Logo
শিরোনাম

১২০ বছর বাঁচবে মানুষ

প্রকাশিত:বুধবার ০২ জুন 2০২1 | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৮৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আয়ু বাড়ানোর একটি গবেষণায় সফল হয়েছেন বিজ্ঞানীরা। গবেষণাগারে বিশেষ একটি প্রোটিনের সাহায্যে ইঁদুরের আয়ু বাড়াতে সক্ষম হয়েছেন তারা। এখন এই গবেষণার গবেষকরা বলছেন, একই পদ্ধতি ব্যবহার করে মানুষের আয়ুও বাড়ানো সম্ভব হবে। সেক্ষেত্রে মানুষ ১২০ বছর পর্যন্ত বাঁচতে পারে। খবর রাশিয়া টুডের।

ইসরায়েলের বার-ইলান বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা এই গবেষণা চালিয়েছেন। এই গবেষণার নেতৃত্ব দিয়েছেন অধ্যাপক হেইম কোহেন। গবেষণাগারে ইঁদুরকে এসআইআরটি৬ প্রোটিনের সরবরাহ বাড়িয়ে দেন বিজ্ঞানীরা। এই প্রোটিন বার্ধক্য নিয়ন্ত্রণ করে। তাই বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এই প্রোটিন কমতে থাকে।

২৫০টি ইঁদুরের শরীরে এই প্রোটিন বাড়িয়ে দেন বিজ্ঞানীরা। এরপর বিস্ময়কর ফলাফল পান তারা। বিজ্ঞানীরা জানান, এর ফলে ওই ইঁদুরগুলোর আয়ু ২৩ শতাংশ বেড়ে যায়। এর পাশাপাশি সেগুলো আরও তারুণ্যদীপ্ত এবং সাধারণ ইঁদুরের তুলনায় অধিক ক্যানসার প্রতিরোধী হয়ে উঠেছে।

ন্যাচার কমিউনিকেশন্স জার্নালে সম্প্রতি এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে। অধ্যাপক হেইম বলেন, ইঁদুরের মধ্যে আমরা যে পরিবর্তন লক্ষ্য করেছি তা মানুষের মধ্যেও হয়তো আনা সম্ভব হবে। আর যদি এটা করা যায় তাহলে তা খুবই উত্তেজনাকর হবে।যদি আয়ু বাড়াতে মানুষের শরীরেও এই প্রোটিনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়া হয় তাহলে গড় আয়ু ১২০ বছর পর্যন্ত হবে। 


আরও খবর



হেফাজত নেতা মনির কাসেমী চারদিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত:শনিবার ২২ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ১৭১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজধানীর পল্টন থানায় দায়ের করা মামলায় হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির অর্থ সম্পাদক মুফতি মনির হোসেন কাসেমীর চারদিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।

আজ শনিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম মাহমুদা আক্তার এই আদেশ দেন। ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসামির বিরুদ্ধে ২০১৩ সালে দায়ের করা পল্টন থানার মামলায় ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গতকাল শুক্রবার রাতে রাজধানীর বারিধারা থেকে মনির হোসেন কাসেমীকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। মামলার নথি থেকে জানা গেছে, ২০১৩ সালের ৫ মে

হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা ঢাকা অবরোধ করে। সেদিন রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন ও আরামবাগসহ আশপাশের এলাকায় যানবাহন ও সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় ব্যাপক ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে হেফাজতের কর্মীরা। এ ঘটনায় পল্টন থানায় মামলা করা হয়।


আরও খবর



ওবায়দুল কাদের আপনার স্ত্রী আপনাকে নষ্ট করছে : কাদের মির্জা

প্রকাশিত:রবিবার ১৩ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২০ জুন ২০21 | ৮৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নোয়াখালী প্রতিনিধি

