Logo
শিরোনাম

মৃত্যুর ৪০ দিন পর গিনেস বুকে রাণী'র নাম

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ | ২৬৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অবশেষে মৃত্যুর ৪০ দিন পর গিনেস বুক রেকর্ডে নাম উঠল আশুলিয়ায় বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু রাণী'র। মঙ্গলবার সকালে আশুলিয়ার চারিগ্রাম এলাকার শিকড় এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপক মো: আবু সুফিয়ান রাণীর গিনেস বুকে নাম উঠার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এর আগে, সোমবার বিকেল ৪টার দিকে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষ একটি ই-মেইলের মাধ্যমে গিনেস বুকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন তাকে৷

শিকড় এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপক আবু সুফিয়ান বলেন, গিনেস বুক কর্তৃপক্ষের কাছে রাণীর মৃত্যুর পর পোস্টমর্টেম রিপোর্ট পাঠানো হয়েছিল। তারা মূলত দেখেছে, হরমোন জাতীয় ইনজেকশন পুশ করে রাণীকে বামন করে রাখা হয়েছিল কিনা?

কিন্তু এ ধরনের কোন কিছু তারা রিপোর্টে পায়নি। তিন দিন আগে তারা রাণীকে বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরুর স্বীকৃতি দেন। কিন্তু তাদের প্রসেসের কারণে বিলম্বে আমাদের ই-মেইল করেছে।

তিনি আরো বলেন, রাণী সবার অনেক আদরের ছিল। প্রাণি হলেও রাণীকে তারা পরিবারের একজন করে নিয়েছিলেন। কিন্তু গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ডে যখন রাণীর নাম উঠতে আর কিছু দিন বাকি, তখন রাণীকে হারায়। রাণীর মৃত্যু কোনোভাবেই ওই সময় মেনে নিতে পারেননি তারা। তবে অবশেষে গিনেস বুক কর্তৃপক্ষ তাদের প্রসিডিউর অনুযায়ীই রাণীকে বিশ্বের সবচাইতে ছোট গরুর স্বীকৃতি দিয়েছেন। আমরা সত্যিই অনেক বেশি আনন্দিত। তবে রাণী বেঁচে থাকলে এই আনেন্দর মাত্রা কয়েক গুণ বেড়ে যেত।

উল্লেখ্য, ভুট্টি জাতের এই গরুর উচ্চতা ২৪.৭ ইঞ্চি, দৈর্ঘ্য ২৬ ইঞ্চি এবং ওজন ২৬ কেজি। ১১ মাস আগে নওগাঁর প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে রাণীকে আনা হয় আশুলিয়ার ওই খামারে। আশুলিয়ার ওই খামারে আনার পর লালন পালনের মধ্যে গত ১৯ আগস্ট হঠাৎ করেই গরুটির মৃত্যু হয়।

নিউজ ট্যাগ: গিনেস বুক রাণী

আরও খবর



‘রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বন্ধুরাষ্ট্রগুলোর সহযোগিতা প্রয়োজন’

প্রকাশিত:বুধবার ২০ জুলাই ২০22 | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ আগস্ট ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বন্ধুরাষ্ট্রের দ্রুত সহযোগিতা প্রয়োজন বলে মনে করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি বলেন, তা না হলে মানবিক বিবেচনায় রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া বাংলাদেশ সংকটে পড়বে। এরইমধ্যে বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে মাদক, অস্ত্র চোরাচালানসহ সীমান্তে নিরাপত্তা ঝুঁকিতে পড়েছে।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর হোটেল রেডিসন ব্লুতে আয়োজিত 'রোহিঙ্গা অ্যান্ড নারকো টেররিজম' শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। দেশের একমাত্র কূটনীতিবিষয়ক ম্যাগাজিন 'ডিপ্লোম্যাটস ওয়ার্ড' এর আয়োজন করে।

সেমিনারে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, মায়ানমার বর্ডার দিয়ে রোহিঙ্গারা এদেশে মাদক নিয়ে আসছে। একটা অনুসন্ধানে দেখা গেছে, রোহিঙ্গারা এসব মাদক উৎপাদনে জড়িত নয়। বিদেশি এজেন্সিগুলো থেকেও আমরা এমন কোনো তথ্য পাইনি। এই বিষয়টা স্বাভাবিকভাবেই আমাদের মনে প্রশ্নের উদ্রেক করে যে, তাহলে এসব মাদক কোথা থেকে প্রক্রিয়াজাত করা হয় বা উৎপাদিত হয়, এর পেছনে কারা রয়েছে। এটা নিশ্চিত করে বলা যায় যে, বাংলাদেশে কোনো ধরনের মাদক উৎপাদন হয় না। কিন্তু বাংলাদেশ এই ভয়াবহ মাদকের শিকার হচ্ছে।

কয়েকটি এজেন্সি থেকে প্রাপ্ত কয়েক বছরের মাদক চোরাচালানের পরিসংখ্যান তুলে ধরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ২০১৬ সালে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ৩৪ লাখ ৭৬ হাজার ইয়াবা জব্দ করে। এ দেশে রোহিঙ্গা আগমনের পরের বছরই এটি বেড়ে দাঁড়ায় ১ কোটি ২০ লাখ ৩৩৪ পিসে।

