Logo
শিরোনাম

যে কারণে সূর্যাস্তের পরে ফল খাবেন না

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৯৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

ফল ভিটামিন এবং খনিজের অন্যতম সেরা উৎস। প্রতিদিন তাজা অন্তত দুটি ফল খেলে তা আপনাকে সুস্থ এবং ফিট রাখতে সাহায্য করবে। ফল খেলে তা ওজন কমাতে সাহায্য করে, শরীরের ক্রিয়াকলাপ বজায় রাখে এবং দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি কমাতে কাজ করে। খাবার থেকে সর্বোচ্চ পুষ্টি গ্রহণের জন্য খাবারের তালিকা মেনে খাওয়ার পাশাপাশি ফলও নির্দিষ্ট সময়ে খাওয়া উচিত। বিশেষজ্ঞদের মতে, দিনে একবাটি তাজা ফল আপনাকে সুস্থ রাখবে। তবে তা খেতে হবে সূর্যাস্তের আগেই।

কেন সূর্যাস্তের আগে ফল খাওয়া উচিত :

লাইফস্টাইল এবং ওয়েলনেস কোচ লুক কৌতিনহো সম্প্রতি তার ইনস্টাগ্রামে তার অনুসারীদের জানান, কেন সূর্যাস্তের আগে ফল খাওয়া উচিত। লুক লিখেছেন যে, প্রাচীন ভারতীয় চিকিৎসা পদ্ধতি অনুসারে সন্ধ্যায় ফল খেলে তা ঘুমের সময়সূচি এবং হজম প্রক্রিয়াকে ব্যাহত করতে পারে।

বেশিরভাগ ফলই সাধারণ কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ। এর অর্থ হলো, সেগুলো ভেঙে ফেলা যায়। ফল দ্রুত শক্তির একটি দুর্দান্ত উত্স, তবে এটি রক্তে শর্করার মাত্রাও বাড়িয়ে তোলে। রক্তে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধির কারণে এটি ঘুমকে ব্যাহত করতে পারে। এছাড়া, সূর্যাস্তের পর আমাদের বিপাক ধীর হয়ে যায় এবং কার্বস হজম করা কঠিন হয়ে পড়ে। সুতরাং, কার্বোহাইড্রেট খাওয়া সীমিত করা ভালো।


আরও খবর

আজকের ভালো মন্দ

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

প্রথম প্রেম দিবস আজ

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১




হিল্লা বিয়ে নিয়ে ফতোয়া জারি, ৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৯১জন দেখেছেন
Image

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলায় হিল্লা বিয়েতে রাজি না হওয়ায় দম্পতিকে একঘরে করে রাখার ঘটনায় ফতোয়া প্রদানকারী ৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

দেবীগঞ্জ আমলি আদালতের বিচারক এম এম মাহবুব ইসলাম গ্রেপ্তারি পরোয়ানাটি গত রবিবার (২২ আগস্ট) জারি করলেও তা মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) বিকেলে প্রকাশ পায়।

এর আগে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পরিপ্রেক্ষিতে গত বুধবার (১১ আগস্ট) পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মতিউর রহমান স্বপ্রণোদিত হয়ে বিষয়টি আমলে নিয়ে দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে তদন্তের নির্দেশ দেন। এবং রবিবার (২২ আগস্ট) এর মধ্যে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী দেবীগঞ্জ থানা পুলিশ উপজেলার সুন্দরদীঘি ইউনিয়নের সলিমনগর এলাকায় সরেজমিনে তদন্ত করে গত রবিবার আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, দেবীগঞ্জে সলিমনগর এলাকায় মৌখিক তালাকের জেরে এক দিনমজুর দম্পতিকে সমাজপতিদের একঘরে রাখার ঘটনাটি বিভিন্ন অনলাইন সংবাদমাধ্যম ও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। বিষয়টি আদালতের দৃষ্টিগোচর হয়। সার্বিক বিবেচনায় অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মতিউর রহমান দ্য কোট অব ক্রিমিনাল প্রসিডিউরের ১৯১ (১) সি ধারায় বিষয়টি আমলে নেন। বিষয়টি তদন্ত করে গত রবিবার ওই আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দেবীগঞ্জ থানা ওসিকে আদেশ দেন। পরে পুলিশের দেওয়া তদন্ত প্রতিবেদনে আয়নাল ও জামিরন দম্পতিকে হিল্লা বিয়েতে বাধ্য করতে প্রায় চার মাস ধরে একঘরে করে রাখার অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা প্রতীয়মান হয়। পুলিশের তদন্ত প্রতিবেদনটি আমলে নিয়ে আদালত সমাজপতি শাহজাহান আলী, মুফতি আনোয়ার হোসেন, নাসির উদ্দীন, আমির চাঁন, শহীদ, ছোরমান আলী, জুলহক, মোস্তফা ও রাসেলের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

