Logo
শিরোনাম

মুক্তিযোদ্ধাদের নতুন করে তালিকাভুক্ত হওয়ার সুযোগ নেই’

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ১৮৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, বাংলাদেশে মুক্তিযোদ্ধাদের নতুন করে তালিকাভূক্ত হওয়ার আর সুযোগ নেই। তবে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ অনুমোদনে উপযুক্ত প্রমাণ সাপেক্ষে প্রবাসে অবস্থানরত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকাভূক্ত হওয়ার এখনো সুযোগ আছে।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (১০ মে) সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের জুইস সেন্টারে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন আ ক ম মোজাম্মেল হক।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী দেশের উন্নয়নের পক্ষে প্রচারণা চালাতে প্রবাসীদের আহ্বান জানিয়ে বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে চলমান উন্নয়নের পক্ষে ব্যাপক প্রচারণা চালাতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ অদম্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশকে আবারও পিছিয়ে নিতে ষড়যন্ত্রকারীরা দেশে-প্রবাসে সমানভাবে সক্রিয়।

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস এবং বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম ওয়াজেদ মিয়ার ত্রয়োদশ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র সফররত বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্য নুরুল আমিন রুহুল এমপি, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মনিরুল ইসলাম এমপি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী জাহাঙ্গীর আলম, নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল ড. মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ডা. মাসুদুল হাসান, সহ-সভাপতি সামসুদ্দিন আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন দেওয়ান, প্রচার সম্পাদক দুলাল মিয়া এনাম, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আশরাফুজ্জামান, প্রবাসীকল্যাণ সম্পাদক মো. সোলায়মান আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা খান মিরাজ, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান মিয়া, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমদাদ চৌধুরী, কানেকটিকাট স্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি জেহাদুল হক জিহাদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম ওয়াজেদ মিয়ার ত্রয়োদশ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা সাইফুল আলম সিদ্দিকী। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্টেটের আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও শ্রমিক লীগের নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশে এখনো মৌসুমি বায়ু সক্রিয় অবস্থায় আছে। এর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি হচ্ছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় দেশের কয়েকটি বিভাগের কিছু কিছু জায়গায়, কয়েকটি বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টি এবং কয়েক বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়াবিদ আব্দুল মান্নান বলেন, মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর এখনো সক্রিয়। এর প্রভাবে চলতি মাসজুড়ে থেমে থেমে নানা জায়গায় বৃষ্টি হতে পারে। তবে সব জায়গায় বৃষ্টির পরিমাণ এক হবে না। কোথাও ভারী আবার কোথাও মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, মৌসুমি বায়ুর অক্ষ ভারতের পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের অন্য এলাকায় দুর্বল থেকে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে।

আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর, সিলেট, ময়মনসিংহ ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে রংপুর, সিলেট, ময়মনসিংহ ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে মাঝারি ধরনের ভারী বর্ষণ হতে পারে।

এদিকে আজ রাত ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য দেওয়া আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট অঞ্চলগুলোর ওপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর থেকে।


আরও খবর



ডলারের বিপরীতে রুপির মান রেকর্ড সর্বনিম্নে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৩৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ডলারের বিপরীতে রুপির বিনিময় মান সর্বকালের সর্বনিম্নে পৌঁছেছে। সম্প্রতি তিন দফা মানের পতনের পর সোমবার আরেকবার রেকর্ড গড়েছে ভারতীয় মুদ্রা। প্রতি ডলারের বিনিময় মান সাড়ে ৮১ রুপিরও বেশি। বিশ্বব্যাপী ক্রমবর্ধমান ঋণের হার ও মন্দার কারণে এই পতন বলে বিশ্লেষকরা মন্তব্য করছেন। মূল্যস্ফীতির ইতিবাচক দিকগুলো কাজ না করা পর্যন্ত এই নিম্নমুখী প্রবণতা চলবে।

ব্লুমবার্গ জানায়, গত শুক্রবার ডলারের বিপরীতে ৮০.৯৯ রুপি বিনিময় মানের তুলনায় আজ রেকর্ড ৮১.৫৫৮৭ রুপি ছুঁয়েছে। অন্যদিকে ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, প্রাথমিক বাণিজ্যে মার্কিন ডলারের বিপরীতে দেশীয় মুদ্রা ৩৮ পয়সা কমে সর্বকালের সর্বনিম্ন ৮১.৪৭-এ দাঁড়িয়েছে। সপ্তাহের শেষের দিকে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক (আরবিআই) রুপির পতন ঠেকাতে কিছু পদক্ষেপ নেয়ার কথা রয়েছে। তবে ওই উদ্যোগ কতটা কাজ করবে তা নিয়ে পর্যবেক্ষকরা বিভক্ত।

