Logo
শিরোনাম

পুরুষ সেজে চাচিকে ভাগিয়ে ‘বিয়ে’ করলেন তরুণী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ১১৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় পুরুষ সেজে দূর সম্পর্কের চাচির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ঢাকায় ভাগিয়ে নিয়ে বিয়ে করেছেন ২২ বছর বয়সী এক তরুণী। তিনি নিজের নাম রাখেন ফাহিম।

শুক্রবার (২৭ মে) সকালে বিষয়টি প্রকাশ্যে এসেছে।

জানা গেছে, নিজেকে ফাহিম দাবি করা তরুণীর সাত মাস আগে বিবাহবিচ্ছেদ হয়। তার দেড় বছর বয়সী মেয়ে সন্তানও রয়েছে। হঠাৎ তিনি নিজের মধ্যে পরিবর্তন আনেন। নিজেকে পুরুষ হিসেবে ঘোষণা দিয়ে ছেলেদের প্যান্ট-শার্ট পরতে শুরু করেন। চুলও ছেলেদের মতো ছোট করে রাখেন। এরপর ১৯ বছর বয়সী দূর সম্পর্কের এক চাচির সঙ্গে গড়ে তোলেন প্রেমের সম্পর্ক। প্রেমের টানে চাচি নিজের স্বামীর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ ঘটান। তার কোনো সন্তান নেই।

এরপর গত ১০ দিন আগে কথিত ফাহিম ও চাচি ঢাকায় পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করেন। তারপর দুজনে ঢাকায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে গিয়ে থাকতে শুরু করেন। এ নিয়ে ফাহিমের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় জিডি করা হয়। আর ফাহিমের চাচির পরিবার দুজনকে কৌশলে বাড়িতে আনার চেষ্টা করে।

বৃহস্পতিবার রাতে কথিত ফাহিম দূর সম্পর্কের ওই চাচিকে নিয়ে বাড়ি ফেরেন। এই খবরে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। নিজেকে পুরুষ দাবি করা ফাহিম আসলেই পুরুষ হয়েছেন কিনা- এ নিয়ে সবার মনে দেখা দেয় সন্দেহ।

স্থানীয়রা কথিত ফাহিমকে ভালোভাবে জেরা করে জানতে পারেন ফাহিম পুরুষে রূপান্তরিত হননি। স্থানীয়রা নিশ্চিত হন কথিত ফাহিম নকল গোপনাঙ্গ ব্যবহার করেন। তিনি আসলে পুরুষ নন।

শুক্রবার পুলিশ এসে দুজনকেই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যায়। দূর সম্পর্কের চাচির বরাতে পুলিশ জানিয়েছে, দুজনে ঢাকায় গিয়ে বিয়ে করেছেন। তবে বিয়ের কাগজ দেখাতে পারেননি। তাদের মধ্যে দৈহিক সম্পর্ক হলেও ফাহিম যে নকল পুরুষ সেজেছিলেন, তা টের পাননি দূর সম্পর্কের চাচি। তবে কথিত ফাহিমের বিরুদ্ধে তার কোনো অভিযোগ নেই।

গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম বলেন, আজব এক ঘটনা। এরা কী বলে না বলে, কিছুই ঠিক নাই। এদের এই সম্পর্ক কোনো আইনের মধ্যেও পড়ে না। তাই জিডির ভিত্তিতে ফাহিম নাম ধারণ করা মেয়েটিকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আইনগত প্রক্রিয়া শেষে অন্য মেয়েটিকেও পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।