পঞ্চগড় জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আমিনুর রহমান জানান, ফতোয়া প্রদানের বিষয়ে উচ্চ আদালতের নিষেধজ্ঞা রয়েছে। তারপরও যাঁরা মনগড়া ফতোয়া দিয়ে সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেন, তাঁদের জন্য এ ধরনের পরোয়ানা দিয়ে আদালত সঠিক সিদ্ধান্ত দিয়েছেন।

দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল হোসেন জানান, আমরা আদালতের নির্দেশনায় ঘটনাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করেছি। তবে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাটি এখনো হাতে পাইনি। পরোয়ানা হাতে পেলেই অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, গত রবিবার (১৮ এপ্রিল) দিনমজুর আয়নাল ও জামিরনের দম্পতির মধ্যে পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়। এ সময় রাগের মাথায় স্ত্রীকে তিন তালাকের ঘোষণা দেন আয়নাল। বিষয়টি স্থানীয় গ্রাম্য মাতবরদের কানে পৌঁছাতেই শুরু হয় বিপত্তি। মাতবরেরা জামিরনকে হিল্লা বিয়ে দিতে বলেন। এতে রাজি না হওয়ায় ওই দম্পতিকে প্রায় চার মাস একঘরে করে রাখেন মাতবরেরা।

জানা যায়, আয়নাল ও জামিরনের ৩৫ বছরের সংসার। তাঁদের চার সন্তানের মধ্যে দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে বিয়ে দিয়েছেন তাঁরা।


আরও খবর



পুঁজিবাজারে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী লেনদেন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

টানা তিন দিন দরপতনের পর সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার ( ৩১ আগস্ট) পুঁজিবাজারে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন হয়েছে। এ দিন বিমা, প্রকৌশল, আর্থিক, খাদ্যসহ অন্য খাতের শেয়ারের দাম বৃদ্ধিকে কেন্দ্র করে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দামও। এতে লেনদেনেও ফিরছে গতি।

সরকারি ছুটি উপলক্ষে সোমবার (৩০ আগস্ট) লেনদেন বন্ধ ছিল। মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) সকাল ১০টায় উভয় বাজারে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন শুরু হয়। গ্রামীণফোন, রবি আজিয়াটা এবং ওয়ালটন হাইটেক পার্কসহ বড় মূলধনী কোম্পানির পাশাপাশি বিমা ও আর্থিক খাতের অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ায় দিনভর সূচকের তেজিভাব লক্ষ্য করা যায়।

এ দিন দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক বেড়েছে ৪৫ পয়েন্ট। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক বেড়েছে ১৫৩ পয়েন্ট। ফলে টানা তিন দিন (গত বুধ, বৃহস্পতি ও রোববার ) পর মঙ্গলবার দেশের পুঁজিবাজারে উত্থান হলো। পরপর তিনদিন পুঁজিবাজারে নিম্নমুখী প্রবণতা থাকায় বিনিয়োগকারীদের মধ্যে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল। আশঙ্কা ছিল আজও বাজারে দরপতন হতে পারে।

