Logo
শিরোনাম

কালবৈশাখী ঝড়ের পূর্বাভাস

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সারাদেশের তাপমাত্রা আগামী ২৫ মার্চ পর্যন্ত আরও বাড়তে পারে। এরপর তাপমাত্রা কমে বৃষ্টিসহ কালবৈশাখী ঝড় হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, আগামী ২৫ মার্চ পর্যন্ত তাপপ্রবাহ থাকতে পারে। এরপর থেকে তাপমাত্রা কমতে শুরু করবে। বিশেষ করে ২৭, ২৮ ও ২৯ মার্চ ভালো বৃষ্টি হতে পারে। সারাদেশেই কমবেশি ঝড়বৃষ্টি হতে পারে। কালবৈশাখী ঝড়ও হওয়ার আশঙ্কা আছে। মূলত তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় এ ঝড় হতে পারে।

এর আগে সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগসহ রাজশাহী ও পাবনা অঞ্চল এবং নীলফামারী জেলার উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

পুর্বাভাসে আরও বলা হয়, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে। এরপরের ৩ দিন আবহাওয়ার সামান্য পরিবর্তন হতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে বলেও আবহাওয়ার পূর্বাভাসে উল্লেখ করা হয়।

এদিকে সোমবার (২২ মার্চ) দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে সীতাকুণ্ডে ৩৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৩৬ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

নিউজ ট্যাগ: কালবৈশাখী ঝড়

আরও খবর



নতুন সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর প্রধানের নাম ঘোষণা করল ব্রাজিল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৬৩জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
প্রেসিডেন্ট বোলসোনারো অসঙ্গতভাবে সামরিক বাহিনীকে নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন, তাদের কাছে এমনটি মনে হওয়ার পর এর প্রতিবাদে হঠাৎই তিন বাহিনীর প্রধান দায়িত্ব

সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর নতুন প্রধানের নাম ঘোষণা করেছে ব্রাজিল। তাঁদের পূর্বসুরিরা হঠাৎ সরে দাঁড়ানোর কথা জানানোর একদিন পর তিনটি গুরুত্বপূর্ণ পদে প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো নতুন নিয়োগ দিলেন।

ব্রাজিলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল ওয়াল্টার ব্রাগা নাতো এক সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে সেনাপ্রধান হিসেবে জেনারেল পাওলো সার্জিও নগুইরা ডি অলিভিরা, নৌপ্রধান হিসেবে অ্যাডমিরাল আলমির গার্নির ও বিমান বাহিনীর প্রধান হিসেবে কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার কার্লোস অলমিদা বাপতিস্তা জুনিয়রকে পরিচয় করে দেন। খবর আল জাজিরার।

ব্রাগা নাতো বলেন, নতুন নিয়োগ পাওয়া এ তিনজনই দেশরক্ষা, সাংবিধানিক শক্তি ও গণতান্ত্রিক স্বাধীনতার নিশ্চয়তা প্রদানের ক্ষেত্রে তাঁদের সাংবিধানিক মিশনের প্রতি বিশ্বস্ত থাকবেন।

কোভিড-১৯ রোগে মৃতের সংখ্যা অনেক বৃদ্ধি পাওয়ায় কঠোর সমালোচনার মুখে বোলসোনারো তাঁর প্রধান স্টাফ, অ্যাটর্নি জেনারেল ও সশস্ত্র বাহিনীর প্রধানসহ পররাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা ও আইনমন্ত্রীকে সরিয়ে দিয়ে সরকারে ব্যাপক রদবদল করেন। এ মহামারি ভাইরাস ছড়িয়ে পড়াকে কেন্দ্র করে গত সপ্তাহে তিনি তাঁর চতুর্থ স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে নিয়োগ দেন।

সংবাদমাধ্যম বিবিসি গতকাল বুধবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট বোলসোনারো অসঙ্গতভাবে সামরিক বাহিনীকে নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন, তাদের কাছে এমনটি মনে হওয়ার পর এর প্রতিবাদে হঠাৎই তিন বাহিনীর প্রধান দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ান।