আরও খবর



ঈদ উপলক্ষে রাত ১০টা পর্যন্ত দোকান-শপিংমল খোলা

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ জুলাই ২০২২ | ৩২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে আগামী ০১ থেকে ১০ জুলাই মোট ১০ দিন দোকানপাট, মার্কেট, বিপণিবিতান রাত ৮টার পরিবর্তে ১০টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে। তবে ১০ জুলাইয়ের পর থেকে আবার রাত ৮টায় দোকানপাট বন্ধ হবে। বুধবার (২২ জুন) শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে এক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা-২০২২ উপলক্ষে জনসাধারণের সুবিধার্থে সরকার বিশেষ অবস্থা বিবেচনায় আগামী ০১ থেকে ১০ জুলাই দোকানপাট, মার্কেট, বিপণিবিতান বন্ধের সময় সাময়িক পরিবর্তন করে রাত ৮টার পরিবর্তে ১০টা করা হয়েছে। বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এর ১১৪ এর ৪ উপধারার ক্ষমতাবলে একই আইনের ৩ উপধারার পরিবর্তে সাময়িক এ পরিবর্তন আনা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, ১০ জুলাই এর পর থেকে রাত ৮টায় দোকানপাট, বিপণিবিতান বন্ধের বিষয়ে বাংলাদেশ শ্রম আইনের ১১৪ এর উপধারা ৩ কঠোরভাবে প্রতিপালন করা হবে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৯ জুন প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এর সভাপতিত্বে শ্রম মন্ত্রণালয়ে ঢাকা সিটি করপোরেশন উত্তর/দক্ষিণ, এফবিসিসিআই, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতিসহ বিভিন্ন মালিক সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে দোকানপাট, মার্কেট, বিপণিবিতান রাত ৮টায় বন্ধের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত হয়। এ বৈঠকে গত ২০ জুন থেকে সারাদেশে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর রয়েছে। 

 প্রসঙ্গত, পবিত্র ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি আগামী ১ থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত রাত ১০টা পর্যন্ত দোকানপাট, মার্কেট, বিপণিবিতান খোলার রাখার অনুমতির চান।


আরও খবর



দোহারে নারীসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ৫৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ঢাকার দোহার উপজেলায় ২ হাজার ২৫০ পিস ইয়াবাসহ চারজন মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার (৫ জুন) রাতে তাদের দোহার বাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার পশ্চিম ডেলাপাড়া কেতিবিল গ্রামের মৃত জয়ন্ত কুমার শীলের মেয়ে সীতা শর্মা (৪০), ঢাকার দোহার উপজেলার বৌ-বাজার খালপাড় এলাকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে আনোয়ার হোসেন আনু (৩৮), একই উপজেলার উত্তর ইউসুফপুর এলাকার রজব আলীর ছেলে চায়না হাসান (২৩) ও নিকড়া গ্রামের মৃত সোহরাব বেপারীর ছেলে ফিরোজ রহমান (৪৫)।

সোমবার (৬ জুন) সকালে এক প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন দোহার থানার ওসি (তদন্ত) আজহারুল ইসলাম।

তিনি জানান, রোববার রাতে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশের একটি টিম দোহার বাজার এলাকায় অভিযান চালায়। এসময় সীতা শর্মা ও আনোয়ার হোসেন আনু নামে দুইজন মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী মো. হাসান ওরফে চায়না হাসান ও মো. ফিরোজ রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছে থেকে মোট ২ হাজার ২৫০ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান ওসি আজহারুল ইসলাম।


আরও খবর



প্রাথমিকে আরও ৩০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০২ জুলাই 2০২2 | ২৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আরও ৩০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন।

তিনি বলেন, প্রাথমিক শিক্ষকদের হাতে আগামীর বাংলাদেশ। এ বাংলাদেশ যাতে মেধা ও জ্ঞাননির্ভর হয়ে গড়ে ওঠে সে জন্য সবাইকে সচেষ্ট হতে হবে। আজ বুধবার গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষক বদলি কার্যক্রম উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, চলমান ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া দ্রুততম সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করে আরও ৩০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করবে মন্ত্রণালয়।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক ও প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মহিবুর রহমান, অধিদপ্তরের পরিচালক বদিয়ার রহমান, গাজীপুর জেলা প্রশাসক আনিছুর রহমান প্রমুখ।


আরও খবর



মিয়ানমারে ফেরার দাবিতে কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের সমাবেশ

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ জুন ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মিয়ানমারে ফেরাসহ ১৯ দফা দাবিতে কক্সবাজারের বিভিন্ন ক্যাম্পে সমাবেশ করেছেন রোহিঙ্গারা। রবিবার (১৯ জুন) সকাল থেকে উখিয়া ও টেকনাফের ৩৪টি ক্যাম্পের বিভিন্ন স্থানে পৃথক সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

