Logo
শিরোনাম

আর্জেন্টিনার অর্ধেক মানুষ মেসিকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে চান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ১৭৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

৩৬ বছরের অপেক্ষা শেষে আর্জেন্টিনাকে বিশ্বকাপ জিতিয়েছেন লিওনেল মেসি। তার হাত ধরেই শিরোপা খরা ঘুচিয়েছে আলবিসেলেস্তেরা। এই মুহূর্তে তাকে নিয়ে বিশ্বব্যাপী বাড়তি উন্মাদনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এতে স্বাভাবিকভাবেই তার জনপ্রিয়তা তুঙ্গে। একটি জরিপে দাবি করা হয়েছে আর্জেন্টিনার অর্ধেক মানুষই নাকি মেসিকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে চান।

আর্জেন্টিনার সমাজবিজ্ঞানী হিওকোভের জরিপ বলছে, ৪৩ শতাংশের বেশি মানুষ সরাসরিই জানিয়েছেন মেসিকে তারা দেশের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেখতে চান। আর ১৭.৫ শতাংশ মানুষ হয়তো বলছেন। আগামী বছর হবে আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। এ নিয়েই জরিপ করেছেন হিওকোভও। মূলত অবস্থা বোঝার জন্যই জরিপে তিনি মেসির নাম দেন। যেখানে বেশ বড় ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন লিওনেল মেসি। তাই এখন প্রশ্ন উঠেছে সত্যিই কি আর্জেন্টিনার অর্ধেক মানুষ মেসিকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে চান?

বর্তমান প্রেসিডেন্ট আলভার্তো ফার্নান্দেম, মাওরোসিও মার্কি, ক্রিস্তিয়ান কারচানেরের মতো রাজনীতিবিদদের পেছনে ফেলেছেন তিনি। জরিপকারীর মতে মেসি বেশ স্পষ্ট ব্যবধানেই জিতবেন। যদিও কেবল আড়াই হাজার মানুষের ওপর করা হয়েছে এটি। তবে মেসির পর দ্বিতীয় হওয়া ডান পন্থী সংসদ সদস্য হাভিয়ের মিলেয়া পেয়েছেন কেবল ১২ শতাংশ ভোট। তার পরই আছেন ভাইস প্রেসিডেন্ট ক্রিস্তিয়ান কারচানের, ১১ শতাংশ ভোট নিয়ে।


আরও খবর



কথিত শিশু বক্তা রফিকুল মাদানীর বিরুদ্ধে চার্জগঠন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ | ২৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গাজীপুরের বাসন থানার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের এক মামলায় শিশু বক্তা খ্যাত রফিকুল ইসলাম মাদানীসহ দুজনের বিরুদ্ধে চার্জগঠন করেছেন সাইবার ক্রাইম ট্টাইব্যুনাল। একই সঙ্গে আগামী ১ মার্চ পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ ধার্য করেন ট্রাইব্যুনাল।

আজ মঙ্গলবার ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ. এম জুলফিকার হায়াতের আদালতে আসামি অব্যাহতির আবেদন না মঞ্জুর করে চার্জগঠনের এ আদেশ দেন। বিচার শুরু হওয়া অপর আসামি হলেন- হাফেজ মাসুম বিল্লাহ।

মাদানী পক্ষের আইনজীবী শোহেল মো. ফজলে রাব্বী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মাদানীর বিরুদ্ধে মোট সাতটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে তিনটি মামলায় তিনি জামিনে রয়েছেন। চার্জগঠনের সময় এই দুই আসামি নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচারের প্রার্থনা করেন।

২০২১ সালের ২০ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গাজীপুর বাসন থানার সাব ইন্সপেক্টর মো. সাখাওয়াত হোসেন দুই আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন।

মামলা থেকে জানা যায়, আসামিদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র, সরকার, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অবমাননা ও মানহানিকর বক্তব্য প্রদান করে। এই বক্তব্যের মাধ্যমে আইনশৃঙ্খলা অবনতি ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির আশঙ্কা তৈরি হয়। ওই বছরের ৮ এপ্রিল ধানমন্ডির ১৫ নম্বর মিতালী সড়কের বাসিন্দা সৈয়দ আদনান হোসেন রফিকুল মাদানীর বিরুদ্ধে এই মামলাটি দায়ের করেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের বিরুদ্ধে ২০২১ সালের ২৫ মার্চ বিক্ষোভকালে ঢাকার মতিঝিল এলাকা থেকে রফিকুল ইসলাম মাদানীকে আটক করলেও পরে পরে তাকে ছেড়ে দেয় পুলিশ।

