Logo
শিরোনাম

মোনাজাতে দু-হাত তুলে লাখো মুসল্লির আকুতি

প্রকাশিত:রবিবার ২২ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ১৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীপাড়ে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত চলছে। এতে আত্মশুদ্ধি, নিজ নিজ গুনাহ মাফ, সব বালা-মুসিবত থেকে হেফাজত ও রহমত প্রার্থনা এবং আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় লাখো মুসল্লি দু-হাত তুলে আকুতি জানাচ্ছেন। কান্নায় ভেঙে পড়ছেন অনেকে।

রোববার (২২ জানুয়ারি) দুপুর আখেরি মোনাজাত শুরু হয়। মোনাজাত পরিচালনা করছেন ইজতেমার শীর্ষ মুরুব্বি দিল্লীর হযরত মাওলানা মোহাম্মদ সাদ এর বড় ছেলে মাওলানা ইউসুফ বিন সাদ কান্ধলভী। এর মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমার ৫৬তম আসর।

মোনাজাতের আগে চলে পবিত্র কোরআন-হাদিসের আলোকে বয়ান। এর আগে অনুষ্ঠিত হয় হেদায়াতি বয়ান। দেশ বিদেশের লাখ লাখ মুসল্লিদের উপস্থিতিতে এবাদত, বন্দেগি, জিকির, আসকার আর আল্লাহু আকবর ধ্বনিতে উত্তাল টঙ্গীর তুরাগ পাড়ের বিশ্ব ইজতেমা ময়দান।

শীত উপেক্ষা করে গাজীপুর এবং রাজধানী ঢাকা ও এর আশপাশ এলাকার লাখ লাখ মানুষ আখেরি মোনাজাতে শরিক হতে ইজতেমা স্থলে আসেন।

২২ জানুয়ারি ফজর নামাজের পরই আম বয়ানের মাধ্যমে শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। এর দুদিন আগ থেকেই মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানে আসতে শুরু করেন। শুক্রবার জুমার নামাজে মুসল্লিদের ঢল নামে। রাস্তায়ও নামাজ আদায় করেন অনেকে। দুদিন ধরে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত অবিরাম চলে দেশ-বিদেশের খ্যাতনামা আলেমদের বিভিন্ন ভাষায় বয়ান। ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা ঈমান, আখলাক ও দ্বীনের বিভিন্ন বয়ান শোনেন।য়দান।

নিউজ ট্যাগ: আখেরি মোনাজাত

আরও খবর

আজ সরস্বতী পূজা

বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩

শবে মেরাজ ১৯ ফেব্রুয়ারি

সোমবার ২৩ জানুয়ারী 20২৩




দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঘন কুয়াশার কারণে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। মঙ্গলবার (৩ জানুয়ারি) রাত ৩টা ৪০ মিনিট থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি)।

বিআইডব্লিউটিসি এর আরিচা বন্দরের পরিচালক শাহ খালেদ নেওয়াজ এ তথ‌্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে কুয়াশার ঘনত্ব বৃদ্ধি পাওয়ায় দুর্ঘটনা এড়াতে ফেরি চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ করা হয়। এসময় মাঝ নদীতে রোরো ফেরি কেরামত আলী, ইউটিলিটি ফেরি মাধবীলতা, ছোট ফেরি কুমিল্লা বিভিন্ন প্রকার যানবাহন নিয়ে আটকা রয়েছে।

পাটুরিয়া ফেরি ঘাটে রো রো ফেরি শাহ জালাল, শাহ পরান ও শাহ মখদুম বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে নোঙ্গর করে। দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটে রো রো ফেরি বীর শ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর, বীর শ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান, বীর শ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন, ছোট ফেরি ফরিদপুর, বনলতা, হাসনাহেনা, রজনীগন্ধা, চন্দ্রমল্লিকা বিভিন্ন প্রকার যানবাহন নিয়ে নোঙ্গর করে।


