Logo
শিরোনাম

প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দুর্গোৎসব

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ১০২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিজয়া দশমী ও প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে রাজধানীসহ সারাদেশে বুধবার শেষ হয়েছে হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, মানুষের মনের আসুরিক প্রবৃত্তি কাম, ক্রোধ, হিংসা, লালসা বিসর্জন দেয়াই মূলত বিজয়া দশমীর মূল তাৎপর্য। এ প্রবৃত্তিগুলোকে বিসর্জন দিয়ে একে অন্যের সঙ্গে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা করাই এ আয়োজনের উদ্দেশ্য।

চন্ডীপাঠ, বোধন ও অধিবাসের মধ্যদিয়ে ষষ্ঠী তিথিতে আনন্দময়ীর আগমনে গত ১ অক্টোবর থেকে দেশের হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসবের সূচনা হয়। পরবর্তী ৫দিন রাজধানীসহ দেশব্যাপি পূজামন্ডপগুলোতে পূজা-অর্চণার মধ্যদিয়ে ভক্তরা দেবী দুর্গার প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করেন। দশমী তিথিতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে তা শেষ হয়।

এবার দেবী দুর্গা জগতের মঙ্গল কামনায় গজে (হাতি) চড়ে মর্ত্যালোকে (পৃথিবী) আসেন। এতে প্রাকৃতিক বিপর্যয় ঝড় বৃষ্টি হবে এবং শস্য ও ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে। অন্যদিকে স্বর্গে বিদায় নেন নৌকায় চড়ে। যার ফলে জগতের কল্যাণ সাধিত হবে। বুধবার সকাল ৮ টা ৫০ মিনিটে দর্পণ-বিসর্জনের মাধ্যমে বিদায় জানানো হয় দেবী দুর্গাকে। পরে বিকেল ৪টা থেকে শুরু হয় প্রতিমা বিসর্জন।

সনাতন ধর্মের বিশ্বাস অনুযায়ী, বিসর্জনের মধ্য দিয়ে দেবী ফিরে গেলেন স্বর্গলোকের কৈলাসে স্বামীর ঘরে। পরের বছর শরতে আবার তিনি আসবেন এই ধরণীতে যা তার বাবার গৃহ। প্রতিমা বিসর্জনের জন্য সব ধরণের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

ঢাকের বাদ্য আর গান-বাজনা ছাড়া বিদায়ের করুণ ছায়ায় সারিবদ্ধভাবে একে একে বুড়িগঙ্গা নদীতে বিসর্জন দেয়া হয় প্রতিমা। একই সময়ে তুরাগ নদীতে চলে বিসর্জন। রাজধানীর প্রায় অর্ধশত মন্ডপের প্রতিমা বিসর্জন দেয়া হয় ওয়াইজঘাটে। সড়কে পুলিশের টহল ও নদীতে ছিল নৌপুলিশের টহল। ফায়ার সার্ভিসের টিমও দায়িত্ব পালন করে।

এর আগে সকালে প্রতিমা বিসর্জনের উদ্দেশ্যে রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দির মেলাঙ্গন থেকে কেন্দ্রীয় বিজয়া শোভাযাত্রা বের হয়। দুপুরে পূজা উদযাপন পরিষদ এবং মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির যৌথ উদ্যোগে বের হয় বর্ণাঢ্য এ বিজয়া শোভাযাত্রা। বিজয়া শোভাযাত্রা ও প্রতিমা বিসর্জনে অংশ নিতে দুপুর গড়িয়ে যেতেই ভক্তরা রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার পূজামন্ডপ থেকে ট্রাকে করে প্রতিমা নিয়ে সমবেত হতে শুরু করেন ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির প্রাঙ্গণে।