ডিএসইর তথ্য মতে, মঙ্গলবার ডিএসইতে মোট ৩৭৬টি প্রতিষ্ঠানের ৬০ কোটি ৩০ লাখ ৮ হাজার ৬৮১টি শেয়ার হাত বদল হয়েছে। এর মধ্যে ২২৫টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ১১৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির। ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ২৪৯ কোটি ৩৪ লাখ ১৪ হাজার টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৮৪৬ কোটি ৮৯ লাখ ৭ হাজার টাকা। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে লেনদেন বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ।

বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ায় এ দিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ৪৫ দশমিক ৬৪ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৮৬৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৪৯০ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৪৫৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এ দিন ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে ছিল বেক্সিমকো লিমিটেড। দ্বিতীয় স্থানে ছিল লাফার্জ-হোলসিম লিমিটেড। এরপর সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে ব্রিটিশ অ্যামেরিকান টোব্যাকোর শেয়ার। এরপর যথাক্রমে ছিল-ম্যাক্সন স্পিনিং, বেক্সিমকো ফার্মা, শাইনপুকুর সিরামিক, স্কয়ার ফার্মা, ইসলামিক ইনস্যুরেন্স, সাইফ টাওয়ার এবং লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড।

এদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৫৩ পয়েন্ট বেড়ে ১৯ হাজার ৯৯৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩২৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২০২টির শেয়ারের দাম বেড়েছে। কমেছে ১০০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৫টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। এ বাজারে লেনদেন হয়েছে ৭১ কোটি ৪৪ লাখ ১৯ হাজার ৮৪০ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৮৫ কোটি ১৩ লাখ ৭৯ হাজার ৩৭৩ টাকা।


আরও খবর

সূচকের বড় উত্থানে নতুন রেকর্ড

বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১




নিরাপদ নগর সূচকে আরও দুই ধাপ এগোলো ঢাকা

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নিরাপদ নগর সূচকে আরও দুই ধাপ এগোলো ঢাকা। দ্য ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের তৈরি সূচকে বিশ্বের ৬০টি শহরের মধ্যে এ বছর ৫৪তম হয়েছে বাংলাদেশের রাজধানী। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে এর নিচে রয়েছে কেবল পাকিস্তানের বৃহত্তম শহর করাচি। এছাড়া ভারতের নয়াদিল্লি ৪৮ এবং মুম্বাই ৫০তম অবস্থানে।

প্রতি দুই বছর পরপর নিরাপদ নগরের এই সূচক প্রকাশ করে। কোনো শহরের ডিজিটাল নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য নিরাপত্তা, অবকাঠামো, ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বিবেচনা করে এই সূচক নির্ধারণ করা হয়। চলতি বছর এর সঙ্গে প্রথমবারের মতো যোগ হয়েছে পরিবেশগত নিরাপত্তাও।

সম্প্রতি প্রকাশ করেছে তাদের নিরাপদ নগর সূচক ২০২১। এতে ১০০র মধ্যে ৪৮ দশমিক ৯০ পয়েন্ট নিয়ে ৫৪তম হয়েছে ঢাকা। ডিজিটাল নিরাপত্তা সূচকে ঢাকা পেয়েছে ৩৯ পয়েন্ট, স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় ৫০ দশমিক ৯০, অবকাঠামোতে ৪৯ দশমিক ৬০, ব্যক্তিগত নিরাপত্তায় ৪৬ দশমিক ৬০ এবং পরিবেশগত নিরাপত্তায় ৫৮ দশমিক ২০ পয়েন্ট।

এর আগে, ২০১৭ সালে নিরাপদ নগরীর তালিকায় নিচের দিক থেকে তৃতীয়, অর্থাৎ ৫৮তম হয়েছিল ঢাকা। ২০১৯ সালের সূচকে এর অবস্থান দাঁড়ায় ৫৬তম। সেই হিসাবে, প্রতিবার ধারাবাহিকভাবে দুই ধাপ করে এগিয়েছে ঢাকা মহানগরী।