আরও খবর

ঘন কুয়াশায় মাঝ পদ্মায় আটকা ৩ ফেরি

শনিবার ০৭ জানুয়ারী ২০২৩




আন্তর্জাতিক বাজারে কমেছে স্বর্ণের দাম

প্রকাশিত:রবিবার ২২ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আট মাসেরও বেশি সময় পেরোনোর পর অবশেষে আন্তর্জাতিক বাজারে কমল স্বর্ণের দাম। রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমেছে দশমিক ৭ শতাংশ। আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি আউন্স (এক আউন্স=২৮ দশমিক ৩৫ গ্রাম) দশমিক ৭ শতাংশ কমে হয়েছে ১ হাজার ৯০৪ ডলার ৮৭ সেন্ট; আর যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ বাজারে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম দশমিক ৬ শতাংশ কমে হয়েছে ১ হাজার ৯০৯ ডলার ৯০ সেন্ট।

স্বর্ণের আন্তর্জাতিক বাজার বিশ্লেষণকারী বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গত বছরের মাঝামাঝি থেকে লাগামহীনভাবে ডলারের মূল্যমান বৃদ্ধির প্রভাব পড়েছিল স্বর্ণের বাজারেও। ফলে মহামূল্যবান ও আকর্ষণীয় এ ধাতুটির দামও ছিল চড়া। ২০২২ সালের সেপ্টেম্বরের দিকে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে ঋণের বিপরীতে সুদের হার বাড়ানো নির্দেশ দেয় দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ সিস্টেম। সেই নীতিরই সুফল এখন পাওয়া যাচ্ছে বলে রয়টার্সকে জানিয়েছেন বিশ্লেষকরা।

এদিকে, দাম কমে যাওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বজুড়ে বেড়েছে স্বর্ণ কেনার হারও। যুক্তরাষ্ট্রের স্বর্ণ কেনাবেচাসংক্রান্ত সূচকের উন্নতি হয়েছে দশমিক ২ শতাংশ।

স্বর্ণ ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত মার্কিন কোম্পানি হাই রিজ ফিচারসের বাণিজ্য শাখার পরিচালক ডেভিড মেগের রয়টার্সকে বলেন, স্বর্ণের এ মূল্যহ্রাস বাণিজ্যিকভাবে অবশ্যই আমাদের জন্য লাভজনক। যদি এটি দীর্ঘস্থায়ী হয়তাহলে একদিকে যেমন ডলারের মূল্যমান নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আসবে, তেমনি অন্যদিকে স্বর্ণের বাজারও চাঙ্গা হয়ে উঠবে।

এদিকে, স্বর্ণের আন্তর্জাতিক বাজারের শীর্ষ ক্রেতাদেশ না হলেও প্রতি বছর নতুন চান্দ্র বর্ষের সময় বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল এ দেশটিতে ব্যাপক হারে স্বর্ণ কেনাবেচার হার বাড়ে। প্রায় এক মাস ধরে চলে নতুন চান্দ্র বর্ষের উদযাপন। চলতি বছর এ উৎসব শুরু হবে ২১ জানুয়ারি থেকে। এ উৎসবে স্বর্ণ কেনাবেচার হারও ব্যাপকভাবে বাড়বে বলে আশা করছেন ব্যবসায়ীরা।

জিরো-কোভিড নীতির কারণে ২০২২ সালের প্রায় পুরো বছরজুড়েই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি মন্থর ছিল চীনে। তবে ২ ডিসেম্বর থেকে যাবতীয় এই নীতি থেকে সরে আসার পর থেকে চীনের পাশাপাশি বৈশ্বিক অর্থনৈতিক তৎপরতাও প্রতিদিন বাড়ছে।

নিউজ ট্যাগ: স্বর্ণের দাম

আরও খবর



কুয়াশার কারণে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমে যান চলাচলে ধীরগতি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঘন কুয়াশায় ঢেকে গেছে যমুনাপাড়ের শহর সিরাজগঞ্জ। শহরের প্রধান প্রধান সড়কগুলো কুয়াশায় ঢাকা পড়ে গেছে। রিকশা, অটোরিকশা, ইজিবাইক ও বাইক চলাচলে বিঘ্নের সৃষ্টি হয়েছে।  বুধবার (২৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার পর থেকেই শহরজুড়ে তীব্র কুয়াশা পড়া শুরু হয়। রাত বাড়তেই কুয়াশায় ঢেকে যায় পুরো শহর।

এদিকে ঘন কুয়াশায় ঢাকা পড়েছে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কসহ জেলার সব সড়ক। এতে যানবাহন চলাচল করছে খুবই ধীরগতিতে। হেডলাইটের আলোতেও কয়েক ফুট দূরের বস্তু চোখে পড়ছে না।

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন ইয়াজদানী বলেন, কুয়াশার তীব্রতায় পাঁচ ফুট দূরের কিছু চোখে পড়ছে না। ফলে অত্যন্ত ধীরগতিতে চলাচল করছে গাড়িগুলো। তবে কোনো যানজট নেই। পুলিশের চারটি টিম মহাসড়কে দায়িত্ব পালন করছে।

তাড়াশ আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বলেন, নদী অববাহিকা অঞ্চলগুলোতে ঘন কুয়াশা পড়েছে। আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ১৩ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  


আরও খবর

জাজিরায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬

মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী ২০২৩




চীনে পথচারীদের ওপর উঠে গেল চলন্ত গাড়ি, নিহত ৫

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গুয়াংঝুতে পথচারীদের ওপর গাড়ি তুলে দেওয়া এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে চীনের পুলিশ।

বিবিসি জানিয়েছে, বুধবার ভিড়ের মধ্যে চলন্ত গাড়ি উঠে যাওয়ার এ ঘটনায় অন্তত ৫ জন নিহত ও ১৩ জন আহত হয়েছে। এই ঘটনা ইতিমধ্যেই চীনজুড়ে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

ওই চালক মানুষ হত্যার উদ্দেশ্যে ইচ্ছা করেই গাড়িটি পথচারীদের ওপর তুলে দেন বলে অনেকেই অভিযোগ করছেন। অনলাইনে পোস্ট হওয়া একাধিক ভিডিওতে ঘটনার পর চালককে গাড়িটি থেকে বের হয়ে বাতাসে কাগজের মুদ্রা ছিটাতে দেখা গেছে।

পুলিশ ২২ বছর বয়সী ওই যুবককে আটক করেছে, এ ঘটনা নিয়ে তদন্তেও নেমেছে তারা।

১ কোটি ৯০ লাখ বাসিন্দার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর গুয়াংজুর একটি ব্যস্ত মোড়ে বুধবার সন্ধ্যার ভিড়ে পথচারীদের ওপর গাড়ি উঠে যাওয়ার এ ঘটনা ঘটে। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে দেশটিতে এ ধরনের একাধিক ঘটনার খবর পাওয়া গেছে।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে চীনের দক্ষিণের প্রদেশ ফুজিয়ানেও এক চালক তার মিনি ট্রাকটি ভিড়ের ওপর তুলে দেন। ওই ঘটনায় তিনজন নিহত ও ৯ জন আহত হন।

সপ্তাহখানেক আগেও সাংহাইয়ে একটি হোটেলের কর্মীদের সঙ্গে বিরোধের জেরে হোটেলটিতে থাকতে আসা এক ব্যক্তি ইচ্ছাকৃতভাবেই লবির ওপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে দেন। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।


