Logo
শিরোনাম

পৃথিবীর দিকে ১৬ লাখ কি.মি বেগে ধেয়ে আসছে সৌর ঝড়!

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ৮৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শক্তিশালী একটি সৌর ঝড় ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে। স্পেসওয়েদার ওয়েবসাইট অনুযায়ী ১.৬ মিলিয়ন কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায় এই ঝড় ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে। আজকে বা সোমবার এই ঝড় আছড়ে পড়বে পৃথিবীর উপর। সূর্যের বায়ুমণ্ডল থেকে এই ঝড়ের উত্পত্তি। এই ঝড়ের ফলে দুর্দান্ত দৃশ্য দেখা যাবে উত্তর এবং দক্ষিণ মেরু থেকে। গত বেশ কয়েক মাস ধরেই সূর্যের মধ্যে অস্থিরতা নজর করা গিয়েছে।

নাসার দাবি, এই দ্রুত গতির ঝড়ের দেরে স্যাটেলাইট সিগ্নাল বিঘ্নিত হতে পারে। যার জেরে জিপিএস এবং মোবাইল সিগ্নালে বিঘ্ন ঘটতে পারে। উল্লেখ্য, মে মাসেই বিজ্ঞানীরা দাবি করেন যে ঘুম থেকে জেগে উঠেছে সূর্য। সেই সময় কয়েক লক্ষ টন প্রচণ্ড গরম গ্যাস সূর্য থেকে ছড়িয়ে পড়ে। সৌর ঝড়ের সময় সূর্য থেকে ছড়িয়ে পড়া গরম গ্যাসে ইলেকট্রিক চার্জ যুক্ত গ্যাস রয়েছে যেখান থেকে সৃষ্টি হয় চৌম্বকীয় তরঙ্গ। এর জেরে বিশ্বের বেতার, জিপিএসের উপর প্রভাব পড়তে পারে বলে বিজ্ঞানীদের আশঙ্কা। কিন্তু এর ফলে সরাসরি পৃথিবীতে কোনও প্রভাব সরাসরি পড়ার সম্ভাবনা কম বলেই জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালে সূর্য এর ১১ বছরের নতুন সাইকেল শুরু করে। এই সাইকেল ২০২৫ সালে চরম পর্যায়ে পৌঁছবে। বিশ্বের উপর শেষ সৌর ঝড় আঘাত হেনেছিল ১৭ বছর আগে। তবে সেই সময়ের তুলনায় বর্তমানে প্রযুক্তির উপর আমাদের নির্ভরশীলতা বেড়েছে কয়েক গুণ। তবে এই সৌর ঝড় বিশ্বজুড়ে প্রযুক্তিকে ব্যাহত করতে পারে বলে আশঙ্কা বিজ্ঞানীদের। 



আরও খবর



এস কে সুর ও তার স্ত্রীর ব্যাংক হিসাব জব্দ

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ জুলাই 20২১ | ৭৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক দুই ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী ও এস এম মুনিরুজ্জামানকে ডেকে কথা বলে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম-দুর্নীতি রোধে গঠিত তদন্ত কমিটি

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী ও তার স্ত্রী সুপর্ণা রায় চৌধুরীর ব্যাংক হিসাব জব্দ করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। এর ফলে তারা নিজেদের বা নিজেদের কোম্পানির নামে থাকা ব্যাংক হিসাব থেকে কোনো টাকা উত্তোলন করতে পারবেন না। এমনকি কোনো ধরনের সুবিধাও নিতে পারবেন না। এসব হিসাবের বিপরীতে এটিএম কার্ড থাকলেও তা ব্যবহার করা যাবে না।

এনবিআরের চিঠিতে তাদের নামের সঙ্গে ঢাকার দুটি ঠিকানা দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে একটি ঢাকার সেগুনবাগিচার, অপরটি রামপুরার। যদিও সুর চৌধুরী এখন ধানমন্ডির বাসিন্দা।

এনবিআরের চিঠিতে বলা হয়েছে, তাদের হিসাব স্থগিত করে স্থিতির তথ্য জরুরি ভিত্তিতে পাঠাতে হবে।

গত মাসে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক দুই ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী ও এস এম মুনিরুজ্জামানকে ডেকে কথা বলে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম-দুর্নীতি রোধে গঠিত তদন্ত কমিটি। আদালতের নির্দেশে গঠিত এ কমিটি ইতিমধ্যে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক ও বর্তমান কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সাবেক ও বর্তমান চেয়ারম্যান, পরিচালক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সঙ্গে কথা বলেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকেই এই কমিটির কার্যালয়।

আলোচিত প্রশান্ত কুমার (পি কে) হালদারের নেতৃত্বে কমপক্ষে চারটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান দখল করা হয়েছে। তাঁকে সহায়তা করার অভিযোগ আছে এস কে সুর চৌধুরীর বিরুদ্ধে।

ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) রাশেদুল হক ২ ফেব্রুয়ারি আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বলেন, আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর অনিয়ম চাপা দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিদর্শন কর্মকর্তাদের পাঁচ থেকে সাত লাখ করে টাকা দিত রিলায়েন্স ফাইন্যান্স ও ইন্টারন্যাশনাল লিজিং। আর কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগের তৎকালীন মহাব্যবস্থাপক শাহ আলমকে প্রতি মাসে দেওয়া হতো দুই লাখ টাকা করে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর অনিয়ম-দুর্নীতি ম্যানেজ করতেন সাবেক ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী। রাশেদুল হকের জবানবন্দি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার পর আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো দেখভালের দায়িত্বে থাকা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক শাহ আলমের বিভাগ বদল করা হয়। প্রায় সাত বছর তিনি আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের দায়িত্বে ছিলেন।

নিউজ ট্যাগ: বাংলাদেশ ব্যাংক

আরও খবর

ব্যাংকে লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১




রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ১৯

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | ৭২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গেল ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে রবিবার সকাল ৮টার মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, মৃতদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৬ জন ও উপসর্গে ১১ জন মারা গেছেন। করোনা নেগেটিভ হওয়ার পর ২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে মারা যাওয়া ১৯ জনের মধ্যে রাজশাহীর ৯, নাটোরের ৬, পাবনা ১, নওগাঁ ২ ও কুষ্টিয়ার ১ জন করে আছেন।

করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে রোগীদের ভর্তি ও সংক্রমণের বিষয়ে রামেক হাসপাতালের পরিচালক জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে নতুন ভর্তি হয়েছেন ৭৪ জন। বর্তমানে রামেক হাসপাতালে ৪৫৪টি করোনা ডেডিকেটেড শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি আছেন ৫১৮ জন।


আরও খবর



ঈদে কঠোর লকডাউন থাকছে কি না, জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১১ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই ২০২১ | ১০৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আগামী ১৪ জুলাইয়ের পর চলমান বিধিনিষেধ ফের বাড়ছে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। রবিবার (১১ জুলাই) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এক প্রশ্নের উত্তরে এ কথা জানান প্রতিমন্ত্রী।

এ বিষয়ে সোমবার (১২ জুলাই) রাতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ ১৪ দিনের সুফল আমাদের ধরে রাখতে হবে। তবে, যে পরিমাণ রোগী বাড়ছে তাতে বিধি-নিষেধ এ মুহূর্তে তুলে নেওয়া হয়তো সম্ভব হবে না। তবে আগামী দুইদিনের পরিস্থিতি দেখে বোঝা যাবে। ঈদ এবং অর্থনৈতিক দিক বিবেচনা করে কিছুটা শিথিলতা থাকবে বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

করোনা মহামারির কারণে গত ১ জুলাই থেকে সরকারি বিধি-নিষেধে সব সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিসগুলো বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে গণপরিবহনসহ শপিংমল। মানুষের চলাচলেও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। 


আরও খবর



বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে আগামী তিনদিন

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ১১০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আগামী তিনদিন বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আজ রবিবার আবহাওয়া অধিদপ্তর এক পূর্বাভাসে এ তথ্য জানায়।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমী বায়ুর অক্ষের বর্ধিতাংশ উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে এবং এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে ও মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে। এই কারণে রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, সিলেট ও খুলনা বিভাগের অনেক জায়গায় এবং ঢাকা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি এবং বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্ত ভাবে মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে।

পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। 


আরও খবর

তাপমাত্রা বাড়বে

বৃহস্পতিবার ০৮ জুলাই ২০২১




পিরোজপুরে ‘ক্রিস্টাল মেথ আইসের’ ব্যবসার মুল হোতা কারা?

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ জুলাই ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ | ১২২২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
সরকার দলীয় ইউনিয়ন পর্যায় ও পৌর নেতা হওয়া সুবাদে বছরের পর বছর বিভিন্ন প্রকার মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিল আলোচিত এই ‘কাউয়া রাজ’ । প্রভাবশালী নেতাদের কারণে স্থানীয় প্রশাসনও ছিল আতংকে

পিরোজপুর শহর জুড়ে চলছে আলোচিত ও মূল্যবান মাদক ক্রিস্টাল মেথ আইস  উদ্ধার ও এ ঘটনার সাথে জড়িত রাজনৈতিক নেতা মোহাম্মদ মাসুম খান রাজ ওরফে কাউয়া রাজ এর আটকের বিষয়। আর র‌্যাবের হাতে আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কাউয়া রাজএই মাদক ব্যবসার সাথে যুক্ত থাকা পিরোজপুরের প্রভাবশালী অন্তত চারজন নেতা সহ বেশ কয়েকজন আলোচিত রাজনৈতিক নেতার নাম জানিয়েছে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের ওধনকাঠী গ্রামের মৃত মতিউর রহমান খানের ছেলে  মোহাম্মদ মাসুম খান রাজ ওরফে কাউয়া রাজ’  পিরোজপুরের পাঁচপাড়া এলাকার চিহ্ণিত এক মাদক ব্যবসায়ী, পিরোজপুর পৌর শহরের মাছিমপুর এলাকার এক মাদক ব্যবসায়ী, পিরোজপুর পৌর শহরের পশ্চিম শিকারপুর এলাকার আর এক মাদক ব্যবসায়ীকে নিয়ে সিন্ডিকেট করে মাদক ব্যবসা করে আসছিল।

