Logo
শিরোনাম

শিমুলিয়া ঘাটে যাত্রী হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শিমুলিয়া ঘাটে সিরিয়ালের নামে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। পাশাপাশি ফেরি সঙ্কটে যাত্রী ও যনবাহন পারাপার ব্যাহত হচ্ছে। অন্যদিকে স্পিডবোটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ে ঈদে ঘরমুখো দক্ষিণ বঙ্গের ২১ জেলার যাত্রীরা চরম ভোগান্তিতে পড়ার অভিযোগ করেছেন।

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাটে এসব অনিয়মের অভিযোগের মধ্যেই ঈদ উদযাপন করতে বাড়ি ফিরছে লাখ লাখ মানুষ। শিমুলিয়া-বাংলাবাজার-মাঝিরকান্দি নৌরুটে অতিরিক্ত যাত্রী ও যানবাহনের চাপে দেখা দিয়েছে। আর সেই চাপের সুযোগ কাজে লাগিয়ে যানবাহন চালকদের জিম্মি করে অতিরিক্ত টাকার বিনিময়ে সিরিয়াল ভেঙে পরের গাড়ি আগে পার করার অভিযোগ উঠেছে ফেরি কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসানের বিরুদ্ধে। এছাড়াও লঞ্চ গুলোতেও নেওয়া হচ্ছে অতিরিক্ত যাত্রী।

বর্তমানে এই নৌরুটটিতে ১০ টি ফেরি, ৮৩ টি লঞ্চ ও ১৫৫ টি স্পিডবোর্ডে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে।

স্পিডবোট ঘাটে সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে ঘাট ইজারাদারের লোকজন যাত্রীদের কাছ থেকে জোর করে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছেন। কেউ প্রতিবাদ করলে টিকিট না দিয়ে বকাঝকা করারও অভিযোগ রয়েছে।

তবে এসব অভিযোগের বিষয়ে স্পিডবোট ঘাট ইজারাদার আশ্রাফ হোসেনের সাথে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়, তবে তিনি ফোন ধরেননি। অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পেলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানালেন, মাওয়া নৌ-পুলিশ ফাড়ি ইনচার্জ মোঃ আবু তাহের মিয়া।

টাকার বিনিময়ে সিরিয়াল ভাঙার বিষয়টি মিথ্যা দাবি করে বিআইডাব্লিউটিসির ব্যবস্থাপক (মাওয়া জোন) শফিকুল ইসলাম বলেন, যাত্রী ও যানবাহন ঘাটে এসেই পার হতে চায় ফলে বিশৃঙ্খলা দেখা দিচ্ছে। 


আরও খবর



ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ঋণখেলাপিতে শ্রীলঙ্কা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ২৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

শ্রীলঙ্কার ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ঋণখেলাপি হয়ে পড়েছে। ৭০ বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে সবচেয়ে বাজে আর্থিক সংকটে দেশটির কাছে ঋণ পরিশোধে ৩০ দিনের অতিরিক্ত সময় ছিলো। কিন্তু তা সে সময় অতিক্রম হলেও ৭৮ মিলিয়ন ডলারের ঋণ দিতে পারেনি দেশটি। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বিবিসি।

দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর বলছেন, তার দেশ এখন প্রি-এমটিভ ডিফল্ট হয়ে পড়েছে। পরে বৃহস্পতিবার (১৯ মে) বিশ্বের শীর্ষ দুই ঋণ রেটিং সংস্থাও জানিয়েছে, শ্রীলঙ্কা ঋণখেলাপি হয়ে পড়েছে।

কোনো সরকার যখন ঋণদাতাদের ঋণের কিছু অংশ বা পুরোটা পরিশোধে ব্যর্থ হয় তখন সেই সরকারকে খেলাপি বলা হয়। এতে বিনিয়োগকারীদের কাছে দেশটির সুনাম নষ্ট হয়, প্রয়োজনের সময় আন্তর্জাতিক বাজার থেকে ঋণ সংগ্রহ কঠিন হয়ে যায়। এতে দেশটির মুদ্রা এবং অর্থনীতির আরও বেশি ক্ষতি হয়।

এ প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবার (১৯ মে) দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর পি নন্দলাল বীরসিংহে বলেন, আমাদের অবস্থান স্পষ্ট, আমরা বলেছি যতক্ষণ তারা (ঋণ) পুনর্গঠনের আওতায় আসবে না, ততক্ষণ আমরা পরিশোধ করতে সক্ষম হবো না। সে কারণে যেটা হচ্ছে সেটারেক প্রি-এমটিভ ডিফল্ট বলা যেতে পারে।