আরও খবর



ভারতের সর্ববৃহৎ বস্তি আর থাকছে না

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বন্দর ব্যবস্থাপনা, বিদ্যুৎ উৎপাদন ও সঞ্চালন, আমদানি রপ্তানি পণ্য পরিবহন, আবাসনসহ নানা খাতে কোটি কোটি টাকা আয় করেছেন ভারতীয় বিলিয়নিয়ার ও এই মুহূর্তে এশিয়ার শীর্ষ ধনী গৌতম আদানি। সমগ্র ভারতজুড়ে রয়েছে তার শিল্প সাম্রাজ্য। তবে এবার তার নজর পড়েছে ভারতের সর্ববৃহৎ বস্তি ধারাভির ওপর। বস্তি উচ্ছেদ করে আধুনিক আবাসন প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে চলেছেন তিনি।

মুম্বাই শহরের কেন্দ্রে ৫৪০ একর জায়গা জুড়ে অবস্থিত ধারাভি বস্তি। আর দশটা সাধারণ বস্তির মতো ধারাভি বস্তিতেও চোখে পড়বে টিন-তেরপল দিয়ে বানানো অন্ধকার খুপরি ঘর, নোংরা ড্রেন, সরু গলি, দুর্গন্ধযুক্ত টয়লেট। শতবর্ষী এই বস্তিতে মুম্বাই শহরের সবচেয়ে নিম্নবিত্ত শ্রেণির মানুষের বসবাস। অস্কারজয়ী চলচ্চিত্র স্লামডগ মিলিয়নিয়ার এর কিছু অংশের শ্যুটিং এখানে হওয়ার পর এই বস্তি বিশ্বব্যাপী আরও পরিচিতি পায়।

ভারতীয় মাল্টিন্যাশনাল কনগ্লোমারেট আদানি গ্রুপের মালিক ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির একজন সুহৃৎ হিসেবে পরিচিত গৌতম আদানি এই বস্তির জায়গায় সোশ্যাল হাউজিং ও বিলাসবহুল ভবন নির্মাণের জন্য সাত বছর মেয়াদী একটি পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন। আদানির ২ দশমিক ৫ বিলিয়ন পাউন্ডের এই পরিকল্পনা ইতোমধ্যেই অনুমোদন করেছে ভারত সরকার। মুম্বাইয়ের মেট্রোপলিটন কমিশনার ও ধারাভি উন্নয়ন প্রকল্পের সিইও এসভিআর শ্রীনিবাসের ভাষ্যে, এটি বিশ্বের বৃহত্তম নগর উন্নয়ন প্রকল্প।

সরকারি কার্যালয়ের নয়তলা থেকে ধারাভি বস্তির দিকে তাকিয়ে এসভিআর শ্রীনিবাস বলেন, সিনেমায় দারিদ্রকে রোমান্টিক করে তোলা (যেমনটা 'স্লামডগ মিলিয়নিয়ার' এর মতো সিনেমায় করা হয়েছে) আর বাস্তবে দারিদ্র্যের মধ্যে বসবাস করা আলাদা জিনিস। এ প্রকল্প বস্তি-মুক্ত মুম্বাই গড়ে তোলার ক্ষেত্রে প্রথম পদক্ষেপ। এই মুহূর্তে এই বস্তিতে মানুষ মানবেতর জীবনযাপন করছে। তাদের বিশুদ্ধ পানি নেই, টয়লেট নেই। স্বাধীনতার ৭৫ বছর পরে এসেও মৌলিক অধিকারগুলো থেকে বঞ্চিত হচ্ছে তারা।