সূত্র জানায়, পিরোজপুরের পাঁচপাড়া এলাকার চিহ্ণিত ওই মাদক ব্যবসায়ী ঢাকা-খুলনা এবং যশোর এলাকার কয়েকজন প্রভাবশালী মাদক ব্যবসায়ীর মাধ্যমে বিভিন্ন কৌশলে নানা প্রকার মাদক সমগ্রী পিরোজপুরে নিয়ে আসতো। গ্রেপ্তারকৃত কাউয়া রাজ ও ওই মাদক ব্যবসায়ীর নিয়ন্ত্রণে থাকা বেশ কিছু উঠতি বয়সের বখাটে তরুণ জেলার বিভিন্ন এলাকায় এ সব মাদক সামগ্রী বিক্রি করতো।

পাঁচপাড়া এলাকার সূত্রে আরো জানাযায়, উল্লেখিত মাদক চক্রটি বিভিন্ন সময়ে পাঁচপাড়া বাজারে বখাটেদের আড্ডা বসিয়ে প্রকাশে মাদক বিক্রি করে আসছে। কাউয়া রাজ গ্রেপ্তার হলেও তার প্রধান সহযোগীরা গ্রেপ্তার না হওয়ায় পিরোজপুর মাদক ব্যবসা চলমান থাকবে বলে সংশয় প্রকাশ করেছেন অনেকেই।

সরকার দলীয় ইউনিয়ন পর্যায় ও পৌর নেতা হওয়া সুবাদে বছরের পর বছর বিভিন্ন প্রকার মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিল আলোচিত এই কাউয়া রাজ। প্রভাবশালী নেতাদের কারণে স্থানীয় প্রশাসনও ছিল আতংকে। ফলে কাউয়া রাজকে কেউ গ্রেপ্তার বা আটক করতে সক্ষম হয় নি। অবশেষে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর একটি দল অভিযান পরিচালনা করে তাকে সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের ওধনকাঠী গ্রামের বাড়ি থেকে মাদক বিক্রির সময় আটক করে।

র‌্যাবের একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে কাউয়া রাজযেসব রাজনৈতিক ও প্রভাবশালী নেতাদের নাম উল্লেখ করছে তারাই মূলত শহরের রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। তবে তদন্ত স্বার্থে এখনই ওই নেতাদের নাম প্রকাশ করতে রাজি হয়নি ওই সূত্র। তবে ওই নেতাদের বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। সংশ্লিষ্ট থাকার প্রমান পেলে তাদের বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মাদক ব্যবসায়ী কাউয়া রাজ  পিরোজপুর জেলা সদরের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের ওধনকাঠী গ্রামের মৃত মতিউর রহমান খানের ছেলে। রবিবার (১৮ জুলাই) র‌্যাব-৮ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। পরে ওই দিন দুপুরে তাকে পিরোজপুর সদর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় বরিশাল র‌্যাব-৮ এর ডিএডি মোহাম্মদ আল মামুন শিকদার বাদী হয়ে পিরোজপুর সদর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

উল্লেখ্য গত শনিবার (১৭ জুলাই) রাত পৌনে ৯টার দিকে জেলার সদর উপজেলার টোনা ইউনিয়নের ওধনকাঠী গ্রামের আটককৃত মাসুম খানের বাড়ির সামনের ইটের রাস্তার উপর বসে মাদক জাতীয় দ্রব্য বেচা-কেনা হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা সেখানে অভিযান চালান। এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সেখানে থাকা অন্য মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলেও মাসুম খান দৌড়ে পালানোর সময় আটক হয়। এ সময় তার কাছে থাকা একশত গ্রাম ক্রিস্টাল মেথ আইস নামের দামীয় মাদক উদ্ধার করা হয়।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. রেজাউল করিম শিকদার মন্টু গ্রেফতারকৃত মোহাম্মদ মাসুম খান রাজ ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রস্তাবিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিসাবে নিশ্চিত করেছেন। তবে ওই কমিটি এখনো অনুমোদিত হয় নি।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) একাধীক সূত্র জানান, আটককৃত মোঃ মাসুম খান রাজ একজন তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী। এর আগে মাদকসহ তার ভাই মামুন ও তার স্ত্রীসহ গ্রেফতার করা হয়েছিলো।

পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আ.জ.ম মাসুদুজ্জামান জানান, ওই মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। তাকে থানার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ মাদক অত্যন্ত দামি। যার একশ গ্রামের দাম ১৫ লক্ষ টাকা। জেলা শহরে এই মাদক ঢুকে পড়েছে সত্যিই দুঃখজনক।


আরও খবর