দুর্বল রুপিকে রক্ষা করতে ও দেশটির বাণিজ্য নিষ্পত্তির জন্য আরবিআই সম্প্রতি বাজারে হস্তক্ষেপ করেছে। এ কারণে গত কয়েক মাস ধরে ভারতের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ক্রমাগত হ্রাস পাচ্ছে। রুপির পতনের আরেকটি সম্ভাব্য কারণ হিসেবে এ বিষয়কেও ধরা হচ্ছে।

নিউজ ট্যাগ: ডলার

আরও খবর

৩১ ডিসেম্বরের পর পাম অয়েল বিক্রি বন্ধ

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




ঘুরে আসুন হাসন রাজার দেশ

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

লোকে বলে বলেরে, ঘরবাড়ি ভালা নায় আমার

কী ঘর বানাইমু আমি, শূন্যের-ই মাঝার

ভালা করি ঘর বানাইয়া, কয় দিন থাকমু আর

অয়না দিয়া চাইয় দেখি, পাকনা চুল আমার।

পরিচিত গানের কথাগুলো মরমি সাধক কবি দেওয়ান হাসন রাজার। গানের এ কথাগুলোর সঙ্গে হাসন রাজার জীবনবোধ যে একেবারে মিলেমিশে একাকার। বেশ মিল রয়েছে তাঁর সর্বশেষ স্মৃতিবিজড়িত বাড়িটির। যেখানে একটি জাদুঘরে সংরক্ষিত হচ্ছে তাঁর স্মৃতিচিহ্নগুলো। এখনো বাংলার লোকগানে ফিরে আসেন হাসন রাজা তাঁর লেখা অসাধারণ জীবনবোধের কবিতা ও গান নিয়ে। আজ থেকে বহু বছর আগে সুনামগঞ্জের সুরমা নদীর ধারে প্রতাপশালী দাপুটে এ জমিদার বৈরাগ্য সাধনে মুক্তির পথ বেছে নিয়েছিলেন। প্রজাদের ওপর বিনা কারণে অত্যাচারী এবং ভোগবিলাসে মত্ত ছিলেন জমিদার হাসন রাজা। পরে এক আধ্যাত্মিক স্বপ্ন-দর্শন তাঁর জীবনকে আমূল পাল্টে দেয়। মন হয়ে ওঠে প্রসারিত, জীবন হয়ে ওঠে সহজ, সরল ও সাদাসিধে। বিলাসপ্রিয় জীবন ছেড়ে দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ছাড়লেন জমকালো পোশাক। চরিত্রে এলো এক সৌম্যভাব; পরনে এলো সুফি পোশাক। জীবনের যত ভুলত্রুটি, শোধরাতে শুরু করলেন একে একে।

এতক্ষণে নিশ্চয় ভাবছেন, একদিন ঘুরে এলেই তো হয় হাসন রাজার বাড়ি। কেমন ছিলেন তিনি জানার প্রয়োজন। সাধারণ এক বাড়িতে সাধক এ রাজার যে স্মৃতিচিহ্ন এখনো অবশিষ্ট আছে, তা দেখতে হলে আপনাকে যেতে হবে সুনামগঞ্জ শহরের আরফিন নগরে। খুব সাদামাটা এক বাড়িতে সংরক্ষিত শেষ স্মৃতিচিহ্নগুলো নিয়ে গড়ে উঠেছে একটি জাদুঘর, যা আপনাকে নিয়ে যাবে উনিশ শতকের শুরুর দিকের সেই সময়টাতে। ছোটখাটো কিন্তু সংরক্ষণের জন্য অনন্য সব জিনিস আপনাকে মুগ্ধ করবে নিশ্চিত। রাজার আয়েসি জীবন থেকে শুরু করে আপনি দেখতে পাবেন কবি জীবনের সব সংগ্রহ। বাদক যন্ত্র থেকে রাজার জমিদারি ম্যাপকী নেই সেই সংগ্রহে! আছে রাজার খড়মসহ ব্যবহার্য জিনিসপত্র। ঘরের এবং ঘরের বাইরের সব সংগ্রহের পাশাপাশি অবস্থান পেয়েছে বিশিষ্টজনের সঙ্গে রাজার সাক্ষাৎ ও দর্শনার্থীদের ভ্রমণের বিশেষ কিছু ছবি। এসব দেখতে দেখতে আপনি রাজার সেই আমলে ফিরে যাবেন; কল্পনার তুলিতে আঁকতে চাইবেন রাজার জীবন দর্শন। কীভাবে একজন রাজা একাধারে এত বড় রাজ্য শাসনের পাশাপাশি কবিতা ও গানের সঙ্গে নিজের জীবনবোধকে সাধনার রাজ্যে নিবিষ্ট করেছিলেন। কী ছিল তাঁর জীবন দর্শন?