তিনি বলেন, টেকনিক্যাল ব্যাখ্যাও দেওয়া যেতে পারে, তাদের দিক থেকে তারা এটাকে খেলাপি বিবেচনা করতে পারে। আমাদের অবস্থান খুবই স্পষ্ট, যতক্ষণ ঋণ পুনর্গঠন হচ্ছে না, ততক্ষণ আমরা পরিশোধ করতে পারবো না।


আরও খবর



ধোনির নেতৃত্বে ফিরতেই জয়ের দেখা পেল চেন্নাই

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ৭০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নেতৃত্বে ফিরলেন ধোনি, চেন্নাই সুপার কিংস কী আর পুরনো ম্যাড়ম্যাড়ে রূপে আর থাকতে পারে? ধোনিকে নেতৃত্বে পেয়েই আসল চেহারা প্রকাশ পেলো চেন্নাইয়ের। তার নেতৃত্বে প্রথম ম্যাচেই সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ১৩ রানে হারিয়ে নিজেদের প্লে-অফে খেলার সম্ভাবনা টিকিয়ে রাখলো চেন্নাই সুপার কিংস।

আইপিএলের শুরুতেই নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ান মহেন্দ্র সিং ধোনি। তার পরিবর্তে নেতৃত্ব দেয়া হয় রবিন্দ্র জাদেজাকে। কিন্তু অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পেয়ে যেন নিজেকেই হারিয়ে ফেললেন জাদেজা। তার অধীনে একের পর এক ম্যাচে পরাজয়ের কারণে সমর্থকরাও হতাশ হয়ে পড়েছিল।

শেষ পর্যন্ত অধিনায়কত্ব থেকে নিজেই সরে দাঁড়ালেন জাদেজা। দল এবং নিজের পারফরম্যান্স বাড়াতে নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ালেন তিনি। অধিনায়কত্ব ফিরিয়ে দিলেন ধোনির কাছেই।

জাদুর কাঠির ছোঁয়ার মত ধোনির অধীনেও যেন জ্বলে উঠলো চেন্নাই। পুনের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ২০২ রানের বিশাল স্কোর দাঁড় করিয়ে প্রতিপক্ষ সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ১৮৯ রানে থামিয়ে দিয়েছে ধোনির দল। যার ফলে ১৩ রানের জয় পেয়েছে চেন্নাই।

এই জয়ের ফলে ৯ ম্যাচ শেষে ৬ পয়েন্ট অর্জিত হলো চেন্নাই সুপার কিংসের। বাকি ৫ ম্যাচেও যদি টানা জয়লাভ করে তারা, তাহলে নিশ্চিত প্লে-অফের হিসেবে বড় ধরনের গোলমাল তৈরি করে দেবে ধোনির দল।

জয়ের জন্য ২০৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিল হায়দরাবাদ। ৫.৫ ওভারে ৫৮ রানের জুটি গড়ে ফেলেছিল তারা। ২৪ বলে ৩৯ রান করে আউট হন অভিষেক শর্মা। অপর ওপেনার কেনে উইলিয়ামসন ৩৭ বলে করেন ৪৭ রান। রাহুল ত্রিপাথি আউট হয়ে যান কোনো রান না করেই।

এইডেন মারক্রাম করেন ১৭ রান। নিকোলাস পুরান ৩৩ বলে অপরাজিত থাকেন ৬৪ রানে। ৩ বাউন্ডারির সঙ্গে ৬টি ছক্কার মার মারেন তিনি। শশাঙ্ক সিং করেন ১৫ রান। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮৯ রান সংগ্রহ করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

চেন্নাইয়ের বোলার মুকেশ চৌধুরী ৪ ওভারে ৪৬ রান দিয়ে নেন ৪ উইকেট। ১টি করে উইকেট নেন মিচেল সান্তনার এবং ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে রুতুরাজ গায়কোয়াড় এবং ডেভন কনওয়ে মিলে উদ্বোধনী উইকেটে গড়ে তোলেন ১৮২ রানের জুটি। ৯৯ রান করে আউট হন রুতুরাজ গায়কোয়াড় এবং ৮৫ রানে অপরাজিত থাকেন ডেভন কনওয়ে। চেন্নাইয়ের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২ উইকেট হারিয়ে ২০২ রান।


আরও খবর



নেলপালিশ সম্পর্কে ১০টি টিপস

প্রকাশিত:শনিবার ২১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ১৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

খুব কম বা হাতে গোনা নারী ছাড়া প্রায় সব নারীরাই সাজতে ভালোবাসেন। নিজেকে সাজানোর মধ্যে তারা তৃপ্তি পান। রূপ নিয়ে অহংকার না রাখলেও সব নারীরাই চান সবাই তার কদর করুক। নিজের মত করে সাজানোর পরে তারিফ শুনলে একটু হলেও বেরিয়ে আসে খুশির হাসি। আজকের দিনে তাই সাজার সরঞ্জামের অভাবও নেই। পোশাকে যেমন রোজ নতুন নতুন ডিজাইন আসছে, তেমনি নিজের চুল, ত্বক বা নখের জন্যে ব্যবহার করার প্রসাধনী সামগ্রীর বিপণনও বাজারে নজরকাড়া। আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্য নিয়ে আলাদা আলাদা প্রসাধনী। এর মধ্যে অনেক সময় ব্যবহার করতে গিয়ে অনেক সমস্যা দেখা যায়। অনেক সময় জানতেও পারি না যে একই জিনিস হয়তো অন্য কাজে ব্যবহার করা যায়।