বাংলাদেশ আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা বলেছেন, দুইটা পোলা মারা গেছে। আর কত মায়ের বুক খালি হইবো ওবায়দুল কাদের সাব। অন হইতে খেমা দেননা এইগান। কোরইছেনতো মালা চোককোনালি খেলা খেলাইছোনতো। আমনে দিন দিন ধ্বংস হই যান। আপনি নিজে আপনাকে নষ্ট করছেন, আপনার স্ত্রী আপনাকে নষ্ট করছে। আমনের ৪৭ বছরের রাজনীতি এখানে আই কোরছি। আমনে করেন নাই। আমনে ভোট কোরছেন,বকৃক্তা দিছেন। সুন্দর বকৃক্তা মানুষ হুইনছে,আমনেরে একটু পচন্দ করে। হেটাও ঠিক আছে। কিন্তু আমনেতো আমনের কারণে ধ্বংস হই যান। 

রবিবার (১৩ জুন) দুপুর ১২টায় নিজের ফেইজবুল অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভে এসে তিনি এসব কথা বলেন।

মেয়র  বলেন, ওবায়দুল কাদের সাহেব নিজের চেহারাটা আয়না দিয়ে দেখুন। বউয়ের খপ্পরে পড়িয়েননা। এই মহিলার লাগাম টানি ধরেন, স্ত্রীকে সামলান। স্ত্রীকে বলেন তার চেহারাটা আয়না দিয়ে দেখতে। এ মহিলা চোখটোক লাই যেমনে কথা কয় হেটা বন্ধ করার। সে কি নেত্রী নাকি। নষ্ট পোলা সব সে ফালে, তার কি স্বার্থ, সে কি রাজনীতি করে। আপনার বউয়ের কিচ্ছা আবুল ফজল লিখেও শেষ করতে পারবে না। তিনি (ইসরাতুন্নেছা কাদের) কোথায় কোথায় রাত্রে থাকে, দেশের বাইরে কোথায় ওনার কি আছে সব খবর আমার কাছে আছে। সেটা পরে আরেক দিন বলব।

কাদের মির্জা বলেন, কোম্পানীগঞ্জের একটা পাগলও বলবে গত পাঁচ মাস এখানকার অস্থিতিশীল পরিস্থিতির জন্য ওবায়দুল কাদেরই দায়ী। এটা বলা অপরাধ হলে আমাকে বহিষ্কার করে দিন। বাংলাদেশে আপনি নমিনেশন দেন যাদের কোন অতীত নেই। কারে দেন চেহারাটা কি আপনি দেখেছেন। আপনার তোষামদি করে এ জন্য ভোটে দাঁড় করান। অন এইগান চোককোনালি খামাদি আই যদি অন্যায় করি আর বিচার করেন, জেলে দেন। আই রাজি আছি এখন জেলে দেন। আর বহিস্কার করলে করেন। আই এগাইন চিন্তা করিনা।


আরও খবর



কোপা আমেরিকা বয়কট করতে যাচ্ছে নেইমাররা

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১ | ৮৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলোর মধ্যে ব্রাজিলের করোনা পরিস্থিতি সবচেয়ে ভয়াবহ। তারপরও আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়াকে বাদ দিয়ে সেই ব্রাজিলেই বসছে কোপা আমেরিকার আসর।

এই সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন দেশটির সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে জাতীয় দলের ফুটবলাররাও। ব্রাজিলের কোচ তিতেও তার শিষ্যদের সমর্থনে দাঁড়িয়ে গেছেন। এমনকি তারা পাশে পাচ্ছেন আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ের ফুটবলারদেরও।

কোপা আমেরিকার এবারের আসর যৌথভাবে আয়োজন করার কথা ছিল আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়ার। কিন্তু প্রথমে রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে আয়োজকদের তালিকা থেকে বাদ যায় কলম্বিয়ার নাম। পরে করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত আর্জেন্টিনার নামও কাটা যায়। ফলে তড়িঘড়ি করে ব্রাজিলের কাঁধে তুলে দেওয়া হয় দায়িত্ব। কিন্তু এটা নিয়েই দেখা দিয়েছে বড় জটিলতা।

