Logo
শিরোনাম

ঐতিহ্যের মূর্ত প্রতীক ভাস্কর্য বিজয় ’৭১

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৬৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের মূর্ত প্রতীক ময়মনসিংহের বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ভাস্কর্য বিজয়৭১। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত করছে এই দৃষ্টিনন্দন শিল্পকর্ম। প্রকৃতিকন্যা খ্যাত বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন মিলনায়তনের সামনে ভাস্কর্য। এই মমতাময়ী নারীর আহবান মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ার জন্যে।

নেত্রকোনার খ্যাতিমান ভাস্কর শিল্পী শ্যামল চৌধুরী পোড়া মাটির পাটাতনের ওপর শ্বেতপাথরে খোদাই করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও ইতিহাসকে এভাবেই মেলে ধরেছেন। মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের প্রতীক এই ভাস্কর্য দেখতে ক্যাম্পাসে আসেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। 

একাত্তরে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের রেস্ট হাউসে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী ৯৩ ব্রিগেডের হেড কোয়ার্টার স্থাপন করে। এখান থেকেই বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চলে বাঙালী নিধনের নির্দেশনা দেয়া হতো। একাত্তরের সেই সব স্মৃতি নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে এই ভাস্কর্য নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়।  এতে ইতিহাস পাওয়া যাবে যে ৫২র ভাষা আন্দোলন, ৬২র আন্দোলন, ৬৬-এর আন্দোলন এবং শেষ পর্যন্ত ৭১-এর মুক্তিযুদ্ধ। 

ময়মনসিংহ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক কমান্ডার আব্দুর রব বলেন, এই ইতিহাস যুগ যুগ ধরে আগামী প্রজন্ম যাতে জানতে পারে। ৯৭ সালে প্রয়াত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হোসেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নতুন প্রজন্মের কাছে মেলে ধরতে এই উদ্যোগ নেন। সারাদেশের মুক্তিযুদ্ধের স্মারক সংরক্ষণের আহবান জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। ১৯৭১ কিভাবে এদেশের মানুষের মধ্যে অঙ্কিত হয়ে আছে, তার নিদর্শন সব জায়গায় গেলে বোঝা যায়।

একাত্তরে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের পর বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক ড. কাজী মো. ফজলুর রহিম সর্বপ্রথম ক্যাম্পাসে স্বাধীন বাংলার পতাকা উত্তোলন করেন। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৯ জন ছাত্র, শিক্ষক, কর্মচারী ও কর্মকর্তা পাকিস্তানি হানাদারদের হাতে শহীদ হন।

নিউজ ট্যাগ: বিজয় ’৭১

আরও খবর



বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ৫১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ৫১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। বিমান নামে পরিচিত এই উড়োজাহাজ সংস্থা বাংলাদেশের একমাত্র সরকারি এবং জাতীয় পতাকাবাহী উড়োজাহাজ সংস্থা।

সংস্থাটি ঢাকায় অবস্থিত হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে কার্যক্রম পরিচালনা করে। চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং সিলেটের ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকেও এর কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

প্রতিষ্ঠানটি আন্তর্জাতিক রুটের পাশপাশি অভ্যন্তরীণ রুটেও যাত্রী এবং মালামাল পরিবহন করে। বিশ্বের প্রায় ৭০টি দেশের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির সেবা চুক্তি রয়েছে। বর্তমানে ১৬টি দেশে এটি কার্যক্রম পরিচালনা করছে। বিমানের প্রধান কার্যালয়ের নাম বলাকা ভবন, যেটি ঢাকার কুর্মিটোলায় অবস্থিত। বিমানের বহরে আছে ছয়টি ব্রান্ড নিউ বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার এবং তিনটি ড্যাশ ৮-৪০০ সহ মোট ২১টি উড়োজাহাজ।

ইতিহাস বলছে, রাষ্ট্রপতির অধ্যাদেশ নম্বর ১২৬ অনুসারে ১৯৭২ সালের ৪ জানুয়ারি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গঠিত হয়। এ দিন ভারত থেকে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর জন্য নিয়ে আসা ম্যাকডনেল ডগলাস ডিসি-৩ বিমান নিয়ে জাতির বাহন হিসেবে বাংলাদেশ বিমান যাত্রা শুরু করে। এরপর, ১৯৭২ সালের ৭ মার্চ চট্টগ্রাম ও সিলেটে এবং ৯ মার্চ যশোরে একটি ফ্লাইটের মাধ্যমে আকাশে উড়ে বিমান। এভাবেই শুরু হয়েছিল বিমানের অভ্যন্তরীণ কার্যক্রম। অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের তিন দিন আগে অর্থাৎ ৪ মার্চ তারিখে ১৭৯ জন যাত্রীকে লন্ডন থেকে ঢাকায় নিয়ে আসার মাধ্যমে বিমানের প্রথম আন্তর্জাতিক ফ্লাইট সম্পন্ন হয়।