তেমনি একটা বহুল ব্যবহৃত প্রসাধন সামগ্রী হলো নেলপালিশ। রোজকার এর ব্যবহারে অনেক সময় অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। আজকের টপিকে রইলো সেগুলো কে ঠিক করার ঘরোয়া টোটকা। আসুন দেখে নেওয়া যাক।

ভেসলিন ব্যবহার করুন: নেলপালিশ পরতে গিয়ে অনেক সময় দেখা যায় আঙুলের চারপাশে লেগে যাচ্ছে। সেটা তুলতে গেলে আবার নখের উপরের পালিশ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এর সমাধান খুব সহজ। নেলপালিশ পরার আগে নখের ধার বরাবর একটু ভেসলিন লাগিয়ে নিন। এবার পরুন। আগের সমস্যা আর হবে না।

আইব্রো ব্রাস: নখের আশেপাশে পালিশ লাগলে অনেক সময় নিখুঁতভাবে তোলা আর এক সমস্যা। ধারালো কিছু দিয়ে তুলতে গেলে কেটে যাওয়ার ভয় থাকে। এই ক্ষেত্রে আইব্রো ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করার চেষ্টা করে দেখুন, আপনার পরিশ্রম বৃথা যাবে না।

ঘষে ব্যবহার করুন: অনেকে দেখে থাকেন যে নেলপালিশ পরতে গেলে কনটেইনার থেকে বের করার সময় বুদবুদ লেগে থাকে। এই সমস্যার সমাধানও আছে। ব্যবহারের আগে কনটেইনার টাকে একটু দুই হাতের চেটোতে ঘষুন। দেখবেন আর বুদবুদ থাকবে না।

টি-ব্যাগ ব্যবহার করুন: নেলপালিশ পরতে গেলে একটু বড়ো নখের দরকার হয়। অনেকের নখ পাতলা থাকার জন্য নখের সামনে ভেঙে যায় বা ফেটে যায়। এই অবস্থায় সামনে কোনও অনুষ্ঠান থাকলেও সাজগোজ মাটি হয়। এর সমাধানও এবার আপনার হাতের মুঠোয় আছে। বাড়িতে ব্যবহার করা টি ব্যাগ আছে তো? অল্প একটু কাগজ ওই ব্যাগ থেকে কেটে নিন। হালকা আঠা দিয়ে ভাঙ্গা নখের উপর কাগজটা লাগান। এর উপর আবার হালকা করে একটু আঠার প্রলেপ দিন। ব্যাস, এবার সাজিয়ে নিন আপনার নখ মনের মত নেলপালিশ দিয়ে।

উষ্ণ পানিতে গলবে: অনেক সময় বহুদিন ব্যবহার না করলে নেলপালিশ জমে যায়। কনটেইনার এর ঢাকনা খোলা বেশ কষ্টকর হয়ে যায়। অল্প একটু পানি হালকা গরম করে একটা পাত্রে নিন। তার মধ্যে কন্টেইনারটি বসিয়ে দিন। মিনিট পাঁচেক পর দেখুন আপনার নেলপালিশ পরার জন্য রেডি।

ভিনিগার দিয়ে মুছে নিন: নেলপালিশ পরার আগে নিজের নখ ভিনিগার দিয়ে একটু মুছে নিন। তারপর নেলপালিশ পরুন। দেখবেন রং অনেকক্ষণ বেশি থাকবে আর জেল্লাও বেশি থাকবে।

কুকিং অয়েল ব্যবহার করুন: অনেকে বলে থাকেন যে নেলপালিশ পরতে গেলে অনেক আগে থেকে পরতে হয় না হলে শুকাতে অনেকক্ষণ সময় নেয়। নেলপালিশ পরার পরে হালকা করে কুকিং অয়েল লাগিয়ে রাখুন। আঙুল শুকাতে সময় কম নেবে।

আঁঠার কাজ করবে নেলপালিশ: হাতের কাছে আঠা নেই? কোনও চিঠি বা খাম এর মুখ বন্ধ করতে চান? ক্লিয়ার নেলপালিশ একটু লাগিয়ে চেপে ধরুন। আপনার চিঠি বা খাম পাঠানোর জন্য তৈরী।

