Logo
শিরোনাম

যে ৭ অভ্যাস শরীরের জন্য হতে পারে ক্ষতিকর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০22 | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৩৭জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

সকালে ঘুম থেকে উঠেই কর্মব্যস্ত দিনের জন্য প্রস্তুতি নেন কমবেশি সবাই। অনেকে ঘুম থেকে উঠেই চা বা কফি মগে চুমুক দেন, কেউ আবার সকালের নাস্তায় খান ভারি ও তৈলাক্ত সব খাবার। আবার কেউ কেউ দীর্ঘ সময় ধরে ফোন চেক করেন, তাও আবার বাথরুমে বসে! অনেকেই আবার গোসল না করেই বেরিয়ে পড়েন, কেউ কেউ তো গরম পানি ছাড়া গোসলই করেন না। এমন অনেক অভ্যাস আছে সবার মধ্যেই। তবে সকালের কিছু অভ্যাস অজান্তেই হয়তো আপনার ক্ষতি করছে, আর আপনি তা টেরও পাচ্ছেন না। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক, সকালের ঠিক কোন কোন অভ্যাস স্বাস্থ্যের জন্য হতে পারে ক্ষতিকর-

সকালে গোসল না করা: সকালে ঘুম থেকে উঠেই গোসল করে বাইরে বের হওয়ার অভ্যাস স্বাস্থ্যের জন্য সত্যিই অনেক উপকারী। হার্ভার্ডের এক চিকিৎসকের মতে, সকালে গোসল করলে মস্তিষ্ক আরও সক্রিয় হয় ফলে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান মেলে সহজেই।

গরম পানি দিয়ে গোসল করা: সকালে হালকা গরম পানি দিয়ে গেসলের অভ্যাস অনেকেরই আছে। তবে সব সময় এ অভ্যাস বিপদ ডেকে আনতে পারে। কারণ গরম পানি ত্বকের শুষ্কতা বাড়ায়। অন্যদিকে ঠান্ডা পানি দিয়ে গোসল করলে মস্তিষ্কের কার্যকলাপ উন্নত হয় ও ইমিউন সিস্টেম ভালোভাবে কাজ করে। বিজ্ঞানীদের মতে, যারা নিয়মিত ঠান্ডা পানিতে গোসল করেন তারা বছরে প্রায় ৯ পাউন্ড ওজন হারাতে পারেন।

দীর্ঘ সময় ধরে ফোন চেক করা: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে বর্তমানে সবাই সরব থাকেন। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, অন্যদের জীবনে চেক ইন করার ক্ষেত্রে আপনার সময় নষ্ট করা বন্ধ করুন। ওই সময় নিজের জন্য ব্যয় করুন! দীর্ঘক্ষণ স্মার্টফোন ব্যবহার চোখের ক্ষতি তো করেই, এর পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিভিন্ন বিষয় আপনার মনে নেতিবাচক অনুভুতির সৃষ্টি করতে পারে।

সিরিয়াল খাওয়া: সকালের নাস্তায় অনেকেই সিরিয়াল খান। প্রক্রিয়াজাত এই খাবারে প্রচুর চিনি থাকে। যা রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়িয়ে তোলে। ফলে আপনার শরীর ক্লান্ত হয়ে পড়তে পারে। একই ভাবে সকালের জন্য দুধ কিংবা দইও সকালে খাওয়া উচিত নয়। বিখ্যাত এক ডায়েটিশিয়ান চেলসি আমের সম্প্রতি বলেছেন, সকালে এক বাটি সিরিয়াল খাওয়ার চেয়ে এক টুকরো পিজ্জা খাওয়া স্বাস্থ্যকর। পিজ্জায় প্রোটিন, চর্বি ও কার্বোহাইড্রেট থাকে, যা হতে পারে সকালের সুষম নাস্তা। তবে এক টুকরোর বেশি খাওয়া যাবে না। এছাড়া আপনি সকালের নাস্তায় ডিম, কটেজ পনির কিংবা চর্বিছাড়া মাংসও খেতে পারেন।

খাওয়ার পর দাঁত ব্রাশ করা খাওয়ার পরপরই কখনো দাঁত ব্রাশ করবেন না। কারণ খাবার খাওয়ার পরে দাঁতের এনামেল দুর্বল হয়ে পড়ে, বিশেষ করে যদি আপনি ফল, সাইট্রাস বা সোডা পান করেন। এসব খাবারে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড ও ফসফরিক অ্যাসিড দাঁতের এনামেল দুর্বল করে দেয়। এর পরিবর্তে কুলকুচি করে ডেন্টাল ফ্লস দিয়ে খাবারের অবশিষ্টাংশগুলো দাঁতের ফাঁকা থেকে সরিয়ে ফেলুন। যে কোনো খাবার খাওয়ার ৩০ মিনিট পর দাঁত ব্রাশ করুন।

ব্ল্যাক কফি পান করা: ঘুম থেকে ওঠার ঠিক পরেই ব্ল্যাক কফি পান করলে কর্টিসল হরমোনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়, যা উদ্বেগের সৃষ্টি করে। আর ক্ষুধার্ত অবস্থায় কফি পান করলে গ্যাস্ট্রাইটিস হতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে, সকালে প্রথম কাপ কফি পান করার সর্বোত্তম সময় হলো ঘুম থেকে ওঠার ৩-৪ ঘণ্টা পর। আর যদি সকালে কফি পান করতেই হয় তাহলে এতে সামান্য দুধ বা লো ফ্যাট ক্রিম যোগ করুন। তাহলে কফির তীব্র প্রভাব শরীরের বেশি ক্ষতি করবে না।

বিছানা পরিষ্কার করা: ঘুম থেকে ওঠার পরপরই কখনো বিছানা পরিষ্কার করতে যাবেন না। এতে ধুলাবালি আবারও ঘরের পরিবেশ মিশে যাবে।

নিউজ ট্যাগ: সকালের নাস্তা

আরও খবর

৭ অক্টোবর: আজকের রাশিফল

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




রুশ বাহিনী পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করবেন, ‘বিশ্বাস করেন না’ জেলেনস্কি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ সেপ্টেম্বর 20২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৪৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনে চলমান সামরিক অভিযানে রুশ বাহিনীকে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করবেন বলে বিশ্বাস করেন না ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। বুধবার জার্মানির নিউজ চ্যানেল বিল্ড টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জেলেনস্কি বলেন, আমি বিশ্বাস করি না যে তিনি (রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে) পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করবেন; আর আমার এও মনে হয় না যে বিশ্ব তাকে এই ধরনের অস্ত্র তাকে ব্যবহার করার অনুমতি দেবে।

পশ্চিমা অত্যাধুনিক অস্ত্রের সহায়তায় সম্প্রতি রুশ বাহিনীর দখলে থাকা শহর ইজিউম সম্প্রতি পুনরুদ্ধার করেছে ইউক্রেনীয় বাহিনী। ইউক্রেনের আরও দু-তিনটি শহর থেকে রুশ বাহিনীর পিছু হটার সংবাদ পাওয়া গেছে। এই পরিস্থিতিতে বুধবার টেলিভিশনে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়েছেন পুতিন। সেই ভাষণে ইউক্রেইনে রাশিয়ার বিশেষ সামরিক অভিযানে আরও সেনা পাঠানোর জন্য সামরিক বাহিনীর রিজার্ভ সেনাদের একটি অংশকে ডাকার নির্দেশ দেন তিনি। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এই প্রথমবারের মতো সামরিক বাহিনীর রিজার্ভ সেনাদের ডেকে পাঠানো হলো রাশিয়ায়।

বুধবারের ভাষণে পুতিন বলেন, পশ্চিম ইতোমধ্যে দেখিয়েছেরাশিয়াকে ধ্বংস করাই তাদের লক্ষ্য এবং তারা ইউক্রেনের জনগণকে কামানের খাদ্যে পরিণত করার চেষ্টা করছে। কিন্তু আমাদের লক্ষ্য শুরু থেকেই পরিষ্কার; আর তা হলো দোনেতস্ক ও লুহানস্ককে স্বাধীন করা।

পশ্চিমা দেশগুলো যদি পারমাণবিক ব্ল্যাকমেইল অব্যাহত রাখে সেক্ষেত্রে রাশিয়া তার বিপুল অস্ত্রভাণ্ডারের সমস্ত শক্তি নিয়ে প্রতিক্রিয়া দেখাবে বলেও হুঁশিয়ারও করেছেন তিনি। পুতিনের এই ভাষণের পরই পশ্চিমা বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত হতে থাকে ইউক্রেনে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারের ইঙ্গিত দিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট।

যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের সামরিক জোট ন্যাটোকে ঘিরে দ্বন্দ্বের জেরে সীমান্তে আড়াই মাস সেনা মোতায়েন রাখার পর গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরুর ঘোষণা দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এই ঘোষণার ‍দুদিন আগে ইউক্রেনের রুশ বিচ্ছিন্নতাবাদী নিয়ন্ত্রিত দুই প্রদেশ দনেতস্ক ও লুহানস্ককে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেন তিনি। চলতি আগস্টে ষষ্ঠ মাসে গড়িয়েছে ইউক্রেনে রুশ সেনাদের অভিযান। এই চার মাস সময়ের মধ্যে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ লুহানস্ক, ইউক্রেনের দুই বন্দর শহর খেরসন ও মারিউপোল, দনেতস্ক প্রদেশের শহর লিয়াম, মধ্যাঞ্চলীয় প্রদেশ জাপোরিজ্জিয়ের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ চলে গেছে রুশ বাহিনীর হাতে।

লুহানস্ক, দোনেৎস্ক, খেরসন ও জাপোরিঝিয়াকে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করতে এই গণভোট ডাকা হয়েছে এসব অঞ্চলে। গণভোটের রায় পক্ষে গেলে প্রায় হাঙ্গেরির সমান আয়তনের মতো ভূখণ্ড আনুষ্ঠানিকভাবে নিজের ভূখণ্ডভুক্ত করার সুযোগ পাবে মস্কো।


আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২




কক্সবাজার সৈকতে প্রতিমা বিসর্জন দিতে মানুষের ঢল

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৩৪জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। প্রতিমা বিসর্জন দিতে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে জড়ো হয়েছেন ভক্ত, পূজারী, পর্যটক, দর্শনার্থীসহ হাজারো মানুষ। বুধবার (৫ অক্টোবর) বিকেল ৩টা থেকে সৈকতে মানুষের ঢল নেমেছে।

এর আগে দুপুরের পর বিভিন্ন মণ্ডপ থেকে ট্রাক ও পিকআপ ভ্যানে করে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের পাড়ে একে একে প্রতিমা নিয়ে আসা হয়। শোভাযাত্রা সহকারেও অনেকে প্রতিমা নিয়ে এসেছেন।

কক্সবাজার দুর্গাপূজা উদযাপন কমিটির সহ-সভাপতি দীপুক শার্মা দীপু বলেন, এ বছর কক্সবাজারের ৩০৫টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা হয়েছে। কক্সবাজার সৈকতে প্রতিমা বিসর্জন দিতে যেন কোনো অসুবিধা না হয়, সেজন্য আমাদের কয়েকশ স্বেচ্ছাসেবী কাজ করছে। বাংলাদেশ সব বিপদ থেকে রক্ষা পাক- মা দুর্গার কাছে এটাই চাওয়া।

সুনীল শার্মা নামে এক পূজারী বলেন, প্রতিমা বিসর্জনের জন্য কক্সবাজার সৈকতের লাবণী পয়েন্ট খুব সুন্দর আয়োজন করা হয়েছে। মায়ের কাছে একটা চাওয়া পৃথিবীর সবাই যেন সুখে থাকে।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মামুনুর রশীদ বলেন, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রতিমা বিসর্জন উপলক্ষে বিশ্বের দীর্ঘতম কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে পুজারীদের ঢল নেমেছে। তাদের নিরাপত্তার জন্য সমুদ্র সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্টে চেকপোস্ট স্থাপন করা হয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তরাও কাজ করছে।

কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের পুলিশ সুপার জিল্লুর রহমান বলেন, পর্যটকদের নিরাপত্তার জন্য ট্যুরিস্ট পুলিশ সবসময় প্রস্তুত। প্রতিটি পয়েন্ট সাদা পোশাকে কাজ করছে ট্যুরিস্ট পুলিশ। পর্যটকদের সুবিদার জন্য সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্টে ট্যুরিস্ট পুলিশের হেল্পডেস্ক বসানো হয়েছে।


আরও খবর



নির্বাচনের খবর সংগ্রহে বাধা দিলে ৩ বছরের জেল-জরিমানার প্রস্তাব

প্রকাশিত:রবিবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

নির্বাচনের সময়ে সংবাদ সংগ্রহে গণমাধ্যমকর্মীদের নিরাপত্তা দিতে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ-আরপিওতে বিশেষ বিধান যুক্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব) আহসান হাবিব খান। গণমাধ্যমকর্মীদের দায়িত্ব পালনে বাধা দিলে সর্বোচ্চ তিন বছরের জেল ও জরিমানা সুপারিশের বিধান রেখে আরপিও সংশোধনের জন্য সরকারের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

