Logo
শিরোনাম

পিরোজপুরে ‘ক্রিস্টাল মেথ আইসের’ ব্যবসার মুল হোতা কারা?

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ১২২২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
সরকার দলীয় ইউনিয়ন পর্যায় ও পৌর নেতা হওয়া সুবাদে বছরের পর বছর বিভিন্ন প্রকার মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিল আলোচিত এই ‘কাউয়া রাজ’ । প্রভাবশালী নেতাদের কারণে স্থানীয় প্রশাসনও ছিল আতংকে

পিরোজপুর শহর জুড়ে চলছে আলোচিত ও মূল্যবান মাদক ক্রিস্টাল মেথ আইস  উদ্ধার ও এ ঘটনার সাথে জড়িত রাজনৈতিক নেতা মোহাম্মদ মাসুম খান রাজ ওরফে কাউয়া রাজ এর আটকের বিষয়। আর র‌্যাবের হাতে আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কাউয়া রাজএই মাদক ব্যবসার সাথে যুক্ত থাকা পিরোজপুরের প্রভাবশালী অন্তত চারজন নেতা সহ বেশ কয়েকজন আলোচিত রাজনৈতিক নেতার নাম জানিয়েছে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের ওধনকাঠী গ্রামের মৃত মতিউর রহমান খানের ছেলে  মোহাম্মদ মাসুম খান রাজ ওরফে কাউয়া রাজ’  পিরোজপুরের পাঁচপাড়া এলাকার চিহ্ণিত এক মাদক ব্যবসায়ী, পিরোজপুর পৌর শহরের মাছিমপুর এলাকার এক মাদক ব্যবসায়ী, পিরোজপুর পৌর শহরের পশ্চিম শিকারপুর এলাকার আর এক মাদক ব্যবসায়ীকে নিয়ে সিন্ডিকেট করে মাদক ব্যবসা করে আসছিল।

সূত্র জানায়, পিরোজপুরের পাঁচপাড়া এলাকার চিহ্ণিত ওই মাদক ব্যবসায়ী ঢাকা-খুলনা এবং যশোর এলাকার কয়েকজন প্রভাবশালী মাদক ব্যবসায়ীর মাধ্যমে বিভিন্ন কৌশলে নানা প্রকার মাদক সমগ্রী পিরোজপুরে নিয়ে আসতো। গ্রেপ্তারকৃত কাউয়া রাজ ও ওই মাদক ব্যবসায়ীর নিয়ন্ত্রণে থাকা বেশ কিছু উঠতি বয়সের বখাটে তরুণ জেলার বিভিন্ন এলাকায় এ সব মাদক সামগ্রী বিক্রি করতো।

পাঁচপাড়া এলাকার সূত্রে আরো জানাযায়, উল্লেখিত মাদক চক্রটি বিভিন্ন সময়ে পাঁচপাড়া বাজারে বখাটেদের আড্ডা বসিয়ে প্রকাশে মাদক বিক্রি করে আসছে। কাউয়া রাজ গ্রেপ্তার হলেও তার প্রধান সহযোগীরা গ্রেপ্তার না হওয়ায় পিরোজপুর মাদক ব্যবসা চলমান থাকবে বলে সংশয় প্রকাশ করেছেন অনেকেই।

সরকার দলীয় ইউনিয়ন পর্যায় ও পৌর নেতা হওয়া সুবাদে বছরের পর বছর বিভিন্ন প্রকার মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিল আলোচিত এই কাউয়া রাজ। প্রভাবশালী নেতাদের কারণে স্থানীয় প্রশাসনও ছিল আতংকে। ফলে কাউয়া রাজকে কেউ গ্রেপ্তার বা আটক করতে সক্ষম হয় নি। অবশেষে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর একটি দল অভিযান পরিচালনা করে তাকে সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের ওধনকাঠী গ্রামের বাড়ি থেকে মাদক বিক্রির সময় আটক করে।