এই মরমি সাধককে নিয়ে আজ দেশ-বিদেশে চলছে বিস্তর গবেষণা, তাঁর জীবনের বোধ কি এত সহজেই আবিষ্কার করা সম্ভব? না, তবে যেটুকু দেখে ফিরলেন তাতে হাসন রাজা সম্পর্কে জানার আগ্রহটা আরো বাড়িয়ে দেবে আপনার। সুনামগঞ্জের এই জাদুঘরের পাশাপাশি আপনি হাসন রাজা সম্পর্কে আরো জানতে চাইলে অন্য একটা মিউজিয়ামও ঘুরে আসতে পারেন। সিলেট শহরের একেবারে প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত এই মিউজিয়ামের নাম রাজাস মিউজিয়াম। এটা শহরের জিন্দাবাজার এলাকায় অবস্থিত।

সুনামগঞ্জে এসেছেন আর কী দেখবেন? রাজার বাড়ি দেখার পর শহরটা ঘুরে দেখতে চাইলে বিকেলের শেষ দিকে আপনি ঘুরে আসতে পারেন অনিন্দ্য সুরমা নদীর ওপর নবনির্মিত আবদুজ জহুর সেতু থেকে। সুনামগঞ্জের যোগাযোগব্যবস্থার বিপ্লব বললেও ভুল হবে এই সেতুকে। সুরমা নদীর দুই পাড়ের জনপদের মধ্যে আত্মীয়তার সম্পর্ক স্থাপনকারী এই সেতুতে বিকেলের নিরিবিলি সময়টা কাটাতে পারলে আপনার অন্যতম একটি বিকেল হবে সেটি। বিশম্ভরপুর, তাহিরপুর আর জামালগঞ্জের সঙ্গে যোগ হওয়া এই সেতু থেকে পানিবেষ্টিত সুনামগঞ্জ শহর আর এর আশপাশের সবুজ প্রকৃতি আপনাকে বিমোহিত করবে। এর পর সন্ধ্যার আগে আগে রিকশা নিয়ে চলে যান শত বছরের ঐতিহ্যবাহী সরকারি জুবিলী স্কুল দেখতে। অনেক জ্ঞানী-গুণীর বিদ্যাপীঠ এটি। জুবিলী স্কুলের পাশে রিভারভিউ পর্যটন কেন্দ্রটি আপনাকে দেবে অন্যরকম ভালোলাগা। সন্ধ্যার পর এখানে বসে কাটিয়ে দিতে পারেন কিছুটা সময়। বোনাস হিসেবে পাবেন দূরের পাহাড়ে মিটমিট আলো জ্বালানো ভারতের বেশ কিছু শহরের জেগে থাকার মনোরম দৃশ্য। নিশ্চিতভাবে আপনার ভ্রমণান্দ বাড়িয়ে দেবে অলস বসে থাকা এই সময়টা।

একদিনের জন্য সুনামগঞ্জ এলে এর বাইরে শহরের এদিক-সেদিক একটু ঘুরতেই আপনার দিন শেষ হবে। ভ্রমণ লম্বা করতে চাইলে দেশের অন্যতম দর্শনীয় স্থান টাঙ্গুয়া দেখতে পারেন। দেখতে যেতে পারেন নারায়ণ তলা বর্ডার হাট। তবে হাট বসে মাত্র মঙ্গলবার। যেতে হলে লাগবে জেলা প্রশাসনের অনুমতি। টাঙ্গুয়া দেখতে শীত আর বর্ষা মৌসুম সবচেয়ে ভালো সময়। এর পাশাপাশি সময় থাকলে যাদুকাটা আর টেংরাটিলাও ঘোরা যেতে পারে। তবে সব কটি স্থানে যেতে আপনাকে ব্যয় করতে হবে বেশ সময়। সঙ্গে গুনতে হবে বেশকিছু খরচাপাতি। শহরের বাইরে যেখানেই যেতে চান, আপনাকে সময় জেনে আসতে হবে। তবে পানি ঘেরা সবুজে আচ্ছাদিত সুনামগঞ্জ শহর ঘুরতে চাইলে সময়ের বাধা নেই। তবে বর্ষা মৌসুমে সুনামগঞ্জ গেলে আপনি বোনাস হিসেবে পাবেন যাওয়ার পথে দুই পাশে পানিবেষ্টিত গ্রাম আর মাতাল হাওয়ার মতো ঢলানো স্মৃতি। যেতে যেতেই আপনার কাছে অনেকটাই আবিষ্কৃত হয়ে যাবে এখানের সৌন্দর্য। দূরের পথ পাড়ি দেওয়ার ক্লান্তিটা ঝেড়ে ফেলেই আপনি প্রবেশ করবেন ছোট ছোট দালানকোঠা আর জাঁকজমকহীন এ শহরে।