পরে শত শত ট্রাক প্রতিমা নিয়ে সদরঘাটের উদ্দেশে রওনা দেয়। ঢাকেশ্বরী থেকে শুরু করে প্রতিমা যাত্রাটি শহীদ মিনার, হাইকোর্ট, পুলিশ হেড কোয়ার্টার, গোলাপ শাহ মাজার, কোর্ট এলাকা হয়ে সদরঘাট পৌঁছে। রাস্তায়, বিভিন্ন ভবনে পুলিশ ছিল সতর্কাবস্থায়। রাস্তার পাশে দর্শনার্থীদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো।

অধিকাংশ মন্ডপের প্রতিমা বিসর্জন দেয়া হলেও ঢাকেশ্বরী মন্দিরের প্রতিমাটি রেখে দেয়া হয়। কিন্তু পূজার কাজে ব্যবহৃত দেবীর ফুল, বেলপাতা ও ঘট বিসর্জন দেয়া হয়।

প্রথা অনুযায়ী প্রতিমা বিসর্জনের পর সেখান থেকে জল এনে (শান্তিজল) মঙ্গলঘটে নিয়ে তা আবার হৃদয়ে ধারণ করা হয়। আগামী বছর আবার এ শান্তিজল হৃদয় থেকে ঘটে, ঘট থেকে প্রতিমায় রেখে পূজা করা হবে। রামকৃষ্ণ মিশনে সন্ধ্যা আরতির পর মিশনের পুকুরে প্রতিমা বিসর্জন দেয়া হয়। এরপর ভক্তরা শান্তিজল গ্রহণ করেন ও মিষ্টিমুখ করেন।

সারাদেশে এবছর ৩২ হাজার ১৬৮টি মন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা মহানগরে পূজার সংখ্যা ২৪১টি। এসব মন্ডপে শারদীয় উৎসব নির্বিঘ্নে উদযাপন করার জন্য প্রশাসনের পাশাপাশি প্রতিটি পূজা উদযাপন কমিটিও নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। প্রতিটি মন্ডপে মন্ডপে লাগানো হয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরা এবং স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি করা হয়েছে মন্ডপ পাহারার জন্য।


আরও খবর

পাপ কাজ ছেড়ে দেওয়ার উপায়

রবিবার ৩০ অক্টোবর ২০২২




লালমনিরহাটে আ.লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৩০

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ | ৩০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

লালমনিরহাটের আদিতমারীতে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে পুলিশ ও সাংবাদিকসহ ৩০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) বিকেলে ভাদাই গিরিজা শংকর উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হলে পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা তাদের উপর হামলা চালায়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে ও তিন রাউন্ড সাউন্ড গ্রেনেড ছুঁড়েছে পুলিশ। 

জানা যায়, দীর্ঘ ১২ বছর পর গত ৮ অক্টোবর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের আয়োজন করে উপজেলা আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক মন্ত্রী শাহাজান খান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। প্রথমার্ধের আলোচনা সভা শেষে আগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে দ্বিতীয় অধিবেশন শুরু হয়। দ্বিতীয় অধিবেশনে সভাপতি-সম্পাদক পদে একাধিক প্রার্থী থাকায় সমঝোতা করতে ব্যর্থ হন কেন্দ্রীয় নেতারা। 

আরও জানা যায়, দুই গ্রুপকে একত্রিত করে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী গ্রুপের মোহাম্মদ আলীকে সভাপতি এবং সিরাজুল হকের গ্রুপের ছাত্রনেতা কমলাবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদ ওমর চিশতিকে সম্পাদক করার প্রস্তাব করে ও কমিটি ঘোষণা না করেই সম্মেলন স্থগিত করেন। এর প্রায় দেড় মাস পর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মতিতে কমিটি ঘোষণা করেন। ওইদিকে আওয়ামী লীগের একটি অংশের কমলাবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদ ওমর চিশতি বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেন। পরে লালমনিরহাট বুড়িমারী মহাসড়ক হয়ে আওয়ামী লীগ অফিসের কার্যালয়ে গেলে কমলাবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদ ওমর চিশতি ও বর্তমান আওয়ামী লীগের উপজেলা সভাপতি মোহাম্মদ আলীর নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়।