ব্রাজিলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় গত মঙ্গলবার সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এডসোন পুঁজোল, নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল ইলকোয়েস বারবোসা ও বিমান বাহিনী প্রধান লেফটেন্যান্ট ব্রিগেডিয়ার আন্তোনিও কার্লোস বেরমুজিসের পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করে, তবে তিন বাহিনীর প্রধানের পদত্যাগের কারণ জানায়নি মন্ত্রণালয়।

নিউজ ট্যাগ: ব্রাজিল

আরও খবর

মিয়ানমারে সেনা অভিযানে নিহত ৮২

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




হরতালের প্রভাব নেই রাজধানীর ফার্মগেট-কারওয়ান বাজারে

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ এপ্রিল ২০২১ | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালের প্রভাব নেই রাজধানীর কারওয়ান বাজার ও ফার্মগেট এলাকায়। রোববার (২৮ মার্চ) সকাল ১০টা পর্যন্ত এ এলাকায় তাদের নেতাকর্মী বা সমর্থকদের দেখা যায়নি। সড়কে যানবাহন চলাচলও রয়েছে স্বাভাবিক।

কাওরান বাজার ও ফার্মগেট এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বাস, প্রাইভেটকার, সিএনজি, মোটরসাইকেলসহ সবধরনের যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। কারওয়ান বাজারের কাঁচাবাজারে মানুষের ভিড়। এছাড়া কর্মজীবী মানুষ অফিস বা কাজের জন্য বের হওয়াসহ যাবতীয় কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে।

সড়কে বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশের সতর্ক অবস্থানে থাকতে দেখা গেছে। তবে মাঠে নামতে দেখা যায়নি হেফাজতে ইসলামের সমর্থক বা নেতাকর্মীদের। এ এলাকায় এখন পর্যন্ত কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

রাজধানীতে সকাল থেকেই রিকশা চালাচ্ছেন রতন মিয়া। ফার্মগেট মোড়ে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, সকাল থেকেই আমি রিকশা চালাচ্ছি। হরতালের সমর্থনে কোথাও কোনো গণ্ডগোল দেখিনি। হেফাজতের কোনো নেতাকর্মীও তো দেখলাম না।

ফার্মগেটের কাপড় বিক্রেতা মো. আরিফ বলেন, আজ যে হরতাল হচ্ছে, তা বোঝা যাচ্ছে না। হরতাল পালন কেডা করব, ওই ঘোষণা দেয়া পর্যন্তই।

নিউজ ট্যাগ: হরতাল

আরও খবর

লকডাউনেও ট্রাফিক জ্যাম

মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১




টিকাদানে বিশ্বের প্রথম ২০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৮১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে সারাবিশ্ব এখন একটি কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে পার হচ্ছে। আমাদের সরকার করোনা বিস্তারের প্রথম দিক থেকে একটি সমন্বিত ও কার্যকর কর্মসূচি হাতে নেয়

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্বের অনেক দেশের আগেই বাংলাদেশে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় টিকাদান কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। এ পর্যন্ত ১ কোটি ২ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেশে আনা হয়েছে। করোনাভাইরাসের টিকাদানে বিশ্বের প্রথম সারির ২০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ চলে এসেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস-২০২১ উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে বুধবার (৭ এপ্রিল) তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ৭ এপ্রিল বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস পালিত হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ উপলক্ষে আমি সবাইকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা। এবারের বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসের প্রতিপাদ্য বিল্ডিং অ্যা ফেয়ারার, হেলদিয়ার ওয়ার্ল্ড; যার মর্মার্থ দাঁড়ায়- সবার জন্য সুন্দর ও স্বাস্থ্যকর বিশ্ব গড়ি। প্রতিপাদ্যটি তাৎপর্যপূর্ণ ও সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি।