কীভাবে যাবেন: ঢাকা থেকে সিলেট হয়ে সুনামগঞ্জ যেতে হবে। মাঝপথে সিলেটে নেমে ক্লান্তি দূর আর খাওয়া-দাওয়া সেরে নিতে পারেন রেস্তোরাঁসমৃদ্ধ সিলেট নগরীতে। এখান থেকে সুনামগঞ্জ যেতে বাস ও কার দুটোই পাবেন। বাসের জন্য যেতে হবে কুমারগাঁও বাসস্ট্যান্ডে আর কারে চড়তে চাইলে শাহজালাল (রহ.) মাজার গেটের পাশ থেকে যেতে পারবেন সুনামগঞ্জ শহরে। এ ছাড়া ব্যক্তিগত পরিবহন ব্যবহার করতে পারেন। রাস্তা বেশ ভালো। বাসে গেলে সময় লাগবে দেড় থেকে দুই ঘণ্টা, আর কারে যেতে লাগবে এক ঘণ্টার কমবেশ। শহরের নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় নামিয়ে দিলে রিকশা কিংবা বিদ্যুৎ চালিত অটোরিকশা মিলবে সহজেই। শহরের অন্য যেকোনো জায়গায় যেতেও মিলবে এসব যানবাহন।

থাকা-খাওয়া: সার্কিট হাউস বা সরকারি ডাকবাংলোর পাশাপাশি আপনি থাকার জন্য হোটেল পাবেন বটে, তবে রাজার দেশে নেই কোনো রাজকীয় হোটেল-মোটেল! দেখেশুনে থাকতে পারবেন। তবে আয়েশ করে থাকাটা হবে না। তাই বলে একেবারে বাসের অযোগ্য নয়। ছোট-বড় হোটেলে দিন কয়েক অনায়াসে কাটিয়ে দিতে পারবেন। তেমন অসুবিধা হবে না। খাবারের জন্য আছে নদীর পাড়ে মাছে ভরা খাবারের দোকান। চাইলে তাজা মাছের স্বাদ পাবেন এখানে। থাকা আর খাওয়ার জন্য দামি হোটেল না থাকলেও বিলাসহীন পরিশুদ্ধ সব আতিথেয়তা আপনাকে মুগ্ধ করবে।


আরও খবর

সংকটে সীমাবদ্ধ বাগেরহাটের পর্যটন শিল্প

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২

চলুন পদ্মা সেতু দেখে আসি

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




ভার্চুয়াল মুদ্রায় লেনদেন করলে শাস্তি

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অনলাইনে লেনদেনের ক্ষেত্রে বিটকয়েন নামক ডিজিটাল মুদ্রা ব্যবহার শাস্তিযোগ্য অপরাধ। কেউ এমনটি করে থাকলে জেল-জরিমানা হতে পারে।

বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে একটি সার্কুলার জারি করে সব ব্যাংক, মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস (এমএফএস), আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ সব পক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

সার্কুলারে গতবছরের জুলাইতে দেওয়া কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সতর্কতামূলক গণ বিজ্ঞপ্তির বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যে কোনো ভার্চুয়াল মুদ্রা বা ক্রিপ্টোকারেন্সি বাংলাদেশ ব্যাংক অনুমোদিত নয়। অননুমোদিত এ ধরনের মুদ্রায় লেনদেনের ফলে আর্থিক ক্ষতি বা আইনগত সমস্যায় পড়তে হতে পারে।

আজকের সার্কুলারে মানি লন্ডারিং ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধে কাজ করা ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্কফোর্সের মতামত, ফরেন এক্সচেঞ্জ রেগুলেশন অ্যাক্টের আওতায় অনুমোদিত মুদ্রায় লেননেদেনর বিধানসহ বিভিন্ন বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে।