এরপর একই বছর ৭ এপ্রিল নেত্রকোনার বাড়ি থেকে রফিকুল মাদানীকে আটক করে র‌্যাব। পরদিন তাকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এরপর গাছা থানায় দায়ের করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এরপর থেকে তিনি কারাগারে আটক রয়েছেন।

এদিকে ২০২১ সালের ৭ এপ্রিল হাফেজ মাসুম বিল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

নিউজ ট্যাগ: রফিকুল মাদানী

আরও খবর



নাফ নদী থেকে আগ্নেয়াস্ত্রসহ ৬ ডাকাত আটক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৩ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৫৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

টেকনাফে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদসহ ডাকাতদলের ৬ সদস্যকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। আজ মঙ্গলবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন টেকনাফে কোস্টগার্ডের মিডিয়া কর্মকর্তা লে. কমান্ডার বি এন আব্দুর রহমান।

তিনি জানান, গতকাল সোমবার শাহপরী দ্বীপ সংলগ্ন নাফ নদীর মোহনায় একটি অস্ত্রধারী ডাকাতদল ফিশিং বোটে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এমন তথ্যের ভিত্তিতে আনুমানিক রাত ১টায় কোস্টগার্ড নাফ নদীর মোহনায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযান চলাকালীন কোস্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতদল তাদের বোট নিয়ে নাফ নদীর মোহনা হতে টেকনাফের দিকে দ্রুত সরে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় কোস্টগার্ডের সদস্যরা ডাকাত দলকে ধাওয়া করলে ডাকাতরা রঙ্গিখালীর খড়ের দ্বীপের বনে লুকিয়ে যায়। পরে কোস্টগার্ড স্টেশন টেকনাফ ও সেন্টমার্টিনের আভিযানিক দল ডাকাত দলের মূল আস্তানা ঘেরাও করে ৬ জন সশস্ত্র ডাকাত সদস্যকে আটক করে।

আটকরা হলেন- উখিয়া ঠ্যাংখালী ১৩ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মো.ইব্রাহিম(২৩), মো.আরিফ (৩৩), মো.মাহমুদুর রহমান(১৮), উনচিপ্রাং ২২ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মো.আমিন (৩৩), মো.কানিজ (২৪), উখিয়া বালুখালী ১৪ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মো.নবী হোসেন (২৮)।

ডাকাত সদস্যদের দেওয়া তথ্যমতে, খড়ের দ্বীপের বনের মধ্যে চিরুনি অভিযান পরিচালনা করে বিদেশি পিস্তল ২টি, একনলা বন্দুক ৩টি, এলজি ২টি, শর্টগান ১টি, দেশি পিস্তল ৬টি, ম্যাগাজিন ৪টি, তাজা গোলা ৪৫০ রাউন্ড, ফাঁকা গোলা ৩৬ রাউন্ড, রামদা ৪টি, ২০ হাজার পিস ইয়াবা, বিদেশি মদ ২১ বোতল, বিয়ার ৫৫১ ক্যান, ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত পোশাক ৭ সেট, হ্যান্ডকাফ ১টি, ল্যান্ড ফোন ১টি, বাটন মোবাইল ৪টি জব্দ করে। আটকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।


আরও খবর

কড়াইয়ের গরম তেলে পড়ে শিশুর মৃত্যু

শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩




মাধবপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল দুই ভাইয়ের 

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ | ৪৮জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় কাভার্ডভ্যানের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী দুই ভাই সোহাগ মিয়া (১৭) ও শুভ মিয়া (১৮) নিহত হয়েছেন। তারা আপন চাচাতো ভাই।