আয়োজক দেশ হিসেবে ব্রাজিলের নাম ঘোষণার পরই ক্ষোভে ফেটে পড়ে দেশটির সাধারণ মানুষ। কারণ দেশটির করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে আগেই। এরইমধ্যে দেশটির প্রায় ৫ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। পরিস্থিতি এমনই যে, সেখানে এই মুহূর্তে কোপা আমেরিকা আয়োজনের বিপক্ষে দাঁড়িয়ে গেছে পুরো ব্রাজিল দল। আসর মাঠে গড়ালেও তারা বয়কটের চিন্তাভাবনা শুরু করে দিয়েছে।

ইকুয়েডরের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে মাঠে নামার আগে দলীয় সংবাদ সম্মেলনে হাজির হননি ব্রাজিলের অধিনায়ক কাসেমিরো। তার বদলে হাজির হওয়া কোচ তিতে নিজেই জানিয়ে দেন, তার দলের খেলোয়াড়রা কোপা আমেরিকা বয়কট করতে যাচ্ছে।  


আরও খবর



সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম মুক্ত

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ মে ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৬ জুন ২০২১ | ৯৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দণ্ডবিধি ও অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টের মামলায় জামিন পেয়ে কারাগার থেকে মুক্ত হলেন প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলাম। রবিবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত তার জামিন মঞ্জুর করেন।  পাঁচ হাজার  টাকা মুচলেকা এবং পাসপোর্ট জমা দেওয়ার শর্তে তিনি জামিন পান।

এর পর জামিনের কাগজ কাশিমপুর কারাগারে পৌঁছালে সেখান থেকে তিনি মুক্ত হন। কারাগার থেকে বেরিয়ে তিনি তার জন্য অপেক্ষমাণ মাইক্রোবাসে উঠে যান। কারা ফটকে অপেক্ষমাণ সাংবাদিকদের সঙ্গে রোজিনা ইসলাম কোনো কথা বলেননি।

গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটের দিকে শুনানি শুরু হয়। ১ ঘণ্টার অধিক সময় ধরে শুনানি চলে। দুপুর ১টা ৫৬ মিনিটের দিকে শুনানি শেষ হয়। তবে আদালত সেদিন তাৎক্ষণিকভাবে কোনো সিদ্ধান্ত দেননি।

রাষ্ট্রপক্ষের তথ্য উপস্থাপন ও জামিন বিষয়ে আজ রোববার আদেশের জন্য দিন ধার্য করেন আদালত।

এর আগে গত মঙ্গলবার রোজিনা ইসলামকে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। অপরদিকে রোজিনা ইসলামের পক্ষে রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করা হয়।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত রিমান্ড আবেদন নাকচ করে জামিন শুনানির জন্য বৃহস্পতিবার দিন ধার্য করেন।

রোজিনা ইসলাম পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য সোমবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে যান। স্বাস্থ্য সচিবের পিএস সাইফুল ইসলামের রুমে ফাইল থেকে গোপন নথি সরানোর অভিযোগে তাকে আটকে রাখা হয়। তার মোবাইল ফোন কেড়ে নেওয়া হয়। তার ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হয়। একপর্যায়ে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন।

রোজিনা ইসলামকে আটকে রাখার খবর পেয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে যান। তারা রোজিনাকে আটকে রাখার কারণ জানতে চাইলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা কিছুই জানাননি।

রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত সাংবাদিকরা সচিবালয়ের বাইরে একত্রিত হয়ে রোজিনা ইসলামকে হেনস্তার প্রতিবাদ করেন।

রাত সাড়ে ৮টার পর রোজিনা ইসলামকে স্বাস্থ্য সচিবের পিএসের রুম থেকে বের করে শাহবাগ থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। মধ্যরাতে তার বিরুদ্ধে অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে মামলা করা হয়।


আরও খবর



আমলাতন্ত্রের বিকল্প শূন্যতা: পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৯ জুন ২০২১ | ৭৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আমলাতন্ত্রের বিকল্প শূন্যতা। জীবনে শূন্যতা ভয়ংকর বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পরিসংখ্যান ভবনে বিবিএস গ্লোসারি (কনসেপ্টস অ্যান্ড ডেফিশেন) শীর্ষক বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপা বিভাগের সচিব মোহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম। মূল প্রবদ্ধ উপস্থাপন করেন ন্যাশনাল স্ট্রাটেজি ফর ডেভেলপমেন্ট অব স্টাটিসটিকস (এনএসডিএস) প্রকল্পের পরিচালক দিলদার হোসেন।