২০২০ সালের হিসাব অনুযায়ী বিমান ২৫টি গন্তব্যে সেবা প্রদান করছে, যার মধ্যে ১৭টি আন্তর্জাতিক গন্তব্য। ভবিষ্যতে আরও ৪৩টি দেশে গন্তব্য সম্প্রসারণের জন্য বিমান বাংলাদেশের পরিসেবা চুক্তি রয়েছে। বর্তমানে বিশ্বের ১৬টি শহরে ও বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স তাদের সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছে।

১৯৭২ সালে প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ১৯৯৬ পর্যন্ত দেশে উড়োজাহাজ খাতের একক সংস্থা হিসেবে ব্যবসা চালায়। বিভিন্ন সময়ে উড়োজাহাজ বহর ও গন্তব্য বৃদ্ধির চেষ্টা অব্যাহত রাখলেও দুর্নীতি আর অদক্ষতার জন্য বিমান বার বার পিছিয়ে পড়ে। বাংলাদেশ বিমান তার সুসময়ে সর্বোচ্চ ২৯টি গন্তব্যে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করত যা পশ্চিমে নিউইয়র্ক শহর থেকে পূর্বে টোকিও পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল। ২০০৭ সালের আগ পর্যন্ত বিমান পুরোপুরি একটি সরকার নিয়ন্ত্রিত সংস্থা ছিল। সে বছরের জুলাই মাসের ২৯ তারিখ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে রুপান্তরিত হয় সংস্থাটি।

কোম্পানিতে রূপান্তরিত হওয়ার পর কর্মকর্তা-কর্মচারীর সংখ্যা কমিয়ে আনার পাশাপাশি উড়োজাহাজ বহর আধুনিকায়নের জন্য পদক্ষেপ নেওয়া হয়। ২০০৮ সালে বিমান সংস্থাটি বোয়িং কোম্পানির সঙ্গে দশটি বিকল্পের পাশাপাশি নতুন ১০টি বিমানের জন্য চুক্তি করে। নতুন উড়োজাহাজ হাতে পাওয়ার পর বিমান তার গন্তব্যের সংখ্যা বৃদ্ধি এবং ফ্লাইট চলাকালীন ইন্টারনেট, ওয়াই-ফাই, মোবাইল যোগাযোগ এবং টেলিভিশন দেখাসহ অন্যান্য যাত্রী সুবিধা উন্নত করেছে।

ইউরোপিয়ান এভিয়েশন সেফটি এজেন্সি নিরাপদ সংস্থা হিসেবে বিমান বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিয়েছে। এছাড়াও, আইএটিএ-এর নিরাপত্তা নিরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয় বিমান। এরপর বিমান, এশিয়া এবং ইউরোপে তাদের পূর্ববর্তী কয়েকটি গন্তব্যে পুনরায় ফ্লাইট চালু করে। সাম্প্রতিক সময়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স তাদের নতুন পরিচালনা দলের অধীনে সময়োপযোগের পাশাপাশি অন-টাইম ফ্লাইটের কর্মক্ষমতায় উল্লেখযোগ্য উন্নতি করেছে।

এদিকে, বিমানের ৫১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে যাত্রীসেবার আধুনিকায়নে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের নতুন আঙ্গিকে মোবাইল অ্যাপস ও লয়্যালটি ক্লাবের উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। এ অ্যাপসের মাধ্যমে বিমানের যাত্রীরা টিকিট কেনার পাশাপাশি ফ্লাইট সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় তথ্য যেমন ফ্লাইট স্ট্যাটাস, শিডিউল ইত্যাদি খুব সহজেই জানতে পারবেন। এছাড়াও লয়্যালটি ক্লাবের সদস্যরা নানা সুবিধা পাবেন।

গুগল প্লে-স্টোর অথবা অ্যাপল অ্যাপ-স্টোর থেকে যেকোনো স্মার্টফোনে Biman নামের অ্যাপটি ডাউনলোড করে যাত্রীরা নিজেই বিমানের সব গন্তব্যের টিকিট কিনতে পারবেন।  

অন্যদিকে, বিমান লয়্যালটি ক্লাবের মাধ্যমে যাত্রীরা বিমানের বিভিন্ন গন্তব্যে ভ্রমণের মাধ্যমে যে মাইলেজ পাবেন তা ব্যবহার করে রিওয়ার্ড টিকিট, সিট আপগ্রেডেশন, বাড়তি ব্যাগেজ সুবিধাসহ লাউঞ্জ ব্যবহারের সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন। গোল্ড ও সিলভার স্তরের সদস্যরা বিমানের একই ফ্লাইটে ভ্রমণকারী একজন সফরসঙ্গীসহ লাউঞ্জ ব্যবহার ও বিভিন্ন সুবিধা পাবেন বলে বিমান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।


