Logo
শিরোনাম

শালাকে অস্ত্র দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে কারাগারে দুলাভাই

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৯ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ নভেম্বর ২০২৩ | ৪০৬৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে শালাকে ফাঁসাতে গিয়ে কারাগারে গেলেন সহযোগীসহ দুলাভাই। বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) গভীর রাতে গাংনীর দেবীপুর গ্রাম থেকে গ্রেফতার করে সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এরা হচ্ছেন, মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার মুন্দা গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে রাহেদুল ইসলাম (২২) ও একই গ্রামের জাকিরুল ইসলামের ছেলে মুসতাকিন (১৮)।

জানা গেছে, রাহেদুল ইসলামের সঙ্গে গাংনীর দেবীপুরের খোরশেদ আলমের বোনের বিয়ে হয় সাত বছর আগে। রাহেদুলের সাথে বনিবনা না হলে তিন মাস আগে খোরশেদ আলম তার বোনকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। এতে রাগান্বিত হয়ে খোরশেদকে ফাঁসাতে তার ঘরে আগ্নেয়াস্ত্র রেখে পুলিশে খবর দেয় রাহেদুল ও তার সঙ্গী মুসতাকিম।

খোরশেদের ঘরে গাজা রয়েছে বলে পুলিশকে খবর দিলে বামন্দী ক্যাম্প পুলিশের এসআই আবুল খায়ের ও এএসআই শরিফুল বিষয়টি তদন্তে গিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র দেখতে পান। বিষয়টি গাংনী থানার ওসিকে জানানো হলে দুই সোর্সকে কৌশলে ডাকতে বলেন তিনি। দুজনকে ধরে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর কথা স্বীকার করলে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলুর রহমান বলেন, দুই সোর্সকে কৌশলে জিজ্ঞাসাবাদে আগ্নেয়াস্ত্র রাখার বিষয়টি স্বীকার করায় তাদের গ্রেফতার করা হয়। পরে সকালে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর