Logo
শিরোনাম

৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে গণবিজ্ঞপ্তি, আবেদন শুরু ৪ এপ্রিল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ১৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image
গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- বেসরকারি স্কুল-কলেজ, মাদারাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এন্ট্রি লেভেলের ৫৪ হাজারের বেশি পদে শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ পেতে আগামী ৪ এপ্রিল থেকে আবেদন শুরু হবে

দেশে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহে মোট ৫৪ হাজার ৩০৪ জন শিক্ষক নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে ৩১ হাজার ১০১ জন, মাদ্রাসা, কারিগরি ও ব্যবসায়ী ব্যবস্থাপনা ২০ হাজার ৯৯৬জন, সংরক্ষিত ২ হাজার ২০৭ জন।

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) বিকেলে এই গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে সরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ। গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- বেসরকারি স্কুল-কলেজ, মাদারাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এন্ট্রি লেভেলের ৫৪ হাজারের বেশি পদে শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ পেতে আগামী ৪ এপ্রিল থেকে আবেদন শুরু হবে। প্রার্থীরা ৪ এপ্রিল সকাল ১০টা থেকে অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। ৩০ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত প্রার্থীরা আবেদনের সুযোগ পাবেন।

http://ngi.teletalk.com.bd অথবা www.ntrca.gov.bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদন গ্রহণ করা হবে। অনলাইনে সঠিকভাবে ফরম পূরণ করে সাবমিট করতে হবে। ফরম সাবমিটের পর প্রার্থীদের মোবাইলে এসএমএস পাঠিয়ে টাকা জমা দেওয়াসহ পরবর্তী নির্দেশনা জানিয়ে দেওয়া হবে। আবেদনের ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ১০০ টাকা।

গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ১২ জুন এমপিও নীতিমালা জারির আগে যারা সনদ অর্জন করা প্রার্থীরা যাদের বয়স ৩৫ এর বেশি হয়ে গেছে তারাও আবেদনের সুযোগ পাবেন। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ইনডেক্সধারী যে সকল শিক্ষক নিবন্ধন সনদধারী কর্মরত আছেন তারাও অনলাইনে নিয়োগের জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে তাদের নিয়োগের আবেদনসমূহ অন্যান্য প্রার্থীদের ন্যায় জাতীয় মেধাতালিকার ভিত্তিতে বাছাইপূর্বক নিষ্পত্তি করা হবে।


আরও খবর

সারা দেশে নিয়োগ দেবে কাজী ফার্মস

মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১




ভ্যাকসিন বিতরণে ধনী দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জাতিসংঘের

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৮৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বিশ্বজুড়ে সাশ্রয়ী মূল্যে সময়মতো ও ন্যায় সঙ্গতভাবে করোনার ভ্যাকসিন বিতরণ নিশ্চিতে ধনী দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।

এ বিষয়ে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে। গত কয়েক সপ্তাহে বিশ্বব্যাপী আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ায় উদ্বেগ জানিয়ে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

বিশ্বজুড়ে ভ্যাকসিন বিতরণে অব্যবস্থাপনা নিয়ে মঙ্গলবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় ভার্চুয়ালি বৈঠকে বসে জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থা, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থাসহ আন্তর্জাতিক সংগঠনগুলো। বৈঠকে ভ্যাকসিন বিতরণে বৈশ্বিক বৈষম্য নিয়ে গভীর উদ্বেগ জানায় সংস্থাগুলো। সেই সাথে সময়মতো এবং সাশ্রয়ী মূল্যে সবার জন্য ভ্যাকসিন নিশ্চিতের আহ্বান জানিয়ে প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে।

প্রস্তাবে সম্মত জানিয়ে অভিনন্দন জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। সবার জন্য ভ্যাকসিন নিশ্চিতে উৎপাদন বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা।

এদিকে গত কয়েক সপ্তাহে বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার উদ্বেগ জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান। সংক্রমণ ঠেকাতে সতর্কতার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকার পরীক্ষার তথ্য নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মার্কিন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশন ডিজিস। বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, পুরোনো তথ্য থাকার কারণে অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকার কার্যকারিতা নিয়ে পূর্ণাঙ্গ চিত্র পাওয়া যায়নি।