তিনি আরও বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে সারাবিশ্ব এখন একটি কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে পার হচ্ছে। আমাদের সরকার করোনা বিস্তারের প্রথম দিক থেকে একটি সমন্বিত ও কার্যকর কর্মসূচি হাতে নেয়। আমাদের সীমিত জনবল, চিকিৎসা-সামগ্রী ও জনগণের মাঝে করোনা রোগ প্রতিরোধের ব্যাপারে সচেতনতা বৃদ্ধি, করোনা টেস্টিং, টেলি-মেডিসিনের মাধ্যমে পরামর্শ প্রদান, সঙ্গনিরোধ, কোভিড হাসপাতাল স্থাপন, হাসপাতালে অক্সিজেনসহ জীবন রক্ষাকারী সামগ্রীর ব্যবস্থা, চিকিৎসক ও নার্স নিয়োগসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করে অন্যান্য দেশের তুলনায় করোনা নিয়ন্ত্রণে সফলতা অর্জন করি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা মহামারি সফলভাবে মোকাবিলা, সময়োচিত ও যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ, অর্থনীতি পুনরুদ্ধার এবং জীবনযাত্রার মান সচল রাখার ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের ব্লুমবার্গ প্রণীত কোভিড-১৯ সহনশীল র্যাং কিংয়ে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষ ও বিশ্বে ২০তম স্থান অর্জন করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক ব্যক্তিগতভাবে বাংলাদেশের করোনা মোকাবিলার জন্য আমাদের বিভিন্ন পদক্ষেপের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, গ্রামীণ, প্রান্তিক ও সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর জন্য কমিউনিটি ক্লিনিকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ওষুধ প্রদান করা হচ্ছে। শিশুমৃত্যু ও মাতৃমৃত্যু হার উল্লেখযোগ্য হারে হ্রাসমান। গড় আয়ু ৭২.৬ বছরে এসে দাঁড়িয়েছে। টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট ও সার্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষা অর্জনে আমরা বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। দেশে কোভিড-১৯-এর দ্বিতীয় ঢেউ প্রতিরোধের জন্য মাস্ক ব্যবহার, হাত ধোয়ার স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ, হাঁচি-কাশির শিষ্টাচারসহ অন্যান্য নিরাপদ অভ্যাসসমূহ আমাদের মেনে চলতে হবে। করোনার পাশাপাশি আমাদের অত্যাবশ্যকীয় জরুরি স্বাস্থ্যসেবা যেন কোনো ধরনের ব্যাহত না হয় সে ব্যাপারে সবাইকে সজাগ ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, আমি বিশ্বাস করি, এ মহামারি মোকাবিলায় আমরা এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি অভিজ্ঞ, দক্ষ, প্রশিক্ষিত ও সাহসী। এই সঙ্কটকালে সেবা দিতে গিয়ে অনেক চিকিৎসক, নার্স ও অন্যান্য সেবাদানকারী মারা গেছেন। আমি তাদের আত্মার মাগফেরাত ও শান্তি কামনা করি এবং পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করছি। আমি বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস ২০২১-এর সার্বিক সাফল্য কামনা করি।


আরও খবর



এক মাসের কঠোর লকডাউন ঘোষণা ফ্রান্সে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ এপ্রিল ২০২১ | ৮২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
দেশের বিপর্যস্ত অর্থনীতির স্বার্থে ম্যাক্রোঁ এতোদিন পর্যন্ত তৃতীয় লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিতে দ্বিধান্বিত ছিলেন। নতুন বিধিনিষেধের আওতায় আগামী সপ্তাহান্ত থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ফ্রান্সে এক মাসের জন্য কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া এক টেলিভিশন ভাষণে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ এ ঘোষণা দেন। দেশের কিছু অংশে বিচ্ছিন্নভাবে যেসব কঠোর বিধিনিষেধ চালু ছিল, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গোটা দেশের জন্য সেগুলো প্রয়োগের সিদ্ধান্তের কথা জানান ম্যাক্রোঁ।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট বলেন, মহামারির প্রত্যেকটি পর্যায়ে হয়তো ভুল সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে সেই ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে প্রতিবারই ভুল শুধরে নেওয়া হয়েছে। তার মতে, এখনই পদক্ষেপ না নিলে পরিস্থিতি আর নিয়ন্ত্রণের মধ্যে থাকবে না।