রবিবার (১১ সেপ্টেম্বর) আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ তথ্য জানান।

বর্তমান কমিশন কিছু কিছু আইন পরিবর্তনের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছে উল্লেখ করে আহসান হাবিব খান গণমাধ্যমকর্মীদের উদ্দেশ করে বলেন, যেহেতু আপনারা আমাদের চোখ-কান। আমাদের বদলে আপনারা হাজির (ভোটকেন্দ্রে) থেকে সংবাদগুলো সঠিকভাবে কাবার করেন। আপনাদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে আমরা আইনে একটি নতুন সংযোজন করেছি। তা হচ্ছে, আপনাদের দায়িত্ব পালনে যদি কেউ বাধাগ্রস্ত করে, আপনাদের যদি কেউ হেনস্থা করে এবং আপনাদের ইকুইপমেন্ট ও সঙ্গী-সাথীদের ক্ষতি করার চেষ্টা করে, তাহলে সর্বনিম্ন এক বছর এবং সর্বোচ্চ তিন বছরের জেলের বিধান রাখা হয়েছে। এছাড়া জরিমানাও রাখা হয়েছে।


আরও খবর



নির্মাণাধীন ভবনের পানির ট্যাংকিতে শিশুর লাশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

গাজীপুরে একটি নির্মাণাধীন ভবনের পানির ট্যাংকি থেকে হামিদুল (৫) নামের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করছে পুলিশ। বুধবার মহানগরীর কোনাবাড়ী জরুন এলাকা শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, মহানগরীর কোনাবাড়ী জরুন এলাকায় মঙ্গলবার বিকালে হামিদুল ইসলাম নামের এক শিশু বাসা থেকে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয়। পরে আশপাশে খোঁজাখুঁজি করে সন্ধান পায়নি। পরদিন বুধবার সকালে স্থানীয়রা ওই এলাকার হাবিবুর রহমানের নির্মাণাধীন বাড়ির রিজার্ভ ট্যাংকির পানিতে হামিদুলের লাশ ভাসতে দেখে পরিবারের সদস্যদের খবর দেন এবং লাশ উদ্ধার করে।

নিহত হামিদুল মুন্সীগঞ্জ জেলার সদর থানাধীন দেওয়াকান্দী গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে। নিহত হামিদুল তার বাবা মায়ের সঙ্গে জরুন এলাকার সেলিম হাজির বাড়িতে ভাড়া থাকতো। কোনাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ আবু সিদ্দিক জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের পর বুধবার বিকালে কোনাবাড়ীতে দাফন করা হয়।


আরও খবর



ট্রেনের জানালায় ১০ কিলোমিটার ঝুললো মোবাইল চোর

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বাসে কিংবা ট্রেনে চলতি পথে মোবাইল ছিনতাইয়ের ঘটনা এখন অহরহ ঘটছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই চোরকে আর ধরতে পারা যায় না। কিন্তু সম্প্রতি মোবাইল ছিনতাই করতে গিয়ে বিপাকে পড়েন এক চোর। ট্রেনের জানালায় ঝুলিয়ে তাকে ১০ কিলোমিটার পথ নিয়ে গেছেন যাত্রীরা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, ঘটনাটি ভারতের বিহারের। ট্রেনের জানালা দিয়ে এক যাত্রীর মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে পালানোর চেষ্টার করছিল সেই চোর। সঙ্গে সঙ্গে তার হাত ধরে ফেলেন যাত্রীরা। এরপর ট্রেন চলতে শুরু করে দেয়। এভাবেই ঝুলে থাকে চোর।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এতে দেখা গেছে, চোর জানালায় ঝুলে কাকুতি মিনতি করছে। আর তার হাত ধরে আছেন যাত্রীরা।

জানা যায়, খাগারিয়া নামক স্টেশনে ট্রেন থামতেই দৌড়ে পালিয়ে যায় এই চোর। শেষ পর্যন্ত পুলিশ তাকে ধরতে পেরেছে কিনা তা জানা যায়নি।


আরও খবর

‘হাসি’ মানুষের সবচেয়ে ভালো ওষুধ

শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২