২০২১ সালের তালিকায় প্রথমবারের মতো শীর্ষস্থান দখল করেছে ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেন। তাদের সংগ্রহ ৮২ দশমিক ৪০ পয়েন্ট। শীর্ষ দশে থাকা বাকি শহরগুলো হলো- টরেন্টো, সিঙ্গাপুর, সিডনি, টোকিও, আমস্টারডাম, ওয়েলিংটন, হংকং, মেলবোর্ন ও স্টকহোম।

এছাড়া নিউইয়র্ক ১১তম, লন্ডন ১৫, প্যারিস ২৩, সিউল ২৪, সাংহাই ৩০, আবুধাবি ৩১, দুবাই ৩৫, ইস্তাম্বুল ৩৭ ও রিয়াদ রয়েছে ৪৯তম অবস্থানে।

তালিকার একেবারে তলানিতে ঠাঁই হয়েছে মিয়ানমারের বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুনের। নিরাপদ নগর সূচকে নিচের দিকে থাকা বাকি শহরগুলোর মধ্যে কাসাব্লাঙ্কা ৫৫তম, লাগোস ৫৬, কায়রো ৫৭, কারাকাস ৫৮ ও করাচি ৫৯তম স্থানে।


আরও খবর



স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব সঞ্জয় চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব সঞ্জয় চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন একজন ভিকটিম। বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২-এর বিচারক হাবিবুর রহমান সিদ্দিকীর আদালতে এই মামলাটির আবেদন করেন ওই ভিকটিম।

এরপর আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে নথি পর্যালোচনায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. জাহাঙ্গীর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ২০১৮ সালের দিকে ভিকটিমের সঙ্গে আসামির ফেসবুকে পরিচয় হয়। পরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক হয়। এরপর ভিকটিমকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করা হয়। সর্বশেষ ফকিরাপুলের একটি আবাসিক হোটেলে তাকে ধর্ষণ করেন আসামি। এ ঘটনায় আজ ভিকটিম ট্রাইব্যুনালে এসে মামলার আবেদন করলে আদালত তা গ্রহণ করে পিবিআই-কে তদন্তের নির্দেশ দেন।


আরও খবর



বিশ্ববিদ্যালয় খুলছে ২৭ সেপ্টেম্বরের পর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮১জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের পর দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আজ মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয় আয়োজিত বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশন কাজ শেষ করা হবে। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের একাডেমিক কাউন্সিলের অনুমোদন নিয়ে পাঠদান কার্যক্রম শুরু ও আবাসিক হল খুলতে পারবে।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় ভার্চুয়াল মাধ্যমে এ বৈঠক শুরু হয়। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান ছাড়াও বৈঠকে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, কভিড-১৯ সম্পর্কিত কারিগরি উপদেষ্টা কমিটি, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা অংশ নেন।

চলতি মাসের মধ্যে পর্যায়ক্রমে সব সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সম্প্রতি। আর ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পর্যায়ক্রমে সশরীরে ক্লাস শুরু করার সিদ্ধান্ত হয়। এরই মধ্যে গত ৫ সেপ্টেম্বর আন্ত মন্ত্রণালয়ের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় ১২ সেপ্টেম্বর থেকে সব স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়া হবে। ওই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী খুলে দেওয়া হয়েছে স্কুল-কলেজ। কিন্তু এখনও বন্ধ রয়েছে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়।

ইউজিসি সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, গতকাল সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত দেশের ৪২টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ১৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মীদের করোনা টিকা দেওয়া শেষ হয়েছে।


আরও খবর

৫ অক্টোবর খুলছে ঢাবির হল

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

অষ্টম ও নবম শ্রেণির ক্লাসও সপ্তাহে দুই দিন

বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১