ভুল স্বীকার করলেন মুশফিক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৫ ডিসেম্বর ২০২০ |
হালনাগাদ:শুক্রবার ১৫ জানুয়ারী ২০২১ |
৪৮জন দেখেছেন


নিউজ পোস্ট ডেস্ক

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে এলিমিনেটর ম্যাচে সতীর্থ নাসুম আহমেদের সঙ্গে প্রশ্নবিদ্ধ আচরণ করায় ক্ষমা চাইলেন বেক্সিমকো ঢাকার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

সোমবার ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে ডু অর ডাই ম্যাচে সতীর্থদের সঙ্গে বেশ উত্তেজিত আচরণ করতে দেখা যায় মুশফিককে। মেজাজ হারিয়ে দলের স্পিনার নাসুমকে মারতে দুইবার হাতও উঠে গিয়েছিল জাতীয় দলের অভিজ্ঞ এই সদস্যের।

প্রথম ঘটনা বরিশালের ইনিংসের ১৩ তম ওভারের সময়। ওই ওভারে নাসুমকে দুটি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন আফিফ হোসেন। তাতেই চোখেমুখে বিরক্ত চাপ। পরের বলে মিডউইকেটে বল ঠেলে সিঙ্গেল নেন আফিফ। তখন বল কুড়িয়ে আনতে গিয়ে  নাসুমের হাতে বল তুলে দিয়ে মারার জন্য উদ্যত হন

ইনিংসের ১৭তম ওভারে। শফিকুলের বলে শর্ট ফাইন লেগে আফিফ ক্যাচ তুলে দিলে সেটি নিতে যান মুশফিক, সঙ্গে ছুটে যান নাসুমও। মুশফিক ক্যাচ নেন, ক্যাচ নিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়ে নাসুমকে যেন মেরেই দিচ্ছিলেন।

অধিনায়কের এমন আচরণে বিস্মিত হয়ে নাসুম মুশফিকের কাঁধে হাত রেখে ঘটনা স্বাভাবিক করার চেষ্টা করেন, সায় দেন মুশফিকও। এই দুটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়। এরপরই ক্ষমা চাইলেন ৩৩ বছর বয়সী মুশফিক।

মঙ্গলবার সকালে ফেসবুকে মাসুমের ছবিসহ একটি পোস্টে দিয়েছেন।

মুশফিক লিখেছেন, আসসালামু আলাইকুম। গতকালের ম্যাচ চলাকালীন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে আমি আমার ভক্ত-সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। সতীর্থ নাসুমের কাছে খেলার পরেই ক্ষমা চেয়েছি। সর্ব শক্তিমান আল্লাহর কাছেও ক্ষমা প্রার্থনা করেছি। আমি সব সময় মনে রাখি যে আমি একজন সর্বোপরি একজন মানুষ। আমার আচরণ মোটেই গ্রহণযোগ্য ছিল না। কথা দিচ্ছি, ইনশাল্লাহ আগামীতে মাঠে অথবা বাইরে এমনটা আর হবে না। জাজাকআল্লাহ খায়ের।