Logo
শিরোনাম

‘অমানিশার আঁধার দূর করে সম্ভাবনা নিয়ে এগিয়ে যাবে দেশ’

প্রকাশিত:বুধবার ২১ জুলাই 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, রাতের আঁধার শেষেই ঝলমলে রোদের আলোতে ভরে উঠে পৃথিবী। করোনার অমানিশার আঁধারও দ্রুত কেটে যাবে ইনশাআল্লাহ। নতুন সম্ভাবনা নিয়ে এগিয়ে যাবে আমাদের দেশ।

তিনি বলেন, এর জন্য দরকার সবাইকে যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা। অর্থাৎ সঠিকভাবে মাস্ক পরা, সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, স্যানিটাইজার ব্যবহার করা ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা।

বুধবার (২১ জুলাই) কোরবানির ঈদ উপলক্ষে বঙ্গভবন থেকে দেশবাসীর উদ্দেশে দেয়া এক বার্তায় এ কথা বলেন তিনি।

এর আগে সকাল সাড়ে আটটায় বঙ্গভবনের হলওয়েতে সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে রাষ্ট্রপতি পরিবারের সদস্য ও বঙ্গভবনের অতিপ্রয়োজনীয় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে ঈদের নামাজ পড়েন। নামাজ শেষে এই বার্তা দেন রাষ্ট্রপতি।

করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি সফল করতে সরকারের পাশাপাশি দলমত নির্বিশেষে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানা রাষ্ট্রপতি। তিনি বলেন, বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতির ক্রমাবনতির কারণে টিকাদান কর্মসূচি সাময়িকভাবে বাধাগ্রস্ত হলেও বর্তমানে তা পুরোদমে এগিয়ে যাচ্ছে। সরকার অগ্রাধিকারভিত্তিতে দেশের সকল নাগরিকের জন্য টিকাদান নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর। তাই এ কর্মসূচিকে সফল করতে সরকারের পাশাপাশি দলমত নির্বিশেষে সবাইকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, এমন একটি ভাইরাস যা থেকে ইচ্ছে করলেই কোনো ব্যক্তি বা পরিবার বা এককভাবে একটি দেশের পক্ষে নিরাপদ থাকা সম্ভব নয়। বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তির কল্যাণে আজ আমরা গ্লোবাল ভিলেজের বাসিন্দা। তাই বিশ্বকে করোনার হাত থেকে বাঁচাতে হলে উন্নত-অনুন্নত ও ধনী-দরিদ্র নির্বিশেষে বহুজাতিক সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানসহ সবাইকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।

সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে আবদুল হামিদ বলেন, মহান আল্লাহর প্রতি গভীর আনুগত্য ও সর্বোচ্চ ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর পবিত্র ঈদুল আজহা। উৎসবের সঙ্গে মিশে আছে চরম ত্যাগ। কোরবানি আমাদের মাঝে আত্মদান ও আত্মত্যাগের মানসিকতা সঞ্চারিত করে, আত্মীয়স্বজন ও পাড়া-প্রতিবেশীর সঙ্গে আনন্দ-বেদনা ভাগাভাগি করে নেয়ার মনোভাব ও সহিষ্ণুতার শিক্ষা দেয়। এবার মুসলিম বিশ্ব এমন একটা সময়ে ঈদুল আজহা উদযাপন করছে, যখন করোনার ভয়াল থাবায় গোটা বিশ্ব বিপর্যস্ত।

তিনি বলেন, বাংলাদেশেও করোনার নেতিবাচক প্রভাব ক্রমান্বয়ে প্রকট হচ্ছে। করোনার কারণে দেশের জনগণের জীবন-জীবিকা আজ কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি। জীবন বাঁচানো প্রথম অগ্রাধিকার হলেও জীবন বাঁচিয়ে রাখতে জীবিকার গুরুত্বও অনস্বীকার্য। সরকার করোনা মোকাবিলা ও অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে বিভিন্ন প্যাকেজ প্রণোদনাসহ বহুমুখী কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। অস্বচ্ছল ও নিম্নআয়ের মানুষের দুর্ভোগ লাঘবেও বিভিন্ন সহায়তা কার্যক্রম অব্যাহত আছে। কৃষি ও শিল্পসহ উৎপাদনশীল প্রতিটি খাতের কার্যক্রম অব্যাহত রাখতেও সরকার সর্বাত্মক সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে।



আরও খবর



তাপমাত্রা বাড়বে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে

মৌসুমি বায়ুর সক্রিয়তা ও বৃষ্টিও কমে যাওয়ায় দিনের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়বে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সকালটা ছিল অনেকটাই রৌদ্রোজ্জ্বল। সঙ্গে রয়েছে বাতাসও।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে।

আবহাওয়াবিদ খো. হাফিজুর রহমান জানান, সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রাম, বরিশাল এবং খুলনা বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টিপাত হতে পারে।


আরও খবর



এক শিশুকে ধর্ষণ আরেক শিশুকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা, গ্রেফতার ২

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | ৭১জন দেখেছেন
Image

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর সেনবাগে পৃথক পৃথক স্থানে একটি শিশুকে (১১) ধর্ষণ ও আরেক শিশুকে (১১) রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনায় দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত এক যুবককে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। অপর এক যুবকের বিরুদ্ধে নারীও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

নোয়াখালীল সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নে চতুর্থ শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে (১১) রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনায় অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত, নুরুল আমিন বাবু (৩২) উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের মধ্য বীজবাগ গ্রামের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের বাড়ির করিম উল্যার ছেলে।

মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সকাল ৮টার দিকে উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। পরে খবর পেয়ে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অভিযুক্ত আসামিকে নিজ বসত বাড়ি থেকে আটক করে পুলিশ।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র জানায়, স্কুল ছাত্রী (১১) সকাল ৮টার দিকে মক্তব্য থেকে আরবী পড়া শেষে বাড়ি ফিরছিল। ফেরার পথে বাড়ির পাশের নুরুল আমিনের সাথে রাস্তায় তার দেখা হয়। এ সময় নুরুল আমিন তাকে রাস্তায় একা পেয়ে  মুখ চেপে ধরে তুলে নিয়ে নিজ বসত ঘরে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রী একপর্যায়ে শৌর চিৎকার করে দৌঁড়ে পালিয়ে গিয়ে তার মাকে বিষয়টি খুলে বলে।

অপরদিকে, গতকাল সোমবার (১২ জুলাই) দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলার ১নং ছাতারাপাইয়া ইউনিয়নের বিরাহীমপুর গ্রামের (১১) বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে একই বাড়ির ওমর ফারুক (১৯) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সে ছাতারাপাইয়া ইউনিয়নের বিরাহীমপুর গ্রামের চৌকিদার বাড়ির মৃত তবারক আলীর ছেলে এবং পেশায় একজন অটোচালক।

মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) দুপুরে ধর্ষণের শিকার শিশুকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয় এবং ধর্ষক ওমর ফারুককে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিশুটির মা বাদী হয়ে একই দিন রাতে অভিযুক্ত আসামির বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে ধর্ষককে গ্রেফতার করে।

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল বাতেন মৃধা বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি আরও জানান, মৌখিক অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষণিক অভিযুক্ত আসামি বাবুকে আটক করে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। ওই মামলায় আটককৃত আসামিকে গ্রেফতার দেখিয়ে বুধবার সকালে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

ওসি আবদুল বাতেন মৃধা জানান, আরেক শিশু ধর্ষণের ঘটনায় অটোচালক ফারুককে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



ভারতে সংক্রমণ আবারও ৫০ হাজারের কম

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ জুলাই ২০21 | ৮১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭ হাজারের বেশি সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমে ৬ লাখের নিচে নেমেছে। দেশে এখন সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৫ লাখ ৯৫ হাজার ৫৬৫ জন

চারদিন পর ভারতে দৈনিক সংক্রমণ আবারও ৫০ হাজারের নিচে নেমে এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৪৮ হাজার ৬৯৮ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ১ লাখ ৮৩ হাজার ১৪৩। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ১৮৩ জনের। এখন পর্যন্ত দেশটিতে মোট প্রাণহানি ঘটেছে ৩ লাখ ৯৪ হাজার ৪৯৩ জনের।

একদিন আগেই ভারতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৫১ হাজার ৬৬৭। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ১ হাজার ৩২৯ জন।

এদিকে, শুক্রবার দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ১১ রাজ্যে ৪৮ জনের দেহে ডেলটা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশই মহারাষ্ট্রে। সেখানে ২০ জনের দেহে নতুন এই ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

তামিলনাড়ুতে ৯ জন, মধ্যপ্রদেশে ৭ জন, কেরালায় তিনজন, পাঞ্জাব ও গুজরাটে দু'জন করে এবং অন্ধ্রপ্রদেশ, ওড়িশা, রাজস্থান, কর্নাটক এবং জম্মুতে একজন করে ডেলটা প্লাস ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হয়েছে।