আমলাতন্ত্রের প্রসংশা করে এম এ মান্নান বলেন, আমলাতন্ত্রের যে কত প্রয়োজন তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আমিও এক সময় ছোটখাট আমলা ছিলাম। তবে সকল পর্যায়ে কর্মকর্তাদের উচিত মাঠ পর্যায়ে যোগাযোগ বাড়ানো। ইউএন, ডিসিসহ মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের উচিত স্থানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউপি চেয়ারম্যান এমনকি মেম্বারদের মধ্যে যোগাযোগ বাড়ানো।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, তথ্য লুকানোর কিছু নেই। ৯৯ শতাংশ ক্ষেত্রে সরকারি তথ্য প্রকাশে কোনো সমস্যা নেই। শুধু রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার কারণে ১ শতাংশ গোপনীয়তা রয়েছে। সেটির প্রতি গণমাধ্যম সম্মান দেখাবে অবশ্যই। আগামীতে হয়তো সেই ১ শতাংশও আর গোপন রাখার প্রয়োজন নাও হতে পারে। সরকার অত্যন্ত স্বচ্ছ।

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, কোনো তথ্য লুকাবেন না। আপাদের জরিপে যদি কোনো ভয়ংকর কিছু আসে সে ক্ষেত্রে মহাপরিচালক ও সচিবকে জানাবেন। তারা মনে করলে আমাকে জানাবেন। আমি মনে করলে সরকার প্রধানকে জানাবো।

তিনি আরও বলেন, সরকার বিবিএস এর ওপর নির্ভরশীল। বিশেষ করে পরিকল্পনা প্রণয়নের ক্ষেত্রে মূল আকর আছে বিবিএস থেকে। এজন্য পরিসংখ্যান ব্যুরোর বিশুদ্ধতা দরকার। আমরা জনগণের পক্ষে কাজ করি। আমলাদের দক্ষতা বাড়াতে হবে। বেশি বেশি প্রশিক্ষণ দিতে হবে।

দিলদার হোসেন জানান, প্রকাশনাটিতে কৃষি, শিল্প, পরিবেশ, ব্যবসা, উৎপাদন, সেবা, জিডিপি, মূল্য ও মজুরি, বৈদেশিক বাণিজ্যে, ব্যাংকিং, দারিদ্র্য, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বাসস্থান, শ্রমশক্তি, জেন্ডার, রেমিট্যান্স, ডেমোগ্রামি, ফার্টিলিটি, মর্টালিটি, মাইগ্রেশনসহ বিভিন্ন বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক বিষয়ে ২ হাজার ৪১টি কনস্পেট ও ডেফিনেশন স্থান পেয়েছে। গ্রন্থটির বাংলা অনুবাদ এবং তিন বছর পর পর এর হালনাগাদকরণ প্রয়োজন হবে।

স্বাগত বক্তব্যে বিবিএস মহাপরিচালক তাজুল ইসলাম জানান, বাংলাদেশের সার্বিক পরিসংখ্যান ব্যবস্থার উন্নয়নে ২০১৩ সালে মন্ত্রিপরিষদ কর্তৃক জাতীয় পরিসংখ্যান উন্নয়ন কৌশলপত্র বা ন্যাশনাল স্ট্র্যাটিজি ফর দ্য ডেভলপমেন্ট অব স্টাটিসটিকস অনুমোদিত হয়। এটা বাস্তবায়নে সহায়তা এবং বিবিএস এর সার্বিক সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ২০১৮ সালে এনএসডিএস ইমপ্লিমেন্টেশন সাপোর্ট প্রজেক্ট গ্রহণ করা হয়। ওই প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম সম্পাদিত হয়েছে।


আরও খবর