র‌্যাবের একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে কাউয়া রাজযেসব রাজনৈতিক ও প্রভাবশালী নেতাদের নাম উল্লেখ করছে তারাই মূলত শহরের রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। তবে তদন্ত স্বার্থে এখনই ওই নেতাদের নাম প্রকাশ করতে রাজি হয়নি ওই সূত্র। তবে ওই নেতাদের বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। সংশ্লিষ্ট থাকার প্রমান পেলে তাদের বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মাদক ব্যবসায়ী কাউয়া রাজ  পিরোজপুর জেলা সদরের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের ওধনকাঠী গ্রামের মৃত মতিউর রহমান খানের ছেলে। রবিবার (১৮ জুলাই) র‌্যাব-৮ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। পরে ওই দিন দুপুরে তাকে পিরোজপুর সদর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় বরিশাল র‌্যাব-৮ এর ডিএডি মোহাম্মদ আল মামুন শিকদার বাদী হয়ে পিরোজপুর সদর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

উল্লেখ্য গত শনিবার (১৭ জুলাই) রাত পৌনে ৯টার দিকে জেলার সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের ওধনকাঠী গ্রামের আটককৃত মাসুম খানের বাড়ির সামনের ইটের রাস্তার উপর বসে মাদক জাতীয় দ্রব্য বেচা-কেনা হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা সেখানে অভিযান চালান। এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সেখানে থাকা অন্য মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলেও মাসুম খান দৌড়ে পালানোর সময় আটক হয়। এ সময় তার কাছে থাকা একশত গ্রাম ক্রিস্টাল মেথ আইস নামের দামীয় মাদক উদ্ধার করা হয়।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. রেজাউল করিম শিকদার মন্টু গ্রেফতারকৃত মোহাম্মদ মাসুম খান রাজ ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রস্তাবিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিসাবে নিশ্চিত করেছেন। তবে ওই কমিটি এখনো অনুমোদিত হয় নি।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) একাধীক সূত্র জানান, আটককৃত মোঃ মাসুম খান রাজ একজন তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী। এর আগে মাদকসহ তার ভাই মামুন ও তার স্ত্রীসহ গ্রেফতার করা হয়েছিলো।

পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আ.জ.ম মাসুদুজ্জামান জানান, ওই মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। তাকে থানার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ মাদক অত্যন্ত দামি। যার একশ গ্রামের দাম ১৫ লক্ষ টাকা। জেলা শহরে এই মাদক ঢুকে পড়েছে সত্যিই দুঃখজনক।


আরও খবর



কিংবদন্তী অভিনেতা দিলীপ কুমার আর নেই

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ৮৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ভারতীয় বর্ষীয়ান অভিনেতা দিলিপ কুমার বুধবার সকালে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

তার বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর।দিলিপ কুমারের চিকিৎসার তত্বাবধানকারী মুম্বাইয়ের হিন্দুজা হাসপাতালের পালমোনোলোজিস্ট ডা. জলিল পার্কার গণমাধ্যমকে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন।খবর বিবিসির।

দিলিপ কুমারের ভেরিফায়েড টুইটার পেইজ থেকে সকাল ৮টার কিছুক্ষণ পর তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়।ছয় দশকের ক্য্যারিয়ারে তিনি ৬৩টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তার স্ত্রী মুম্বাই চলচ্চিত্রের আরেক অভিনেত্রী সায়রা বানু।

শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। শেষ সময়ে স্ত্রী সায়রা বানু পাশে ছিলেন তাঁর। দীর্ঘ দিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন দিলীপ। মুম্বইয়ের হিন্দুজা হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন।

গত ৩০ জুন তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কয়েক দিন আগেই তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল বলে টুইটারে জানিয়েছিলেন সায়রা বানু। দিলিপ কুমারের আসল নাম ইউসুফ সারোয়ার খান। তার বাবার নাম ছিল মোহাম্মদ সারোয়ার খান, যিনি একজন ফল ব্যবসায়ী ছিলেন।

কৈশোরে মুম্বাই থেকে পুনে গিয়ে ব্রিটিশ সৈন্যদের জন্য পরিচালিত একটি ক্যান্টিনে কাজ নেন দিলিপ কুমার। এর কিছুদিন পর আবারও মুম্বাইয়ে (তৎকালীন বোম্বে) ফিরে বাবার সঙ্গে ব্যবসায় যোগ দেন তিনি।

ব্যবসার কাজেই একসময় ইউসুফ খানের পরিচয় হয় সেসময়কার প্রখ্যাত সাইকোলজিস্ট ডা. মাসানির সঙ্গে, যিনি দিলিপ কুমারকে পরিচয় করিয়ে দেন 'বোম্বে টকিজ' এর মালিকের সঙ্গে।