আংটি পরতে কাজে লাগবে: আঙুলে অনেক সময় আংটি পরলে মেটালের দাগ হয়ে যায়। পরার আগে একটু ক্লিয়ার নেলপালিশ লাগিয়ে নিন আংটিতে। দেখবেন দাগ আর পড়বে না।

দেশলাই সমস্যা সমাধান: অনেক সময় যারা ক্যাম্পিংয়ে যান, দেশলাই কাঠি বৃষ্টিতে ভিজে গেলে আর জ্বলতে চায় না। একটু নেলপালিশ লাগিয়ে একটা কভার দিয়ে দিন বারুদের উপর। আর দেশলাই কাঠি না জ্বলার সমস্যা থাকবে না।

নিউজ ট্যাগ: নেলপালিশ

আরও খবর



তেল-জ্বালানিসহ সবকিছুর দাম সারা বিশ্বেই ঊর্ধ্বমুখী: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

তেল, জ্বালানিসহ সবকিছুর দাম সারা বিশ্বে ঊর্ধ্বমুখী বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শুক্রবার (৬ মে) দুপুরে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিঙ্ক রোড ছয় লেনে উন্নীতকরণ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে এ মন্তব্য করেন তিনি।

সয়াবিন তেলের দাম বৃদ্ধি নিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমাদের প্রতিবেশী দেশসহ অনেক দেশে ডাবলেরও বেশি বেড়েছে। এর কারণ হলো ইউক্রেন যুদ্ধ। ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে তেলের দামের ওপর প্রভাব পড়ছে। তেল, জ্বালানিসহ সবকিছুর দাম সারা বিশ্বেই ঊর্ধ্বমুখী। বাংলাদেশ তো আইসোলেটেড কোনো আইল্যান্ড নয়। কাজেই এর প্রভাব-প্রতিক্রিয়া সব জায়গায় পড়বে, কিছু করার নেই।

ঈদযাত্রা নিয়ে বিএনপির নেতাদের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আসল কথা হলো, মানুষ যখন আনন্দ পায়, বিএনপির তখন কষ্ট হয়, তাদের গায়ে জ্বালা হয়, তারা কষ্ট পায়। মানুষ নির্বিঘ্নে এবারের ঈদযাত্রা সম্পন্ন করেছে এবং ফিরতি যাত্রায়ও কোনো ভোগান্তি হয়নি।


আরও খবর



অর্জুন কপূরের সঙ্গে সাত পাক ঘুরতে চলেছেন মালাইকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ৬৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

দিন আগে তাঁদের বিচ্ছেদের গুজবেও তোলপাড় হয়েছিল টিনসেল নগরী। সে সব পেরিয়ে এ বার কি নিজের থেকে বয়সে অনেকটাই ছোট অর্জুন কপূরের সঙ্গে সাত পাক ঘুরতে চলেছেন মালাইকা অরোরা? অভিনেত্রীর কথায় যেন তারই ইঙ্গিত।

গত কয়েক বছর ধরেই সম্পর্কে অর্জুন এবং অভিনেতা আরবাজ খানের প্রাক্তন স্ত্রী মালাইকা। আরবাজের সঙ্গে দীর্ঘদিনের দাম্পত্যে বিচ্ছেদের পর থেকেই অর্জুন-মালাইকার সম্পর্ক নিয়ে দেদার আলোচনা বলিপাড়ায়। সম্পর্কের কথা কখনও লুকোননি মালাইকা-অর্জুনও। নেটমাধ্যমে তাঁদের ছবি-ভিডিয়োই তার প্রমাণ। তবে বিয়ে বা সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে এর আগে কোনও দিনই মুখ খোলেননি দুজনের কেউই।

এত দিন পরে এই প্রথম বিয়ের ইঙ্গিত মালাইকার কথায়। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী বলেছেন, আমাদের সম্পর্কে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল, আমরা আগামীতে একসঙ্গে কাটাতে চাই। তা নিয়ে নিজেদের কোনও ধন্দ নেই। আমরা এখন যেখানে দাঁড়িয়ে, তাতে দুজনেই ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবনাচিন্তা করছি। তা নিয়ে নিয়মিত আলোচনাও করছি। নিজেদের সম্পর্কের পরিণতি নিয়ে আমাদের ভাবনাগুলোও এক। আগামীতে একসঙ্গে কাটানো একটা সুন্দর জীবন চাই দুজনেই। আমি ওর সঙ্গেই বুড়ো হতে চাই!

মালাইকার দাবি, অর্জুনের সঙ্গে এই সম্পর্কে নিজেকে খুব নিরাপদ লাগে তাঁর। একে অন্যের প্রতি টান, ভালবাসা সেই সম্পর্কের পুরোটা জুড়ে রয়েছে। তাঁরা প্রত্যেকটা দিন কাটান গভীর প্রেমে। তবে সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে এখনই এর বেশি আর কিছু বলতে নারাজ অভিনেত্রী।


আরও খবর