২০১৭ সালে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর জঘন্য নৃশংসতায় মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকেরা নির্যাতিত হয়ে জোরপূর্বক বাংলাদেশে বিতাড়িত হয়েছিল যা ইতিহাসে রোহিঙ্গাদের সবচেয়ে ভয়াবহ দেশত্যাগ হিসেবে বিবেচিত।

রাখাইন রাজ্যে ১৯৭৮ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত রোহিঙ্গারা মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হাতে বৈষম্য, নির্যাতন, ধর্ষণ, হত্যা এবং গ্রাম জ্বালিয়ে দেয়ার মত ভয়াবহতার সম্মুখীন হয়েছে। শুধুমাত্র ২০১৭ সালে ১.১ মিলিয়ন রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত হয় এবং বাংলাদেশে অস্থায়ীভাবে আশ্রয় নেয়।

কর্মসূচির মূল আয়োজক আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস (এআরএসপিএইচ) বলে জানা গেছে। সমাবেশে লেটস গো হোম, লেটস গো টু মিয়ানমার লেখা ব্যানার দেখা যায়। এ সময় বিভিন্ন রোহিঙ্গা সংগঠনের শীর্ষ নেতারা বক্তব্য রাখেন।

কক্সবাজারের শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কার্যালয়ের অতিরিক্ত কমিশনার সামসুদ দোহা নয়ন জানান, সোমবার (২০ জুন) বিশ্ব শরণার্থী দিবস। এ উপলক্ষে আজ রোহিঙ্গারা প্রত্যাবাসনের দাবিতে সমাবেশ করছে। তবে একত্রিত হয়ে বিশাল নয়, উখিয়া-টেকনাফের ৩৪টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিচ্ছিন্নভাবে রোহিঙ্গারা সমাবেশ করছেন।


আরও খবর



যুক্তরাজ্যের কয়েকজন শীর্ষ সাংবাদিককে নিষিদ্ধ করল রাশিয়া

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রুশ সরকারি কর্মকর্তাদের ওপর যুক্তরাজ্যের নিষেধাজ্ঞার জবাব এবং ইউক্রেন নিয়ে 'পক্ষপাতমূলক' সংবাদ প্রকাশের অভিযোগে যুক্তরাজ্যের বেশ কয়েকজন শীর্ষ সাংবাদিককে নিষিদ্ধ করেছে রাশিয়া।

বিবিসি জানিয়েছে, নিষেধাজ্ঞার তালিকায় আছেন বিবিসির ক্লাইভ মাইরি, ওরলা গুয়েরিন ও নিক বেক। যারা ইউক্রেন থেকে প্রতিবেদন তৈরি করেছেন। ২৯ জন শীর্ষ ব্যক্তির ওই তালিকায় কয়েকজন প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞ ছাড়াও আছেন বিবিসির ডিরেক্টর জেনারেল টিম ডেভি।

এ বিষয়ে বিবিসির একজন মুখপাত্র জানান, বিবিসি 'স্বাধীন এবং বস্তুনিষ্ঠ প্রতিবেদন প্রকাশ অব্যাহত রাখবে।' এ ছাড়া স্কাই টিভি, টাইমস, গার্ডিয়ান, চ্যানেল ফোর ও আইটিভির সাংবাদিকদেরও নিষেধাজ্ঞার তালিকায় রাখা হয়েছে। রাশিয়া ইতোমধ্যে কয়েক শ নির্বাচিত ব্রিটিশ এমপিকেও নিষিদ্ধ করেছে।

তাদের তালিকা সম্প্রসারণের কাজ অব্যাহত থাকবে উল্লেখ করে মস্কোর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, 'তালিকায় অন্তর্ভুক্ত ব্রিটিশ সাংবাদিকরা রাশিয়া, ইউক্রেন ও দনবাসের ঘটনা সম্পর্কে ইচ্ছাকৃতভাবে মিথ্যা ও একতরফা তথ্য প্রচারের সঙ্গে জড়িত। পক্ষপাতমূলক মূল্যায়নের মাধ্যমে তারা ব্রিটিশ সমাজে রুসোফোবিয়াকে উসকে দিতেও অবদান রাখছেন।'


আরও খবর