তিনি বলেন, যখন জাতিগত নিধনের শিকার হয়ে রোহিঙ্গারা যখন এ দেশে আশ্রয় নিয়েছিল, তখন ধারণা করা হয়েছিল মায়ানমার থেকে মাদক চোরাচালান কমবে। কিন্তু এখন তার উল্টো চিত্র দেখা যাচ্ছে। মায়ানমারে চলমান সংঘাতের মধ্যেও দেশটির মাদক উৎপাদন, প্রক্রিয়াজাতকরণ এবং পরিবহণ চক্র বহাল তবিয়তে রয়েছে। শুধু বাংলাদেশই নয়, মাদক চোরাচালান ইস্যুতে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোকেও সমান ভূমিকা রাখতে হবে।

বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতদের আহ্বান জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মাদক চোরাচালান শুধু বাংলাদেশের সমস্যা নয়, এটি পুরো বিশ্বেরও সমস্যা। মাদক চোরাচালানের সঙ্গে অবৈধ অস্ত্রেরও চোরাচালান হয়। যদি দ্রুত রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান না হয়, তবে এই নির্যাতনের শিকার জনগোষ্ঠী উগ্রবাদী গোষ্ঠীর টার্গেটে পরিণত হবে এবং তারা উগ্রবাদের সঙ্গে জড়িয়ে যাবে।

পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, মাদক চোরাচালান, অপরাধ প্রবণতা বেড়েছে সীমান্তে। রোহিঙ্গা এলাকায় বেড়েছে মাদকদ্রব্য উদ্ধারের সংখ্যাও। সিনথেটিক ড্রাগস আসছে সীমান্ত দিয়ে। যেখানে বাহক হিসেবে কাজ করছে রোহিঙ্গারা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জন্য হুমকি হয়ে উঠেছে অস্ত্র চোরাচালান। চোরাচালানের কেন্দ্রে রোহিঙ্গা ক্যাম্প। মানবপাচারের ঘটনা ঘটছে রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো থেকে।

সেমিনারে প্যানেল আলোচনা করেন নিরাপত্তাবিশ্লেষক ও সাবেক নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) এম সাখওয়াত হোসেন, আর্মড ফোর্সেস ডিভিশনের সাবেক প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) লে. জেনারেল (অব.) মাহফুজুর রহমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

আমন্ত্রিত রাষ্ট্রদূতদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট ডিকসন, সৌদি রাষ্ট্রদূত ঈসা বিন ইউসুফ আল দুহাইলান এবং ব্রুনাইয়ের রাষ্ট্রদূত হ্যারিস বিন ওথমান। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ।


আরও খবর



সর্ষের তেল কি ত্বকের জন্য আদৌ ভাল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ আগস্ট ২০২২ | ৪৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

অনেক চিকিৎসক মনে করেন, ত্বকের যত্নেও অন্য তেলের চেয়ে সর্ষের তেলে আস্থা রাখাই বুদ্ধিমানের কাজ। তবে সেই সর্ষের তেলকে খাঁটি হতে হবে। ত্বকের পরিচর্যায় কী ভাবে ব্যবহার করবেন এই তেল?

১) বর্ষা এলেই চুলকানি, ঘায়ের সমস্যা বাড়ে। সর্ষের তেল অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল ও অ্যান্টি-ফাঙ্গাল উপাদানে ভরপুর। তাই অ্যালার্জি ও র‌্যাশের হানা প্রতিরোধে সাহায্য করে।

২) সর্ষের তেলে রয়েছে ভিটামিন এ, ই এবং বি কমপ্লেক্স। ফলে এটি বলিরেখা কমাতে সাহায্য করে।

৩) অনেকেরই সারা বছর ফাটা ঠোঁটের সমস্যা থাকে। রাতে শোয়ার আগে ঠোঁটে দু-তিন ফোঁটা সর্ষের তেল বুলিয়ে ঘুমোন। পাবেন এই সমস্যা থেকে রেহাই।

৪) রোজ রোদে বেরোলে ত্বকে পোড়া দাগ থাকে। ত্বকের দাগছোপ তোলার জন্য বেসন, দই, লেবুর রসের সঙ্গে সর্ষের তেল মিশিয়ে মুখ-ঘাড়ে ১০-১৫ মিনিট লাগিয়ে রেখে ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলতে হবে। সপ্তাহে তিন দিন তেল দিয়ে তৈরি এই মাস্ক ব্যবহার করলে এক মাসের মধ্যেই ফল পাওয়া যাবে।

৫) রোদে পুড়ে ত্বকে দাগ পড়েছে? সমপরিমাণে সর্ষের তেল ও নারকেল তেল মিশিয়ে প্রতি রাতে মিনিট পনেরো মুখে মালিশ করতে হবে। তার পর ফেসওয়াশ দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। কয়েক দিন এই পন্থা মেনে চললে লক্ষ করবেন ত্বকের পুরনো জেল্লা ফিরে এসেছে।

নিউজ ট্যাগ: সর্ষের তেল

আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২




বুধবারের লোডশেডিংয়ের তালিকা প্রকাশ

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ আগস্ট ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী দেশের বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলো সম্ভাব্য লোডশেডিংয়ের তালিকা প্রকাশ করে আসছে। সে অনুযায়ী বুধবারের (৩ আগস্ট) তালিকা প্রকাশ করেছে কোম্পানিগুলো। ঢাকা বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানি (ডিপিডিসি), ঢাকা ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (ডেসকো), নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (নেসকো),  ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউসন কোম্পানি (ওজোপাডিকো),  বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (বিআরইবি) এবং বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি) এর ওয়েবাসাইটের নির্দিষ্ট লিংককে গিয়ে এই তালিকা দেখতে পারবেন গ্রাহকরা।

নিচের লিংকে ডিপিডিসি, ডেসকো, ওজোপাডিকো  নেসকো, আরইবি ও পিডিবির বুধবারের সম্ভাব্য লোডশেডিংয়ের এলাকাভিত্তিক তালিকা রয়েছে।

https://www.desco.org.bd/bangla/loadshed_b.php

https://dpdc.gov.bd/site/page/73eb4722-b49c-4a44-bd6e-923c06c4a169

http://www.wzpdcl.org.bd/

https://nesco.portal.gov.bd/site/page/13ccd456-1e1d-4b24-828d-5811a856f107




আরও খবর



কলেজছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ : ছাত্রলীগের ২ নেতা বহিষ্কার

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ | ৩৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে এক কলেজছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে ভুক্তভোগীর বাবা দুই ছাত্রলীগ নেতাসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। এই অভিযোগে ছাত্রলীগের দুই নেতাকে বহিষ্কার করেছে উপজেলা ছাত্রলীগ। বহিষ্কৃতরা হলেন- উপজেলার বঙ্গলতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি যীশু চৌধুরী (২৭) ও সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া (২৬)।

শনিবার (৬ আগস্ট) উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক সানি দেব ও যুগ্ম আহ্বায়ক শরিফুল ইসলাম স্বাক্ষর করা গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, দলীয় শৃঙ্খলা পরিপন্থি কার্যকলাপে জড়িত থাকায় সংগঠনের গঠনতন্ত্র মোতাবেক ছাত্রলীগ থেকে তাদের অব্যাহতি দেওয়া হয়।

উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক সানি দেব বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আমরা ঘটনাটি জানার পরে তাদের সংগঠন থেকে অব্যাহতি দিয়েছি। তাদের এমন কর্মকাণ্ড ছাত্রলীগের সুনাম ক্ষুণ্ন করেছে। অপরাধী যেই হোক তাকে ছাড় দেওয়া হবে না।

শুক্রবার রাতে ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর বাবা ওই দুই ছাত্রলীগ নেতাসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে বাঘাইছড়ি থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। মামলার বাকি তিন আসামি হলো- একই এলাকার মো. আরিফ (২৬), মো. রাসেল (২৯) ও অমল বড়ুয়া (৪৫)।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ১৫ জুলাই রাত ৮টার দিকে বিপ্লব বড়ুয়া ওই কলেজছাত্রীকে জরুরি কথা আছে বলে বাড়ির বাইরে ডেকে নিয়ে যায়। রাতে ওই কলেজছাত্রী বাড়ি না ফিরলে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি করেন। পরদিন ভোরে মেয়েটি বাড়িতে এসে জানান, বিপ্লব তাকে বাড়ির বাইরে ডেকে নেওয়ার পর সঙ্গে থাকা আরও কয়েকজন তার মুখ চেপে একটি ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টার কারণে থানায় মামলা দিতে দেরি হয় বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়।

বাঘাইছড়ি থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন খান জানান, মামলার পরপরই থানা পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়েছে। তবে কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। অভিযান অব্যাহত রাখা হয়েছে। রবিবার সকালে রাঙামাটি সদর হাসপাতালে ভুক্তভোগীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার করা হবে।


আরও খবর



হবিগঞ্জে বাস-মাইক্রোবাস মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ৪

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ আগস্ট ২০২২ | ৬১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হবিগঞ্জের ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের মাধবপুরে বাস ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৪ জন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৫ জন। তাঁদেরকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ সোমবার (১৮ জুলাই) বেলা ৩টার দিকে উপজেলার শাহজীবাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সালেহ আহমেদ।

ওসি জানান, দুপুরে বৃষ্টি হচ্ছিল। এ সময় সিলেটমুখী একটি মাইক্রোবাসের সঙ্গে ঢাকামুখী আল মোবারাকা’ বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই একজন নিহত হন। আহত হন আরও ১২ জন। খবর পেয়ে শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানা-পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। তাঁদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল। আহতদের হাসপাতালে পাঠানোর পর চিকিৎসক আরও দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন। 


আরও খবর