লকডাউনের এক বছর পূর্তিতে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে যুক্তরাজ্য। সংবাদ সম্মেলনে করোনার তৃতীয় ঢেউ মোকাবেলায় সর্বোচ্চ সতর্কবস্থার কথা বলেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। জার্মানি ও নেদারল্যান্ডসে মহামারি নিয়ন্ত্রণে তিন সপ্তাহের জন্য লকডাউনের সময় বাড়ানো হয়েছে। পোল্যান্ডে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে কঠোর বিধিনিষেধ। সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় কঠোর বিধিনিষেধের পরিকল্পনা করছে নরওয়ে,আয়ারল্যান্ড, ফ্রান্স, ইটালি।

বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত আক্রান্ত প্রায় সাড়ে ১২ কোটি, মৃত্যু ২৭ লাখ ৪৫ হাজারের বেশি আর সুস্থ হয়েছেন ১০ কোটিরও বেশি মানুষ।

নিউজ ট্যাগ: জাতিসংঘ

আরও খবর

মিয়ানমারে সেনা অভিযানে নিহত ৮২

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




৮ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে টিকার দ্বিতীয় ডোজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ আগামী ৮ এপ্রিল থেকে দেয়া শুরু হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরিচিত সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি আরও বলেন, ৮ এপ্রিল থেকে করোনাভাইরাস টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেয়া শুরু হবে। আজ প্রথম ডোজ দেয়া শেষ হচ্ছে। স্বাস্থ্য সচিব বলেন, আমরা চেষ্টা করব ডাক্তার, নার্সসহ সব পর্যায়ের মানুষকে নিয়ে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে মোকাবিলা করতে পারি।

স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, দ্বিতীয় ডোজ দেয়ার জন্য পর্যাপ্ত ভ্যাকসিন সংরক্ষিত রয়েছে। এছাড়াও ভারত, চীন, রাশিয়াসহ বিভিন্ন দেশ থেকে ভ্যাকসিন আনার প্রক্রিয়া রয়েছে। তবে অধিকাংশ ভ্যাকসিন প্রতিবেশী দেশ ভারত থেকে আসবে। প্রথম ডোজের কার্যক্রম শেষ হলেও নতুন করে প্রথম ডোজ ভ্যাকসিনের রেজিস্ট্রেশন শুরু প্রক্রিয়াধীন রেখেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

নিউজ ট্যাগ: করোনা টিকা

আরও খবর



মাস্ক না পরলে হতে পারে লাখ টাকা জরিমানাসহ ৬ মাস কারাদণ্ড

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১ | ৭০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় সোমবার (৫ এপ্রিল) থেকে আগামী ১১ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে কঠোর বিধিনিষেধ ঘোষণা করেছে সরকার। এই বিধিনিষেধকালে বাড়ির বাইরে বের হলেই সবাইকে অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে। একইসঙ্গে মেনে চলতে হবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ১৮ দফা ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ১১ দফা নির্দেশনাসহ সব ধরনের স্বাস্থ্যবিধি।

কোনো ব্যক্তি এই সরকারি আইন অমান্য করলে তাকে ২০১৮ সালের সংক্রামক রোগ আইন ও ১৮৮০ সালের দণ্ডবিধি আইন-এর মুখোমুখি হতে হবে। সংক্রামক রোগ আইনে ছয় মাসের কারাদণ্ড বা এক লাখ টাকা জরিমানা অথবা উভয়দণ্ডের বিধান রয়েছে। আর ১৮৮০ সালের দণ্ডবিধি আইনে জেল ও জরিমানার বিধান রয়েছে।

এরইমধ্যে সারাদেশে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে সরকারি আদেশ অমান্যকারীদের শাস্তি দেয়া হচ্ছে। মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) রাজধানীর মতিঝিল শাপলা চত্ত্বরে অভিযান পরিচালনা করেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এসময় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ১৮ দফা ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ১১ দফা নির্দেশনা এবং স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ২৫ জনকে ১২ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া বিনা কারণে রাস্তায় চলাফেরা করায় রাজধানী বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে আরও ২৫ জনকে প্রায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া সারাদেশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে অনেককেই জরিমানা গুণতে হয়েছে।

২০১৮ সালে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইনের ২৪ ধারায় বলা হয়েছে-

২৪(১) : যদি কোনো ব্যক্তি সংক্রামক জীবাণুর বিস্তার ঘটান বা বিস্তার ঘটাতে সহায়তা করেন বা জ্ঞাত থাকা সত্ত্বেও অপর কোনো ব্যক্তি সংক্রমিত ব্যক্তি বা স্থাপনার সংস্পর্শে আসিবার সময় সংক্রমণের ঝুঁকির বিষয়টি তাহার নিকট গোপন করেন তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ।

(২) যদি কোনো ব্যক্তি উপধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনূর্ধ্ব ৬ (ছয়) মাস কারাদণ্ডে বা অনূর্ধ্ব ১ (এক) লাখ টাকা অর্থদণ্ডে বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন।

দায়িত্ব পালনে বাধা প্রদান ও নির্দেশ পালনে অসম্মতি জ্ঞাপনের অপরাধ ও দণ্ড

আইনের ২৫ ধারায় বলা হয়েছে

২৫(১) যদি কোনো ব্যক্তি

(ক) মহাপরিচালক, সিভিল সার্জন বা ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে তাহার ওপর অর্পিত কোনো দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে বাধা প্রদান বা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন এবং

(খ) সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূলের উদ্দেশ্যে মহাপরিচালক, সিভিল সার্জন বা ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কোনো নির্দেশ পালনে অসম্মতি জ্ঞাপন করেন, তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ।

(২) যদি কোনো ব্যক্তি উপধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনূর্ধ্ব ৩ (তিন) মাস কারাদণ্ডে বা অনূর্ধ্ব ৫০ (পঞ্চাশ) হাজার টাকা অর্থদণ্ডে বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন।

মিথ্যা বা ভুল তথ্য প্রদানের অপরাধ ও দণ্ড

২৬ ধারায় বলা হয়েছে

২৬(১) যদি কোনো ব্যক্তি সংক্রামক রোগ সম্পর্কে সঠিক তথ্য জ্ঞাত থাকা সত্ত্বেও ইচ্ছাকৃতভাবে মিথ্যা বা ভুল তথ্য প্রদান করেন তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ।

(২) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনূর্ধ্ব ২ (দুই) মাস কারাদণ্ডে বা অনূর্ধ্ব ২৫ (পঁচিশ) হাজার টাকা অর্থদণ্ডে বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন।

১৮৬০ সালের দণ্ডবিধি আইনে শাস্তি

সরকারি কর্মচারী কর্তৃক আইনসঙ্গতভাবে জারিকৃত কোনো আদেশ অমান্য করার দণ্ড

১৮৮০ সালের দণ্ডবিধি আইনের ১৮৮ ধারায় বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তি যদি কোনো আদেশ জারি করতে বিধিসঙ্গতভাবে ক্ষমতাপ্রাপ্ত কোনো সরকারি কর্মচারী কর্তৃক জারিকৃত আদেশে তাকে কোনো বিশেষ কাজ হতে বিরত থাকার অথবা তার দখলাধীন বা পরিচালনাধীন কোনো সম্পত্তি সম্পর্কে কোনো বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে জানা সত্ত্বেও অনুরূপ নির্দেশ অমান্য করে, যদি অনুরূপ অবাধ্যতার ফলে আইনসম্মতভাবে নিযুক্ত কোনো ব্যক্তির বিঘ্ন হয়, বিরক্তি উৎপাদিত হয় বা ক্ষতি সাধিত হয় অথবা বিঘ্ন, বিরক্তি বা ক্ষতির অনুষ্ঠিত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দেয় তবে সেই ব্যক্তি এক মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে, অথবা দুইশত টাকা পর্যন্ত যেকোনো পরিমাণ অর্থদণ্ডে অথবা উভয়দণ্ডেই দণ্ডিত হবে।

যদি অনুরূপ অবাধ্যতার ফলে মানবদেহ, স্বাস্থ্য বা নিরাপত্তার প্রতি বিপদ অনুষ্ঠিত হয় কিংবা অনুরূপ বিপদ অনুষ্ঠিত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দেয় অথবা কোনো দাঙ্গা বা কলহ অনুষ্ঠিত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দেয়, তবে সে ব্যক্তি ছয় মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের সশ্রম বা বিনাশ্রম কারাদণ্ডে, অথবা এক হাজার টাকা পর্যন্ত যেকোনো পরিমাণ অর্থ দণ্ডে অথবা উভয়বিধ দণ্ডেই দণ্ডিত হবে।