নতুন প্রকল্পটি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে বস্তির অধিবাসীদের মধ্যে। কেউ কেউ নিজেদের জীবনমান উন্নয়নের স্বপ্ন দেখছেন, আবার কেউ কেউ মনে করছেন, বস্তি উচ্ছেদ করলে তাদের আরও বেশি ক্ষতি হবে। একটি স্কুলে নিরাপত্তা প্রহরী হিসেবে কর্মরত সাইবু পুজারি (৩২) বলেন, এটা আমাদের জন্য ভালো হবে। ভালো কিছু করতে চাইলে তো পুরনো কিছু ভেঙে ফেলতেই হবে। আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা ভবিষ্যতের কথা ভাবে না। কিন্তু বস্তির আরেক অধিবাসী, ৪৬ বছর বয়সী ধন মোহন শেঠী মনে করেন, ধারাভিতে বসবাসরতদের মধ্যে নিজস্ব একটি সহায়তা প্রক্রিয়া রয়েছে। এখানে একজন বিপদে পড়লে অন্যরা তাকে সাহায্য করে। কিন্তু আধুনিক বহুতল ভবনের ভেতরে সেই সহায়তা তারা নাও পেতে পারেন। তিনি বলেন, এখানে যদি আমরা না খেয়ে থাকি, তাহলে প্রতিবেশিরা আমাদের খাবার দেয়। এখানে আমার সন্তানদের পড়াশোনার জন্য একটা স্কুলও রয়েছে। আমাদের কাছে সবকিছু আছে। আমরা যদি এখান থেকে চলে যাই, এরপর যদি সমস্যায় পড়ি, তখন কে আমাদের সাহায্য করবে?

আবার অনেকের আশঙ্কা, সরকার যে পুনর্বাসনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তা কখনো বাস্তবায়িত হবে না এবং এর ফলে তাদের আরও শোচনীয় অবস্থা হবে। এমনকি ২৩ বছর বয়সী সাগর কুমার বৈশি ধারাবি বস্তি ছেড়ে অন্য কোথাও যেতেই চান না। তার ভাষ্যে, আমরা বিক্রি করতে চাই না। যা হওয়ার হোক। এদিকে ভবন নির্মাণ পরিকল্পনা এখনও চূড়ান্ত না হলেও, জানা গেছে, মোট জায়গার ৪০ শতাংশ বস্তিবাসীদের পুনর্বাসন কাজে ব্যবহৃত হবে এবং বাকি ৬০ শতাংশ জায়গায় বিলাসবহুল ভবন নির্মাণ করা হবে। এছাড়াও, বস্তির সকলেই পুনর্বাসন প্রকল্পে স্থান পাবেন না। সরকারি হিসাব অনুযায়ী, প্রতি দশটি পরিবারের মধ্যে মাত্র ছয়টি পরিবার থাকার ঘর পাবে। অর্থাৎ, বস্তি উচ্ছেদ হলে শত শত পরিবারকে বাস্তুহীন হতে হবে।

বস্তিতে আবাসন প্রকল্পের নির্মাণ কাজের তত্ত্বাবধানে থাকবে যারা, তার ৮০ শতাংশ শেয়ারের মালিক হবে আদানি গ্রুপ এবং প্রধান বিনিয়োগকারী হিসেবে লাভের সিংহভাগই তাদের পকেটে যাবে। প্রকল্পের আর্থিক ও সামাজিক জটিলতার কারণে গত দুই দশক ধরে ধারাভি বস্তি উন্নয়নের প্রচেষ্টা বারবার হোঁচট খেয়েছে। তবে এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাথে গৌতম আদানির উষ্ণ সম্পর্কের জোরেই তিনি এ প্রকল্প বাগিয়ে নিতে পেরেছেন বলে অনেকের ধারণা।

তবে মুম্বাইয়ের স্থপতিদের জন্য যে এ প্রকল্প বেশ লোভনীয় তা বলাই বাহুল্য! মুম্বাইভিত্তিক স্থপতি মুকেশ মেহতা বলেন, হাই প্রোফাইল বা গুরুত্ব বিবেচনায় এই মুহূর্তে এই প্রকল্পের চেয়ে হাইপ্রোফাইল কোনো প্রকল্প বিশ্বে নেই। এখানে শুধু টাকার বিষয়টাই মুখ্য না। এর সঙ্গে সম্মান জড়িত, এবং দরিদ্রদের সাহায্য করার বিষয়টিও জড়িত।


আরও খবর