আরও খবর

কড়াইয়ের গরম তেলে পড়ে শিশুর মৃত্যু

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩




নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশ দল ঘোষণা

প্রকাশিত:রবিবার ২২ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৭১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ২০২৩ আইসিসি নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য  দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।১৫ সদস্যের দলকে নেতৃত্ব দিবেন নিগার সুলতানা জ্যোতি ।

আগামী ২৩ জানুয়ারি দক্ষিণ আফ্রিকার উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ। বিশ^কাপের মঞ্চে নামার আগে আয়ারল্যান্ড নারী দলের বিপক্ষে দু’টি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ দল।

এরপর বিশ্বকাপের আগে আইসিসির নির্ধারিত দু’টি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ৬ ফেব্রুয়ারি কেপটাউনে পাকিস্তানের বিপক্ষে এবং ৮ ফেব্রুয়ারি ভারত বিপক্ষে মাঠে নামবে জ্যোতির দল।

আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া আসরে এ’তে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ  হিসেবে আছে  অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলংকা। ১২ ফেব্রুয়ারি শ্রীলংকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ^কাপ শুরু করবে বাংলাদেশ। গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশের পরের ম্যাচগুলো যথাক্রমে- ১৪ ফেব্রুয়ারি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে, ১৭ ফেব্রুয়ারি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এবং ২১ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে।

গ্রুপ-বি’তে আছে ইংল্যান্ড, ভারত, আয়ারল্যান্ড, পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল : নিগার সুলতানা জ্যোতি (অধিনায়ক), মারুফা আকতার, দিলারা আকতার, ফাহিমা খাতুন, সালমা খাতুন, জাহানারা আলম, শামীমা সুলতানা, রুমানা আহমেদ, লতা মন্ডল, স্বর্ণা আকতার, নাহিদা আকতার, মুর্শিদা খাতুন, রিতু মনি, দিশা বিশ্বাস ও সোবহানা মোস্তারি।

স্ট্যান্ড বাই : রাবেয়া, সানজিদা আক্তার মেঘলা, ফারজানা হক পিংকি, শারমীন আক্তার সুপ্তা।


আরও খবর



এসিআই মটরসে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ

প্রকাশিত:সোমবার ০২ জানুয়ারী 2০২3 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

এসিআই মটরস লিমিটেডে কাস্টমার সার্ভিস অফিসার পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: এসিআই মটরস লিমিটেড

বিভাগের নাম: ইয়ামাহা

পদের নাম: কাস্টমার সার্ভিস অফিসার

পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক

অভিজ্ঞতা: ০১ বছর

বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম

প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ

বয়স: ২১-৩০ বছর

কর্মস্থল: ঢাকা

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ১০ জানুয়ারি ২০২৩

নিউজ ট্যাগ: চাকুরীর খবর

আরও খবর

অ্যাকশনএইডে চাকরির সুযোগ

মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী ২০২৩




চার বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধের নির্দেশ ইউজিসির

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দেশের চারটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। আজ বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

ওই চারটি বিশ্ববিদ্যালয় হলো প্রাইম এশিয়া ইউনিভার্সিটি, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ, আশা ইউনিভার্সিটি ও ভিক্টোরিয়া ইউনিভার্সিটির। স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রম স্থানান্তরিত না হওয়া পর্যন্ত এই চার বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সম্পূর্ণভাবে বন্ধ থাকবে।

স্টেট ইউনিভার্সিটি ও মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাস ব্যতীত অস্থায়ী ক্যাম্পাসে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সম্পূর্ণরূপে বন্ধ থাকবে। তবে এ দুটি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে পরিচালিত প্রোগ্রামসমূহ যথারীতি চালু থাকবে।

উল্লেখিত সময়সীমার মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রমসহ সব কার্যক্রম স্থানান্তরে ব্যর্থ হলে চলতি বছরের ১ এপ্রিল থেকে সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সম্পূর্ণরূপে বন্ধ থাকবে। একইসঙ্গে এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব স্থায়ী ক্যাম্পাস ব্যতীত সব অস্থায়ী ক্যাম্পাস বা ভবনগুলো অবৈধ মর্মে বিবেচিত হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তর ও ক্যাম্পাস নির্মাণের বিষয়ে দৃশ্যমান অগ্রগতি এবং লিখিত অঙ্গীকার বিবেচনায় ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ, গ্রিন ইউনিভার্সিটি, উত্তরা ইউনিভার্সিটি, প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি এবং দ্য পিপলস ইউনিভার্সিটিকে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রমসহ সম্পূর্ণ কার্যক্রম স্থানান্তরে চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে।

নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রমসহ সম্পূর্ণ কার্যক্রম স্থানান্তরে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে চলতি বছরের ১ জুলাই থেকে সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সম্পূর্ণভাবে বন্ধ থাকবে। একইসঙ্গে এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব স্থায়ী ক্যাম্পাস ব্যতীত সব অস্থায়ী ক্যাম্পাস বা ভবনগুলো অবৈধ মর্মে বিবেচিত হবে।

কমিশনের পত্রের পরিপ্রেক্ষিতে স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তর ও ক্যাম্পাস নির্মাণের বিষয়ে দৃশ্যমান অগ্রগতি বিবেচনায় ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, রয়েল ইউনিভার্সিটি, সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি, সিটি ইউনিভার্সিটি, দ্য মিলেনিয়াম ইউনিভার্সিটি ও বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটিকে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রমসহ সম্পূর্ণ কার্যক্রম স্থানান্তরে চলতি বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে।

গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কে গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সাময়িক সনদের মেয়াদ উত্তীর্ণ ও স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তরিত হয়নিএমন বিশ্ববিদ্যালয়সমূহকে গত ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তরের জন্য গত ১১ এপ্রিল নির্দেশনা দেয় ইউজিসি। ওই পত্রে বিশ্ববিদ্যালয়সমূহকে গত ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তরে ব্যর্থ হলে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি থাকবে মর্মে বলা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১০ মোতাবেক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ১২ বছরের মধ্যে নিজস্ব স্থায়ী ক্যাম্পাসে সব কার্যক্রম স্থানান্তরের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এ ছাড়া আইনের ১২(১) ধারায় কোন বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় সাময়িক অনুমতিপত্রের মেয়াদের মধ্যে বা, ক্ষেত্রমত, নবায়নকৃত সাময়িক অনুমতিপত্রের মেয়াদের মধ্যে সনদপত্রের জন্য আবেদন করিতে ব্যর্থ হইলে, অথবা সনদপত্র প্রাপ্তির জন্য ধারা ৯ এর কোন শর্ত পূরণে ব্যর্থ হইলে, উক্ত সাময়িক অনুমতিপত্র বা, ক্ষেত্রমত, নবায়নকৃত সাময়িক অনুমতিপত্রের মেয়াদ অবসানের সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও শিক্ষা সংক্রান্ত সকল কার্যক্রম বন্ধ করিতে হইবে মর্মে উল্লেখ রয়েছে।


আরও খবর



রাজধানীবাসীর স্বপ্ন পূরণের দিন আজ : ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ৫০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আজ বাংলাদেশের জনগণের জন্য আনন্দের দিন। রাজধানীবাসীর দীর্ঘ প্রতীক্ষিত স্বপ্ন পূরণের দিন। শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে দেশের মানুষ অর্জন করেছে একের পর এক স্বাধীনতার সুবর্ণ অর্জন। দেশের অর্জনে যুক্ত হয়েছে হিরন্ময় পালক।

আজ বুধবার মেট্রোরেলের উদ্বোধন উপলক্ষে রাজধানীর উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের মাঠে আয়োজিত সুধী সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি তিনি এ সব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার অর্জন গণপরিবহনে মেট্রোরেল সংযোজন। শেখ হাসিনার অবদান মেট্রোরেল দৃশ্যমান। মানুষ বলে শেখের বেটি দেখিয়ে দিয়েছে- নিজের টাকায় পদ্মা সেতু তৈরি করে। মেট্রোরেল করে তিনি আবার প্রমাণ করলেন ইয়েস উই ক্যান। বাঙালি বীরের জাতি, চোরের জাতি নই। কোনো অপবাদ মাথা পেতে নিব না।

বিএনপি আগুন সন্ত্রাস করলে সেটা কঠোর হস্তে দমন করতে আওয়ামী লীগ প্রস্তুত বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বিএনপি মেট্রোরেলে দুর্নীতি না পেয়ে ভাড়া নিয়ে অনিয়মের কথা বলছে। সরকারের সমালোচনা করা বিএনপির রুটিন ওয়ার্কে পরিণত হয়েছে। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, যতদিন এ বাংলায় চন্দ্র-সূর্য উদয় হবে, পাখি গান গাইবে, ততদিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের নাম এ বাংলায় মুছবে না। সংকটে শেখ হাসিনার পাশে সাহসী সহযোদ্ধার নাম শেখ রেহানা। তিনি সাদাসিধে জীবনযাপন করেন। লন্ডনে চাকরি করেন, বাসে যাতায়াত করেন।


আরও খবর