আদিতমারী থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোক্তারুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ মোতায়েন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করা হয়েছে। এ সময় ৩ রাউন্ড সাউন্ড গ্রেনেড ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে।


আরও খবর

৬ লক্ষ টাকা হলে বাচবে শিশু সিয়াম

সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২




মাদারীপুরে প্রেমিকা হত্যায় প্রেমিকের মৃত্যুদণ্ডাদেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মাদারীপুরে ফরিদা বেগম নামের এক নারীকে হত্যার ১৪ বছর পর আসামি শহিদুল মোল্লাকে (৪২) মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) বিকেলে জেলার অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক লায়লাতুল ফেরদৌস এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত শহিদুল মোল্লা উপজেলার ঝাউদি ইউনিয়নের ব্রাহ্মণদী এলাকার মোহাম্মদ মোল্লার ছেলে।

মামলার বিবরণ ও আদালত সূত্রে জানা যায়, শহিদুলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল মহিষেরচর এলাকার আব্দুল করিম ক্কারির মেয়ে ফরিদা বেগমের। ২০০৮ সালের ৬ মে সকালে ফরিদা প্রেমিক শহিদুলের সঙ্গে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। পরের দিন ৭ মে সকালে কালকিনি উপজেলার দক্ষিণ ধুয়াসার এলাকার কাদের কবিরাজের পেঁপে বাগান থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে কালকিনি থানা পুলিশ। এ ঘটনায় নিহত ফরিদার ভাই হান্নান ক্কারি একই দিনে বিকেলে শহিদুল মোল্লাকে ও অজ্ঞাতনামা আরও বেশ কয়েকজনকে আসামি করে কালকিনি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

তৎকালীন কালকিনি থানা পুলিশের উপপরিদর্শক মোহাম্মদ হারুনর রশীদ ঘটনার তদন্তের পর ২০০৯ সালের ২২ জুন আসামি শহিদুল মোল্লাকে একমাত্র অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। এরপর আদালত মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাসহ ১২ জনের স্বাক্ষ্যগ্রহণ করেন। পরে বিচারিক আদালতে দীর্ঘ ১৪ বছর যুক্তিতর্ক শেষে উপযুক্ত স্বাক্ষী প্রমাণের ওপর ভিত্তি করে আসামিকে মৃত্যুদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেন।

নিহতের ভাই হান্নান ক্কারি বলেন, ১৪ বছর পর আমার বোনকে হত্যার মামলার রায় পেলাম। আদালতের এ রায়ে আমরা সন্তুষ্ট।

মাদারীপুর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মো. সিদ্দিকুর রহমান সিং বলেন, শহিদুল মোল্লা ভিকটিমকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েও বিয়ে করেননি। পরে ভিকটিমকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করেন। এ রায়ে আমরা রাষ্ট্রপক্ষ সন্তুষ্ট।


আরও খবর



বিশ্বকাপে মুখোশ পরে খেলবেন তিনি

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দক্ষিণ কোরিয়া ফুটবলের পোস্টার বয় সন হিউং-মিন। এশিয়ান ফুটবলের সবচেয়ে বড় তারকা। তাকে ঘিরেই সব প্রত্যাশা এশিয়ার এই সেরা দলটির।

কিন্তু চোট সারাতে বাঁ-চোখে অস্ত্রোপচার করে কাতার বিশ্বকাপে এ তারকার অংশ নেওয়া নিয়েই চলছিল শঙ্কা। তবে দেশের স্বার্থে এমন শারীরিক অবস্থা নিয়েও মাঠে নামতে প্রস্তুত সন। ঝুঁকি নিয়েও বিশ্বকাপ খেলতে চান টটেনহাম ফরোয়ার্ড। 

তা হলে চোখের কি হবে? এ জন্য চিকিৎসক একটি উপায় বাতলে দিয়েছেন তাকে। তা হলো মুখোশ পরে খেলার। 