মঙ্গলবার (২৭ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ১১টায় উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা চত্ত্বর এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত সোহাগ মিয়া উপজেলার জগদীশপুর ইউনিয়নের বেজুড়া গ্রামের আফতাব হোসেনের ছেলে ও শুভ মিয়া ইমাম হোসেনের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, সোহাগ ও শুভ মোটরসাইকেলে মহাসড়ক দিয়ে যাচ্ছিলেন। রাত সাড়ে ১১ টায় মুক্তিযোদ্ধা চত্ত্বর এলাকায় পৌঁছাবার পর সিলেট থেকে ঢাকাগামী একটি কাভার্ডভ্যান মোটরসাইকেলটিকে চাপা দিলে দুজন আহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইনুল ইসলাম ভূইয়া গণমাধ্যমকে বলেন, কাভার্ডভ্যানের চাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী মারা গেছেন। বর্তমানে হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলের রয়েছে।


আরও খবর

হবিগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ৫

শনিবার ০৭ জানুয়ারী ২০২৩




পারমাণবিক যুদ্ধের হুঁশিয়ারি মেদভেদেভের

প্রকাশিত:রবিবার ২২ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ | ২৬জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের অনুগত সাবেক রুশ প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, ইউক্রেন যুদ্ধে পারমাণবিক শক্তির পরাজয়ে পারমাণবিক যুদ্ধের সূত্রপাত ঘটতে পারে। ইউক্রেনে ন্যাটোর সামরিক বাহিনীর সহায়তা নিয়ে টেলিগ্রামে এ কথা বলেন তিনি।

রাশিয়ায় পুতিনের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের উপ-প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মেদভেদেভ। এর আগে তিনি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে চার বছর কাজ করেন। ওই সময় পুতিন ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

২০২২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণের পর নিজেকে কট্টর যুদ্ধবাজ অনেকটা সেভাবেই নিজেকে তুলে ধরেছেন করেছেন মেদভেদেভ। তিনি ইউক্রেনীয়দের তেলাপোকা হিসেবেও উল্লেখ করেছেন। কিয়েভকে কেন্দ্র করে রাশিয়ার আক্রমণ শুরুর পর থেকে একাধিকবার তিনি পারমাণবিক বিশৃঙ্খলার হুমকি দিয়েছেন এবং পশ্চিমাদের লক্ষ্য অবমাননামূলক মন্তব্য করেছেন। বিদায়ী বছরের শেষ দিকে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে বৈঠকও করেছেন।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও পারমাণবিক হুমকি দিয়ে রেখেছেন। তিনি গত বছর বলেন, এটি কোনও ধাপ্পা নয়। যারা আমাদের পারমাণবিক অস্ত্র দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করবে, তাদের মনে রাখা উচিত পরিস্থিতি বদলে যেতে পারে এবং তা তাদের দিকে মোড় নিতে পারে।

ইউক্রেনে মস্কোর চলা যুদ্ধে এ পর্যন্ত হাজার হাজার বেসামরিক মানুষ মারা গেছেন। ধ্বংস হয়ে গেছে অনেক শহর। এই যুদ্ধে রাশিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক সহায়তা দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্রসহ ন্যাটো সদস্য দেশগুলো। এ পর্যন্ত কয়েক বিলিয়ন সামরিক সহায়তা দিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। ধারাবাহিকভাবে আরও মানবিক ও অস্ত্র সহায়তা দেবে জেলেনস্কির সরকারকে। ইউক্রেনকে কোনও সামরিক সহায়তা না দিতে পশ্চিমা নেতাদের বার বার সতর্ক করে আসছে ক্রেমলিন।


আরও খবর



মাধ্যমিকের বই উৎসব উদ্বোধন করলেন শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০১ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গাজীপুরের কাপাসিয়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মাধ্যমিক স্তরের বই উৎসবের উদ্বোধন করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। আজ রোববার সকাল পৌনে ১১টায় তিনি বেলুন উড়িয়ে বই উৎসবের উদ্বোধন করেন।

মাধ্যমিকের বই উৎসবে কাপাসিয়া উপজেলার ১৫০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৩৮টি প্রতিষ্ঠানের ছয় হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে স্কুলের পাঁচ হাজার, মাদ্রাসার ৬০০ এবং কারিগরির ৪০০ শিক্ষার্থী রয়েছে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন রিমি, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. কামাল হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরহাদুল ইসলাম, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমানসহ বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ড ও অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।


আরও খবর