১৯৪৩ সালে 'বোম্বে টকিজ' ইউসুফ খান যান চাকরি খুঁজতে, কিন্তু সেখানকার স্বত্বাধিকারী দেবিকা রানী তাকে অভিনেতার হওয়ার প্রস্তাব দেন। তার সিনেমার নাম বদলে দিলিপ কুমার রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ১৯৪৪ সালে মুক্তি পায় দিলিপ কুমারের প্রথম ছবি 'জোয়ার ভাটা।' প্রথম দিকে দিলিপ কুমারের কয়েকটি ছবি ব্যবসাসফল ছিল না।


আরও খবর



টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সেনাপ্রধানের শ্রদ্ধা

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ জুন ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৮১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন সদ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। আজ শনিবার দুপুরে টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছে বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধের বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন তিনি। পরে ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাতে অংশ নেন নবনিযুক্ত সেনাপ্রধান।

এ সময় সেনাবাহিনীর একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করেন। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বঙ্গবন্ধুর ভবনে রাখা মন্তব্য বইতে স্বাক্ষর করেন সেনাপ্রধান এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় যশোর সেনানিবাসের জিওসি মেজর জেনারেল নুরুল আনোয়ার, অ্যাডজুটেন্ট জেনারেল মেজর জেনারেল শাকিল আহমেদ, মিলিটারি সিকিউরিটি মেজর জেনারেল খালেদ আল মামুনসহ অন্যান্য সেনা কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে মহান মুক্তিযুদ্ধে জাতির বীর শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান নতুন সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। আজ শনিবার সকালে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে পৌঁছালে সেনাপ্রধানকে স্বাগত জানান সেনাবাহিনীর নয় পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর মোহাম্মদ জেনারেল শাহিনুল হক। এরপর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন সেনাপ্রধান। এ সময় উত্তোলন করা হয় জাতীয় পতাকা। পরে জাতীয় স্মৃতিসৌধের পরিদর্শন বইতে স্বাক্ষর করেন তিনি। এর আগে রাজধানীর ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। পরে বঙ্গবন্ধু ভবন পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

এ সময় সেনাপ্রধান বলেন, আমাদের হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধা জানাতে পারা সেনাপ্রধান হিসেবে আমার জন্য সৌভাগ্য।

দেশের ১৭তম সেনাপ্রধান হিসেবে গত বৃহস্পতিবার দায়িত্ব নিয়েছেন জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। তিনি পূর্বতন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের কাছ থেকে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন।


আরও খবর



বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত হচ্ছেন পিটার হাস

প্রকাশিত:শনিবার ১০ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৬৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাংলাদেশসহ চারদেশে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। শুক্রবার বাইডেন প্রশাসন তাদের নাম ঘোষণা করেছে। এদের মধ্যে পিটার ডি হাসকে বাংলাদেশে রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে বলে হোয়াইট হাউস সূত্র জানিয়েছে।

এছাড়াও ভারতে এরিক এম গারসেতি, ফ্রান্সে ডেনিস ক্যাম্পবেল এবং চিলির রাষ্ট্রদূত হিসেবে বেরনাডেটে এম মিহানের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। তবে, রাষ্টদূত হিসেবে নিয়োগ পেতে সিনেটে তাদের চূড়ান্ত অনুমোদন লাগবে।

পিটার হাস জার্মানিতে কলা বিভাগে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন, পরে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনোইস ওয়েসলেয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগে পড়াশোনা করেন এবং এরপর তিনি লন্ডন স্কুল অব ইকোনোমিকস থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

মরক্কোর মার্কিন দূতাবাসে কূটনীতিক হিসেবে তার প্রথম কর্মজীবন শুরু হয়। এর পর যুক্তরাজ্য এবং ভারতেও মার্কিন দূতাবাসে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন পিটার।

সিনেটের অনুমোদন পেলে তিনি আর্ল আর মিলারে স্থলাভিষিক্ত হবেন। আর্ল আর মিলার ২০১৮ সালের ১৩ নভেম্বর থেকে বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।



আরও খবর



জাপানে ভারী বৃষ্টিপাত ও ভূমিধসে নিহত ২, নিখোঁজ ২০

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ | ৭৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

জাপানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় আতামি শহরে অব্যাহত ভারি বৃষ্টিপাতে সৃষ্ট ভূমিধসে অন্তত দুইজন মারা গেছেন। নিখোঁজ রয়েছেন ২০ জন। বিধ্বস্ত হয়েছে অসংখ্য বাড়িঘর, তলিয়ে গেছে মধ্যাঞ্চলের বহু রাস্তাঘাট। পরিস্থিতি সামাল দিতে শিজুকা, কানাগাওয়া ও চিবা প্রদেশে জারি করা হয়েছে বাড়তি সতর্কতা।

ভূমিধসে জাপানের আতামি শহরে লুটিয়ে পড়ে একের পর এক ভবন। টোকিও'র দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহরটিতে পাহাড় থেকে নেমে আসা ঢলে থেকে রেহাই পায়নি কোনকিছুই। এ ঘটনায় নিখোঁজদের উদ্ধারে চেষ্টা চালাচ্ছে কর্তৃপক্ষ। কয়েকদিন ধরেই বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় তলিয়ে গেছে ঘরবাড়ি, পথঘাট। মধ্য জাপানের শিজুকা প্রদেশের পাশাপাশি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কানাগাওয়া ও চিবা প্রদেশ। বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে প্রায় ৩ হাজার ঘরবাড়ি।

বৃষ্টিপাত আরও কয়েকদিন অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ। এ অবস্থায় জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে শিজুকা, কানাগাওয়া ও চিবা প্রদেশে। সেখানে বসবাসরত মানুষদের অতি সত্ত্বর সরিয়ে নিতে নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

মৌসুমি বৃষ্টিপাত ও ভূমিধস আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে টোকিওবাসীর। এর আগে গেল বছর টানা বৃষ্টিতে সৃষ্ট ভূমিধসে জাপানে ২শ'র বেশি মানুষ মারা গেছে।



আরও খবর



যশোরে শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে ভাঙচুর-বিক্ষোভ

প্রকাশিত:শনিবার ১০ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ জুলাই ২০২১ | ৬৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে (বালক) শিশুরা সংগঠিত হয়ে ভাঙচুর করছে। শনিবার রাত সাড়ে ১০টা থেকে কেন্দ্রের ভবনে দরজা বন্ধ করে ভাঙচুর করে তারা বিক্ষোভ দেখাচ্ছে। এ ঘটনায় দুই শিশু আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে এবং অপরজনকে কেন্দ্রে রেখেই চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য কেন্দ্রে ৫০ থেকে ৬০ জন পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। রাত সোয়া ১২টা পর্যন্ত পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আসেনি।

পুলিশ ও কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, এই কেন্দ্রে খাওয়া, চিকিৎসাসহ বিভিন্ন ধরনের সংকট রয়েছে। এসব সংকট নিয়ে শিশুরা বিভিন্ন সময়ে অভিযোগ-অনুযোগও করেছে। কিন্তু অবস্থার তেমন উন্নতি হয়নি। এর মধ্যে তিন দিন আগে আদালতের মাধ্যমে টঙ্গী থেকে একটি ছেলে এই কেন্দ্রে আসে। সেই ছেলেটি কেন্দ্রে অন্য নিবাসী শিশুদের সংগঠিত করে আজ রাত সাড়ে ১০টার দিকে ভাঙচুর শুরু করে।

ভবনের মূল ফটকে তালা দেওয়া থাকে। তারা ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে ভেতরে খাট-জানালাসহ আসবাবপত্র ভাঙচুর করতে থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য অন্তত ৫০ জন পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পুলিশ কেন্দ্রের মাঠে অবস্থান করছে। রাত সাড়ে ১২টার দিকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কাজী সায়েমুজ্জামানসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কেন্দ্রে যান। তারা শিশুদের নেতার সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে যশোরের জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান বলেন, ওই কেন্দ্রে বর্তমানে ৩০০ শিশু অবস্থান করছে। তারা সংগঠিত হয়ে হঠাৎ রাত সাড়ে ১০টার দিকে ভাঙচুর চালিয়ে বিক্ষোভ দেখায়। রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। পুলিশ ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সেখানে পাঠানো হয়েছে।

কেন্দ্রের সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন বলেন, আমরা কেন্দ্রে অবস্থান করছি। শিশুরা ভাঙচুর করছে। এতে দুই শিশু আহত হয়েছে। তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।


আরও খবর