সার্কুলারে আরও বলা হয়েছে, যে কোনো ভার্চুয়াল সম্পদ বা মুদ্রার বিনিময়, স্থানান্তর বা ট্রেডে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন নেই। নির্দেশনা অমান্য করে কেউ এ ধরনের লেনদেন করলে তা হবে বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইনের ২৩(১) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এই ধারার আওতায় মামলা করার সুযোগ রয়েছে। মামলার শাস্তি হিসেবে ৭ বছরের জেল বা জরিমানা। অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান রয়েছে।

 


আরও খবর

৩১ ডিসেম্বরের পর পাম অয়েল বিক্রি বন্ধ

বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২




পচন ধরছে পানে, চিন্তায় চাষিরা

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ১৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দিনাজপুর প্রতিনিধি 

দিনাজপুরের হাকিমপুরে পানের বরজে পচন রোগ দেখা দিয়েছে। এনিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন পান চাষিরা। পানের ফলন ভালো হওয়া সত্ত্বেও রোগ নিয়ে আতঙ্কে রয়েছেন তারা।  চাষিদের অভিযোগ, রোগ নিয়ন্ত্রণে ওষুধ দিয়েও কোনো উপকার পাচ্ছেন না। তবে উপজেলা কৃষি দপ্তর বলছে, পচনসহ বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধে নিয়মিত পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন তারা।

সরেজমিনে উপজেলার ঘাসুরিয়া ও মাধবপাড়া গ্রামের কয়েকটি পানের বরজ ঘুরে দেখা যায়, এই অঞ্চলের মাটি পান চাষের জন্য উপযোগী। বর্তমান পান একটি লাভ জনক ফসল। তাই এই দুইটি গ্রামে গড়ে উঠেছে দেড় শতাধিক পানের বরজ। ওই এলাকার চাষিরা পান চাষ করেই আর্থিকভাবে সাবলম্বী হয়েছেন। চলতি বছর পানের ফলন ভালো হওয়ায় দামও ভালো পাচ্ছেন চাষিরা। কিন্তু কিছুদিন আগেই দেখা দিয়েছে পচন রোগ। এই রোগ ছোঁয়াছে রোগের মতো। যে বরজে দেখা দিচ্ছে, কয়েকদিনের মধ্যেই ছড়িয়ে পড়ছে তা অন্য বরজগুলোতে।

উপজেলার মাধবপাড়া গ্রামের পানচাষি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমার দেড় বিঘা জমির উপর একটি পানের বরজ আছে। এই বরজটি আমার বাবা তৈরি করেছেন। বর্তমান আমি এই বরজের উপর ভর করে সংসার চালাই। বাজারে পানের দাম অনেক ভালো। তবে কিছুদিন আগে বরজে পচন রোগ দেখা দিয়েছে। বিভিন্ন ওষুধ স্প্রে করছি, তাতে কোনো ফল আসছে না। খুবি চিন্তায় আছি।

ঘাসুড়িয়া গ্রামের বরজ মালিক সাইদুর রহমান বলেন, হাটে বড় আকারের পান ১২০ টাকা বিরা বিক্রি করছি। পানের বরজই আমার হালগরু। আল্লাহ দিলে কয়েক বছর ধরে পানের দাম ভালো পাইছি, এবারও দাম ভাল আছে। কিন্তু হঠাৎ পানপাতা গাছে থাকতেই পচন রোগে আক্রমণ করেছে। বরজ নিয়ে খুবি আতঙ্কে আছি।

হাকিমপুর উপজেলা কৃষি অফিসার ড. মমতাজ সুলতানা বলেন, উপজেলার ৪০ হেক্টর জমিতে ১৫৬টি পানের বরজ রয়েছে। বরজগুলোর অধিকাংশই খট্রামাধবপাড়া ইউনিয়নের ঘাসুরিয়া ও মাধবপাড়া গ্রামে অবস্থিত। বরজগুলোতে পচন রোগ দেখা দিয়েছে। এই রোগ প্রতিরোধে বরজগুলোতে ছত্রাক নাশক অটোস্কীন, ম্যালছার, অক্সিক্লোবাইট ওষুধ স্প্রে করার পরামর্শ দিচ্ছি পান চাষিদের। 

নিউজ ট্যাগ: পানের বরজ

আরও খবর

যেভাবে উন্নত জাতের গাভি চিনবেন

সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২

বেশি ডিম দেওয়া মুরগি চেনার উপায়

সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২