বিশ্বকাপে প্রতিরক্ষামূলক মুখোশ পরেই মাঠে নামবেন সন হিউং-মিন। এর পরও গ্রুপপর্বে দক্ষিণ কোরিয়ার সব ম্যাচে তার খেলা নিয়ে অনিশ্চয়তা কাটছে না।

সন জানালেন, চোখের যে অবস্থা তাতে বিশ্রামই শ্রেয়। কিন্তু বিশ্বকাপ মিস করা যাবে না। যতটা সম্ভব চেষ্টা করবেন মাঠের লড়াইয়ে নামার। ভক্তদের মুখে হাসি ফোটাতে যে কোনো ত্যাগ স্বীকার করতে রাজি তিনি।

মুখোশ পরে খেলার অনুশীলনও শুরু করে দিয়েছেন সন। দোহায় জাতীয় দলের সঙ্গে দেখা গেল মুখোশ লাগানো সনকে।

অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের সন বললেন, আমি চিকিৎসক নই। তাই এ পরিস্থিতি নিয়ে খেলতে পারব কিনা স্পষ্ট বলতে পারছি না। প্রতিটি ম্যাচ খেলতে পারব কিনা তাও জানি না। তবে পরিস্থিতি অনুযায়ী আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করব।  ফুটবলাররা সবসময় এ ধরনের ঝুঁকির মধ্যেই লড়াই করে। আমি শুধু আমাদের সমর্থকদের আনন্দ দিতে ও ভরসা জোগাতে চাই। এ জন্য আমি ঝুঁকি নিতেও রাজি।

চলতি মাসে চ্যাম্পিয়নস লিগে মার্সেইয়ের বিপক্ষে টটেনহ্যামের ২-১ গোলের জয়ের ম্যাচে প্রথমার্ধে চোট পান হিউং-মিন। ২৩তম মিনিটে প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের সঙ্গে সংঘর্ষে বাঁ চোখের পাশে আঘাত পাওয়ায় তাকে তুলে নেওয়া হয়।

চোট সারিয়ে তুলতে এর পর হিউং-মিনের অস্ত্রোপচার করানো হয়। কিন্তু এরই মধ্যে বিশ্বকাপ চলে এলো। 

বিশ্বকাপে কোরিয়া আছে এইচ গ্রুপে। প্রথম ম্যাচ আগামী ২৪ নভেম্বর, তাদের প্রতিপক্ষ উরুগুয়ে। এই গ্রুপের অন্য দুদল পর্তুগাল ও ঘানা।


আরও খবর

রোনালদোকে টপকে গেলেন মেসি

রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২




ডেঙ্গুতে ৩ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ৯০৮

প্রকাশিত:রবিবার ০৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ৯০৮ জন নতুন রোগী দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। একই সময়ে আরও তিন ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। রবিবার (৬ নভেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে পাঠানো ডেঙ্গু বিষয়ক এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ৯০৮ জন নতুন রোগী দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকায় ৪৭৬ জন ও ঢাকার বাইরে ৪৩২ জন। বর্তমানে সারা দেশে তিন হাজার ৩৬৮ জন ডেঙ্গুরোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে দুই হাজার ৪২ জন ও ঢাকার বাইরে এক হাজার ৩২৬ জন।


আরও খবর



ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কাভার্ডভ্যানচাপায় নারী নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ৬৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে কাভার্ডভ্যান চাপায় শিউলী আক্তার (২৪) নামে এক নারী নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বাঞ্ছারামপুর-ঝগড়ারচর জামতলি রোডে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শিউলী উপজেলার বুধাইরকান্দি গ্রামের প্রবাসী আবুল কালামের স্ত্রী।

বাঞ্ছারামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নূরে আলম জানান, শিউলি উপজেলা সদর থেকে রিকশায় করে বুধাইরকান্দি শ্বশুরবাড়ি যাচ্ছিলেন। এসময় বিপরীত দিক থেকে একটি কাভার্ডভ্যান তাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলে সে মারা যায়। পুলিশ খবর পেয়ে কাভার্ডভ্যানটিকে আটক করলেও চালক পালিয়ে যায়। মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরও খবর