মাত্র দু'দিন আগেই সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, ডেলটা প্লাস ভেরিয়্যান্টে আক্রান্তের সংখ্যা ৪০। তবে ভারত ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, পর্তুগাল, চীন, জাপান, রাশিয়া এবং সুইজারল্যান্ডসহ আরও ১২ দেশে করোনার নতুন এই ধরন শনাক্ত হয়েছে।

শনিবারও সক্রিয় রোগী কম হওয়ার সংখ্যা অব্যাহত রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭ হাজারের বেশি সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমে ৬ লাখের নিচে নেমেছে। দেশে এখন সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৫ লাখ ৯৫ হাজার ৫৬৫ জন। পাশাপাশি দৈনিক সংক্রমণের হার ৩ শতাংশের নিচেই রয়েছে।

এদিকে কেরালায় গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে সাড়ে ১১ হাজারের বেশি। মহারাষ্ট্রে সাড়ে ৯ হাজারের বেশি। তামিলনাড়ুতে সাড়ে ৫ হাজারের বেশি, অন্ধ্রপ্রদেশে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার, কর্নাটকে ৩ হাজার ৩১০ এবং ওড়িশাতে প্রায় ৩ হাজার। পশ্চিমবঙ্গে দৈনিক আক্রান্ত দুহাজারের নিচেই রয়েছে।


আরও খবর



১২ দিন বন্ধ থাকবে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬৬জন দেখেছেন
Image

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:

দেশের একমাত্র চতুর্দশীও স্থলবন্দর পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে ১২ দিন আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সকালে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি আব্দুল লতিফ তারিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ঈদুল আজহা ও সরকারি ছুটি সমন্বয় করে বাংলাদেশের বাংলাবান্ধা ও ভারতের ফুলবাড়ী বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য আগামী সোমবার (১৯ জুলাই) থেকে শুক্রবার (৩০ জুলাই) পর্যন্ত মোট ১২ দিন আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। একই সাথে আগামী শনিবার (৩১ জুলাই) থেকে বন্দরে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম পুনরায় স্বাভাবিক হবে।


আরও খবর

ব্যাংকে লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১




কুড়িগ্রামে টানা বর্ষন ও লকডাউনে বিপাকে পরেছে খেটে খাওয়া মানুষ

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৮৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :

কুড়িগ্রামে টানা বর্ষন ও লকডাউনে বিপাকে পরেছে খেটে খাওয়া মানুষ। জেলা প্রশাসন করোনা সংক্রমন ঠেকাতে কঠোর লকডাউন কালিন সময়ে নির্দিষ্ট নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য দ্রব্যের দোকান ছাড়া সকল দোকানপাট বন্ধ রেখেছেন। শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে সেনাবাহিনী, বিজিবি ও পুলিশ বিভাগ টহলের পাশাপাশি চেক পোস্টে নজরদারী বাড়ানোয় ঘরের বাইরে প্রয়োজন ছাড়া মানুষ তেমন একটা বের হচ্ছে না।

এদিকে, কড়াকড়ি লকডাউনের ফলে দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষ পরেছে বিপাকে। বন্ধ হয়ে গেছে শ্রমের হাটগুলো। প্রতিদিন ভোরবেলা বিভিন্ন এলাকা থেকে শ্রম বিক্রির জন্য যারা শহরে আসত, তারাও বাড়িমুখো হয়েছে। ফলে বিপাকে রয়েছে খেটে খাওয়া এসব মানুষ।

শুক্রবার সন্ধ্যায় শহরের পৌর বাজার থেকে সোনালী ব্যাংক মোড পর্যন্ত ১০/১২ জন আম বিক্রেতা ঝুঁকি নিয়ে আম বিক্রি করছিল।

টহলদল এলেই তারা আড়ালে লুকিয়ে পরতো। চলে গেলে আবার আম বিক্রির ঝুকি। সন্ধ্যা পৌনে ৮টার দিকে কথা হয় এদের একজনের সাথে। দিনমজুর হেলাল (৫০) রংপুরের বদরগঞ্জ পৌরসভার বালুয়াভাটার আলাউদ্দিনের পূত্র। সেখানেই দিনমজুরী করেন। কয়েকবার কুড়িগ্রামে এসেছিলেন। এবার ২০ ক্যারেট আম নিয়ে এসেছেন। সাথে নিয়ে এসেছেন স্ত্রী ডলি (৪৫) ও ভাগ্নে সুহেলকে (২৬)। বদরগঞ্জ থেকে তিস্তা পর্যন্ত অটোতে আম এনেছেন ১ হাজার টাকা ভাড়ায়। তিস্তা থেকে কুড়িগ্রামে অটো খরচ হয়েছে ৩শ টাকা। ১২০০ টাকা মন দরে হাড়িভাঙ্গা আম এনে এখানে ৩৫ থেকে ৪৫টাকা দরে বিক্রি করছেন। প্রতিকেজি আমে ৫ থেকে ১০টাকা লাভ হচ্ছে। করোনার কারণে বিক্রি-বাট্টা কম। ফলে সংসার বাঁচাতে অল্প লাভেই তুষ্ট হতে হচ্ছে তাকে। এমনই অবস্থা এখানকার ফুটপাতের আম বিক্রেতাদের।