কোনো কার্য দ্বারা জীবনের পক্ষে বিপজ্জনক কোনো রোগের সংক্রমণ ছড়াইতে পারে জানিয়াও অবহেলাবশত উহা করে তার দণ্ড

১৮৮০ সালের দণ্ডবিধি আইনের ২৬৯ ধারায় বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তি যদি বেআইনিভাবে বা অবহেলামূলকভাবে এমন কোনো কার্য করে যা জীবন বিপন্নকারী মারাত্মক কোনো রোগের সংক্রমণ ছড়াতে পারে, তা জানা সত্ত্বেও বা বিশ্বাস করার কারণ থাকা সত্ত্বেও তা করে, তবে সেই ব্যক্তি ছয়মাস পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের সশ্রম বা বিনাশ্রম কারাদণ্ডে অথবা অর্থদণ্ডে, অথবা উভয়বিধ দণ্ডেই দণ্ডিত হবে।

নিউজ ট্যাগ: করোনা সংক্রমণ

আরও খবর



মিয়ানমারে গুলিতে একদিনেই নিহত ১১৪

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ মার্চ ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ এপ্রিল ২০২১ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

মিয়ানমারে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভের সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী দিন ছিল গতকাল শনিবার। এদিন ১০০ জনের বেশি বিক্ষোভকারী নিহত হয়। শনিবারের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে এ কথা জানানো হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, মিয়ানমারে শনিবারের হত্যার ঘটনায় হতবাক ওয়াশিংটন। শতাধিক সাধারণ মানুষের জীবন কেড়ে নিয়ে কতিপয়ের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করছে জান্তা সরকার। মিয়ানমারের লোকজন সামরিক সরকার মেনে নেয়নি।

ইয়াঙ্গুন ও মান্দালয়সহ মিয়ানমারজুড়ে গতকাল শনিবার অন্তত ৯১ জন বিক্ষোভকারী নিহত হওয়ার কথা জানিয়েছিল স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনারস (এএপিপি)। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে ১০০ জনেরও বেশি নিহতের কথা বলা হয়।

মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী গত ১ ফেব্রুয়ারি দেশটির বেসামরিক নেত্রী অং সান সুচিকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করে বন্দি করে। এরপর থেকে সেখানে চলছে জান্তাবিরোধী রক্তক্ষয়ী প্রতিবাদ-বিক্ষোভ। জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে মিয়ানমারে এ পর্যন্ত ৩০০ জনের বেশি আন্দোলনকারীকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এর মধ্যে ৯০ শতাংশ গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন এবং তাঁদের এক-চতুর্থাংশের মাথায় গুলি করা হয়েছিল। স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এসব তথ্য জানিয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: মিয়ানমার

আরও খবর

মিয়ানমারে সেনা অভিযানে নিহত ৮২

রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১




মহাসচিবসহ হেফাজতের ৫৪ নেতার ব্যাংক হিসাব তলব

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১ | ৭৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হেফাজতে ইসলামের আমির, মহাসচিবসহ ৫৪ নেতা-কর্মীর ব্যাংক হিসাব তলব করেছে বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)।

মোদিবিরোধী আন্দোলনের পর তাদের ব্যাংকে কী পরিমাণ অস্বাভাবিক লেনদেন হয়েছে তা দেখতে বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) তাদের হিসাব তলব করা হয়। যাদের ব্যাংক হিসাব তলব করা হয়েছে তাদের মধ্যে সংগঠনটির জেলা পর্যায়ের নেতাও রয়েছে।

তারা হলেন- হেফাজতে ইসলামের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী, মহাসচিব নূর হুসাইন কাসেমী, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মুহাম্মদ মামুনুল হক, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সহ-সভাপতি মুহাম্মদ মাহফুজুল হক, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির ও চরমোনাই পীর সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম, মহাসচিব সৈয়দ ফয়জুল করীম, আল-হাইয়্যাতুল উলয়াও বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের সভাপতি মাহমুদুল হাসান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব মাওলানা ইউনুছ আহমাদ প্রমুখ।


আরও খবর