে অনুরোধ করব যেন তারা রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে আরো কার্যকর ভূমিকা রাখে, বিশেষ করে তারা যখন মিয়ানমারের রাখাইনে ফিরে যাবে। 

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, উন্নত স্বাস্থ্যসেবা এবং টেকসই জীবিকার পাশাপাশি বসবাসের মতো উপযোগী পরিবেশ পেলে রোহিঙ্গা তাদের দেশে ফিরে যেতে পারে। এক্ষেত্রে প্রাথমিকভাবে হয়তো কিছু সাহায্যের প্রয়োজন হবে এবং মিয়ানমার সম্মত হলে ভারত সেই সহায়তা করতে পারে এবং এটিই হবে বাংলাদেশের জন্য চিত্র বদলে দেওয়ার মতো ঘটনা।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিষয়টি নিয়ে গত বছর ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা এবং সম্প্রতি দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সঙ্গে আলোচনার কথা স্মরণ করেন মোমেন।

আমি নিশ্চিত, রোহিঙ্গাদের তাদের দেশে ফেরত পাঠাতে ভারত কিভাবে সহায়তা করতে পারে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাতে আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেটি নিয়ে আলোচনা করবেন।

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা দশ লাখের বেশি রোহিঙ্গা নাগিরক বর্তমানে কক্সবাজারে বিশ্বের সবচেয়ে বড় শারণার্থী শিবিরে আশ্রয় নিয়ে আছে। শরণার্থীদের অর্ধেকই নারী ও শিশু।

পররাষ্ট্র সচিব মোমেন বলেন, কক্সবাজারের এই জায়গাটি (কুতুপালং) খুবই ছোট। আমরা রোহিঙ্গাদের একটি অংশকে ভাষানচরে স্থানান্তরের মাধ্যমে জায়গাটির ওপর থেকে চাপ কমানোর চেষ্টা করছি। কিন্তু এটিও সাময়িক ব্যবস্থা।

এছাড়া রোহিঙ্গাদের নিয়ে নিরাপত্তা ঝুঁকিও তৈরি হয়েছে। এই জনগোষ্ঠীর অনেকেই মাদক, মানব পাচারসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছে। এছাড়া রোহিঙ্গাদের মধ্যে মৌলবাদ ছড়ানোর শঙ্কাও রয়েছে। 

মাসুদ বিন মোমেন বলেন, রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ৬০ শতাংশের বেশি তরুণ। তাদের মধ্যে ধর্মীয় মৌলবকাদ ছড়ানোর শঙ্কা রয়েছে এবং সেটি হলে শুধু বাংলাদেশই নয়, এ অঞ্চলের জন্যই মাথাব্যথার কারণ হবে। এছাড়া মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড মাদক ও মানব পাচার এবং আন্দামান সাগরের কাছেও আমরা বেশকিছু অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড দেখেছি।

কক্সবাজার জেলা পুলিশের বরাত দিয়ে এএনআই জানিয়েছে, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে ১২ ধরনের অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। এগুলো হলো- হত্যা, মাদক ও মানব পাচার, অস্ত্র ও সোনা চোরাচালান, ধর্ষণ, ডাকাতি, অপহরণ, চাঁদাবাজি এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর হামলা।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের পরবর্তী অধিবেশনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্য দেওয়ার কথা রয়েছে। আশা করা হচ্ছে, রোহিঙ্গাদের দ্রুত প্রত্যাবাসনের বিষয়টি সেখানেও তুলে ধরে বিশ্বের সমর্থন চাইবেন তিনি।


আরও খবর



করোনা রোধে ছয় দফা নির্দেশনা জারি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৫৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশে করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধে সব জায়গায় মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করে ছয় দফা নির্দেশনা জারি করেছে সরকার। মঙ্গলবার ছয়টি নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য সব মন্ত্রণালয়ের সচিব ও বিভাগীয় কমিশনারের কাছে  চিঠি পাঠিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

নির্দেশনার চিঠিতে বলা হয়, সাম্প্রতিককালে সারাদেশে কোভিড-১৯ আক্রান্তের হার দ্রুতগতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে ও জনগণের মধ্যে মাস্ক পরিধান এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণে যথেষ্ট শৈথিল্য পরিলক্ষিত হচ্ছে মর্মে সরকারের উচ্চমহলে আলোচনা হচ্ছে।

কোভিড-১৯ জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির গত ১৪ জুনের সভায় গৃহীত সুপারিশ প্রতিপালনের জন্য এবং কোভিড প্রতিরোধে ছয়টি নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য সচিব ও বিভাগীয় কমিশনারদের অনুরোধ জানানো হয় চিঠিতে।

১. স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করতে সব গণমাধ্যমে অনুরোধ জানাতে হবে।

২. সবক্ষেত্রে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা, নো মাস্ক নো সার্ভিস নীতি প্রয়োগ করা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, জনসমাগম যথাসম্ভব বর্জন করতে হবে।

৩. ধর্মীয় প্রার্থনার স্থানগুলোতে (যেমন- মসজিদ, মন্দির, গির্জা ইত্যাদি) মাস্ক পরা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

৪. জ্বর, সর্দি, কাশি বা কোডিড-১৯ এর উপসর্গ দেখা দিলে কোভিড টেস্ট করার জন্য উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

৫. দোকান, শপিংমল, বাজার, ক্রেতা-বিক্রেতা, হোটেল-রেস্টুরেন্ট সবাইকে বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরিধান করতে হবে। অন্যথায় তাকে আইনানুগ শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে।

৬. স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন এবং মাস্ক পরিধানের বিষয়ে সব মসজিদে জুমার নামাজের খুতবায় ইমামরা সংশ্লিষ্টদের সচেতন করবেন।


আরও খবর



পোরশায় শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে স্বামীসহ আটক ৩

প্রকাশিত:রবিবার ১২ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ | ৬১জন দেখেছেন

Image

নওগাঁ প্রতিনিধি:

নওগাঁর পোরশায় ফাতেমা (২৫) নামের এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। রোববার দুপুরে উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের শাহাপুকুর দিঘিপাড়া গ্রাম থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় গৃহবধু ফাতেমার স্বামী মোস্তাফিজুর রহমানকে আটক ও একই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফাতেমার শশুর আকবর আলী এবং শাশুড়ি জুলেখা বেগমকে থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

স্থানীয় ওয়ার্ড সদস্য শহিদুল ইসলাম জানান, নিহত গৃহবধুর স্বামী বিগত চার বছর ঢাকায় অবস্থান করছিলেন। এসময় তার স্ত্রী স্বামীর বাড়িতেই থাকতেন। ঘটনার দিন সকালে স্বামী ঢাকা থেকে বাড়ি এসেছেন। নিহত ফাতেমার ৮ বছরের একটি ছেলে ও ৩ বছর বয়সের একটি মেয়ে রয়েছে বলে জানা গেছে।

পোরশা থানার অফিসার ইনচার্জ জহুরুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ময়নাতদন্তের জন্য তারা লাশ উদ্ধার করেছেন। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলার প্রস্ততি চলছে বলেও তিনি জানান।


আরও খবর