শনিবার (৩ জুলাই) সকালে কুড়িগ্রাম ধরলা ব্রীজে কথা হয় ওমেদ আলীর (৫৫) সাথে। রংপুরের মিঠাপুকুরে মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। জামাই আরেকটি বিয়ে করেছে। ফলে সংসারে অশান্তি দূর করতে মেয়ে আর নাতিকে নিয়ে বাড়ী যাচ্ছেন সদর উপজেলার ভোগডাঙ্গা ইউনিয়নের সর্দারপাড়ায়। অটো করে মিঠাপুকুর থেকে জায়গীরহাট পর্যন্ত এসেছেন। এরপর সেখান থেকে হেঁটে রংপুরের সাথমাথা পর্যন্ত আসতে পেরেছেন। তারপর অটো করে তিস্তা। তিস্তা থেকে কুড়িগ্রামের ত্রিমোহনী। তারপর ঘোষপাড়া। এখান থেকে হেঁটে তারা ধরলা ব্রীজ পর্যন্ত এসেছেন। চোখে মুখে অশান্তি আর ক্লান্তির ছাপ।

ওমেদ আলী জানালেন, লকডাউনের কারণে অনেক কষ্ট করি মেয়ে আর নাতিকে নিয়ে আসলাম। জামাই একটা বেয়াদপ ছেলে। ঢাকায় গার্মেন্টেসে কাজ করে। সেখানে দুটো বিয়ে করেছে। আমার কাছে ৮০ হাজার টাকা নিয়ে মেয়েকে ৬ বছর আগে বিয়ে করেছিল। এখন তার ৪/৫টা বউ। আল্লাহর কাছে বিচার দিয়ে মেয়েকে ফেরৎ নিয়ে এসেছি। এ রকম পথে পথে ভোগান্তি আর হতাশা নিয়ে অনেকে চাকুরী হারিয়ে ঢাকা থেকে ভেঙে ভেঙে কুড়িগ্রামে ফিরছেন।

 নাগেশ্বরীর কচাকাটার বাসিন্দা ছালাম (২৩) ও মকবুল (২২) জানায়, জুন মাসের অগ্রিম বেতন দিয়ে গত ১২জুন চাকরী গেছে। এখন কেউ লোক নিচ্ছে না। ঢাকায় থাকলে অনেক খরচ। তাই অনেক কষ্ট করে ভেঙে ভেঙে কুড়িগ্রামে আসলাম।

কুড়িগ্রাম শহরের চর হরিকেশ গ্রামের মোজাহার, বাদশা, ছালেক, হামিদ ও লালমিয়ার সাথে কথা হয় ধরলা ব্রীজে। তারা দিনমজুরী করে সংসার চালান। এখন কাজ নেই। তাই ওরা সবাই বড়শি আর জাল নিয়ে ছুটছেন ধরলা নদীর শাখা নালায়। সেখানে মাছ ধরে পরিবারে আহার যোগারের ব্যবস্থা করছেন। তাদের অনেকের কাছে মাস্ক নেই। উত্তরে মোজাহার আলী জানান, বৃষ্টিতে মাস্ক ভিজে গেছে। গরীব মানুষ বেশি মাস্ক কেনার টাকা নাই।

এই করোনা আর লকডাউন মানুষকে অনেক শিক্ষা দিয়েছে। মানুষের জীবন-জীবিকার বড় ধরণের হুমকী হয়ে এসেছে এই ভাইরাসটি।

স্বাস্থ্য বিভাগ তার ওয়েব সাইটে জানিয়েছে, গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ৩২জনসহ জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১হাজার ৮৮০ জন। জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে ৪৩জন। এ পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন ২৯ জন।

অপরদিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাসিবুল হাসান জানান, লকডাউনে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শুক্রবার সন্ধ্যায় নয় জনকে পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছে।


আরও খবর