দেশের বিপর্যস্ত অর্থনীতির স্বার্থে ম্যাক্রোঁ এতোদিন পর্যন্ত তৃতীয় লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিতে দ্বিধান্বিত ছিলেন। নতুন বিধিনিষেধের আওতায় আগামী সপ্তাহান্ত থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর দোকান ছাড়া বাকি সব দোকানপাট বন্ধ রাখা হবে। সন্ধ্যা ৭টা থেকে কারফিউ চালু হবে। মানুষ নিজের বাসা থেকে ১০ কিলোমিটারের বেশি দূরে যেতে পারবেন না। অর্থাৎ দেশের মধ্যে মানুষের যাতায়াত কার্যত বন্ধ রাখা হচ্ছে। সারা দেশে তিন সপ্তাহের জন্য স্কুল পুরোপুরি বন্ধ থাকবে।

ফ্রান্সে প্রতি এক লাখ মানুষের মধ্যে সাপ্তাহিক গড় সংক্রমণের হার প্রায় ৩৭৫ ছুঁয়েছে। দিনে ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। ফলে দেশের অনেক হাসপাতাল আর রোগী নিতে পারছে না। বিশেষ করে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটগুলো প্রায় ক্ষমতার সীমারেখায় পৌঁছে যাচ্ছে। ফলে এখনই ব্যবস্থা না নিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে। প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ অবশ্য হাসপাতালের সক্ষমতা বাড়ানোর ঘোষণা করেছেন। করোনা মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এক লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্য দেশগুলোর মতো ফ্রান্সেও করোনার টিকাদান কর্মসূচি ধীর গতিতে এগোচ্ছে। যথেষ্ট সংখ্যায় টিকার সরবরাহে ঘাটতির পাশাপাশি আমলাতান্ত্রিক জটিলতাকেও এই সংকটের জন্য দায়ী করা হচ্ছে।

এখন পর্যন্ত ফ্রান্সে মাত্র ১২ শতাংশ মানুষ টিকা পেয়েছেন। ম্যাক্রোঁ টিকাদান কর্মসূচিতে গতি আনার প্রয়োজনীয়তার কথাও উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে ৬০-এর বেশি বয়সের মানুষ এবং এর এক মাস পর ৫০-এর বেশি বয়সের মানুষ টিকা পাবেন। কড়া লকডাউন এবং দ্রুত টিকাদানের ফলে মে মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে ধাপে ধাপে কড়াকড়ি শিথিল করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট।

নিউজ ট্যাগ: ফ্রান্স লকডাউন

আরও খবর

মিয়ানমারে সেনা অভিযানে নিহত ৮২

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




অ্যাপসভিত্তিক মোটরসাইকেল চালকদের সড়ক অবরোধ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৬২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনা পরিস্থিতির কারণে মোটরসাইকেলে রাইড শেয়ারিং সেবা বন্ধের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন বিভিন্ন অ্যাপসভিত্তিক মোটরসাইকেল চালকরা।

বৃহস্পতিবার (০১ এপ্রিল) বেলা পৌনে ১২টার দিকে ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে প্রধান সড়ক বন্ধ করে অবস্থান নেন অর্ধশতাধিক মোটরসাইকেল চালক।

মোটরসাইকেল আড়াআড়ি করে রেখে ২৭ নম্বর প্রধান সড়ক বন্ধ করে দেন চালকরা। এতে পুরো সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তীব্র যানজট সৃষ্টি হয় সড়কের দুই পাশেই। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে বিক্ষোভকারীরা রাস্তা ছেড়ে দিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকরাম আলী জানান, করোনা পরিস্থিতি অবনতির কারণে মোটরসাইকেলে যাত্রী চলাচল বন্ধ রয়েছে। এর প্রতিবাদে রাইড শেয়ারিং অ্যাপস উবার-পাঠাওয়ের রাইডাররা রাস্তা বন্ধ করে বিক্ষোভ করছিলেন।

পরে পুলিশ তাদের বুঝিয়ে রাস্তা থেকে সরিয়ে দিলে ১০-১৫ মিনিটের মধ্যেই সড়কে আবারও যান চলাচল শুরু হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলেও জানান ওসি।


আরও খবর

লকডাউনেও ট্রাফিক জ্যাম

মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১